চতুর্থ শ্রেণির বাংলা মোদের বাংলা ভাষা অনুশীলনী, অতিরিক্ত ও মডেল টেস্ট প্রশ্ন উত্তর

মোদের বাংলা ভাষা
সুফিয়া কামাল
 কবি পরিচিতি
নাম : সুফিয়া কামাল।
জন্মতারিখ : ২০ এ জুন, ১৯১১ খ্রিষ্টাব্দ।
জন্মস্থান : বরিশাল।
বিশেষ পরিচিতি : সমাজসেবী।
উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ : ‘সাঁঝের মায়া’, ‘মায়াকানন’, ‘ইতল বিতল’, ‘স্বনির্বাচিত কবিতা সংকলন’।
মৃত্যুতারিখ : ২০ এ নভেম্বর, ১৯৯৯ খ্রিষ্টাব্দ।
 কবিতাটি পড়ে জানতে পারব
 মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসার কথা  শুদ্ধ বাংলায় কথা বলার গুরুত্ব সম্পর্কে
 ভাষা আন্দোলনের কথা  ভাষাশহিদদের আত্মত্যাগের কথা
 বানানগুলো লক্ষ করি
বিজাতীয়, জ্ঞানী, গুণী, মনীষী, মাতৃভাষা, চাষি, আকাক্সক্ষা।
অনুশীলনীর প্রশ্ন ও উত্তর
১. জেনে নিই।
আমাদের মাতৃভাষা বাংলা সম্বন্ধে এই কবিতাটি লেখা হয়েছে। আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলি। আমাদের বাবা-মা, দাদা-দাদি, নানা-নানি, ঠাকুরদা-ঠাকুমা সকলেই বাংলায় কথা বলেন। দেশের সব মানুষই বাংলায় কথা বলেন। রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ১৯৫২ সালে ছাত্র-ছাত্রীরা মিছিল করেছিল, হরতাল করেছিল। তখন তাঁদের ওপর পুলিশ গুলি চালায়। গুলিতে ছাত্রসহ অনেকেই মারা যায়। মাতৃভাষার চেয়ে প্রিয় আর কোনো ভাষা হতে পারে না। বাংলাদেশের সব মানুষের ইচ্ছা, আশা, আকাক্সক্ষা মাতৃভাষাতেই ভালোভাবে প্রকাশ করা যায়। বাংলায় কথা বলার সময় বিদেশি ভাষা ব্যবহার না করা ভালো।
২. শব্দগুলো পাঠ থেকে খুঁজে বের করি, অর্থ বলি এবং নতুন বাক্য লিখি।
কামার কুমার সহ্য করা জ্ঞানী মনীষী রক্ত-পিছল মুক্তি বিজাতীয় বেদন মিটাক
উত্তর :
শব্দ অর্থ বাক্য
কামার Ñ যারা লোহা পিতল ইত্যাদি দিয়ে জিনিসপত্র (যেমন হাঁড়ি-পাতিল, বাসন, খুন্তি, চাটু বা তাওয়া) তৈরি করেন। Ñ কামার সুন্দর করে খুন্তি বানাতে পারেন।
কুমার Ñ কুমার। যারা মাটি দিয়ে হাঁড়ি, সরা ইত্যাদি তৈরি করেন। Ñ কুমার মাটি দিয়ে সানকি তৈরি করেন।
সহ্য করা Ñ সওয়া, মেনে নেওয়া। Ñ অন্যায় সহ্য করা উচিত নয়।
জ্ঞানী Ñ জ্ঞানবান লোক, যাঁর অনেক জ্ঞান। Ñ আমাদের প্রধান শিক্ষক অনেক জ্ঞানী।
মনীষী Ñ শিক্ষিত জ্ঞানীগুণী বিখ্যাত মানুষ। Ñ মনীষীগণ চিরস্মরণীয়।
রক্ত-পিছল Ñ রক্তে যা পিছল হয়েছে। (রক্ত যদিও পানির মতো তরল পদার্থ তবু পানির মতো নয়। রক্তের গন্ধ আছে, পরিষ্কার ভালো পানির কোনো গন্ধ নেই। রক্ত চটচটে আঠার মতো, কিন্তু পানি তেমন নয়। রক্ত আঠার মতো বলেই তা পিছল।) Ñ রক্ত-পিছল রাজপথে ছেলেটির নিথর দেহ পড়ে ছিল।
মুক্তি Ñ স্বাধীনতা, খোলামেলা অবস্থা। Ñ অবশেষে তিনি মুক্তি লাভ করলেন।
বিজাতীয় Ñ অন্য জাতির, ভিন্ন জাতির বা দেশের। Ñ বিজাতীয় ভাষায় মনের পিপাসা মেটে না।
বেদন Ñ বেদনা, দুঃখ, কষ্ট। Ñ গরিবের বেদন সবাই বোঝে না।
মিটাক Ñ মিটিয়ে দিক, পূর্ণ করুক। Ñ আল্লাহ তোমার বাসনা মিটাক।

৩. প্রশ্নগুলোর উত্তর মুখে বলি ও লিখি।
ক) বাংলাদেশে ‘কামার কুমার জেলে চাষা’ কোন ভাষাতে কথা বলেন?
উত্তর : বাংলাদেশে ‘কামার কুমার জেলে চাষা’ বাংলা ভাষায় কথা বলে।
খ) এ দেশের মানুষের ‘বেদন’ কী?
উত্তর : বাংলাদেশের সব শ্রেণি-পেশার মানুষের প্রিয় ভাষা বাংলা। বাংলা ভাষায় কথা বলার অধিকার রক্ষা করতে এ দেশের মানুষ প্রাণ দিয়েছে। অথচ সেই ভাষাতে কথা বলার সময় আমরা অনেকেই নানা রকম বিজাতীয় শব্দ ব্যবহার করি। এটিই হচ্ছে এ দেশের মানুষের বেদন।
গ) কিসের ছড়াছড়ি সহ্য করতে মানা করা হচ্ছে?
উত্তর : বাংলা ভাষায় বিজাতীয় ভাষার শব্দের ছড়াছড়ি সহ্য করতে মানা করা হচ্ছে।
ঘ) তাদের রক্ত-পিছল পথে কিসের মুক্তির কথা বলা হয়েছে?
উত্তর : তাদের রক্ত-পিছল পথে বিজাতীয় ভাষার হাত থেকে মাতৃভাষার মুক্তির কথা বলা হয়েছে।
ঙ) বাংলা ভাষাকে কেন সহজ সরল ভাষা বলা হয়েছে?
উত্তর : বাংলাদেশের মানুষজন সহজ সরল। তাঁরা সকলেই বাংলা ভাষাতে তাঁদের ইচ্ছা, আশা, আকাক্সক্ষা ভালোভাবে প্রকাশ করতে পারেন। তাই বাংলা ভাষাকে সহজ সরল ভাষা বলা হয়েছে।
৪. কবিতাটি পড়ে কী বুঝলাম তা সংক্ষেপে লিখি।
উত্তর : আমাদের দেশের কামার, কুমার, জেলে, চাষাসহ সকল মানুষ বাংলায় কথা বলে। বাংলা ভাষায় অনেক রকম বিজাতীয় ভাষার শব্দের ব্যবহার দেখা যায়। এটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক। কেননা এই ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য এ দেশের ছাত্র-জনতা জীবন দিয়েছিল। তাদের সেই আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে আমাদের উচিত বিজাতীয় শব্দ ত্যাগ করে শুদ্ধ বাংলায় কথা বলা।
৫. কবিতার প্রথম আট লাইন মুখস্থ বলি।
উত্তর : পাঠ্য বই থেকে কবিতাটি পড়ে নিয়ে প্রথম আট লাইন মুখস্থ করে বল।
৬. কবিতার প্রথম আট লাইন বই না দেখে ঠিকভাবে লিখি।
উত্তর : পাঠ্য বই থেকে কবিতাটির প্রথম আট লাইন মুখস্থ করে নাও। এবার বই বন্ধ করে খাতায় লেখ।
৭. আমার প্রিয় মাতৃভাষা নিয়ে পাঁচটি বাক্য লিখি।
উত্তর : আমার প্রিয় মাতৃভাষা নিয়ে পাঁচটি বাক্য হলো-
ক. বাংলা আমার মাতৃভাষা।
খ. আমাদের মাতৃভাষা অত্যন্ত মধুর।
গ. আমাদের মাতৃভাষা সহজ সরল।
ঘ. রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ১৯৫২ সালে আন্দোলন হয়েছিল।
ঙ. আমাদের মাতৃভাষার জন্য অনেকে শহিদ হয়েছে।
৮. ডান দিক থেকে ঠিক শব্দটি বেছে নিয়ে খালি জায়গায় বসাই।
ক) লোহা পিতল দিয়ে জিনিসপত্র তৈরি করেন ………..। জ্ঞানী
খ) মাটি দিয়ে জিনিসপত্র তৈরি করেন ………..। কামার
গ) যাঁর অনেক জ্ঞান আছে তিনি হলেন ………..। রক্ত-পিছল পথ
ঘ) রক্ত দিয়ে পিছল হয়েছে যে পথ তা হলো ………। কুমার
উত্তর : ক) কামার; খ) কুমার; গ) জ্ঞানী; ঘ) রক্ত-পিছল পথ।
৯. কর্ম-অনুশীলন।
ক) বাংলা ভাষার ওপর লিখিত অন্য কোনো কবিতা বা ছড়া শিখি ও আবৃত্তি করি।
উত্তর : বাংলা ভাষার ওপর লিখিত একটি ছড়া বা কবিতা সংগ্রহ করে মুখস্থ করে নাও এবং শিক্ষকের সহায়তায় আবৃত্তি কর। উদাহরণ হিসেবে এখানে একটি কবিতা দেওয়া হলো :
একুশ মানে
গিয়াস উদ্দিন রূপম
একুশ মানে মায়ের মুখের
গর্ব ভরা হাসি
হৃদয় জুড়ে শান্তি এবং
হর্ষ রাশি রাশি।
একুশ মানে ভাইয়ের বুকের
রক্তমাখা জামা
‘মাতৃভাষা বাংলা আমার’
দৃপ্ত শপথনামা।
একুশ মানে বর্ণমালার
অ আ ক খ পড়া
স্বপ্নমাখা জীবনটাকে
মনের মতো গড়া।
একুশ মানে মুক্ত কথন
স্বাধীন ভাষার স্মৃতি
সকল ভাষার ঊর্ধ্বে আমার
মাতৃভাষা প্রীতি।
খ) শিক্ষকের সাহায্যে বাংলা ভাষা-বিষয়ক স্মরণীয় বাণী পোস্টার পেপারে লিখে শ্রেণিকক্ষের দেয়ালে প্রদর্শন করি।
উত্তর : শিক্ষকের সাহায্য নিয়ে বাংলা ভাষা-বিষয়ক স্মরণীয় বাণী সংগ্রহ কর। পোস্টার পেপারে রঙিন মার্কার পেন দিয়ে কথাগুলো লিখে পোস্টার তৈরি কর। পোস্টারগুলো এরপর আঠা বা স্কচটেপ দিয়ে শ্রেণিকক্ষের দেয়ালে লাগিয়ে সবাইকে দেখাও।

অতিরিক্ত প্রশ্ন ও উত্তর
 সঠিক উত্তরটি লেখ।
১) আমাদের দেশের সাধারণ মানুষের জন্য কোনটি প্রয়োজন? চ
ক সহজ-সরল বাংলা ভাষা
খ কঠিন বাংলা ভাষা
গ অন্য ভাষা মেশানো বাংলা ভাষা
ঘ বিজাতীয় ভাষা
২) ভাষা আন্দোলনের পথটি ছিলÑ ঝ
ক পানিতে পিছল খ তেলে পিছল
গ ঘামে পিছল ঘ রক্তে পিছল
 নিচের শব্দগুলো দিয়ে বাক্য রচনা কর।
ছড়াছড়ি, সরল, আশা, মনীষী।
উত্তর :
শব্দ বাক্য
ছড়াছড়ি Ñ বাংলাদেশের সবখানেই সবুজের ছড়াছড়ি।
সরল Ñ রফিকের দাদু সরল মানুষ।
আশা Ñ আশা নিয়েই আমরা বেঁচে থাকি।
মনীষী Ñ মনীষীদের জীবনী পড়ে অনেক কিছু শেখা যায়।
 ডান পাশের বাক্যাংশের সাথে বাম পাশের বাক্যাংশের মিল কর।
বিদেশ হতে বিজাতীয় থাকবে বল সহ্য করি।
তাদের রক্ত-পিছল পথে মোদের দেশের সরল মানুষ।
আর কতকাল দেশের মানুষ এবার যেন মুক্তি মেলে।
ভাষার তরে প্রাণ দিল যে সব মানুষের মিটাক আশা।
সহজ সরল বাংলা ভাষা কত মায়ের কোলের ছেলে।
নানান ভাষায় ছড়াছড়ি।
উত্তর :
বিদেশ হতে বিজাতীয়  নানান ভাষায় ছড়াছড়ি।
তাদের রক্ত-পিছল পথে  এবার যেন মুক্তি মেলে।
আর কতকাল দেশের মানুষ  থাকবে বল সহ্য করি।
ভাষার তরে প্রাণ দিল যে  কত মায়ের কোলের ছেলে।
সহজ সরল বাংলা ভাষা  সব মানুষের মিটাক আশা।
 নিচের যুক্তবর্ণগুলো কোন কোন বর্ণ দিয়ে গঠিত ভেঙে দেখাও এবং প্রতিটি যুক্তবর্ণ দিয়ে একটি করে শব্দ গঠন কর।
হ্য, জ্ঞ, ক্ত, প্র, ব্দ, তৃ।
উত্তর :
হ্য = হ + য-ফলা ( ্য ) Ñ বাহ্যিক
জ্ঞ = জ + ঞ Ñ আজ্ঞা
ক্ত = ক + ত Ñ পাকাপোক্ত
প্র = প + র-ফলা ( ্র ) Ñ প্রবাল
ব্দ = ব + দ Ñ শতাব্দী
তৃ = ত + ঋÑকার ( ৃ ) Ñ তৃণভোজী
 নিচের বানানগুলো শুদ্ধ করে লেখ।
মনিষী, সঝ্য, বিদেশী, আকাঙ্খা, মাতৃভাসা।
উত্তর : ভুল বানান শুদ্ধ বানান
মনিষী  মনীষী
সঝ্য  সহ্য
বিদেশী  বিদেশি
আকাঙ্খা  আকাক্সক্ষা
মাতৃভাসা  মাতৃভাষা
 নিচের শব্দগুলোর কোনটি কোন পদ লেখ।
জ্ঞানী, দেশ, সহ্য করা, গুণী।
উত্তর :
মূল শব্দ পদ মূল শব্দ পদ
জ্ঞানী Ñ বিশেষণ সহ্য করা Ñ ক্রিয়া
দেশ Ñ বিশেষ্য গুণী Ñ বিশেষণ

প্রাথমিক সমাপনী নমুনা প্রশ্ন ও উত্তর

নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ১, ২, ৩ ও ৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর লেখ।
আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলি। দেশের সব মানুষই বাংলায় কথা বলেন। রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ১৯৫২ সালে ছাত্র-ছাত্রীরা মিছিল করেছিল, হরতাল করেছিল। তখন তাঁদের ওপর পুলিশ গুলি চালায়। গুলিতে ছাত্রসহ অনেকেই মারা যায়। মাতৃভাষার চেয়ে প্রিয় আর কোনো ভাষা হতে পারে না। বাংলাদেশের সব মানুষের ইচ্ছা, আশা, আকাক্সক্ষা মাতৃভাষাতেই ভালোভাবে প্রকাশ করা যায়। বাংলায় কথা বলার সময় বিদেশি ভাষা ব্যবহার না করা ভালো।
১. সঠিক উত্তরটি উত্তরপত্রে লেখ।
১) ১৯৫২ সালে ছাত্রছাত্রীরা কেন মিছিল করেছিল?
(ক) ভাষার দাবিতে (খ) সুশিক্ষার দাবিতে
(গ) স্বাধীনতার দাবিতে (ঘ) চাকরির দাবিতে
২) বাংলাদেশের সব মানুষের সবচেয়ে প্রিয় কী?
(ক) বিজাতীয় ভাষা (খ) ইংরেজি ভাষা
(গ) বাংলা ভাষা (ঘ) হিন্দি ভাষা
৩) আমাদের কোনটি করা উচিত?
(ক) শুদ্ধ বাংলায় কথা বলা
(খ) অশুদ্ধ বাংলায় কথা বলা
(গ) বাংলা ও ইংরেজি মিশিয়ে কথা বলা
(ঘ) বাংলা ভাষায় কথা না বলা
৪) ইংরেজি ভাষা বাঙালিদের জন্যÑ
(ক) অতি প্রিয় ভাষা (খ) বিজাতীয় ভাষা
(গ) অচেনা ভাষা (ঘ) মাতৃভাষা
৫) অনুচ্ছেদে প্রকাশিত হয়েছেÑ
(ক) মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসা
(খ) বিজাতীয় ভাষার প্রতি ভালোবাসা
(গ) মায়ের প্রতি ভালোবাসা
(ঘ) ভাষাশহিদদের প্রতি ভালোবাসা
উত্তর : ১) (ক) ভাষার দাবিতে; ২) (গ) বাংলা ভাষা; ৩) (ক) শুদ্ধ বাংলায় কথা বলা; ৪) (খ) বিজাতীয় ভাষা; ৫) (ক) মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসা।
২. নিচের শব্দগুলোর অর্থ লেখ।
হরতাল, মাতৃভাষা, প্রিয়, আকাক্সক্ষা, মিছিল।
উত্তর : শব্দ অর্থ
হরতাল Ñ ধর্মঘট।
মাতৃভাষা Ñ মায়ের মুখ থেকে শিশু যে ভাষা শেখে।
প্রিয় Ñ পছন্দ করা হয় এমন।
আকাক্সক্ষা Ñ বাসনা।
মিছিল Ñ শোভাযাত্রা।
৩. নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর লেখ।
ক) ভাষার জন্য কত সালে এ দেশে আন্দোলন হয়েছিল?
উত্তর : ভাষার জন্য ১৯৫২ সালে এ দেশে আন্দোলন হয়েছিল।
খ) বাংলা ভাষায় কথা বলার সময় আমরা কী করব না?
উত্তর : বাংলা ভাষায় কথা বলার সময় আমরা বাংলা ভাষায় অন্য কোনো ভাষার শব্দ ব্যবহার করব না।
গ) ছাত্রছাত্রীদের মিছিলে কী ঘটেছিল?
উত্তর : ছাত্রছাত্রীদের ভাষার দাবিতে করা মিছিলে পুলিশ গুলি চালায়। গুলিতে অনেকে শহিদ হয়।
৪. অনুচ্ছেদটির মূলভাব লেখ।
উত্তর : আমরা সবাই আমাদের প্রিয় মাতৃভাষা বাংলায় কথা বলি। এ ভাষাকে ঘিরেই আমাদের যত আশা-আকাক্সক্ষা আর স্বপ্ন। বাংলা ভাষার সম্মান রক্ষার জন্য এদেশের মানুষ জীবন উৎসর্গ করেছে। আমাদের তাই শুদ্ধ বাংলায় কথা বলার চর্চা করা উচিত।

এ অংশে পাঠ্য বই বহির্ভূত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ দেওয়া থাকবে। প্রদত্ত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশটি পড়ে ৩ ধরনের প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। এখানে থাকবেÑ (৫) বহুনির্বাচনি প্রশ্ন (৬) শূন্যস্থান পূরণ (৭) প্রশ্নের উত্তর লিখন প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে।
পাঠ্য বই বহির্ভূত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ পরীক্ষায় কমন পড়বে না। তাই এটি এখানে দেওয়া হলো না। তবে পরীক্ষার প্রশ্নের পূর্ণাঙ্গ নমুনা (ঋড়ৎসধঃ) বোঝার সুবিধার্থে বইয়ের প্রথম দুটি অধ্যায়ে পাঠ্য বই বহির্ভূত অংশটি সংযোজন করা হয়েছে।
……………………………………………………………..
৮. নিচের যুক্তবর্ণগুলো কোন কোন বর্ণ দিয়ে গঠিত ভেঙে দেখাও এবং প্রতিটি যুক্তবর্ণ দিয়ে একটি করে শব্দ গঠন করে বাক্যে প্রয়োগ দেখাও।
ন্ধ, তৃ, ম্ব, ত্র, চ্ছ
উত্তর :
ন্ধ = ন + ধ – সুগন্ধ
– ফুলের সুগন্ধে ভরে উঠেছে চারিদিক।
তৃ = ত + ঋ-কার ( ৃ ) – তৃণ
– ছাগল তৃণভোজী প্রাণী।
ম্ব = ম + ব – কম্বল
– কম্বলখানা গায়ে দাও।
ত্র = ত + র-ফলা ( ্র) – পাত্র
– কুমার মাটির পাত্র তৈরি করে।
চ্ছ = চ + ছ – ইচ্ছা
– তোমার ইচ্ছামতো কাজ করো।
৯. সঠিক স্থানে বিরামচিহ্ন বসিয়ে অনুচ্ছেদটি আবার লেখ।
(পদ্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়)
১০. এককথায় প্রকাশ কর।
ক) যাঁর অনেক জ্ঞান; খ) ভিন্ন জাতির; গ) যারা লোহা দিয়ে জিনিস তৈরি করে; ঘ) মায়ের কাছে শেখা ভাষা; ঙ) রক্তে যা পিছল হয়েছে।
উত্তর : ক) জ্ঞানী; খ) বিজাতীয়; গ) কামার;
ঘ) মাতৃভাষা; ঙ) রক্ত-পিছল।
১১. নিচের শব্দগুলোর বিপরীত শব্দ লেখ।
সরল, সহজ, বিজাতীয়, বেদন, বিদেশ।
উত্তর : মূল শব্দ বিপরীত শব্দ
সরল  বক্র
সহজ  কঠিন
বিজাতীয়  স্বজাতীয়
বেদন  আনন্দ
বিদেশ  স্বদেশ
১২. নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
কত মায়ের কোলের ছেলে
এবার যেন মুক্তি মেলে।
সব মানুষের মিটাক আশা।
সহজ সরল বাংলা ভাষা
ভাষার তরে প্রাণ দিল যে
তাদের রক্ত-পিছল পথে
ক) কবিতার চরণগুলো সাজিয়ে লেখ।
খ) কবিতাংশটি কোন কবিতার অংশ?
গ) কবিতাটির কবির নাম কী?
ঘ) মায়ের কোলের ছেলেরা কেন প্রাণ দিয়েছিল?
উত্তর :
ক) কবিতার চরণগুলো নিচে সাজিয়ে লেখা হলোÑ
ভাষার তরে প্রাণ দিল যে
কত মায়ের কোলের ছেলে
তাদের রক্ত-পিছল পথে
এবার যেন মুক্তি মেলে।
সহজ সরল বাংলা ভাষা
সব মানুষের মিটাক আশা।
খ) কবিতাংশটি ‘মোদের বাংলা ভাষা’ কবিতার অংশ।
গ) কবিতাটির কবির নাম সুফিয়া কামাল।
ঘ) মায়ের কোলের ছেলেরা মাতৃভাষা বাংলার দাবিতে প্রাণ দিয়েছিল।

 

প্রিয় জনের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply