নবম-দশম শ্রেণির ব্যবসায় উদ্যোগ নবম অধ্যায় বিপণন সৃজনশীল ও জ্ঞানমূলক প্রশ্নোত্তর

নবম অধ্যায়
বিপণন

বিপণনের ধারণা : সাধারণ অর্থে পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী ক্রয়-বিক্রয়ের কাজকে বিপণন বলে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে বিপণনের ধারণা আরও ব্যাপক। পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী উৎপাদনকারী থেকে ভোক্তা বা ব্যবহারকারীর নিকট পৌঁছে দেওয়া পর্যন্ত সকল কাজকে বিপণন বা বাজারজাতকরণ বলে গণ্য করা হয়।
 বিপণনের কার্যাবলি : বিপণন উৎপাদনকারী এবং ভোক্তার মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করে। বিপণনের মাধ্যমে পণ্য ও সেবার মালিকানাগত, স্থানগত ও সময়গত উপযোগ সৃষ্টি হয়। ক্রয়, বিক্রয়, পরিবহন, গুদামজাতকরণ, প্রমিতকরণ, পর্যায়িতকরণ, মোড়কিকরণ, তথ্য সংগ্রহ ও ভোক্তা বিশ্লেষণ সবই বিপণনের কাজ। বিপণনের কার্যাবলি ব্যবসার জন্য খুবই সহায়ক।
 বণ্টন প্রণালির ধারণা : বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে সবসময় উৎপাদনকারী সরাসরি ভোক্তার নিকট পণ্য পৌঁছতে পারে না। তখন যেসব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাহায্য নেওয়া হয়, তারা মধ্যস্থ কারবারি হিসেবে পরিচিত। মধ্যস্থ কারবারি বা ব্যবসায়ীদের সাহায্যে পণ্য ক্রেতার নিকট পৌঁছনোর এ প্রক্রিয়াকেই বণ্টন প্রণালি বলা হয়। মধ্যস্থ ব্যবসায়ী হতে পারে কোনো খুচরা ব্যবসায়ী, পাইকার অথবা এজেন্ট।
 বণ্টন প্রণালি ও বিভিন্ন পণ্যের বিপণন : পণ্য বা সেবার ধরন ও বৈশিষ্ট্যের ওপর বণ্টন প্রণালির ধরন নির্ভর করে। নিচে বিভিন্ন প্রকার পণ্যের বণ্টন প্রণালি দেখানো হলো-

 বিজ্ঞাপনের ধারণা : বিজ্ঞাপন একটি মাধ্যম। বিজ্ঞাপন হচ্ছে পণ্য বা সেবাসামগ্রীর প্রতি জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য একটি উপায় বা কৌশল। প্রতিদিন আমরা টিভি, রেডিও ও পত্রিকায় বিভিন্ন পণ্যের আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন দেখি ও শুনে থাকি। বিজ্ঞাপনের মাধ্যম খুব সহজেই ক্রেতাসাধারণকে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়। বিজ্ঞাপনের অন্যান্য মাধ্যম হচ্ছে লিফলেট, ম্যাগাজিন, পরিবহন, বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, ইন্টারনেট ইত্যাদি।
 বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন মাধ্যম : বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে। পণ্যের চাহিদা, গুণাগুণ, মূল্য ও ক্রেতাদের কথা বিবেচনা করে বিজ্ঞাপনের মাধ্যম নির্বাচন করতে হয়। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমগুলোর মধ্যে সংবাদপত্র, সাময়িকী, প্রচারপত্র, বিজ্ঞাপনীফলক, পোস্টার, টেলিভিশন, রেডিও, চলচ্চিত্র, পণ্য সজ্জা, মেলা, নমুনা, নিয়ন আলো, পরিবহন, বিজ্ঞাপন প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য।
 বিজ্ঞাপনের গুরুত্ব : বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক যুগে ছোট, মাঝারি, বড় যেকোনো ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে পণ্যসামগ্রীর বিপণনের জন্য বিজ্ঞাপন খুবই কার্যকর মাধ্যম। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে পণ্যের মান, মূল্য ও ব্যবহারবিধি ক্রেতা বা জনসাধারণের কাছে তুলে ধরা হয়। ফলে চাহিদা বৃদ্ধি পায়, উৎপাদন ও বিক্রয়ের পরিমাণ বাড়ে এবং মুনাফা বৃদ্ধি পায়।
 বিক্রয়িকতার ধারণা : বিক্রয়িকতা বলতে বিক্রয়কর্মীর ক্রেতা আকর্ষণ করার কৌশল বা দক্ষতাকে বোঝায় যার মাধ্যমে সে সম্ভাব্য ক্রেতার নিকট পণ্য বা সেবাসামগ্রী বিক্রয় করতে সক্ষম হয়। বিক্রয়িকতার গুণে বিক্রেতা তার ব্যবসায় ও পণ্য সম্পর্কে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করে তাদেরকে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করে।
 আদর্শ বিক্রয়কর্মীর গুণাবলি : বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক ব্যবসায়-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিক্রয় প্রসার ও সফলতা অর্জনে বিক্রয়কর্মীর ভ‚মিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ক্রেতা ও ভোক্তাদের আকৃষ্ট ও প্রভাবিত করে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করতে হলে একজন বিক্রয়কর্মীকে অনেকগুলো গুণের অধিকারী হতে হয়। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী হতে হলে তার অবশ্যই সুদর্শন চেহারা, সুস্বাস্থ্য, আত্মবিশ্বাস, তীক্ষè বুদ্ধিমত্তা, ধৈর্যশীলতা, সততা ও বিশ্বস্ততা, মেলামেশার ক্ষমতা, মার্জিত ব্যবহার, শিক্ষা ও অভিজ্ঞতা, হিসাবে পারদর্শিতার মতো শারীরিক, মানসিক ও নৈতিক গুণাবলি থাকা আবশ্যক।

অনুশীলনীর সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
শুভর দোকানের পাশে একই ধরনের আরও একটি দোকান গড়ে উঠায় বিক্রির পরিমাণ কমে যায়। বিক্রয় বাড়ানোর কৌশল হিসেবে শুভ দেখতে ভালো, সদালাপী এ রকম একজন বিক্রয়কর্মী নিয়োগ দেন। কিছুদিন পর তার দোকানে বিক্রির পরিমাণ আগের অবস্থায় ফিরে আসে।
ক. কী দ্বারা পণ্যকে আকর্ষণীয় করা যায়?
খ. প্রমিতকরণ কী? ব্যাখ্যা কর।
গ. শুভ বিক্রয়কর্মী নিয়োগে কোন ধরনের বৈশিষ্ট্যের কথা বিবেচনা করেছেন।
ঘ. বিক্রয় বৃদ্ধিতে শুভর গৃহীত পদক্ষেপটি মূল্যায়ন কর।
 ১নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. মোড়কিকরণ দ্বারা পণ্যকে আকর্ষণীয় করা যায়।
খ. প্রমিতকরণ বাজারজাতকরণের একটি অন্যতম কার্যাবলি। সাধারণত পণ্যের গুণাগুণ, আকার, রং, স্বাদ ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে পণ্যের মান নির্ধারণের কাজকে প্রমিতকরণ বলে। প্রমিতকরণের পর মানের ভিত্তিতে পণ্যমূল্য নির্ধারণ করা হয়। এর ফলে পণ্যের বিপণন প্রক্রিয়া সহজ হয় এবং বিক্রয়কার্যের গতিশীলতা বৃদ্ধি পায়।
গ. শুভ বিক্রয়কর্মী নিয়োগে বিক্রয়কর্মীর শারীরিক ও নৈতিক বৈশিষ্ট্যের কথা বিবেচনা করেছেন।
বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক ব্যবসায়-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিক্রয় প্রসার ও সফলতা অর্জনে বিক্রয়কর্মীর ভ‚মিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একজন বিক্রয়কর্মীর শারীরিক ও নৈতিক বৈশিষ্ট্য সহজেই ক্রেতা বা ভোক্তাকে আকৃষ্ট করে তাকে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করে। ফলে ব্যবসায়িক সাফল্য অর্জন করা সহজ হয়। উদ্দীপকে শুভর দোকানের পাশে আরও একটি দোকান গড়ে ওঠায় তার দোকানের বিক্রয় কমে যায়। তাই তিনি তার দোকানে বিক্রয় বাড়ানোর জন্য একজন সুন্দর ও সদালাপী বিক্রয়কর্মী নিয়োগ দিয়েছেন। সুন্দর চেহারা একজন বিক্রয়কর্মীর শারীরিক গুণ এবং সদালাপী তার নৈতিক গুণ। সুন্দর ও আকর্ষণীয় চেহারার বিক্রয়কর্মী সহজেই ক্রেতাকে আকৃষ্ট করে। আর বিক্রয়কর্মী যদি সদালাপী হয় তাহলে সে ক্রেতার সাথে সহজেই মিশে তার চাহিদা পণ্য সরবরাহ করে তাকে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করতে পারে। ফলে দোকানে স্থায়ী ক্রেতার পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং ব্যবসায়িক লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব হয়। তাই ক্রেতা আকৃষ্ট করার মাধ্যমে দোকানের বিক্রয় বৃদ্ধি করতে শুভ বিক্রয়কর্মীর শারীরিক ও নৈতিক বৈশিষ্ট্যকে প্রাধান্য দিয়ে বিক্রয়কর্মী নিয়োগ দিয়েছেন।
ঘ. শুভ বিক্রয় বৃদ্ধির কৌশল হিসেবে একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী নিয়োগের যে পদক্ষেপটি নিয়েছেন তা যথার্থ।
বিক্রয়িকতা বলতে ক্রেতা আকর্ষণ করার কৌশল বা দক্ষতাকে বোঝায় যার মাধ্যমে বিক্রেতা সম্ভাব্য ক্রেতার নিকট পণ্য বা সেবা সামগ্রী বিক্রয় করতে সক্ষম হয়। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী তার শারীরিক, মানসিক, নৈতিক ও অন্যান্য গুণাবলি কাজে লাগিয়ে ব্যবসায় ও পণ্য সম্পর্কে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করে তাদেরকে স্থায়ী গ্রাহকে পরিণত করেন। উদ্দীপকে, শুভ একজন খুচরা ব্যবসায়ী। ব্যবসায়ের শুরুতে তার কোনো প্রতিযোগী না থাকায় তিনি একচেটিয়া ব্যবসায় করে পর্যাপ্ত মুনাফা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তার দোকানের পাশে আরেকটি সমজাতীয় পণ্যের দোকান চালু হওয়ায় তার দোকানের বিক্রয় কমে যায়। তাই তিনি তার দোকানে দেখতে ভালো এবং সদালাপী একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী নিয়োগ দেন। শুভর নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত সুন্দর ও সদালাপী বিক্রয়কর্মী তার শারীরিক ও নৈতিক গুণ দ্বারা ক্রেতাকে আকৃষ্ট করে তাদেরকে শুভর দোকানের স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করে। যার ফলে শুভর দোকানে ক্রেতার সমাগম এবং বিক্রয় বৃদ্ধি পেয়েছে।
সুতরাং বলা যায় বিক্রয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে শুভর আদর্শ বিক্রয়কর্মী নিয়োগদানের পদক্ষেপটি সঠিক ও যথার্থ হয়েছে।
প্রশ্ন-২  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
বড় রাস্তার পাশে ‘আদর স্টোর’ নামে নতুন একটি দোকান আছে। কিন্তু কোনো কারণে দোকানটির বিক্রি ভালো নয়। স¤প্রতি দোকানের মালিক তার দোকানের পরিচিতি, সেবার ধরন, পণ্যের মান ও বিভিন্ন প্রকার পণ্যের নাম লিখিত একটি মুদ্রিত কাগজ পত্রিকার হকারের মাধ্যমে এলাকার বাসায় বাসায় পৌঁছে দিলেন। কিছুদিন পর দেখা গেল তার দোকানে ক্রেতার সমাগম ও বিক্রির পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ক. বণ্টন প্রণালিতে সবশেষে কার অবস্থান?
খ. পর্যায়িতকরণ কী? ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকে আদর স্টোরের মালিক প্রচারের কোন মাধ্যমটি বেছে নিল? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. ‘মালিকের গৃহীত পদক্ষেপ বিক্রয় বৃদ্ধির অন্যতম কৌশল’ মতামত দাও।
 ২নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বণ্টন প্রণালিতে সবশেষে ভোক্তার অবস্থান।
খ. মান অনুযায়ী পণ্যকে বিভিন্ন শ্রেণিতে ভাগ করাকে পর্যায়িতকরণ বলা হয়। এই প্রক্রিয়ার প্রধান কাজ হলো ক্রেতার প্রয়োজন অনুযায়ী নির্ধারিত মান অনুসারে একই জাতীয় পণ্যকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত করা। ওজন, আকার ও গুণাগুণ অনুযায়ী পর্যায়িতকরণ করা হয় বলে বিক্রয়ের কাজ সহজ হয়। এর ফলে গুদামজাতকরণ, পরিবহন এবং মজুদ ব্যবস্থাপনার কাজও সহজতর হয়।
গ. উদ্দীপকের আদর স্টোরের মালিক প্রচারের জন্য ‘লিফলেট’ মাধ্যমটি বেছে নিলেন।
বিজ্ঞাপন মাধ্যম হিসেবে লিফলেট ছোট ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের জন্য অধিক কার্যকর। পণ্যের গুণাগুণ, বৈশিষ্ট্য, প্রাপ্তিস্থান প্রভৃতি বিষয় এরূপ লিফলেটে উল্লেখ থাকে। পণ্য বা সেবা বিবরণ এমনভাবে উল্লেখ থাকে যেন খুব সহজেই ক্রেতা তার প্রয়োজনীয় পণ্যটি সম্পর্কে একটি ধারণা পেতে পারেন। উদ্দীপকের আদর স্টোরের মালিক একজন খুচরা ব্যবসায়ী। তার দোকানের বিক্রি ভালো না হওয়ায় তিনি বিক্রয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণের সিদ্ধান্ত নিলেন। তিনি দোকানের পরিচিতি, সেবার ধরন, পণ্যের মান ও বিভিন্ন প্রকার পণ্যের নাম লিখে একটি আকর্ষণীয় লিফলেট বানালেন এবং পত্রিকার হকারের মাধ্যমে এলাকার প্রতিটি বাসায় পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেন। ফলে কিছুদিনের মধ্যেই তার দোকানে ক্রেতার সমাগম বাড়তে লাগল এবং সাথে সাথে বিক্রয়ও বৃদ্ধি পেল। এক্ষেত্রে দোকানের মালিক প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপনের অন্য কোনো মাধ্যমেরও আশ্রয় নিতে পারতেন। কিন্তু স্থানীয় এলাকাভিত্তিক খুচরা ব্যবসায়ী হওয়ায় প্রচারের মাধ্যম হিসেবে তার লিফলেট বিতরণের সিদ্ধান্ত নিলেন।
ঘ. ‘আদর স্টোর’ মালিকের গৃহীত পদক্ষেপটি তথা বিজ্ঞাপন পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে।
বিজ্ঞাপন হচ্ছে পণ্য বা সেবা সামগ্রীর প্রতি জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য একটি উপায় বা কৌশল। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে খুব সহজেই ক্রেতাসাধারণকে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়। বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন মাধ্যম হচ্ছে লিফলেট, ম্যাগাজিন, পরিবহন, বিজ্ঞাপন, বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, ইন্টারনেট ইত্যাদি। উদ্দীপকে আদর স্টোরের মালিক বিক্রয় বৃদ্ধির জন্য বিজ্ঞাপনকে বেছে নিয়েছেন। আর বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ক্রেতারা আদর স্টোরের অবস্থান, পণ্যের মান, মূল্য, সেবার ধরন সম্পর্কে অবহিত হয়। ফলে পণ্যের চাহিদা ও বিক্রয় বৃদ্ধি পায় যা মুনাফা বৃদ্ধি করে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আদর স্টোরের পরিচিত বৃদ্ধি পায় এবং ব্যবসায় বাণিজ্যের প্রসার ঘটে। এতে পণ্যের ভোগ প্রবণতা বৃদ্ধি পায় এবং ক্রেতারা তাদের জীবনযাত্রার মান অনুযায়ী পণ্য ক্রয় করতে পারে, যা পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধি করে।
সুতরাং আদর স্টোরের মালিকের গৃহীত বিক্রয় বৃদ্ধির কৌশল বিজ্ঞাপন বিক্রয় বৃদ্ধির জন্য অন্যতম পন্থা।

প্রশ্ন-৩  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
মি. রাকিব নিজ জমিতে কৃষিপণ্য ও মাছচাষ করেন। সারাবছর ভোগ করা যায় এমন পণ্যগুলো তড়িঘড়ি করে বিক্রয় করতে গিয়ে কিছু পণ্য পচে নষ্ট হয়। ফলে মুনাফার পরিমাণ কমে যায়। পরবর্তীতে তিনি স্থানীয় প্রচার মাধ্যমে পণ্যের গুণাগুণ তুলে ধরায় পণ্য বিক্রির পরিমাণ বহুগুণ বেড়ে যায়। বর্তমানে তিনি একজন সফল চাষি হিসেবে পুরস্কৃত হন।
ক. কোম্পানির মূল দলিলের নাম কী? ১
খ. প্রমিতকরণ বলতে কী বোঝায়? ২
গ. মি. রাকিবের ব্যবসায়ে ১ম পর্যায়ে বিপণন কার্যাবলির কোনটির অভাব পরিলক্ষিত হয়? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. উদ্দীপকের মি. রাকিবের সফল চাষি হিসেবে পুরস্কার প্রাপ্তিতে কোনটি সহায়ক ভ‚মিকা পালন করেছে? মতামত দাও। ৪
 ৩নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. কোম্পানির মূল দলিলের নাম হলো স্মারকলিপি।
খ. পণ্যের মান নির্ধারণের কাজকে প্রমিতকরণ বলে।
সাধারণত পণ্যের গুণাগুণ, আকার, রং স্বাদ ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে পণ্যের মান নির্ধারণের কাজকে প্রমিতকরণ বলে। সুষ্ঠুভাবে প্রমিতকরণের পর মানের বিভিন্ন পণ্যমূল্য নির্ধারণ করা হয়। এর ফলে পণ্যের বিপণন প্রক্রিয়া সহজ হয় এবং বিক্রয়কার্যের গতিশীলতা বৃদ্ধি পায়।
গ. মি. রাকিবের ব্যবসায়ে ১ম পর্যায়ে বিপণন কার্যাবলির গুদামজাতকরণের অভাব পরিলক্ষিত হয়।
বিপণনের সকল পর্যায়ে পণ্যসামগ্রী সংরক্ষণের প্রয়োজন হয়। অনেক পণ্য বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে উৎপাদিত হয় কিন্তু ব্যবহার হয় সারা বছর। বছরব্যাপী চাহিদা মেটানোর জন্য সে সকল পণ্য গুদামজাতকরণের মাধ্যমে সংরক্ষণ করতে হয়।
উদ্দীপকের মি. রাকিব একজন চাষি। তিনি সারাবছর ভোগ করা যায় এমন পণ্য সংরক্ষণের অভাবে বিক্রয় করে দেন। তড়িঘড়ি করে বিক্রয় করতে গিয়ে কিছু পণ্য পচে নষ্ট হয়। ফলে তার মুনাফার পরিমাণ কমে যায়। তিনি যদি গুদামজাত করতে পারতেন তাহলে পণ্যগুলো নষ্ট হতো না এবং মুনাফার পরিমাণ ও কমে যেতো না। সুতরাং, তার ব্যবসায়ে গুদামজাতকরণের অভাব পরিলক্ষিত হয়।
ঘ. উদ্দীপকের মি. রাকিবের সফল চাষি হিসাবে পুরস্কার প্রাপ্তিতে বিজ্ঞাপন সহায়ক ভ‚মিকা পালন করেছে।
বিজ্ঞাপন হচ্ছে পণ্য বা সেবা সামগ্রীর পতি জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য একটি উপায় বা কৌশল। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে খুব সহজেই ক্রেতাসাধারণকে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়। বিজ্ঞাপনের অন্যান্য মাধ্যম হচ্ছে সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন, লিফলেট, পরিবহন, বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, ইন্টারনেট ইত্যাদি। উদ্দীপকের মি. রাকিব তার পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধির জন্য বিজ্ঞাপনকে বেছে নিয়েছেন। তিনি স্থানীয় প্রচার মাধ্যমে পণ্যের মান, মূল্য ও ব্যবহারবিধি ক্রেতা বা জনসাধারণের কাজে তুলে ধরেন। ফলে তার পণ্যের ও বিক্রয় বৃদ্ধি পায় যা মুনাফা বৃদ্ধি করে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তার পণ্যের বাজার স¤প্রসারিত হয় ও সুনাম বৃদ্ধি পায়। যার ফলস্বরূপ তিনি একজন সফল চাষি হিসেবে পুরস্কার পান।
সুতরাং, বলা যায়, মি. রাকিব সফল চাষি হিসেবে পুরস্কার প্রাপ্তিতে স্থানীয় প্রচার মাধ্যম সহায়ক ভ‚মিকা পালন করেছে।

প্রশ্ন-৪  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
নিউ লিমিটেডের উৎপাদিত টিভি সারা দেশে বিক্রয় হয়। চাঁদপুরের জনাব মেহেদি সারা শহরে নিউ টিভির একমাত্র বিক্রেতা। তিনি নিউ লিমিটেড প্রতিষ্ঠান হতে বিক্রয়ের ওপর নির্দিষ্ট হারে কমিশন পেয়ে থাকেন। তিনি ভাবছেন অন্য প্রতিষ্ঠানের পণ্যও আলাদা দোকানের মাধ্যমে চাঁদপুর শহরে বিক্রয় করবেন।
ক. বিপণনের কোন কাজটি দ্বারা সারা বছর মৌসুমি পণ্য ব্যবহার করা যায়? ১
খ. মধ্যস্থব্যবসায়ী কেন অপরিহার্য? ২
গ. উদ্দীপকের নিউ টিভির বণ্টন প্রণালি ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. তুমি কি মনে কর উদ্দীপকের বণ্টন প্রণালির আওতায় চাঁদপুর গ্রাহকরা বেশি লাভবান হচ্ছে? মতামত দাও। ৪
 ৪নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বিপণনের গুদামজাতকরণ কাজটি দ্বারা মৌসুমি পণ্য সারা বছর ব্যবহার করা যায়।
খ. পণ্য বণ্টন প্রণালিতে মধ্যস্থ ব্যবসায়ী অপরিহার্য। কেননা পণ্যের উৎপাদক ও ভোক্তার অবস্থান ভিন্ন এলাকায়। এক্ষেত্রে মধ্যস্থ ব্যবসায়ী উৎপাদক ও ভোক্তার মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করে থাকে। ফলে বিপণনমূলক কার্যাদি সঠিকভাবে পরিচালিত হয়।
গ. নিউ টিভির উৎপাদক নিউ লিমিটেড তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রতিনিধির মাধ্যমে চ‚ড়ান্ত ভোক্তার হাতে পৌঁছে দেয়। বিভিন্ন প্রকার ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী যেমনÑ টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান এবং কৃষি উপকরণ সাধারণত এজেন্টের মাধ্যমে বিক্রয় করা হয়। উৎপাদনকারী দেশের বিভিন্ন স্থানে এজেন্ট নিয়োগ করে তাদের মাধ্যমে সরাসরি ভোক্তাদের নিকট এ সকল শিল্প সামগ্রী বিক্রয় করে থাকে। উদ্দীপকে নিউ লিমিটেড টিভি বাজারজাতকরণে যে বণ্টন প্রণালি ব্যবহৃত হয়েছে তা হলো

অর্থাৎ নিউ লিমিটেড এখানে উৎপাদক। প্রতিষ্ঠানটি নিজেরা নিউ নামক টিভি তৈরি করে থাকে। পরবর্তীতে তারা চ‚ড়ান্ত ভোক্তার হাতে তাদের পণ্য পৌঁছে দেয়ার জন্য সারা দেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়। চুক্তির ভিত্তিতে এসব প্রতিনিধি নিউ টিভি বিক্রয় করে থাকে। এর বিনিময়ে প্রতিনিধিরা নির্দিষ্ট হারে কমিশন পেয়ে থাকেন। এভাবে নিউ টিভি উৎপাদক থেকে প্রতিনিধি এবং প্রতিনিধি থেকে চ‚ড়ান্ত ভোক্তার কাছে বণ্টিত হয়।
ঘ. উদ্দীপকের বণ্টর প্রণালির আওতায় চাঁদপুর গ্রাহকরা বেশি লাভবান হবে বলে আমি মনে করি।
উৎপাদনকারীর পক্ষে সরাসরি ভোক্তার নিকট পণ্য পৌঁছানো সম্ভবপর হয়না বলেই মধ্যস্থ ব্যবসায়ীর প্রয়োজন হয়। আর এই মধ্যস্থ ব্যবসায়ী বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন : পাইকার, খুচরা ব্যবসায়ী, প্রতিনিধি বা এজেন্ট ইত্যাদি। উদ্দীপকের নিউ টিভির বণ্টন প্রণালি হলো উৎপাদক থেকে প্রতিনিধি এবং প্রতিনিধি থেকে ভোক্তা। এক্ষেত্রে নিউ লিমিটেড তাদের প্রতিনিধি জনাব মেহেদির নিকট তাদের পণ্য প্রেরণ করে। তাদের ব্যবহৃত বণ্টন প্রণালিতে কোনো মধ্যস্থ ব্যবসায়ী নেই। ফলে চ‚ড়ান্ত ভোক্তা যখন পণ্য ক্রয় করেন তখন তারা কমমূল্যে টিভি ক্রয় করতে পারেন। বণ্টন প্রণালিতে মধ্যস্থকারী বেশি হলে দামও বেড়ে যায়। ফলে ভোক্তাকে বেশি মূল্যের পণ্য ক্রয় করতে হয়। কারণ প্রতিবার হাত বদলের সাথে সাথে পণ্যে ক্রয় মূল্যের সাথে মুনাফা এবং ব্যয় যোগ হয়। এ কারণে বণ্টন প্রণালিতে যত বেশি মধ্যস্থ ব্যবসায়ী থাকবে পণ্যের মূল্য ততবেশি হয়।
সুতরাং বলা যায়, নিউ লিমিটেডের বণ্টন প্রণালিতে অধিক মধ্যস্থ ব্যবসায়ী না থাকায় গ্রাহকেরা কোম্পানির নির্ধারিত মূল্যেই টিভি ক্রয়ের সুবিধা পাচ্ছেন।

প্রশ্ন-৫  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
রাফিন ফুডস লিমিটেড ভোক্তাদের চাহিদা, ক্রয় ক্ষমতা, রুচি, অভ্যাস ইত্যাদির ওপর সমীক্ষা চালিয়ে তাদের উৎপাদন এবং আমদানি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এ বছর দেশে চাল-ডাল এবং পিঁয়াজের উৎপাদন কম হওয়ায় তারা ভারত থেকে প্রচুর পরিমাণ চাল, ডাল এবং পিঁয়াজ আমদানি করে মজুদ করে রাখে। উক্ত পণ্য তারা সারা বছর ধরে বিক্রি করায় বাজারে উক্ত পণ্যের চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সামঞ্জস্য স্থাপিত হয়েছিল এবং সারাবছর উক্ত পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ছিল।
ক. বিপণন প্রধানত কয়টি উপযোগ সৃষ্টি করে? ১
খ. শিল্প পণ্যের জন্য মোড়কিকরণ গুরুত্বপূর্ণ কেন? ২
গ. রাফিন ফুডস লিমিটেডের ভোক্তাদের ওপর সমীক্ষা চালানো কোন ধরনের কাজ? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. তুমি কি মনে কর রাফিন ফুডস লিমিটেড উৎপাদক ও ভোক্তা উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করেছেন? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৫নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বিপণন প্রধানত তিনটি উপযোগ সৃষ্টি করে।
খ. শিল্পজাত পণ্যকে নষ্ট হওয়া থেকে রক্ষা করা এবং ক্রেতা ও ভোক্তাদের নিকট আকর্ষণীয় করে তোলার লক্ষ্যে শিল্প পণ্যের জন্য মোড়কিকরণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মোড়কিকরণ বলতে পণ্যসামগ্রীকে কোনো কিছু দ্বারা আবৃত করাকে বোঝায়। শিল্পজাত পণ্য, যেমন : ফ্রিজ, টেলিভিশন, সাবান, কাপড় প্রভৃতির বিক্রয় এবং ক্রেতাদের নিকট গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি মোড়কিকরণের ওপর নির্ভর করে।
গ. রাফিন ফুডস লিমিটেডের ভোক্তাদের ওপর সমীক্ষা চালানো হলো বিপণনের তথ্য সংগ্রহের কাজ।
বাজারে বর্তমানে কী ঘটছে, কোন পণ্যের কিরূপ চাহিদা রয়েছে, কোন পণ্যের সরবরাহের পরিস্থিতি কিরূপ, কোন পণ্য কোথায় কী মূল্যে ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে ইত্যাদি তথ্য বিপণনের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য খুবই প্রয়োজন। পণ্য ও বাজার সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করা বিপণনের গুরুত্বপূর্ণ কাজ, যা ভোক্তা সমীক্ষার মাধ্যমে লাভ করা যায়। উদ্দীপকে রাফিন ফুডস লিমিটেড ভোক্তাদের চাহিদা, ক্রয় ক্ষমতা, রুচি, অভ্যাস ইত্যাদির ওপর একটি সমীক্ষা চালায়। এর মাধ্যমে তারা ভোক্তা ও বাজার সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে উৎপাদন ও আমদানি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। ফলে ভোক্তারা তাদের ক্রয় ক্ষমতা, রুচি, অভ্যাস অনুযায়ী পণ্য পেয়ে থাকে। তাই ভোক্তাদের ওপর সমীক্ষা চালানোর কাজটি বিপণনের তথ্য সংগ্রহের কাজ।
ঘ. রাফিন ফুডস লিমিটেড বিপণনের যথাযথ কার্য সম্পাদনের মাধ্যমে উৎপাদক ও ভোক্তা উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করছেন বলে আমি মনে করি ।
বিপণন একদিকে ভোক্তাদের রুচি ও চাহিদার সংবাদ উৎপাদকের নিকট পৌঁছায়, অন্যদিকে ভোক্তারাও এর মাধ্যমে উৎপাদিত পণ্য সম্পর্কে বিভিন্ন সংবাদ পায়। ফলে ভোক্তাদের চাহিদামতো পণ্যদ্রব্য উৎপাদিত হয় এবং চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সামঞ্জস্য স্থাপিত হয়। এই সামঞ্জস্য বাজারে পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখে।
উদ্দীপকের রাফিন ফুডস লিমিটেড ভোক্তাদের ওপর একটি সমীক্ষা চালিয়ে তাদের চাহিদা, ক্রয়ক্ষমতা, রুচি, অভ্যাস ইত্যাদি সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে ভারত থেকে চাল, ডাল ও পিঁয়াজ আমদানি করে। দেশে উক্ত পণ্যের উৎপাদন কম হওয়ায় প্রচুর চাহিদা ছিল। তাই তারা সারাবছর উক্ত পণ্যসমূহ বিক্রি করে প্রচুর মুনাফা লাভ করেছে। আবার সারাবছর উক্ত পণ্যের যোগান থাকায় পণ্যমূল্যও স্থিতিশীল ছিল। তাই ভোক্তারাও উপকৃত হয়েছে।
সুতরাং বলা যায়, রাফিন ফুডস লিমিটেড উৎপাদক ও ভোক্তা উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করেছেন।
প্রশ্ন-৬  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
জনাব মাহীন একটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালিক। তিনি তার কারখানার উৎপাদিত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী ঢাকার গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেটে মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের সরবরাহ করেন। বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীরা তাদের কাছ থেকে এসব পণ্য ক্রয় করে নিজ এলাকায় ভোক্তাদের নিকট বিক্রি করেন। স¤প্রতি জনাব মাহীন তার বণ্টন প্রণালিটি পরিবর্তন করে ডিলার নিয়োগ দিয়ে সরাসরি ভোক্তার নিকট পণ্য বিক্রয়ের কথা চিন্তা করছেন।
ক. কোনটি শিল্প, বাণিজ্য ও সেবার উন্নতি ঘটায়? ১
খ. বিক্রয়িকতা প্রয়োজন কেন? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. জনাব মাহীন কাদের সহায়তায় ভোক্তাদের নিকট পণ্য পৌঁছান? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. জনাব মাহীন নতুন যে বণ্টন প্রণালিটি ব্যবহার করার কথা চিন্তা করছেন তার যথার্থতা বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৬নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বিপণন শিল্প, বাণিজ্য ও সেবার উন্নতি ঘটায়।
খ. বিক্রয়িকতা বলতে বিক্রয়কর্মীর ক্রেতা আকর্ষণ করার কৌশল বা দক্ষতাকে বোঝায় যার মাধ্যমে সে সম্ভাব্য ক্রেতার নিকট পণ্য বা সেবা সামগ্রী বিক্রয় করতে সক্ষম হয়। বিক্রয়িকতার গুণে বিক্রেতা তার ব্যবসায় ও পণ্য সম্পর্কে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করে তাদেরকে স্থায়ী গ্রাহকে পরিণত করে। এতে করে ব্যবসায়ের বিক্রয় বৃদ্ধি পায় এবং অধিক মুনাফা অর্জিত হয়।
গ. জনাব মাহীন মধ্যস্থ ব্যবসায়ী পাইকার ও খুচরা ব্যবসায়ীদের সহায়তায় তার প্রতিষ্ঠানে উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী ভোক্তাদের নিকট পৌঁছান।
শিল্পপ্রতিষ্ঠানে বৃহদায়তনে পণ্যসামগ্রী উৎপাদন করা হয়। এ কারণে উৎপাদকের পক্ষে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তাদের উৎপাদিত পণ্য সরাসরি ভোক্তাদের কাছে বিক্রি করা সম্ভব হয় না। তাই তাদেরকে মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের দ্বারস্থ হতে হয়।
উদ্দীপকে জনাব মাহীন তার উৎপাদিত পণ্য ঢাকার গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেটে পাইকারি ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করেন। কেননা তার পক্ষে অসংখ্য ভোক্তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা অসম্ভব। তাই তিনি পাইকারের কাছে পণ্য বিক্রি করেন এবং পাইকার পরবর্তীতে খুচরা ব্যবসায়ীর নিকট সেই পণ্য বিক্রয় করেন। অতঃপর খুচরা ব্যবসায়ীরা ক্রেতা বা ভোক্তার নিকট তাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্য বিক্রয় করেন। অর্থাৎ জনাব মাহীনের উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী পাইকার এবং খুচরা ব্যবসায়ীর মাধ্যমে ভোক্তাদের নিকট পৌঁছায়।
ঘ. জনাব মাহীন যে নতুন বণ্টন প্রণালিটির কথা চিন্তা করছেন তা হলো প্রতিনিধি বা এজেন্টের মাধ্যমে বিক্রয়।
বণ্টন প্রণালিতে উৎপাদক ও ভোক্তার মাঝখানে পাইকার এবং খুচরা ব্যবসায়ীর অবস্থান। এসব মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের সহায়তায় উৎপাদকরা তাদের উৎপাদিত পণ্য ভোক্তাদের হাতে পৌঁছায়। পণ্য বণ্টন প্রণালীতে মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের সংখ্যা যত বেশি হয় বাজারে পণ্যমূল্য তত বৃদ্ধি পায়। তাই উৎপাদকরা তাদের বণ্টন প্রণালীতে এদের উপস্থিতি সবসময় কমানোর চেষ্টা চালান। উদ্দীপকে জনাব মাহীন তার দীর্ঘ বণ্টন প্রণালিটি পরিবর্তন করে সংক্ষিপ্ত বণ্টন প্রণালি প্রয়োগ করার কথা চিন্তা করছেন। কারণ বণ্টন প্রণালির প্রতিটি ধাপে বণ্টন খরচ এবং বণ্টনকারীর মুনাফা যোগ হয়। ফলে পণ্যের বণ্টন খরচ বেড়ে যায় এবং ভোক্তাদের অধিক দাম দিয়ে পণ্য ক্রয় করতে হয়। তাই জনাব মাহীন তার উৎপাদিত পণ্য নিজস্ব ডিলারের মাধ্যমে সরাসরি ভোক্তাদের হাতে পৌঁছে দিতে পারবেন তাহলে ভোক্তারা সুবিধাজনক মূল্যে পণ্য ক্রয় করার সুযোগ পাবেন। তাছাড়া সংক্ষিপ্ত বণ্টন প্রণালিতে তিনি তার পণ্য দ্রæত ভোক্তার হাতে পৌঁছাতে পারবেন বিধায় প্রতিযোগিতামূলক বাজারে তার অবস্থান মজবুত হবে।
সুতরাং বলা যায়, প্রতিযোগিতায় নিজের অবস্থান মজবুত এবং ভোক্তাদের তুলনামূলক কমমূল্যে পণ্য সরবরাহ করতে জনাব মাহীন যে নতুন বণ্টনপ্রণালি প্রয়োগের কথা চিন্তা করছেন তা যথার্থ এবং যুক্তিসংগত।
প্রশ্ন-৭  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
হাকিমপুর গ্রামের জনাব শহীদ বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ঢেঁড়স, শিম, লাউ, মিষ্টিকুমড়া, বেগুনসহ বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করেন। তার গ্রামে এবং তার গ্রামের আশপাশে বেশ কয়টি গ্রামের কৃষকরা তারই মতো করে বিভিন্ন সবজির চাষ করায় এখানে প্রচুর পরিমাণ সবজি উৎপন্ন হয়। এসব সবজি পাইকারি ব্যবসায়ীরা ক্রয় করে ট্রাক বোঝাই করে বিভিন্ন শহরে নিয়ে বেশি দামে বিক্রি করে। কিন্তু চাষিরা তাদের আশানুরূপ মূল্য পায় না। তাই তারা সকলে সংগঠিত করে বিকল্প বিক্রয় পদ্ধতির কথা ভাবছেন।
ক. পরিবহন পণ্যের কোন ধরনের উপযোগ সৃষ্টি করে? ১
খ. বিপণন গুরুত্বপূর্ণ কেন? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. জনাব শহীদ পণ্য বণ্টনে কোন পদ্ধতি অনুসরণ করেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. ভবিষ্যতে পণ্যের ন্যায্যমূল্য পেতে চাষিদের কী ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত বলে তুমি মনে কর? তোমার উত্তরের পক্ষে যুক্তি দাও। ৪
 ৭নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. পরিবহন পণ্যের স্থানগত উপযোগ সৃষ্টি করে।
খ. বর্তমান প্রতিযোগিতাপূর্ণ ব্যবসায় বাণিজ্যের যুগে শুধু পণ্যের উৎপাদনের ওপরই কোনো ব্যবসায় সংগঠনের সাফল্য নির্ভর করে না। ব্যবসায়িক সাফল্য অর্জন করার জন্য উৎপাদিত পণ্যকে যথাযথভাবে ভোক্তার কাছে পৌঁছে দিতে হবে। এক্ষেত্রে বিপণন প্রধান ভ‚মিকা পালন করে। বিপণনের মাধ্যমে ক্রেতা ও ভোক্তাদের উন্নতমানের পণ্য ও সেবা ব্যবহারের সুযোগ দেয়া হয়। কার্যকর বিপণন উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। বিপণনের উন্নয়নের সাথে সাথে শিল্পবাণিজ্য ও সেবার উন্নতি সাধিত হয়।
গ. জনাব শহীদ তার উৎপাদিত সবজি বণ্টনে পাইকার ও খুচরা ব্যবসায়ীর মাধ্যমে বিক্রয় পদ্ধতিটি অনুসরণ করেন।
বিভিন্ন ধরনের বণ্টন প্রণালি ব্যবহার করে উৎপাদিত পণ্য ভোক্তাদের নিকট পৌঁছানো হয়। উৎপাদনকারী কোন ধরনের বণ্টন প্রণালি ব্যবহার করবেন তা নির্ভর করে পণ্য বা সেবার ধরন ও বৈশিষ্ট্যের ওপর। উদ্দীপকে জনাব শহীদ বাণিজ্যিক পদ্ধতিতে বিভিন্ন রকম সবজি উৎপাদন করে শহরের পাইকারদের নিকট বিক্রি করেন। পাইকাররা উৎপাদকের নিকট হতে কম দামে অধিক পরিমাণ সবজি ক্রয় করে গুদামজাত করেন এবং বাজারের চাহিদা অনুযায়ী খুচরা ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে ভোক্তাদের নিকট পৌঁছে দেন। তার অনুসরণকৃত বণ্টন প্রণালিটি নিম্নরূপ :

অর্থাৎ জনাব শহীদ তার উৎপাদিত পণ্য বণ্টনে সবচেয়ে দীর্ঘায়িত বণ্টন প্রণালি ব্যবহার করেন।
ঘ. আমি মনে করি ভবিষ্যতে পণ্যের ন্যায্যমূল্য পেতে চাষিদের সমবায় সমিতির মাধ্যমে বিক্রয়ের পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।
উৎপাদনকারীরা সবসময় তাদের উৎপাদিত পণ্য সরাসরি ভোক্তাদের নিকট বিক্রি করতে পারে না। সেক্ষেত্রে তারা পাইকার ও খুচরা বিক্রেতাদের দ্বারস্থ হন এবং ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হন। উদ্দীপকে হাকিমপুর গ্রাম এবং তার আশপাশের গ্রামের কৃষকরা বাণিজ্যিক পদ্ধতিতে সবজি চাষ করায় সেখানে সবজির উৎপাদন অনেক বেশি। স্থানীয় পর্যায়ে তারা উক্ত সবজি সংরক্ষণ করতে না পারায় কমমূল্যে পাইকারদের নিকট বিক্রি করে দেয়। ফলে তারা ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হয়। কিন্তু তারা যদি তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য পেতে চায় তাহলে তাদের সমবায় সমিতির মাধ্যমে পণ্য বিক্রয়ের জন্য গ্রামের সব চাষি নিয়ে সমিতি গঠন করতে হবে। সমিতির সদস্যরা সব চাষির উৎপাদিত পণ্য শহরে নিয়ে ভালো দামে বিক্রি করে চাষির মূল্য পরিশোধ করবে। এখানে কোনো মধ্যস্থ ব্যবসায়ী থাকবে না বিধায় পণ্যের সম্পূর্ণ বিক্রয়লব্ধ অর্থ চাষিদের হাতে পৌঁছে যাবে। অর্থাৎ তারা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য পাবে।
সুতরাং, হাকিমপুর গ্রাম ও তার আশপাশের গ্রামের চাষিদের উচিত সকলে একত্রিত হয়ে সমবায় সমিতির মাধ্যমে পণ্য বিক্রয় করে ন্যায্যমূল্য পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা।
প্রশ্ন-৮  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
সিলেটের হাফিজ নিজের জমির সবজি ভ্যানে করে সদরে এনে কম দামে শহরের পাইকারি ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করেন। পাইকাররা এসব সবজি ট্রাকে করে ঢাকায় এনে গুদামঘরে সংরক্ষণ করে। তারপর দাম বাড়লে খুচরা ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করে অধিক মুনাফা লাভ করে। খুচরা ব্যবসায়ীরা আবার তাদের ক্রয়মূল্যের সাথে লাভ যোগ করে বিক্রয় মূল্য নির্ধারণ করে ভোক্তাদের নিকট বিক্রয় করে। তাই হাফিজের মতো উৎপাদকরা কম মূল্যে তাদের উৎপাদিত পণ্য বিক্রয় করলেও শহরের ভোক্তাদের অধিক দামে তা ক্রয় করতে হয়।
ক. বিজ্ঞাপনে সবচেয়ে ব্যয়বহুল মাধ্যম কোনটি? ১
খ. শিল্পজাত পণ্যের মোড়কিকরণের উদ্দেশ্যাবলি উল্লেখ কর। ২
গ. বণ্টন প্রণালিতে হাফিজের অবস্থান কোথায়? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. হাফিজ কম দামে সবজি বিক্রি করলেও শহরের ভোক্তাদের তা অধিক দাম দিয়ে কেনার কারণ বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৮নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বিজ্ঞাপনের সবচেয়ে ব্যয়বহুল মাধ্যম হলো আকাশ বিজ্ঞাপন।
খ. ক্রেতাদের সুবিধার্থে পণ্যসামগ্রী ওজন, পরিমাণ ও সংখ্যা অনুযায়ী যথাযথভাবে মোড়কিকরণ করতে হয়। ফলে ক্রেতার চাহিদা অনুসারে সাথে সাথে পণ্য সরবরাহ করা সম্ভব হয়। বর্তমানে শিল্পজাত পণ্য, কৃষি পণ্য, ভোগ্য পণ্যসামগ্রীর মোড়কিকরণ ক্রেতাদের নিকট বেশ গ্রহণযোগ্য। শিল্পজাত পণ্যকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করার পাশাপাশি নষ্ট বা ভেঙে যাওয়া থেকে রক্ষা করাই মোড়কিকরণের মূল উদ্দেশ্য।
গ. বণ্টন প্রণালিতে হাফিজ একজন উৎপাদক হিসেবে বণ্টন প্রণালির শুরুতে অবস্থান করছেন।
পণ্যের ধরন ও বৈশিষ্ট্যে ভিন্নতা থাকায় বিভিন্ন প্রকার বণ্টন প্রণালির প্রচলন রয়েছে। কিন্তু সকল বণ্টন প্রণালিতে উৎপাদকের অবস্থান অপরিবর্তিত থাকে। অর্থাৎ বণ্টন প্রণালি যেমনই হোক উৎপাদক সবসময় বণ্টন প্রণালির শুরুতেই থাকবেন। নিচে ছকের সাহায্যে বণ্টন প্রণালিতে হাফিজের অবস্থান দেখানো হলো :

হাফিজ তার নিজ জমিতে সবজি উৎপাদন করেন এবং সেই সবজি ভ্যানে করে সদরে এনে শহরের পাইকারদের নিকট বিক্রি করেন। শহরের পাইকাররা সেই সবজি ট্রাকে করে ঢাকায় এনে গুদামজাত করেন এবং বাজার চাহিদা অনুযায়ী অল্প অল্প করে খুচরা ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে ভোক্তাদের হাতে পৌঁছান। এভাবে হাফিজের উৎপাদিত সবজি বিভিন্ন মধ্যস্থকারীর সহায়তায় ভোক্তার নিকট পৌঁছায়। তাই বলা যায়, হাফিজ একজন উৎপাদক হিসেবে যে পণ্য উৎপাদন করেন তা ভোক্তার নিকট পৌঁছাতে ব্যবহৃত বণ্টন প্রণালির শুরুতেই তিনি থাকেন।
ঘ. হাফিজ কম দামে সবজি বিক্রি করলেও শহরের ভোক্তাদের তা অধিক দামে কেনার মূল কারণ মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য।
উৎপাদকের উৎপাদিত পণ্য বিভিন্ন মধ্যস্থকারী ব্যবসায়ীর হাত হয়ে ভোক্তার নিকট পৌঁছায়। মধ্যস্থ ব্যবসায়ীরা পণ্য বণ্টনে সহায়তা করলেও তারা পণ্য মূল্য বৃদ্ধি করে। ঢাকায় মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্যের কারণে ভোক্তাদের যে কোনো পণ্য অধিক দাম দিয়ে কিনতে হয়। উদ্দীপকের হাফিজ কম মূল্যে তার উৎপাদিত সবজি মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করেন। কিন্তু মধ্যস্থ ব্যবসায়ীরা সবজি ট্রাকে করে ঢাকায় এনে গুদামজাত করে বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে। তারপর অধিক দামে খুচরা ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করে। খুচরা ব্যবসায়ীরা আবার তাদের ক্রয় মূল্যের সাথে নিজেদের মুনাফা যোগ করে। ফলে হাফিজ যে দামে তার উৎপাদিত সবজি বিক্রি করে ঢাকার খুচরা ব্যবসায়ীরা তার চেয়ে অনেক বেশি দামে ভোক্তাদের নিকট সবজি বিক্রি করতে বাধ্য হয়।
সুতরাং বলা যায়, মধ্যস্থ ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্যের কারণেই উৎপাদক হাফিজ কম দামে সবজি বিক্রি করলেও শহরের ভোক্তাদের তা অধিক দাম দিয়ে কিনতে হয়।
প্রশ্ন-৯  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
আরমান ফুডস লিমিটেড তাদের উৎপাদিত কেক, বিস্কুট, পিজা, পেটিস ইত্যাদি খাদ্যসামগ্রী থানা পর্যায়ে বিক্রি করার জন্য বেশ কিছু লোক নিয়োগ দিয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে। ফলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা সহজেই খুচরা ব্যবসায়ীদের সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলে বিক্রয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে সক্ষম হয়। কোম্পানিটি মোড়ে মোড়ে এবং দোকানে নিজেদের উৎপাদিত পণ্যের ছবিসহ সাইনবোর্ড টানায়। এ ছাড়া ৫ কেজি বিস্কুটের সাথে হাফ কেজি বিস্কুট ফ্রি, ৩ পাউন্ডের কেকের সাথে একটি পিজ্জা ফ্রিÑ এরূপ নানা কর্মসূচি নিয়ে এগোচ্ছে। ফলে তারা প্রতিযোগিতায় অন্যদের থেকে এগিয়ে আছে।
ক. প্রমিতকরণে বিক্রয় কার্যের কোনটি বৃদ্ধি পায়? ১
খ. বিক্রয়কর্মীর ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি কেন প্রয়োজন? ২
গ. আরমান ফুডস লিমিটেড থানা পর্যায়ে বিক্রয়ের লক্ষ্যে যাদের নিয়োগ দিয়েছে তারা কোন ধরনের মধ্যস্থ ব্যবসায়ী? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. বিক্রয় বৃদ্ধি করতে আরমান ফুডসের গৃহীত কার্যক্রমের যথার্থতা মূল্যায়ন কর। ৪
 ৯নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. প্রমিতকরণে বিক্রয় কার্যের গতিশীলতা বৃদ্ধি পায়।
খ. একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মীর ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি গুণটি থাকা প্রয়োজন। কারণ ক্রেতারা সবসময় তাদের পছন্দ অনুযায়ী পণ্য ক্রয় করেন। তাদের মতামতকে গুরুত্ব দিলে ব্যবসায়ে লাভবান হওয়া এবং বিক্রয় বৃদ্ধি সম্ভব। তাছাড়া ক্রেতার পছন্দের বাইরে পণ্য বিক্রয় সম্ভব নয়। তাই ক্রেতাদের সকল বিষয়ে বিক্রয়কর্মী ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করতে হবে।
গ. আরমান ফুডস লিমিটেড তাদের উৎপাদিত খাদ্যসামগ্রী থানা পর্যায়ে বিক্রয়ের লক্ষ্যে যাদের নিয়োগ দিয়েছে তারা হচ্ছেন ডিলার বা পরিবেশক।
ডিলার এমন এক ধরনের মধ্যস্থ ব্যবসায়ী, যারা উৎপাদকের কাছ থেকে পাইকারি মূল্যে পণ্য ক্রয় করে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে। কিন্তু এরা পাইকার নয়। কারণ এরা পাইকারদের ন্যায় অধিক মুনাফা লাভ করার সুযোগ পায় না। এরা বিক্রয়মূল্যের ওপর নির্দিষ্ট হারে কমিশন পায়। উদ্দীপকে আরমান ফুডস লিমিটেড বর্তমান বাজারের তীব্র প্রতিযোগিতা মোকাবিলা করার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক লোক নিয়োগ দিয়ে তাদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে পণ্য পৌঁছনোর ব্যবস্থা করেছে। এরা বিভিন্ন মোড়ে ও দোকানে নিজেদের সাইনবোর্ড লাগিয়ে পণ্যের প্রচার করে। অর্থাৎ থানা পর্যায়ে বিক্রয় কার্য পরিচালনা করতে আরমান ফুডস লিমিটেড ডিলার নিয়োগ দিয়েছে।
ঘ. আরমান ফুডস লিমিটেড তার বিক্রয় বৃদ্ধির জন্য যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করেছে তা যথার্থ।
একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের অর্জিত মুনাফার পরিমাণ নির্ভর করে তার বিক্রয় বৃদ্ধিকরণ প্রচেষ্টার ওপর। এ কারণে প্রতিটি প্রতিষ্ঠান তার বিক্রয় বৃদ্ধি করতে নানারকম কর্মসূচি গ্রহণ করে। উদ্দীপকে বিক্রয় প্রসারের জন্য আরমান ফুডস লিমিটেড ৫ কেজি বিস্কুটের সাথে হাফ কেজি বিস্কুট ফ্রি, ৩ পাউন্ডের কেকের সাথে একটি পিজ্জা ফ্রি-এরূপ নানারকম কর্মসূচি চালু করেছে। এসব কর্মসূচি আরমান ফুডস লিমিটেডের উৎপাদিত পণ্য ক্রয়ের ব্যাপারে ক্রেতাদের উদ্বুদ্ধ করবে। ফলে উক্ত কোম্পানির পণ্যের চাহিদা বৃদ্ধি পাবে তাছাড়া আরমান ফুডস লিমিটেড এর গৃহীত কার্যক্রম উক্ত কোম্পানির বিক্রয় বৃদ্ধির মাধ্যমে মুনাফা বৃদ্ধি করবে এবং পণ্যের চাহিদায় স্থিতিশীলতা আনবে। ফলে বিদ্যমান ও সম্ভাব্য ক্রেতারা আরমান ফুডস লিমিটেডের পণ্য ক্রয় করবে, যার ফলে কোম্পানির ব্যবসায় স¤প্রসারিত হবে এবং প্রতিযোগিতায় কোম্পানিটি সফলতা অর্জন করতে পারবে।
সুতরাং, বিক্রয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে আরমান ফুডস লিমিটেড যেসব কর্মসূচি গ্রহণ করেছে তা যথার্থ ও যুক্তিসংগত।
প্রশ্ন-১০  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
প্রাণ গ্রæপ বাংলাদেশের একটি প্রতিষ্ঠিত কোম্পানি। তাদের জুস, চানাচুর, চাটনিসহ প্রায় প্রতিটি পণ্যের জন্যই টিভিতে প্রচুর বিজ্ঞাপন দেয়। কিন্তু সে তুলনায় বাংলাদেশে গার্মেন্টস, টেক্সটাইল, ব্যাংক ও বিমাসহ এমন অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেগুলোর টিভি বিজ্ঞাপন নেই বললেই চলে। পাট, তুলা, চামড়া ইত্যাদির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয় না। আবার গাড়ির যন্ত্রাংশ, ভারী যন্ত্রপাতি প্রভৃতির বিজ্ঞাপন দেওয়া হলেও তেমন দৃশ্যমান নয়। মি. রবিন পণ্যের বিজ্ঞাপনের এমন বৈচিত্র্য প্রত্যক্ষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয় শেষ করা বন্ধু সুজনের কাছে এর কারণ জানতে চাইল। সুজন বলল, বিজ্ঞাপনের মাধ্যম পণ্যের প্রকৃতির ওপর নির্ভর করে। তাই একেক ধরনের পণ্যের বিজ্ঞাপন একেক মাধ্যমে দেওয়া হয়।
ক. পণ্যসজ্জা কী? ১
খ. পরিবহন বিজ্ঞাপন বলতে কী বোঝ? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. প্রাণ গ্রæপ কোন ধরনের পণ্যের ক্ষেত্রে প্রচুর বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. “বিজ্ঞাপনের মাধ্যম পণ্যের প্রকৃতির ওপর নির্ভর করে”- উদ্দীপকের আলোকে সুজনের উক্তিটি বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১০নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ক্রেতা বা ভোক্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য কাচের গøাস বা অন্য কোনো উপায়ে পণ্যসামগ্রী দৃষ্টিনন্দনভাবে প্রদর্শন করে রাখাকে পণ্যসজ্জা বলে।
খ. মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিভিন্ন যাত্রীবাহী বা পণ্যবাহী গাড়িতে বিশেষ পদ্ধতিতে যে বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা করা হয় তাকে পরিবহন বিজ্ঞাপন বলে। কোনো পণ্য বা সেবা সম্পর্কে জনসাধারণকে অবহিতকরণের উদ্দেশ্যে তুলনামূলক অনেক কম খরচে পরিবহন বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা করা যায়। এ ধরনের বিজ্ঞাপন সংশ্লিষ্টদের মধ্যে অন্যরকম অনুভ‚তি তৈরি করে এবং ব্যাপক আলোচনায় আসে। ফলে লক্ষ্যস্থিত ক্রেতারা উক্ত পণ্যটি সম্পর্কে জানতে এবং ক্রয় করতে আগ্রহী হয়।
গ. প্রাণ গ্রæপ তাদের উৎপাদিত ভোগ্যপণ্যের ব্যাপক প্রচার-প্রসার ও বিক্রয় বৃদ্ধির জন্য টিভিসহ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচুর বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে।
চ‚ড়ান্ত ভোক্তাগণ নিজ ব্যবহারের জন্য বা ভোগের জন্য যে পণ্য ক্রয় করে তাকে ভোগ্যপণ্য বলে। এসব পণ্য চ‚ড়ান্ত ভোগের উপযোগী করে সরবরাহ করা হয় এবং বিজ্ঞাপন প্রদানের মাধ্যমে প্রকৃত ক্রেতাদেরকে ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা হয়। এগুলো বিভিন্ন রকম হতে পারে, যেমন-সুবিধাজনক পণ্য, বিপণন পণ্য, শিল্প পণ্য ইত্যাদি। এসব পণ্য বাজারে প্রচুর সরবরাহ থাকে তাই ভোক্তাগণ সহজেই পেতে পারে। উদ্দীপকের প্রাণ গ্রæপ ভোগ্যপণ্যের ব্যবসায়ী। তাদের এ পণ্যগুলোর মধ্যে খাদ্যদ্রব্যই প্রধান। এসব পণ্যের প্রকৃত ক্রেতার সংখ্যা বেশি। দেশের প্রায় সকল স্থানের এবং সকল শ্রেণির মানুষই এ ধরনের পণ্যের ভোক্তা। যার ফলে নতুন নতুন ক্রেতা তৈরি এবং নতুন ক্রেতাকে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করতে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন মাধ্যমে বিজ্ঞাপনের প্রয়োজন হয়। তাই বলা যায়, যেসব পণ্যের ক্রেতা চ‚ড়ান্ত ভোক্তাগণ সেসব পণ্যের ক্ষেত্রে প্রাণ গ্রæপ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচুর বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে।
ঘ. পণ্যের প্রকৃতি বিবেচনা করে সঠিক মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদান ব্যবসায়ের সফলতার পূর্বশর্ত হিসেবে কাজ করে।
বিজ্ঞাপনের কার্যকারিতা এর যথাযথ মাধ্যম নির্বাচনের ওপর বিশেষভাবে নির্ভরশীল। বিজ্ঞাপনের মাধ্যম বলতে এমন কোনো উপায়কে বোঝায় যার দ্বারা পণ্যের পরিচিতি জনসমক্ষে তুলে ধরা হয়। বর্তমান বিশ্ব বাজারে প্রতিযোগী কোনো প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সঠিক মাধ্যমে বিজ্ঞাপনের সহযোগিতা ছাড়া অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা অসম্ভব। তবে উপযুক্ত বিজ্ঞাপন মাধ্যম নির্বাচনে কিছু বিবেচ্য বিষয় রয়েছে। বিজ্ঞাপন দেওয়ার ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন দাতাকে প্রথমেই তার উদ্দেশ্য বিবেচনা করতে হবে। এছাড়া পণ্য ও সেবার প্রকৃতিও বুঝতে হবে। শিল্পপণ্য ও ভোগ্যপণ্য ভেদে বিজ্ঞাপনের মাধ্যম ভিন্ন হয়। আবার বাজারের প্রকৃতি, ক্রেতার ধরন, ক্রেতার অবস্থান, বিজ্ঞাপনের ব্যয়, প্রতিযোগীদের অবস্থা ইত্যাদির দিকেও নজর রাখতে হয়। উদ্দীপকের সুজন তার বক্তব্যে বন্ধু মি. রবিনকে এটাই বোঝাতে চেয়েছেন যে, ভোগ্যপণ্য ও শিল্পপণ্যের বিজ্ঞাপন মাধ্যম ভিন্ন। ভোগ্যপণ্যের ক্ষেত্রে শপিং পণ্যে বিজ্ঞাপন বেশি হয় কিন্তু জরুরি পণ্যের ক্ষেত্রে হয় না। তাই প্রাণ গ্রæপ তাদের উৎপাদিত শপিং পণ্যের বিক্রয় বৃদ্ধি করতে টিভি মাধ্যমটাই ব্যবহার করেছে।
প্রশ্ন-১১  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
আকিজ গ্রæপ তাদের জুস ও কোমল পানীয়সহ নানান রকমের ভোগ্যপণ্যের প্রচারের জন্য প্রচুর অর্থ ব্যয় করে বিভিন্ন মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেয়। অপরদিকে স্কয়ার কোম্পানিও তাদের ভোগ্যপণ্যের জন্য জাতীয় স¤প্রচার মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। কিন্তু স্কয়ার কোম্পানি যে ওষুধ উৎপাদন করে এর জন্য তারা এ ধরনের বিজ্ঞাপন দেয় না। বরং এর পরিবর্তে তারা ডাক্তারদেরকে বিনামূল্যে নমুনা বিতরণ, ব্রিকেতাদের বিশেষ কমিশন প্রদান, ডাক্তারদেরকে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে আর্থিক ও অনার্থিক প্রণোদনাদান ইত্যাদি কৌশল গ্রহণ করে।
ক. টেলিভিশন বিজ্ঞাপন কী? ১
খ. বিজ্ঞাপনের সামাজিক গুরুত্ব ব্যাখ্যা কর। ২
গ. স্কয়ার কোম্পানি তাদের ওষুধ বিক্রয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে কোন মাধ্যম গ্রহণ করেছে? ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. উদ্দীপকের কোম্পানি দুটির বিক্রয় বৃদ্ধি কার্যক্রমের আলোকে বিজ্ঞাপনের অবদান ও প্রয়োজনীয়তা বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১১নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. পণ্য বা সেবা সম্পর্কে জনসাধারণকে অবহিতকরণের উদ্দেশ্যে টেলিভিশনে আকর্ষণীয় দর্শন-শ্রবণযোগ্য সøাইড প্রদর্শনের ব্যবস্থা করাকে টেলিভিশন বিজ্ঞাপন বলে।
খ. বিজ্ঞাপন একদিকে যেমন সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখে তেমনি নৈতিক সচেতনতাও সৃষ্টি করে; যা সার্বিক উন্নয়নে সহায়ক ভ‚মিকা পালন করে। উদাহরণস্বরূপ পণ্যের দোষ-গুণ সম্পর্কে সচেতনতা, ধূমপানের ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে সচেতনতা, এইডস সম্পর্কে সচেতনতা, সামাজিক কর্মকাণ্ডে উদ্বুদ্ধকরণ প্রভৃতি ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনের গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রয়েছে।
গ. স্কয়ার কোম্পানি তাদের ওষুধ বিক্রয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিজ্ঞাপনের অন্যতম মাধ্যম নমুনা বিতরণের কৌশল গ্রহণ করেছে।
সাধারণ ওষুধ কোম্পানি, পুস্তক ব্যবসায়ী ও প্রসাধনী সামগ্রীর ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্যের বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে নমুনা বিতরণের মাধ্যমকে অধিক পছন্দ করে। উদ্দীপকের স্কয়ার কোম্পানি তাদের ভোগ্যপণ্য বিপণনের জন্য টেলিভিশন ও সংবাদপত্রের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। কিন্তু তারা ওষুধ বিক্রয়ের ক্ষেত্রে এ ধরনের বিজ্ঞাপনের মাধ্যম ব্যবহার করে না। এক্ষেত্রে তারা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে হিসেবে নমুনা বিতরণকে কৌশল হিসেবে গ্রহণ করেছে। কেননা ওষুধ একটি জীবন রক্ষাকারী পণ্য হওয়ায় অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ক্রেতারা ওষুধ ক্রয় করে না। তাই স্কয়ার কোম্পানি যদি টেলিভিশন বা সংবাদপত্রের মতো জাতীয় প্রচার মাধ্যমে তাদের প্রস্তুতকৃত ওষুধের ব্যাপক বিজ্ঞাপনও দেয়, তবুও ক্রেতারা অভিজ্ঞ ডাক্তারের সঠিক পরামর্শ ছাড়া ওষুধ ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিবে না। এ কারণেই স্কয়ার কোম্পানি তাদের ওষুধের বিক্রয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে নমুনা পণ্য বিতরণ করে থাকে।
ঘ. উদ্দীপকের আকিজ গ্রæপ ও স্কয়ার কোম্পানির মতো ভোগ্যপণ্য উৎপাদনকারীদের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রীর বিক্রয় বৃদ্ধির ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনের অবদান ও প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।
কোনো বিষয় বা পণ্য সম্পর্কে সংশ্লিষ্টদের জানানোর কৌশলই হলো বিজ্ঞাপন। বিজ্ঞাপন বিষয়বস্তুকে জনসমক্ষে তুলে ধরে। বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন মাধ্যম হচ্ছে লিফলেট, ম্যাগাজিন, পরিবহন, বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, ইন্টারনেট, নমুনা বিতরণ ইত্যাদি।
উদ্দীপকে দেখা যায়, আকিজ গ্রæপ তাদের চানাচুর, চাটনি, জুসসহ অন্যান্য পণ্যের প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপন প্রচুর পরিমাণ অর্থ ব্যয় করে। স্কয়ার কোম্পানিও তাদের কসমেটিকস্সহ অন্যান্য দ্রব্যের জন্য ব্যাপক অর্থ ব্যয়ে বিজ্ঞাপন প্রচার করে। বর্তমান যুগে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেই প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পণ্য সামগ্রী জনগণের নিকট পরিচিত করে তোলে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তাদের পণ্যের গুণাগুণ সম্পর্কে যেমন জনগণ জানতে পারে তেমনি চাহিদাও তৈরি হয়। আর তাই একটি নির্দিষ্ট বাজেটের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেওয়াকে আজকাল বাজারজাতকরণ প্রসারের অন্যতম অনুষঙ্গ মনে করা হয়।
সুতরাং বলা যায়, বিজ্ঞাপন বর্তমানকালে বাণিজ্যের একটি প্রয়োজনীয় উপাদান হিসেবে গণ্য হচ্ছে।
প্রশ্ন-১২  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
জনাব স্বপন শাড়ি-কাপড়সহ ঢাকার মৌচাক মার্কেটে একটি দোকান ক্রয় করেন। দোকানটিতে তিনি শার্ট-প্যান্টের ব্যবসায় করার জন্য সব শাড়ি-কাপড় ৫০% ডিসকাউন্টে বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেন। এ জন্য তিনি ৫০% ডিসকাউন্টে সব ধরনের শাড়ির মূল্য উল্লেখপূর্বক লিফলেট তৈরি করে আশপাশের এলাকায় বিতরণ করেন। এতে তার দোকানের পুরনো মালগুলো দ্রæত বিক্রি হয়ে যায় এবং তার দোকানের নতুন পণ্য সম্পর্কেও সবাই জানতে পারে। পরে তিনি বিক্রয়কর্মীর দক্ষতা বৃদ্ধি ও তাদের আচরণ উন্নত করতে সচেষ্ট হোন এবং সফল হোন।
ক. পণ্য প্রচারে গতিশীলতা আনে কোনটি? ১
খ. স্বত্বগত উপযোগ সৃষ্টির প্রক্রিয়া ব্যাখ্যা কর। ২
গ. জনাব স্বপন বিপণন প্রসারে প্রথম কোন কৌশলটি প্রয়োগ করেছেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. জনাব স্বপন পরবর্তীতে বিপণন প্রসারের যে কৌশলটির প্রতি গুরুত্বারোপ করেছেন তার যথার্থতা মূল্যায়ন কর। ৪
 ১২নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. পণ্য প্রচারে গতিশীলতা আনে বিজ্ঞাপন।
খ. বিপণনের অন্যতম কাজ হলো ক্রয়। নিজের ব্যবহারের জন্য বা পুনরায় বিক্রয়ের জন্য পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী ক্রয় করতে হয়। পণ্য ক্রয়ের মাধ্যমে মালিকানা সৃষ্টি হয়। আর বিক্রয়ের মাধ্যমে পণ্যের মালিকানা হস্তান্তর হয়। সুতরাং পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রীর ক্রয়-বিক্রয়ের মাধ্যমে তাদের স্বত্বগত উপযোগ সৃষ্টি করা হয়।
গ. জনাব স্বপন বিপণন প্রসারে প্রথমে বিজ্ঞাপন কৌশলটি প্রয়োগ করেছেন।
বিজ্ঞাপন হচ্ছে পণ্য বা সেবা সামগ্রীর প্রতি জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য একটি উপায় বা কৌশল। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে খুব সহজেই ক্রেতাসাধারণকে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়। উদ্দীপকে জনাব স্বপন তার দোকানের পুরনো মাল শাড়ি-কাপড় দ্রæত বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ডিসকাউন্ট মূল্য উল্লেখপূর্বক লিফলেট বিতরণ করেছেন। আর লিফলেট হলো একটি বিজ্ঞাপন মাধ্যম। এর মাধ্যমে তিনি জনগণকে কম মূল্যে তার দোকান থেকে শাড়ি-কাপড় ক্রয় করতে উদ্বুদ্ধ করেছেন। লিফলেট বিতরণের কারণেই জনগণ জানতে পেরেছে যে তার দোকানে কম মূল্যে শাড়ি-কাপড় পাওয়া যাচ্ছে এবং তারা ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ হয়েছে। এতে জনাব স্বপনের ক্রেতা আকৃষ্ট করার উদ্দেশ্যটি সফল হয়েছে এবং তার বিক্রয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে।
ঘ. জনাব স্বপন পরবর্তীতে বিপণন প্রসারে আদর্শ বিক্রয়কর্মী তৈরির প্রতি গুরুত্বারোপ করেছেন।
বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক ব্যবসায়-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিক্রয় প্রসার ও সফলতা অর্জনে আদর্শ বিক্রয়কর্মীর ভ‚মিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অনেক ক্ষেত্রে ব্যবসায়ের সফলতা ও ব্যর্থতা একজন বিক্রয়কর্মী দ্বারা প্রভাবিত হয়। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী সহজে ক্রেতা ও ভোক্তাদের আকৃষ্ট ও প্রভাবিত করে স্থায়ী গ্রাহকে পরিণত করতে পারে। উদ্দীপকে জনাব স্বপন বিজ্ঞাপন কৌশল প্রয়োগ করে সফলতা লাভ করার পর বিক্রয়কর্মীর দক্ষতা ও তাদের আচরণ উন্নয়নের ওপর জোর দিয়েছেন। আদর্শ বিক্রয়কর্মীর মাধ্যমে ক্রেতাদের সরাসরি প্রভাবিত করা যায়, সম্ভাব্য ক্রেতাকে স্থায়ী ক্রেতায় পরিণত করা যায়। ফলে পণ্যের চাহিদা সৃষ্টি হয় এবং দিন দিন তা বৃদ্ধি পেতে থাকে। চাহিদা বৃদ্ধি পেলে উৎপাদনের পরিমাণও বৃদ্ধি পায়। ফলে উৎপাদন ব্যয় হ্রাস পায়। এতে জনগণ কম মূল্যে পণ্য ভোগ বা ব্যবহার করার সুযোগ পায়। তাছাড়া আদর্শ বিক্রয়কর্মী ভোক্তাদের সাথে আন্তরিকভাবে মিশে তাদের চাহিদা, রুচি, অভ্যাস ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করে সেই তথ্য অনুযায়ী পণ্য উৎপাদন করলে স্বাভাবিকভাবেই বিক্রয় বেড়ে যায়।
সুতরাং, ক্রেতাদের ক্রয়ে উৎসাহিত করে বিপণন প্রসারের জন্য তিনি যে আদর্শ বিক্রয়কর্মী তৈরির প্রতি গুরুত্ব দিয়েছেন তা যথার্থ।
প্রশ্ন-১৩  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
বাবুল একজন মুদি দোকানদার। তার দোকানে এলাকার বেশিরভাগ লোক তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে আসে। বাবুল তাদের সাথে সুন্দর হাসি দিয়ে কথা বলে। সে সবার সাথে ভালো আচরণ করে। তার সততা, বিশ্বস্ততা ও হিসাবে পারদর্শিতার মতো গুণাবলি অধিক ক্রেতা সৃষ্টিতে তাকে সাহায্য করেছে।
ক. পণ্য সামগ্রীকে আকর্ষণীয় করে কোনটি? ১
খ. বিজ্ঞাপন ও বিক্রয়িকতার মধ্যে পার্থক্য লেখ। ২
গ. বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে উদ্দীপকের বিষয়টি কেন প্রয়োজন? ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. বাবুল কি একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী? তোমার মতামত দাও। ৪
 ১৩নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. পণ্যসামগ্রীকে আকর্ষণীয় করে মোড়কীকরণ।
খ. বিজ্ঞাপন ও বিক্রয়িকতা উভয় বিপণন প্রসারের কৌশল তবে এদের মধ্যে বৈশিষ্ট্যগত পার্থক্য বিদ্যমান। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সরাসরি ভোক্তার নিকট উপস্থিত না হয়েও পণ্য বা সেবা বিক্রি করা যায়। অন্যদিকে, বিক্রয়িকতায় বিক্রেতাকে সরাসরি ভোক্তার নিকট উপস্থিত হয়ে পণ্য বা সেবা বিক্রি করতে হয়। বিজ্ঞাপন একটি একমুখী যোগাযোগ প্রক্রিয়া কিন্তু বিক্রয়িকতা দ্বিমুখী যোগাযোগ প্রক্রিয়া।
গ. উদ্দীপকে বিক্রয়িকতার ধারণাটি তুলে ধরা হয়েছে। বিক্রয়িকতা বলতে বিক্রয়কর্মীর ক্রেতা আকর্ষণ করার কৌশল। বা দক্ষতাকে বোঝায় যার মাধ্যমে সে সম্ভাব্য ক্রেতার নিকট পণ্য বা সেবা সামগ্রী বিক্রয় করতে সক্ষম হয়। বিক্রয়িকতার মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করলে প্রমোশন খরচ হ্রাস পায়। বিক্রয়িকতার মাধ্যমে একজন বিক্রয়কর্মী প্রতিযোগী পণ্যের তুলনায় নিজের পণ্যের গুণাবলি, কার্যকারিতা ও শ্রেষ্ঠত্ব অধিকতর আকর্ষণীয় করে তুলে ধরতে পারেন। বিক্রেতা বা বিক্রয়কর্মী তার চারিত্রিক গুণাবলি দিয়ে মুগ্ধ করে নতুন নতুন ক্রেতা সৃষ্টির মাধ্যমে পণ্যের বাজার স¤প্রসারণ করতে পারেন। এছাড়া আধুনিক, রুচিশীল, সুন্দর ও যোগ্য বিক্রয়কর্মী প্রতিষ্ঠানের উজ্জ্বল ভাবমূর্তির প্রতীক। অতএব বলা যায় যে ব্যক্তিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বিক্রয়িকতার ভ‚মিকা ব্যাপক এবং তাৎপর্যপূর্ণ।
ঘ. বাবুল একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী বলে আমি মনে করি।
বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক ব্যবসায়-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিক্রয় প্রসার ও সফলতা অর্জনের আদর্শ বিক্রয়কর্মীর ভ‚মিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অনেক ক্ষেত্রে ব্যবসায়ের সফলতা ও ব্যর্থতা একজন বিক্রয়কর্মী দ্বারা প্রভাবিত হয়। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী সহজে ক্রেতা ও ভোক্তাদের আকৃষ্ট ও প্রভাবিত করে স্থায়ী গ্রাহকে পরিণত করতে পারে। উদ্দীপকে বাবুলের হাসিমাখা মুখ ক্রেতাকে পণ্য ক্রয়ে বাড়তি অনুপ্রেরণা দেয়। কাজের প্রতি তার আগ্রহ ও আন্তরিকতা ব্যবসায়ের সুনাম বৃদ্ধি করে। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী হিসেবে সে ধৈর্য্যরে সাথে ক্রেতার চাহিদা জানতে চেষ্টা করে এবং সে অনুযায়ী পণ্য সরবরাহ করে। তাই তার দোকানে সব সময় ক্রেতাদের ভিড় থাকে। ক্রেতাকে স্থায়ী গ্রাহকে পরিণত করার জন্য সে কাজে এবং গ্রাহকদের সাথে লেনদেনে সততা ও ও বিশ্বস্ততার পরিচয় দেয়। একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মীর মতো সে পণ্যের মূল্য নির্ধারণ এবং হিসাবরক্ষণের কৌশল সম্পর্কে প্রয়োজনীয় জ্ঞান রাখে। তাছাড়া সে ভদ্র, নম্র, বিনয়ী ও মার্জিত ব্যবহারের অধিকারী। ক্রেতার আগ্রহ, চাহিদা, মনোভাব ও আচরণ বুঝে পরিস্থিতি মোকাবিলা করার মতো তীক্ষè বুদ্ধিমত্তা তার আছে।
সুতরাং, ক্রেতা আকর্ষণে সক্ষম বাবুল অবশ্যই একজন আদর্শ বিক্রয়কর্মী।

প্রশ্ন-১৪  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
জামাল সাহেব মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিরে অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকার ধানমন্ডিতে ‘মিলা ফ্যাশন’ নামে একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি সঠিকভাবে পণ্যমান সংরক্ষণ করেন এবং সর্বোত্তম ভোক্তা সেবাপ্রদান করলেও তেমন বিক্রি হচ্ছে না। তাই তিনি কীভাবে ক্রেতাদের তার পণ্য সম্পর্কে বেশি বেশি ধারণা দেয়া যায় তা নিয়ে ভাবছেন।
ক. বিক্রয় প্রসার কাকে বলে? ১
খ. বিজ্ঞাপনে সর্বাধিক প্রচারিত মাধ্যম কী? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. সর্বোত্তম সেবা প্রদানের পরও জামাল সাহেবের বিক্রয় না বাড়ার কারণ বর্ণনা কর। ৩
ঘ. বিক্রয় বৃদ্ধিতে জামাল সাহেব বিজ্ঞাপনের কোন মাধ্যমটি ব্যবহার করতে পারেন? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১৪নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. পণ্য বা সেবার বিক্রয় বাড়ানোর জন্য যে স্বল্পমেয়াদি কৌশল গ্রহণ করা হয় তাকে বিক্রয় প্রসার বলে।
খ. বিজ্ঞাপনের সর্বাধিক প্রচলিত মাধ্যম হলো সংবাদপত্র। সকল ধরনের দ্রব্য ও সেবাদির প্রচারে সংবাদপত্র একটি স্বল্প ব্যয় সাপেক্ষ অথচ দ্রæত দূর-দূরান্তের জনগণের নিকট বার্তা পৌঁছনোর সহজ মাধ্যম। এটি অত্যন্ত নমনীয় অর্থাৎ কম খরচে, সহজেই এর বিষয়বস্তু প্রয়োজন অনুযায়ী পরিবর্তন করা যায়। বিশ্বের আপামর জনগণের কাছে পণ্য ও সেবা প্রচার করার এটি অতি জনপ্রিয় মাধ্যম।
গ. বিজ্ঞাপন না দেওয়ার কারণে সর্বোত্তম সেবা প্রদানের পরও জামাল সাহেব বিক্রয় বাড়াতে পারেননি।
বিজ্ঞাপন এমন একটি ব্যবস্থা যার মাধ্যমে সম্ভাব্য ক্রেতাদের পণ্য, বা সেবা সম্পর্কে অবহিত করা হয়। ফলে ভোক্তারা একটি পণ্যের গুণাগুণ, ব্যবহার, উপযোগিতা, দাম, প্রাপ্তি স্থান প্রভৃতি সম্পর্কে জানতে পারে। পরবর্তীতে তারা তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী ঐসব পণ্য বা সেবা ক্রয় করে। উদ্দীপকে জামাল সাহেব মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিরে ‘মিলা ফ্যাশন’ নামে একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি সঠিকভাবে পণ্যমান সংরক্ষণ করেন এবং সর্বোত্তম ভোক্তা সেবা প্রদান করেন। কিন্তু জামাল সাহেব তার দোকানের পণ্যের জন্য বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা করেননি। তাই সম্ভাব্য ক্রেতারা পণ্য ও সেবা সম্পর্কে জানতে না পারায় ঐ পণ্যটি ক্রয় করেননি। তাই জামাল সাহেব কঠোর পরিশ্রম ও সর্বোত্তম সেবা প্রদানের পরও বিক্রয় বৃদ্ধি করতে পারেননি। অর্থাৎ বিজ্ঞাপন প্রদান না করার কারণেই জামাল সাহেব তার দোকানের বিক্রয় বৃদ্ধি করতে ব্যর্থ হয়েছেন।
ঘ. বিক্রয় বৃদ্ধিতে জামাল সাহেব বিজ্ঞাপনের মাধ্যম হিসেবে সাময়িকী ব্যবহার করতে পারেন।
বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে খুব সহজেই ক্রেতা সাধারণকে পণ্য ক্রয় উদ্বুদ্ধ করা যায়। পণ্যের বিজ্ঞাপনের জন্য বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করা যায়। তবে সব ধরনের মাধ্যম সব ধরনের পণ্যের জন্য উপযোগী নয়। উদ্দীপকে জামাল সাহেবের প্রতিষ্ঠানটি একটি ফ্যাশন হাউজ। তার পণ্যের গ্রাহক মূলত উচ্চবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ। তাদের সময়, সুযোগ, ব্যবহার প্রভৃতি বিবেচনা করে সর্বাধিক প্রচারিত সংবাদ মাধ্যমের সাপ্তাহিক সাময়িকীতে বিজ্ঞাপন প্রদান অধিক উপযোগী। কারণ বিজ্ঞাপনের অন্যান্য প্রচলিত মাধ্যম বিবেচনা করলে দেখা যায়, সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপনের আবেদন অত্যন্ত ক্ষণস্থায়ী। আবার টেলিভিশনের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন অত্যন্ত ব্যয়বহুল। এজন্য বিজ্ঞাপনের ব্যয়, ক্রেতার অবস্থান, আবেদনের স্থায়িত্ব, বাজার প্রকৃতি প্রভৃতি বিবেচনা করে জামাল সাহেব ঢাকার ধানমন্ডিতে তার ‘মিলা ফ্যাশন’ শপের জন্য বিজ্ঞাপনের মাধ্যম হিসেবে সাপ্তাহিক সাময়িকী ব্যবহারই অধিক যুক্তিযুক্ত হবে।

 জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ বিপণনের অপর নাম কী?
উত্তর : বিপণনের অপর নাম বাজারজাতকরণ।
প্রশ্ন \ ২ \ কার্যকর বিপণন কিসে সহায়তা করে?
উত্তর : কার্যকর বিপণন উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।
প্রশ্ন \ ৩ \ বিপণনের কোন পর্যায়ে পণ্য সামগ্রী সংরক্ষণের প্রয়োজন হয়?
উত্তর : বিপণনের সকল পর্যায়ে পণ্য সামগ্রী সংরক্ষণের প্রয়োজন হয়।
প্রশ্ন \ ৪ \ ক্রয় কী?
উত্তর : ক্রয় হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে অর্থের বিনিময়ে বিক্রেতার নিকট থেকে ক্রেতার নিকট পণ্যের মালিকানা হস্তান্তরিত হয়।
প্রশ্ন \ ৫ \ পরিবহনের কাজ কী?
উত্তর : পরিবহন পণ্য বা সেবার স্থানগত উপযোগ ও চাহিদা সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখে।
প্রশ্ন \ ৬ \ কোনটি বিক্রয় কার্যে গতিশীলতা বৃদ্ধি করে?
উত্তর : প্রমিতকরণ বিক্রয় কার্যে গতিশীলতা বৃদ্ধি করে।
প্রশ্ন \ ৭ \ উৎপাদনকারী এবং ভোক্তার মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করে কে?
উত্তর : উৎপাদনকারী এবং ভোক্তার মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করে মধ্যস্থ ব্যবসায়ীগণ।
প্রশ্ন \ ৮ \ ভোক্তা বিশ্লেষণ কী?
উত্তর : ভোক্তা বা ব্যবহারকারীদের রুচি, পছন্দ, চাহিদা, বৈশিষ্ট্য এবং আগ্রহ বিশ্লেষণ ও মূল্যায়ন করাকে ভোক্তা বিশ্লেষণ বলে।
প্রশ্ন \ ৯ \ কিসের মাধ্যমে পণ্যের সময়গত উপযোগ সৃষ্টি হয়?
উত্তর : গুদামজাতকরণের মাধ্যমে পণ্যের সময়গত উপযোগ সৃষ্টি হয়।
প্রশ্ন \ ১০ \ বণ্টন প্রণালিতে কারা অবস্থান করে?
উত্তর : বণ্টন প্রণালিতে ব্যবসায়ী হিসেবে পাইকার, প্রতিনিধি বা এজেন্ট এবং খুচরা ব্যবসায়ীরা অবস্থান করে।
প্রশ্ন \ ১১ \ মধ্যস্থ ব্যবসায়ীকে সেতুবন্ধক বলা হয় কেন?
উত্তর : মধ্যস্থ ব্যবসায়ীরা উৎপাদক ও ভোক্তার মধ্যে অবস্থান করে বলে তাদেরকে সেতুবন্ধক বলা হয়।
প্রশ্ন \ ১২ \ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে কোন কাজটি সহজ হয়?
উত্তর : বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে খুব সহজেই ক্রেতাসাধারণকে পণ্য বা সেবা ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়।
প্রশ্ন \ ১৩ \ কীসের মাধ্যমে ক্রেতাকে খুব সহজে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়?
উত্তর : বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ক্রেতাকে খুব সহজে পণ্য ক্রয়ে উদ্বুদ্ধ করা যায়।
প্রশ্ন \ ১৪ \ ক্যালেন্ডার কোন ধরনের বিজ্ঞাপন?
উত্তর : ক্যালেন্ডার একটি লিফলেট জাতীয় বিজ্ঞাপন।
প্রশ্ন \ ১৫ \ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে নির্বাচনের বিবেচ্য বিষয় কী?
উত্তর : পণ্যের চাহিদা, গুণাগুণ, মূল্য ও ক্রেতাদের সার্বিক অবস্থা বিজ্ঞাপনের মাধ্যম নির্বাচনের অন্যতম বিবেচ্য বিষয়।
প্রশ্ন \ ১৬ \ পাক্ষিক পত্রিকা কোন ধরনের বিজ্ঞাপন মাধ্যম?
উত্তর : পাক্ষিক পত্রিকা একটি সাময়িকী বিজ্ঞাপন মাধ্যম।
প্রশ্ন \ ১৭ \ ‘স্বদেশি পণ্য কিনে হও ধন্য’- এটি কী?
উত্তর : ‘স্বদেশি পণ্য কিনে হও ধন্য’ একটি বিজ্ঞাপনী সেøাগান।
প্রশ্ন \ ১৮ \ বিক্রয়কর্মী দ্বারা কী প্রভাবিত হয়?
উত্তর : ব্যবসায়ের সফলতা ও ব্যর্থতা একজন বিক্রয়কর্মী দ্বারা প্রভাবিত হয়।

 অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ বিপণন বলতে কী বোঝ?
উত্তর : সাধারণ অর্থে পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী ক্রয়-বিক্রয়ের কাজকে বিপণন বলে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে বিপণনের ধারণা আরও অনেক ব্যাপক। ব্যাপক অর্থে পণ্য দ্রব্য বা সেবাসামগ্রী উৎপাদনকারী থেকে ভোক্তা বা ব্যবহারকারীর নিকট পৌঁছে দেওয়া পর্যন্ত সকল কাজকে বিপণন বা বাজারজাতকরণ বলে। অর্থাৎ ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন, গুদামজাতকরণ, প্রমিতকরণ, পর্যায়িতকরণসহ যাবতীয় কাজের সমষ্টি হলো বিপণন।
প্রশ্ন \ ২ \ বাজারজাতকরণ কার্যাবলি বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : বাজারজাতকরণ কার্যাবলি বলতে উৎপাদনস্থল থেকে দ্রব্যসামগ্রী ভোক্তার কাছে পৌঁছে দেওয়ার যাবতীয় কাজকে বোঝায়। বর্তমান বৃহদায়তন উৎপাদনের যুগে পণ্যসামগ্রী উৎপাদনস্থল থেকে বিভিন্ন স্থানে অবস্থানকারী ভোক্তার নিকট তাদের চাহিদা অনুযায়ী পৌঁছানোর জন্য যেসব কাজ সম্পাদনের প্রয়োজন হয় তা বাজারজাতকরণ কার্যাবলি নামে অভিহিত। যেমন : ক্রয়Ñবিক্রয়, পরিবহন, গুদামজাতকরণ, প্রমিতকরণ, পর্যায়িতকরণ, তথ্য সংগ্রহ, ভোক্তা বিশ্লেষণ প্রভৃতি।
প্রশ্ন \ ৩ \ মোড়কিকরণের প্রয়োজনীয়তা বুঝিয়ে লেখ।
উত্তর : পণ্য আকর্ষণীয় করে ক্রেতা ও ভোক্তার নিকট তুলে ধরতে মোড়কিকরণ প্রয়োজন। তাছাড়া মোড়কের গায়ে পণ্যসম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যেমন : উৎপাদন তারিখ, পণ্যের উপকরণের পরিমাণ, ব্যবহারবিধি প্রভৃতি দেওয়া থাকে, যা সহজেই ভোক্তার কাছে পণ্যকে জনপ্রিয় করে তুলতে পারে। মোড়কিকরণ পণ্যকে নষ্ট হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে, পণ্য ভাঙা বা যে কোনো প্রকার ক্ষতি হতে রক্ষার জন্য এবং ক্রেতার নিকট গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধিতে মোড়কিকরণ গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখে।
প্রশ্ন \ ৪ \ বিপণনের যে কোনো দুটি কার্যাবলি ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : বিপণনের বিভিন্ন কাজের মধ্যে ক্রয় এবং বিক্রয় অন্যতম। নিচে এই কাজ দুটি সংক্ষেপে বর্ণনা করা হলো :
ক্রয় : ক্রয় বিপণনের অন্যতম কাজ। নিজস্ব ব্যবহার বা পুনরায় বিক্রয়ের জন্য পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী ক্রয় করতে হয়। পণ্যদ্রব্য বা সেবাসামগ্রী ক্রয়ের মাধ্যমে পণ্যের মালিকানা সৃষ্টি হয়।
বিক্রয় : বিপণনের একটি আবশ্যকীয় কাজ হচ্ছে পণ্যের ক্রেতা ও বিক্রেতাকে একত্রিত করা। বিক্রয়ের মাধ্যমে পণ্যের মালিকানা হস্তান্তর হয়।
প্রশ্ন \ ৫ \ বণ্টন প্রণালি বলতে কী বোঝ?
উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় পণ্য বা সেবা উৎপাদনকারী থেকে প্রকৃত ভোক্তা বা ব্যবহারকারীর নিকট পৌঁছে তাকে বণ্টন প্রণালি বলে। এটি এমন একটি পথ যা দিয়ে পণ্য বা সেবার মালিকানা ভোক্তার নিকট পৌঁছায়। পণ্য ও সেবার ধরন ও বৈশিষ্ট্যের ওপর ভিত্তি করে পণ্যের বণ্টন প্রণালি নির্ধারণ করা হয়।
প্রশ্ন \ ৬ \ বিজ্ঞাপনের গুরুত্ব সংক্ষিপ্তভাবে তুলে ধর।
উত্তর : বর্তমানে বিজ্ঞাপন খুবই কার্যকর মাধ্যম। নিচে সংক্ষেপে বিজ্ঞাপনের গুরুত্ব তুলে ধরা হলো :
বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে পণ্যের মান, মূল্য ও ব্যবহারবিধি ক্রেতা ও জনসাধারণের কাছে তুলে ধরা হয়। ফলে চাহিদা বৃদ্ধি পায়, উৎপাদন ও বিক্রয়ের পরিমাণ বাড়ে এবং মুনাফা বৃদ্ধি পায়।
বিজ্ঞাপন পণ্যের প্রচারে গতিশীলতা আনে।
বিজ্ঞাপন জনসাধারণের জাতীয়তাবোধ জাগ্রত করে দেশীয় পণ্য ব্যবহার ও ক্রয়ে ভ‚মিকা রাখে।
প্রশ্ন \ ৭ \ বিজ্ঞাপনের মাধ্যম বলতে কী বোঝ?
উত্তর : যে মাধ্যম ব্যবহার করে একজন ব্যবসায়ী তার পণ্য বা সেবাসামগ্রীর বিজ্ঞাপন প্রদান করেন, তাকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যম বলে। বিজ্ঞাপনের বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে। সব ধরনের ব্যবসায়ের জন্য কিংবা সব ধরনের পণ্যের একই বিজ্ঞাপন মাধ্যম ব্যবহার করা হয় না। পণ্যের চাহিদা, গুণাগুণ, মূল্য ও ক্রেতাদের কথা বিবেচনা করে বিজ্ঞাপনের মাধ্যম নির্বাচন করতে হয়। সংবাদপত্র সাময়িকী, প্রচারপত্র, বিজ্ঞাপনী ফলক, প্রাচীরপত্র, টেলিভিশন, রেডিও, চলচ্চিত্র, পণ্যসজ্জা, মেলা বা প্রদর্শনী প্রভৃতি বিজ্ঞাপনের মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত হয়।

 

প্রিয় জনের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply