এইচএসসি ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং পঞ্চম অধ্যায় স্বল্প ও মধ্যমেয়াদি অর্থায়ন সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

অধ্যায়-৫: স্বল্প ও মধ্যমেয়াদি অর্থায়ন

গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

মমমপ্রশ্ন„১ বিডি ফুডস লি. প্রক্রিয়াজাত খাদ্য সামগ্রী বাজারজাত করে। বাজারে বার্ষিক চাহিদা ১,২০,০০০ প্যাকেট এবং প্রতি প্যাকেটের ক্রয়মূল্য ২২ টাকা। ফরমায়েশ প্রতি ব্যয় ৮০ টাকা। বহন খরচ প্রতি একক পণ্য ২ টাকা। ক্রয়াদেশ প্রদানের পর গুদামে পণ্য পৌঁছাতে ৪ দিন সময় লাগে। কোম্পানি তাৎক্ষণিক ক্রেতা চাহিদা মেটাতে ১,২০০ প্যাকেট পণ্য মজুদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কোম্পানির মোট কার্য দিবস ৩০০ দিন। মজুদ ব্যবস্থাপক ২,০০০ প্যাকেট পণ্য মজুদ থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ প্রদান করেন। [ঢা. বো. ১৭]
অ ক. স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়ন কী? ১
অ খ. ঋণ রেখা ও ঘূর্ণায়মান ঋণের মধ্যে পার্থক্য করো। ২
অ গ. বিডি ফুডস লি. এর বার্ষিক মজুদ ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে মজুদ ব্যবস্থাপকের পুনঃফরমায়েশের সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা গাণিতিকভাবে মূল্যায়ন করো। ৪
১ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক ধারে ক্রয়, বকেয়া খরচ ও ক্রেতা হতে অগ্রিম গ্রহণের মাধ্যমে ব্যবসায়ের অর্থায়ন করাকে স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়ন বলে।
মখ ঋণ রেখা ও ঘূর্ণায়মান ঋণ উভয়ই জামানতবিহীন ব্যাংক ঋণ। তথাপি উভয়ের মধ্যকার উলে­খযোগ্য পার্থক্য নিæে ছকে দেয়া হলো:
পাথর্ক্যরে বিষয় ঋণ রেখা ঘূর্ণায়মান ঋণ
ঋণের মেয়াদ সাধারণত ১ বছর হয়ে থাকে। ১ বছর বা তার বেশি সময়ের জন্য হয়ে থাকে।
চুক্তির ধরন এটি একটি অনানুষ্ঠানিক চুক্তি। এটি একটি আনুষ্ঠানিক চুক্তি।
অর্থ উত্তোলন এরূপ ঋণের অর্থ এককালীন উত্তোলন করতে হয়। এরূপ ঋণের অর্থ ভেঙ্গে ভেঙ্গে উত্তোলন করা যায়।
মগ বিডি ফুডস লি.-এর বার্ষিক মজুদ ব্যয় নির্ণয়:
দেয়া আছে,
বার্ষিক চাহিদা (অ) = ১,২০,০০০ প্যাকেট
ফরমায়েশ প্রতি ব্যয় (ঙ) = ৮০ টাকা
বহন ব্যয় (ঈ) = ২ টাকা
আমরা জানি,
মিতব্যয়ী ফরমায়েশের পরিমাণ (ঊঙছ) = ২অঙঈ
= ২ – ১২০০০০ – ৮০২
= ১৯২০০০০০২
= ৯৬০০০০০
= ৩,০৯৮.৩৯
মোট মজুদ ব্যয় = অঊঙছ  ঙ + ঊঙছ২  ঈ
= ১২০০০০৩০৯৮.৩৯ – ৮০ + ৩০৯৮.৩৯২ – ২
= (৩,০৯৮.৩৮ + ৩,০৯৮.৩৯)
= ৬,১৯৬.৭৭ টাকা
উত্তর: ৬,১৯৬.৭৭ টাকা।
মঘ উদ্দীপকে মজুদ ব্যবস্থাপকের পুনঃফরমায়েশের যৌক্তিকতা মূল্যায়ন:
দেয়া আছে,
ক্রয়াদেশ প্রদানের পর গুদামে পণ্য পৌঁছাতে সময় লাগে (লিড টাইম)
= ৪ দিন
নিরাপত্তা মজুদ = ১,২০০ প্যাকেট
কোম্পানির মোট কার্য দিবস = ৩০০ দিন
বার্ষিক চাহিদা = ১,২০,০০০ প্যাকেট
 দৈনিক গড়ে মজুদ ব্যবহার = বার্ষিক চাহিদাকার্য দিবস = ১২০০০০৩০০
= ৪০০ দিন
 পুনঃফরমাএয়শ ’¦র = নিরাপল্ফা মজুদ + (লিড টাইম – ৗদনিক গড় মজুদ বঞ্ঝবহার)
= ১,২০০ + (৪ ূ ৪০০) প্যাকেট
= ১,২০০ + ১৬০০ প্যাকেট
= ২,৮০০ প্যাকেট
উদ্দীপকে মজুদ ব্যবস্থাপকের পুনঃফরমায়েশ স্তর ২,৮০০ প্যাকেট কিন্তু তিনি ২,০০০ প্যাকেটকে পুনঃফরমায়েশ স্তর হিসেবে গ্রহণ করেছেন যা প্রকৃত পুনঃফরমায়েশ স্তরের চাইতে কম। তাই তার সিদ্ধান্তটি যৌক্তিক নয়।

মমমপ্রশ্ন„২ জনাব এমরান একজন কাপড় ব্যবসায়ী। শীত মৌসুমের প্রাক্কালে তিনি ঢাকার জেসিকো গার্মেন্টস থেকে বাকিতে ১০ লক্ষ টাকার গরম কাপড় ক্রয় করেন। এক্ষেত্রে বাকির শর্ত হচ্ছে ৪/১০, নিট ৩০। [রা. বো. ১৭]
অ ক. ব্যবসায় ঋণ কাকে বলে? ১
অ খ. কেন চলতি মূলধন কাম্যস্তরে রাখা একজন আর্থিক ব্যবস্থাপকের অন্যতম দায়িত্ব? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. জনাব এমরান জেসিকো গার্মেন্টস-এর ধার ৩০তম দিনে পরিশোধ করলে জনাব এমরানের ব্যবসায় ঋণের ব্যয় কত হবে? ৩
অ ঘ. জনাব এমরান সর্বোচ্চ কতদিনের মধ্যে ধার পরিশোধ করলে মোট ধারের অর্থ অপেক্ষা কম পরিশোধ করতে হবে এবং কত কম পরিশোধ করতে হবে? ৪
২ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক পুনরায় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে বাকিতে পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের মাধ্যমে সৃষ্ট ঋণকে ব্যবসায় ঋণ বলে।
খ তারল্য মুনাফার মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য চলতি মূলধন কাম্যস্তরে রাখা একজন আর্থিক ব্যবস্থাপকের অন্যতম দায়িত্ব।
চলতি মূলধন ব্যবস্থাপনায় রক্ষণশীল নীতি অনুসরণ করলে তারল্য বেশ ভালো অবস্থানে থাকলেও মুনাফা অর্জন হ্রাস পাবে। অন্যদিকে কঠোর নীতির অনুসরণ মুনাফালভ্যতাকে বৃদ্ধি করলেও সেটা তারল্যকে হ্রাস করবে। কেবল সমন্বয় নীতির মাধ্যমে চলতি মূলধন কাম্যস্তরে রাখলে তারল্য ও মুনাফার মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করা সম্ভব। তাই চলতি মূলধন কাম্যস্তরে রাখা আর্থিক ব্যবস্থাপকের একটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব।
সহায়ক তথ্য
চলতি মূলধন : চলতি সম্পদ ও চলতি দায়ের পার্থক্যই চলতি মূলধন।
রক্ষণশীল নীতি : স্থায়ী সম্পদ, স্থায়ী চলতি সম্পদ এবং পরিবর্তনশীল চলতি সম্পদের অংশ বিশেষ দীর্ঘমেয়াদি উৎস হতে অর্থায়ন করা।
কঠোর নীতি : পরিবর্তনশীল চলতি মূলধনের সবটুকু এবং স্থায়ী চলতি মূলধনের একটি অংশ স্বল্পমেয়াদি উৎস হতে সংগ্রহ করা।
সমন্বয় নীতি : স্থায়ী সম্পদ ও স্থায়ী চলতি সম্পদ দীর্ঘমেয়াদি উৎস হতে এবং পরিবর্তনশীল চলতি সম্পদ স্বল্পমেয়াদি উৎস হতে অর্থায়ন করা।
গ দেয়া আছে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ৪%
নগদ বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১০ দিন
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৩০ দিন
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ঈউজ১০০  ঈউজ  ৩৬০ঈচ  উচ  ১০০
= ৪১০০  ৪  ৩৬০৩০  ১০  ১০০
= ৪৯৬  ১৮  ১০০
= ৭৫%
অতএব, জনাব এমরান জেসিকো গারমেন্টস-এর ধার ৩০ তম দিনে পরিশোধ করলে তার ব্যবসায় ঋণের ব্যয় হবে ৭৫%।
উত্তর : ৭৫%।
ঘ জনাব এমরান সর্বোচ্চ ১০ দিনের মধ্যে ধার পরিশোধ করলে মোট ধারের অর্থ অপেক্ষা কম পরিশোধ করতে হবে কারণ এক্ষেত্রে তিনি নগদ বাট্টার সুযোগ পাবেন।
জনাব এমরান নগদ বাট্টার সুযোগ গ্রহণ করলে তাকে মোট মূল্যের ৪%, অর্থাৎ (১০,০০,০০০  ৪%) = ৪০,০০০ টাকা কম পরিশোধ করতে হবে।
সহায়ক তথ্য
নগদ বাট্টা : বাকিতে বিক্রীত পণ্যের মূল্য বা পাওনা টাকা যথাসময়ে আদায়ের জন্য ক্রেতা বা দেনাদারকে যে ছাড় বা উরংপড়ঁহঃ দেয়া হয় তাকে নগদ বাট্টা বলে। যেমন: ‘২/১০’; ঘ/৩০ এর অর্থ হলো ধারে বিক্রয়ের প্রথম ১০ দিনের মধ্যে দেনাদার মূল্য পরিশোধ করলে ২% হারে বাট্টা বাবদ কম টাকা নেয়া হবে এবং ৩০ দিনের মধ্যে অবশ্যই সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

মমমপ্রশ্ন„৩ ইএঋ লি. বাজারে নতুন ব্র্যান্ডের পোশাক বাজারজাতকরণ করতে যাচ্ছে। সারা বছর তাদের ৬৪,০০০ একক পণ্যের প্রয়োজন হবে। প্রতি একক পণ্যের ক্রয়মূল্য ১,০০০ টাকা, প্রতি ফরমায়েশ ব্যয় ৫০০ টাকা, বহন ব্যয় ক্রয়মূল্যের ১% নিরাপত্তা মজুদ ৫০০ একক এবং সংগ্রহ সময় ৩ দিন। [দি. বো. ১৭]
অ ক. মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ (ঊঙছ) কী? ১
অ খ. ইএঋ লি.-এর মোট মজুদ ব্যয় কত হবে? ২
অ গ. উদ্দীপকের তথ্য অনুসারে ইএঋ লি.-এর পুনঃফরমায়েশ বিন্দু নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. যদি সংগ্রহ সময় ৩ দিনের স্থলে ৫ দিন হয় তাহলে মজুদ ব্যবস্থায় কী ধরনের সমস্যা হবে বলে তুমি মনে করো? ৪
৩ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক যে ফরমায়েশ পরিমাণে পণ্যের বহন ও ফরমায়েশ ব্যয় শূন্য তাকে মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ (ঊঙছ  ঊপড়হড়সরপ ঙৎফবৎ ছঁধহঃরঃু) বলে।
খ ইএঋ লি.-এর মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয়:
আমরা জানি,
মোট মজুদ ব্যয় = অঊঙছ  ঙ + ঊঙছ২  ঈ
এখানে,
ঊঙছ = ২অঙঈ = ২ – ৬৪০০০ – ৫০০১০০০ – ১% = ২৫৩০ একক
¯ মোট মজুদ ব্যয় = ৬৪০০০২৫৩০  ৫০০ + ২৫৩০২ ূ (১০০০ ূ ১%)
= ১২৬৪৮.২২ + ১২৬৫০
= ২৫,২৯৮.২২ টাকা
গ ইএঋ লি.-এর পুনঃফরমায়েশ বিন্দু নির্ণয়:
আমরা জানি,
পুনঃফরমাএয়শ ’¦র = নিরাপল্ফা মজুদ + (লিড টাইম – ৗদনিক গড় মজুদ বঞ্ঝবহার)
এখানে,
নিরাপত্তা মজুদ = ৫০০ একক
লিড টাইম = ৩ দিন
দৈনিক গড় মজুদ ব্যবহার = বার্ষিক চাহিদা৩৬০ = ৬৪০০০৩৬০ = ১৭৭.৭৭৭৮
¯ পুনঃফরমায়েশ বিন্দু = ৫০০ + (৩ ূ ১৭৭.৭৭৭৮)
= ৫০০ + ৫৩৩.৩৩
= ১০৩৩.৩৩ একক বা ১০৩৪ একক
¯ ইএঋ লি.-এর পুনঃফরমায়েশ বিন্দু ১০৩৪ একক।
উত্তর: ১০৩৪ একক।
ঘ সংগ্রহ সময় ৩ দিনের স্থলে ৫ দিন হলে পুনঃফরমায়েশ স্তর হবে;
আমরা জানি,
পুনঃফরমাএয়শ ’¦র = নিরাপল্ফা মজুদ + (লিড টাইম – ৗদনিক গড় মজুদ বঞ্ঝবহার)
এখানে,
নিরাপত্তা মজুদ = ৫০০ একক
লিড টাইম = ৫ দিন
দৈনিক গড় মজুদ ব্যবহার = ৬৪০০০৩৬০ = ১৭৭.৭৮
¯ পুনঃফরমায়েশ স্তর = ৫০০ + (৫ ূ ১৭৭.৭৮)
= ৫০০ + ৮৮৮.৯
= ১৩৮৮.৯ একক বা ১৩৮৯ একক
যদি সংগ্রহ সময় ৩ দিনের পরিবর্তে ৫ দিন হয়, তাহলে প্রতিষ্ঠানকে ১৩৮৯ একক পণ্য থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ করতে হবে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে ১০৩৪ একক থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ করছে। এর ফলে প্রতিষ্ঠানের ভোক্তাদের প্রত্যাশিত চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হবে। কেননা, নতুন ফরমায়েশ পৌঁছানো পর্যন্ত পণ্য দরকার ১৩৮৯ একক কিন্তু পণ্য সংরক্ষিত থাকছে ১০৩৪ একক। তাই পণ্যের সংকট দেখা দিতে পারে।

মমমপ্রশ্ন„৪ তুমি ঋঈ লি. নামক একটি ঔষধ কোম্পানির আর্থিক ব্যবস্থাপক। ব্যবসায়িক প্রয়োজনে তোমার কোম্পানি গই লি. এর নিকট হতে ২.৫/১৫ নিট ৬০ শর্তে ধারে কিছু পণ্য ক্রয় করেছে। তুমি বাট্টার সুযোগ গ্রহণ করার জন্য ব্যাংক হতে স্বল্পমেয়াদি ঋণ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছ। ব্যাংক ঋণের সুদের হার ১৮%। পরবর্তীতে গই লি. পণ্যের মূল পরিশোধের সময় ১০ দিন বৃদ্ধি করে। [দি. বো. ১৭]
অ ক. ব্যবসায় ঋণ কী? ১
অ খ. ব্যবসায় ঋণকে কেন স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়ন বলা হয়? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. উদ্দীপকে উলি­খিত তোমার কোম্পানি (ঋঈ লি.) এর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. পরিশোধ সময় পরিবর্তন তোমার ঋণ গ্রহণ সিদ্ধান্তকে কীভাবে প্রভাবিত করবে? যুক্তিসহ মতামত দাও। ৪
৪ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক ধারে পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের ফলে যে ঋণের সৃষ্টি হয় তাকে ব্যবসায় ঋণ বলে।
সহায়ক তথ্য
মি. আলিম, মি. সেলিমের কাছ থেকে ১০,০০০ টাকার পণ্য বাকিতে ক্রয় করে। এখানে মি. আলিমের ব্যবসায় ঋণ হলো ১০,০০০ টাকা।
খ ব্যবসায়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম হতে ব্যবসায় ঋণের সৃষ্টি হয় বিধায় একে স্বতঃস্ফুর্ত অর্থায়ন বলে।
বাকিতে ক্রয়-বিক্রয়ের মাধ্যমেই মূলত ব্যবসায় ঋণের সৃষ্টি করা ব্যবসায়ের একটি দৈনন্দিন বা স্বাভাবিক কার্যক্রম। এতে কোনোরূপ আনুষ্ঠানিকতা এবং জামানতের প্রয়োজন হয় না। এসকল কারণেই ব্যবসায় ঋণকে স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়ন বলা হয়।
গ ঋঈ লি. এর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয়:
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ঈউজ১০০ ­ ঈউজ ূ ৩৬০ঈচ ­ উচ ূ ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২.৫
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৬০
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১৫
¯ ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ২.৫১০০ ­ ২.৫ ূ ৩৬০৬০ ­ ১৫ ূ ১০০
= ২.৫৯৭.৫ ূ ৩৬০৪৫ ূ ১০০
= ২০.৫১%
¯ ঋঈ লি. কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ২০.৫১%।
উত্তর: ২০.৫১%।
ঘ পরিশোধ সময় পরিবর্তন করায় ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয়:
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ঈউজ১০০ ­ ঈউজ ূ ৩৬০ঈচ ­ উচ ূ ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২.৫০
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = (৬০ + ১০) = ৭০
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১৫
¯ ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ২.৫১০০ ­ ২.৫ ূ ৩৬০৭০ ­ ১৫ ূ ১০০
= ২.৫৯৭.৫ ূ ৩৬০৫৫ ূ ১০০
= ১৬.৭৮%
সুতরাং, ঋঈ লি.-এর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় পূর্বে ছিল ২০.৫১% এবং ব্যাংক ঋণের সুদের হার ১৮%। যেহেতু ব্যাংক ঋণে সুদের হার কম সেহেতু কোম্পানিটি তখন ব্যাংক ঋণ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।
পরিশোধ সময় পরিবর্তন করায় ঋঈ লি. এর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় দাঁড়ায় ১৬.৭৮%। অর্থাৎ ব্যাংক ঋণের সুদের হারের (১৮%) চেয়ে কম। তাই আমার কর্মরত কোম্পানিটি বর্তমানে ব্যাংক ঋণ গ্রহণ করবে না।

মমমপ্রশ্ন৫ অটল কোম্পানি এনার্জি লাইটের ব্যবসায় করে। প্রতি মাসে বিক্রয় হয় ৭০০টি লাইট। প্রতিটি লাইটের ক্রয়মূল্য ২,০০০ টাকা ও বহন ব্যয় ১ টাকা। অন্যদিকে, অধরা কোম্পানির বার্ষিক বিক্রয়ের পরিমাণ ১৫,০০০টি লাইট। তাদের ফরমায়েশ ও বহন ব্যয় যথাক্রমে ৫০ টাকা ও ৩ টাকা। [কু. বো. ১৭]
ক. স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন কী? ১
খ. নগদ চক্র বলতে কী বোঝ? ২
গ. অটল কোম্পানির মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ নির্ণয় করো। ৩
ঘ. ‘অটল কোম্পানির মোট মজুদ ব্যয় অধরা কোম্পানির তুলনায় বেশি’ এ বক্তব্যের যথার্থতা মূল্যায়ন করো। ৪
৫ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক এক বছর বা তার চেয়ে কম সময়ের জন্য যে অর্থায়ন করা হয় তাকে স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন বলে।
মখ পণ্য উৎপাদনের জন্য বাকিতে কাঁচামাল ক্রয়ের ফলে পাওনাদারদের পাওনা পরিশোধের সময় থেকে উৎপাদিত পণ্য ধারে বিক্রয়ের ফলে সৃষ্ট প্রাপ্য বিল আদায়ের সময়কে নগদ রূপান্তর চক্র বা নগদ চক্র বলে।
পণ্য উৎপাদনের জন্য বাকিতে কাঁচামাল ক্রয়ের ফলে পাওনাদার সৃষ্টি হয়। একইভাবে ধারে বা বাকিতে পণ্য বিক্রয়ের ফলে দেনাদার বা প্রাপ্য বিল সৃষ্টি হয়। বাকিতে কাঁচামাল ক্রয়ের ফলে পাওনাদারদের পাওনা পরিশোধের সময় নগদান চক্রের অন্তর্ভুক্ত।
মগ অটল কোম্পানির মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ নির্ণয়:
মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ, ঊঙছ = ২অঙঈ
= ২ – ৮৪০০ – ১০০১
= ১৬৮০০০০
= ১,২৯৬.১৪৮
= ১,২৯৬ টি লাইট (একক)
অতএব, অটল কোম্পানির মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ ১,২৯৬টি লাইট।
উত্তর: ১,২৯৬ টি লাইট।
নোট: প্রশ্নে অটল কোম্পানির ফরমায়েশ প্রতি ব্যয় উলে­খ না থাকায় মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ নির্ণয় সম্ভব নয়। তবে ফরমায়েশ প্রতি ব্যয় ১০০ টাকা ধরে নিয়ে উপরিউক্ত উপায়ে সমাধান করা হয়েছে।
মঘ অধরা কোম্পানির মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয়:
মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ, ঊঙছ = ২ – ১৫০০০ – ৫০৩
= ১৫০০০০০৩
= ৫০০০০০
= ৭০৭.১১
= ৭০৭ টি লাইট (প্রায়)
 মোট মজুদ ব্যয় = ঊঙছ২  ঈ + অঊঙছ  ঙ
= ৭০৭২  ৩ + ১৫০০০৭০৭  ৫০
= (১০৬০.৫০ + ১০৬০.৮২)
= ২,১২১.৩২ টাকা
অটল কোম্পানির মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয়:
আমরা জানি,
মোট মজুদ ব্যয় = ঊঙছ২  ঈ + অঊঙছ  ঙ
= ১২৯৬২  ১ + ৮৪০০১২৯৬  ১০০
= (৬৪৮ + ৬৪৮) = ১,২৯৬ টাকা
অতএব, উভয় কোম্পানির মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয়ে দেখা যাচ্ছে অটল কোম্পানির মজুদ ব্যয় অধরা কোম্পানির তুলনায় কম। তাই উদ্দীপকে প্রদত্ত বক্তব্যটি যথার্থ হয়নি।

মমমপ্রশ্ন৬ নবগঙ্গা কোম্পানি লি. এর বছরে ১০ হাজার একক বল বেয়ারিং প্রয়োজন। প্রত্যেক বেয়ারিং এর দাম ৭৫ টাকা এবং বহন খরচ প্রতি একক ২ টাকা। ফরমায়েশ প্রতি ১৫০ টাকা। প্রতিষ্ঠানটির ক্রয় আদেশ দেয়ার পর পণ্য পৌঁছাতে ৪ দিন সময় লাগে। এজন্য কোম্পানি ক্রেতাদের চাহিদা নিশ্চিত করতে নিরাপত্তা মজুদ হিসাবে ৬০০ একক পণ্য সংরক্ষণ করে। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে পণ্য পৌঁছাতে ৭ দিন সময় লেগে যায়। [চ. বো. ১৭]
ক. ব্যবসায় ঋণ কী? ১
খ. মজুদ কেন করা হয়? ২
গ. উদ্দীপকের আলোকে ঊঙছ নির্ণয় করো। ৩
ঘ. প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে পণ্য পৌঁছাতে দেরি হওয়ায়, মজুদ ব্যবস্থায় কোনো সমস্যা হবে কি? উদ্দীপকের আলোকে মতামত দাও। ৪
৬ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক ব্যবসায় ঋণ বলতে পুনরায় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে বাকিতে পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের মাধ্যমে সৃষ্ট ঋণকে বোঝায়।
মখ মজুদ বলতে কাঁচামাল, আংশিক প্রস্তুত পণ্য ও সম্পূর্ণ দ্রব্য প্রভৃতি পণ্যের মজুদকে বোঝায়।
একটি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন সচল রাখতে মজুদ পণ্য গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে। তাছাড়া ভোক্তাদের চাহিদা যথাসময়ে পূরণের জন্যও মজুদ করা জরুরি। অর্থাৎ প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন যেন কোনোভাবে ব্যাহত না হয় সেজন্য এবং যথাসময়ে ক্রেতাদের চাহিদা অনুসারে পণ্য সরবরাহের জন্য যথাক্রমে কাঁচামাল ও সম্পূর্ণ দ্রব্য মজুদ করা হয়।
মগ নবগঙ্গা কোম্পানি লি.-এর ঊঙছ (ঊপড়হড়সরপ ঙৎফবৎ ছঁধহঃরঃু) নির্ণয়:
ঊঙছ= ২অঙঈ
= ২  ১০০০০  ১৫০২
= ১৫০০০০০
= ১,২২৪.৭৪
= ১,২২৫টি বেয়ারিং (প্রায়)
উত্তর: ১,২২৫টি বেয়ারিং (প্রায়)
মঘ স্বাভাবিক অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ স্তর নির্ণয়:
পুনঃফরমায়েশ স্তর = সর্বনিæ মুজদ + (প্রতি একক সময়ের গড় মজুদ ব্যবহার ূ গড় লীড সময়)
= ৬০০ + ১০০০০৩৬০ – ৪
= ৬০০ + ১১১
= ৭১১
প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় পুনঃফরমায়েশ স্তর নির্ণয়:
পুনঃফরমায়েশ স্তর = ৬০০ + ১০০০০৩৬০ – ৭
= ৬০০ + ১৯৪
= ৭৯৪
স্বাভাবিক অবস্থায় মজুদের পরিমাণ ৭১১ এককে নেমে আসলেই পুনরায় পণ্যের ফরমায়েশ দিতে হবে। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় ৭৯৪ একক পণ্য হয় মজুদ থাকা অবস্থায় পুনরায় ফরমায়েশ দিতে হবে। তা না হলে প্রতিষ্ঠানটি মজুদ সংকটের সম্মুখীন হতে পারে। তাছাড়া প্রতিষ্ঠানটি ভোক্তাদের চাহিদা পূরণেও ব্যর্থ হতে পারে। সর্বোপরি প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় পুনঃফরমায়েশ স্তর পরিবর্তন কররে মজুদ ব্যবস্থায় কোনো সমস্যা হবে না। তবে পুনঃফরমায়েশ স্তর পরির্বতন না করলে মজুদ ব্যবস্থা সমস্যা সৃষ্টি করবে।

মমমপ্রশ্ন৭ একটা জুতা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ২/১০, নিট ৬০ শর্তে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি ব্যাংক হতে ৫,০০,০০০ টাকা ঋণ গ্রহণ করেছে। প্রতিষ্ঠানটির মালিক ব্যাংক হতে গৃহীত ঋণের মাধ্যমে নগদ বাট্টার সুযোগ গ্রহণের চিন্তাভাবনা করছেন। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানের মালিক দেনা পরিশোধের সময় ১০ দিন বৃদ্ধি করেন। ব্যাংক ঋণের সুদের হার ১২%। [সি. বো. ১৭]
ক. মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ কী? ১
খ. ব্যবসায় ঋণের খরচ কে বহন করে? ২
গ. উদ্দীপকে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
ঘ. উদ্দীপকে ঋণের পরিশোধ সময় বৃদ্ধির ফলে নগদ বাট্টার সুযোগ গ্রহণের সিদ্ধান্তকে প্রভাবিত করবে কি? তোমার মতামত দাও। ৪
৭ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ (ঊপড়হড়সরপ ঙৎফবৎ ছঁধহঃরঃু) হচ্ছে এমন এক ফরমায়েশ পরিমাণ, যেখানে পণ্যের বহন খরচ ও ফরমায়েশ ব্যয় সর্বনিæ হয়।
মখ ব্যবসায় ঋণের খরচ ক্রেতা বা বিক্রেতা বা উভয়ই বহন করতে পারে।
বিক্রেতা নিজেই ঋণের খরচ বহন করতে পারে। অথবা, পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে ক্রেতার ওপর ব্যবসায় ঋণের খরচ চাপিয়ে দিতে পারে। তাছাড়া ঋণের খরচের সম্পূর্ণ মূল্য দ্বারা পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি না করে আংশিক ব্যয় পণ্যের মূল্যের সাথে যুক্ত করতে পারে। এক্ষেত্রে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ই ঋণের ব্যয়ভার বহন করবে।
মগ ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয়:
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ঈউজ১০০ – ঈউজ  ৩৬০ঈচ – উচ  ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৬০
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১০
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ২১০০  ২ – ৩৬০৬০  ১০ – ১০০
= ২৯৮ – ৩৬০৫০ – ১০০
= ১৪.৬৯%
অতএব, প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ১৪.৬৯%।
উত্তর: ১৪.৬৯%।
মঘ পরিশোধ সময় ১০ দিন বৃদ্ধি করলে ব্যবসায় ঋণের খরচ হবেÑ
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৭০
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১০
ব্যবসায় ঋণের খরচ, কঞঈ = ২১০০  ২ – ৩৬০৭০  ১০ – ১০০
= ২৯৮ – ৩৬০৬০ – ১০০
= ১২.২৪%
অতএব, ব্যাংক ঋণ গ্রহণের মাধ্যমে বাট্টার সুযোগ গ্রহণ করলে প্রতিষ্ঠানের ঋণের সুদ বাবদ ব্যয় হবে ১২%। অন্যদিকে, বাট্টার সুযোগ গ্রহণ না করলে ব্যয় হবে ১২.২৪%। তাই প্রতিষ্ঠানের উচিত ব্যাংক ঋণ গ্রহণের মাধ্যমে বাট্টার সুযোগ গ্রহণ করা। এক্ষেত্রে ঋণ পরিশোধের সময় বৃদ্ধির ফলে বাট্টার সুযোগ রহিত হয়ে যাবে।

মমমপ্রশ্ন৮ জনাব সজিব একজন ব্যবসায়ী। তিনি ২/১৫, ঘ-৪৫ এই শর্তে ব্যবসায় ঋণ অথবা ১২০ দিন মেয়াদি বাণিজ্যিক কাগজের মাধ্যমে ঋণ নিতে পারেন। প্রতিটি বাণিজ্যিক কাগজের লিখিত মূল্য ১০০ টাকা এবং বিক্রয়মূল্য ৯৫ টাকা। [য. বো. ১৭]
ক. স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন কী? ১
খ. ব্যবসায় ঋণ বলতে কী বোঝ? ২
গ. বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
ঘ. উদ্দীপকে জনাব সজিব-এর জন্য ব্যবসায় ঋণ ও বাণিজ্যিক কাগজের মধ্যে কোনটি গ্রহণ করা উচিত? মন্তব্য করো। ৪
৮ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক যে অর্থায়ন ১ বছর বা এর চেয়ে কম সময়ের জন্য করা হয় তাকে স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন বলে।
মখ ব্যবসায় ঋণ বলতে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ধারে পণ্য ক্রয় করাকে বোঝায়।
এটিকে স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়নও বলা হয়ে থাকে। কেননা, এ ধরনের অর্থায়নে কোনো আনুষ্ঠানিকতা ও জামানতের প্রয়োজন পড়ে না। উদাহরণস্বরূপ, ‘ক’ কোম্পানি মি. শহীদের নিকট হতে ২০,০০০ টাকার পণ্য বাকিতে ক্রয় করে। এখানে, ‘ক’ কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের পরিমাণ ২০,০০০ টাকা।
মগ বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয় নির্ণয় :
আমরা জানি,
বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয়, কঈচ = ঋঠ  ঘঝঠঘঝঠ  ৩৬০উগ  ১০০
এখানে,
লিখিত মূল্য, ঋঠ = ১০০ টাকা
নিট বিক্রয়মূল্য, ঘঝঠ = ৯৫ টাকা
মেয়াদকাল, উগ = ১২০ দিন
 বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয়, কঈচ = ১০০  ৯৫৯৫  ৩৬০১২০  ১০০
= ৫৯৫  ৩৬০১২০  ১০০
= ১৫.৭৯%
অতএব, বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয় ১৫.৭৯%।
উত্তর : ১৫.৭৯%।
মঘ উদ্দীপকে জনাব সজিবের জন্য ব্যবসায় ঋণ ও বাণিজ্যিক কাগজের মধ্যে কোনটি গ্রহণ করা উচিত তা জানতে উভয় উৎসের ব্যয় নির্ণয় করতে হবে।
ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয় :
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ঈউজ১০০  ঈউজ  ৩৬০ঈচ  উচ  ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২%
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৪৫ দিন
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১৫ দিন
 ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ২১০০  ২  ৩৬০৪৫  ১৫  ১০০
= ২৯৮  ৩৬০৩০  ১০০
= ২৪.৪৯%
অতএব, ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ২৪.৪৯%। অন্যদিকে, বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয় ১৫.৭৯% [‘গ’ নং হতে প্রাপ্ত]। অর্থাৎ ব্যবসায় ঋণের ব্যয় অপেক্ষা বাণিজ্যিক কাগজের ব্যয় কম। সুতরাং, জনাব সজিবের বাণিজ্যিক কাগজের উৎসটি গ্রহণ করা উচিত।

মমমপ্রশ্ন৯ কিডস জোন ও চাইল্ড জোন খেলনা গাড়ি প্রস্তুতকারক কোম্পানি। কিডস জোন প্রতি বছর ২,৫০,০০০ পিস খেলনা গাড়ি তৈরি করে। কোম্পানির কাঁচামালের ফরমায়েশ প্রতি ব্যয় ৪০০ টাকা এবং প্রতি একক কাঁচামালের বহন খরচ ২ টাকা। অন্যদিকে, চাইল্ড জোন-এর মজুদ পণ্যের মোট ফরমায়েশ ব্যয় ১৪,০০০ টাকা এবং মোট বহন খরচ ৮,০০০ টাকা। [ব. বো. ১৭]
ক. লিড টাইম কী? ১
খ. প্রাপ্য বিল ব্যবস্থাপনা বলতে কী বোঝ? ব্যাখ্যা করো। ২
গ. কিডস জোন-এর মিতব্যয়ী ফরমায়েশের পরিমাণ নির্ণয় করো। ৩
ঘ. চাইল্ড জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় কি বেশি? তুলনামূলক গাণিতিক বিশ্লেষণ করো। ৪
৯ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক কোনো পণ্যের জন্য ফরমায়েশ দেয়ার তারিখ থেকে পণ্য গুদামে পৌছানো পর্যন্ত সময়কে লিড টাইম বলে।
সহায়ক তথ্য
ফরমায়েশ বলতে পণ্য ক্রয়ের অর্ডারকে বোঝায়।
মখ প্রাপ্য বিলের যথাযথ ব্যবহার এবং তা থেকে সর্বাধিক সুবিধা গ্রহণের প্রক্রিয়াই হলো প্রাপ্য বিল ব্যবস্থাপনা।
যেকোনো ব্যবসায়ে চলতি সম্পদের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হলো প্রাপ্য বিল। মূলত ক্রেতাদের নিকট বাকিতে পণ্য বিক্রি, প্রাপ্য বিল গ্রহণ এবং এ বিল ব্যাংক থেকে বাট্টাকরণের মাধ্যমে সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করাই হলো প্রাপ্য বিল ব্যবস্থাপনা।
সহায়ক তথ্য
চলতি সম্পদ : ১ বছর বা এর চেয়ে কম মেয়াদযুক্ত সম্পদকে চলতি সম্পদ বলা হয়।
মগ কিডস জোন-এর মিতব্যয়ী ফরমায়েশের পরিমাণ নির্ণয় :
আমরা জানি,
মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ, ঊঙছ = ২অঙঈ
এখানে,
বার্ষিক চাহিদা, অ = ২,৫০,০০০ পিস
ফরমায়েশ প্রতি ব্যয়, ঙ = ৪০০ টাকা
প্রতি একক কাঁচামালের বহন খরচ, ঈ = ২ টাকা
 ঊঙছ = ২  ২৫০০০০  ৪০০২
= ১০,০০০ পিস
 কিডস জোন-এর মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ ১০,০০০ পিস।
উত্তর : ১০,০০০ পিস।
মঘ কিডস জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয় :
আমরা জানি,
মোট মজুদ ব্যয় = অঊঙছ  ঙ + ঊঙছ২  ঈ
এখানে,
বার্ষিক চাহিদা, অ = ২,৫০,০০০ পিস
ফরমায়েশ প্রতি ব্যয়, ঙ = ৪০০ টাকা
এককপ্রতি বহন খরচ, ঈ = ২ টাকা
মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ, ঊঙছ = ১০,০০০ পিস [‘গ’ হতে আনীত]
 মোট মজুদ ব্যয় = ২৫০০০০১০০০০  ৪০০ + ১০০০০২  ২
= ১০,০০০ + ১০,০০০
= ২০,০০০ টাকা
 কিডস জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় = ২০,০০০ টাকা
চাইল্ড জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয় :
= মোট ফরমায়েশ ব্যয় + মোট বহন খরচ
= ১৪,০০০ + ৮,০০০
= ২২,০০০ টাকা
 চাইল্ড জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় বেশি = (২২,০০০  ২০,০০০) = ২,০০০ টাকা। সুতরাং, কিডস জোন-এর তুলনায় চাইল্ড জোন-এর মোট মজুদ ব্যয় ২,০০০ টাকা বেশি।

মমমপ্রশ্ন১০ মুন কোম্পানি লি. এর পণ্যের বার্ষিক চাহিদা ৩,০০,০০০ একক। প্রতিটি ফরমায়েশ সম্পন্ন করতে ব্যয় হয় ৫০০ টাকা। বহন খরচ এককপ্রতি ১২ টাকা। প্রতিষ্ঠানটির ধারে বিক্রয়কৃত পণ্যের মূল্য আদায় করতে গড়ে ৬৫ দিন সময় লাগে। বাকিতে ক্রয়কৃত পণ্যের মূল্য পরিশোধ করে গড়ে ৪৫ দিনে। প্রতিষ্ঠানটির মজুদ পণ্যের গড় অবস্থান ৩৫ দিন। বার্ষিক নগদ বহিঃপ্রবাহ ১ কোটি টাকা। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপক ন্যূনতম নগদ পরিমাণ ১৫ লক্ষ টাকা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। [ঢা. বো. ১৬]
অ ক. ব্যবসায় ঋণ কী? ১
অ খ. মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ বলতে কী বোঝায়? ২
অ গ. উদ্দীপকে বর্ণিত প্রতিষ্ঠানের মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে বর্ণিত ব্যবস্থাপকের সিদ্ধান্ত গাণিতিকভাবে বিশ্লেষণ করো। ৪
১০ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক পণ্যসামগ্রী ধারে ক্রয়-বিক্রয়ের ফলে যে ঋণের সৃষ্টি হয় তাকে ব্যবসায় ঋণ বলে।
মখ যে পরিমাণ পণ্য প্রতিবার ফরমায়েশ করলে ব্যয় সর্বনিæ হয় এবং উৎপাদন অব্যাহত থাকে তাকে মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ বলে।
বেশি পরিমাণ পণ্য একসাথে ক্রয় করলে মূলধনের ঘাটতি দেখা দেয়, মূলধন ব্যয় বৃদ্ধি পায়। আবার স্বল্প পরিমাণ দ্রব্য ক্রয় করলে ফরমায়েশ ব্যয়, পরিবহন ব্যয় বৃদ্ধি পায়, উৎপাদন ব্যাহত হয়। তাই প্রতিষ্ঠান এমন পরিমাণ পণ্যের ফরমায়েশ প্রদান করে যাতে অতিরিক্ত পণ্য না থাকে। আবার উৎপাদনেও বিঘœ না ঘটে, যা মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ নামে পরিচিত।
মগ মুন কোম্পানি লি.-এর মোট মজুদ ব্যয় নির্ণয় :
দেয়া আছে,
পণ্যের বার্ষিক চাহিদা (অ) = ৩,০০,০০০ একক
প্রতি ফরমায়েশ ব্যয় (ঙ) = ৫০০ টাকা
এককপ্রতি বহন খরচ (ঈ) = ১২ টাকা
 মিতব্যয়ী ফরমায়েশ (ঊঙছ) = ২  অ  ঙঈ
= ২  ৩০০০০০  ৫০০১২
= ২৫০০০০০০ = ৫,০০০ একক
মোট মজুদ ব্যয় = অঊঙছ  ঙ + ঊঙছ২  ঈ
= ৩০০০০০৫০০০  ৫০০ + ৫০০০২  ১২
= (৬০  ৫০০) + (২,৫০০  ১২)
= ৩০,০০০ + ৩০,০০০
= ৬০,০০০ টাকা
সুতরাং উদ্দীপকে বর্ণিত প্রতিষ্ঠানের মোট মজুদ ব্যয় ৬০,০০০ টাকা।
উত্তর: ৬০,০০০ টাকা।
মঘ মুন কোম্পানি লি.-এর ব্যবস্থাপকের সিদ্ধান্ত বিশ্লেষণ :
দেয়া আছে,
গড় আদায় সময় = ৬৫ দিন
গড় পরিশোধ সময় = ৪৫ দিন
মজুদ পণ্যের গড় অবস্থান সময় = ৩৫ দিন
বার্ষিক নগদ বহিঃপ্রবাহ = ১,০০,০০,০০০ টাকা
 নগদ রৃপা¯¦র চকত্থ = অবর্’ান সময় + গড় আদায় সময়  গড় পরিএশাধ সময়
= ৩৫ + ৬৫  ৪৫
= ৫৫ দিন
 নগদ আবর্তন = ৩৬০৫৫ = ৬.৫৪৫ বার
ন্যূনতম নগদ পরিমাণ = বার্ষিক নগদ বহিঃপ্রবাহনগদ আবর্তন
= ১০০০০০০০৬.৫৪৫
= ১৫,২৭,৮৮৪ টাকা
সিদ্ধান্ত: মুন কোম্পানি লি.-কে ন্যূনতম বছরের শুরু হতে ১৫,২৭,৮৮৪ টাকার ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপক ১৫,০০,০০০ টাকা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা প্রকৃত টাকার চেয়ে কম। তাই ব্যবস্থাপকের সিদ্ধান্তটি সঠিক নয়।

মমমপ্রশ্ন১১ বিডি ফুডস্ লি. প্রক্রিয়াজাত খাদ্যসামগ্রী বাজারজাত করে। বাজারে বার্ষিক চাহিদা ১,২০,০০০ প্যাকেট এবং প্রতি প্যাকেটের ক্রয় মূল্য ২২ টাকা। প্রতিটি ক্রয়াদেশের খরচ ৮০ টাকা, প্রতি একক পণ্যের বার্ষিক সংরক্ষণ ব্যয় ২ টাকা। ক্রয়াদেশ প্রদানের পর গুদামে পণ্য পৌঁছাতে ৪ দিন সময় লাগে। কোম্পানি ক্রেতার তাৎক্ষণিক চাহিদা মেটাতে ৫০০ প্যাকেট পণ্য সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।
[রা. বো., সি. বো. ১৬]
অ ক. মিতব্যয়ী ফরমায়েশ কী? ১
অ খ. অতিরিক্ত মজুদ সংরক্ষণের ফলে কী সমস্যা সৃষ্টি হয়? ২
অ গ. বিডি ফুডস্ লি.-এর বার্ষিক মজুদ ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকের মজুদ ব্যবস্থাপক ২০০০ প্যাকেট পণ্য মজুদ থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ প্রদান করেন। তার সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করো। ৪
১১ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ হচ্ছে এমন ফরমায়েশ পরিমাণ, যেখানে পণ্যের বহন ও ফরমায়েশ ব্যয় সর্বনিæ হয়।
মখ অতিরিক্ত মজুদ সংরক্ষণের ফলে প্রতিষ্ঠানের ব্যয় বেড়ে যায়।
উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তাদের চলতি সম্পদের একটি বড় অংশ মজুদ পণ্যে বিনিয়োগ করে। যার উদ্দেশ্য হলো চাহিদা অনুযায়ী ধারাবাহিকভাবে উৎপাদন অব্যাহত রাখা। মজুদের পরিমাণ কম হলে উৎপাদন ব্যাহত হয় এবং পণ্যের বাজার হারাতে হয়। আবার মজুদ বেশি হলে, কিছু মজুদ অলসভাবে পড়ে থাকে, যা প্রতিষ্ঠানের চলতি সম্পদ আটকে রাখে। উক্ত সম্পদ অন্য কোথায়ও বিনিয়োগ করে লাভবান হওয়া যেত অথবা উক্ত অর্থ ঋণ হিসেবে গ্রহণ না করলে ব্যয় কম হতো। কিন্তু অতিরিক্ত মজুদ সংরক্ষণের কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। এতে প্রতিষ্ঠানের ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে।
মগ দেয়া আছে,
বার্ষিক চাহিদা (অ) = ১,২০,০০০ একক
প্রতিটি ক্রয়াদেশের খরচ (ঙ) = ৮০ টাকা
প্রতি এককে বার্ষিক সংরক্ষণ ব্যয় (ঈ) = ২ টাকা
 মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ, (ঊঙছ) = ২  অ  ঙঈ
= ২  ১২০০০০  ৮০২
= ৯৬০০০০০
= ৩,০৯৮ একক
আমরা জানি,
বার্ষিক মজুদ ব্যয় = অঊঙছ  ঙ + ঊঙছ২  ঈ
= ১২০০০০৩০৯৮  ৮০ + ৩০৯৮২  ২
= ৩,০৯৯ + ৩,০৯৮
= ৬,১৯৭ টাকা
উত্তর: ৬,১৯৭ টাকা।
মঘ উদ্দীপকে মজুদ ব্যবস্থাপকের সিদ্ধান্তটি যৌক্তিক কিনা তা জানার জন্য পুনঃফরমায়েশ স্তর নির্ণয় করতে হবে।
আমরা জানি,
পুনঃফরমাএয়শ ’¦র = নিরাপল্ফা মজুদ + (লিড টাইম  ৗদনিক গড় মজুদ বঞ্ঝবহার)
এখানে,
দৈনিক গড় মজুদ ব্যবহার = ১২০০০০৩৬০ = ৩৩৩.৩৩ প্যাকেট
 নিরাপত্তা মজুদ = ৫০০ প্যাকেট
 পুনঃফরমায়েশ স্তর = ৫০০ + (৪  ৩৩৩.৩৩)
= ৫০০ + ১,৩৩৩.৩৩
= ১,৮৩৩ প্যাকেট (প্রায়)
সুতরাং কমপক্ষে ১,৮৩৩ প্যাকেট সংরক্ষিত থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ প্রদান করলে প্রতিষ্ঠানে কোনো ধরনের ঘাটতির সৃষ্টি হবে না। এখানে ২,০০০ প্যাকেট পণ্য মজুদ থাকা অবস্থায় পুনঃফরমায়েশ প্রদান করা হয়েছে, যা যুক্তিযুক্ত।

মমমপ্রশ্ন১২ জনাব মেহেদী জনাব হাশেমের নিকট থেকে ১০,০০০ টাকার পণ্য ধারে ক্রয় করেন। জনাব হাশেম পণ্য বিক্রয়ের ক্ষেত্রে শর্ত আরোপ করেন যে, জনাব মেহেদী ১৪ দিনের মধ্যে পণ্যমূল্য পরিশোধ করলে মোট ক্রয়মূল্যের ৩% নগদ বাট্টা সুবিধা পাবেন। তবে তাকে অবশ্যই ২৭ দিনের মধ্যে পণ্যের ক্রয়মূল্য পরিশোধ করতে হবে। জনাব মেহেদী ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে ৪র্থ দিন জনাব হাশেমকে পণ্যের মূল্য পরিশোধ করে দেন। ব্যাংক ঋণের সুদের হার ১২%। [দি. বো. ১৬]
অ ক. বাণিজ্যিক পত্র কী? ১
অ খ. ন্যূনতম চলতি মূলধনের পরিমাণ কী হওয়া উচিত? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. জনাব মেহেদীর ব্যবসায়ী ঋণের ব্যয় কত? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. ঋণের ব্যয় বিবেচনায় জনাব মেহেদীর ব্যাংক ঋণ গ্রহণের যৌক্তিকতা মূল্যায়ন করো। ৪
১২ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক বাণিজ্যিকপত্র হলো স্বল্পমেয়াদি জামানতবিহীন অঙ্গীকারপত্র, যা মুদ্রাবাজারে বিক্রয় করে বৃহৎ প্রতিষ্ঠান স্বল্পমেয়াদি অর্থায়নের প্রয়োজন মিটিয়ে থাকে।
মখ ন্যূনতম চলতি মূলধনের পরিমাণ এমন হওয়া উচিত, যেন তারল্য ও মুনাফা উভয়টিই ভারসাম্য অবস্থায় থাকে।
অধিক পরিমাণ তারল্য বা নগদ অর্থ সংরক্ষণ করলে অন্য কোন খাতে বিনিয়োগ করা যায় না। তাই প্রতিষ্ঠানে মুনাফার পরিমাণ কমে যেতে পারে। আবার পর্যাপ্ত তারল্য না থাকলে প্রতিষ্ঠান দায় পরিশোধে ব্যর্থ হতে পারে। তাই চলতি মূলধনের পরিমাণ এমন হতে হবে যেন মুনাফাও না কমে, আবার তারল্যও বজায় থাকে।
মগ জনাব মেহেদীর ব্যবসায়ে ঋণের ব্যয় নিæরূপ :
আমরা জানি, ব্যবসায় ঋণের ব্যয়
= নগদ বাট্টার হার১০০  নগদ বাট্টার হার ূ৩৬০ দিনঋণের মেয়াদ  বাট্টার মেয়াদ ূ ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার = ৩%
ঋণের মেয়াদ = ২৭ দিন
বাট্টার মেয়াদ = ১৪ দিন
 ব্যবসায় ঋণের ব্যয় = ৩১০০  ৩ ূ ৩৬০২৭  ১৪ ূ ১০০
= ৩৯৭ ূ ৩৬০১৩ ূ ১০০
= ০.০৩০৯৩ ূ ২৭.৬৯ ূ ১০০
= ৮৫.৬৫%
অর্থাৎ জনাব মেহেদীর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ৮৫.৬৫%।
উত্তর: ৮৫.৬৫%।
মঘ ঋণের ব্যয় বিবেচনায় জনাব মেহেদীর ব্যাংক ঋণ গ্রহণের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক।
পুনরায় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ক্রেতা যখন বিক্রেতার নিকট হতে ধারে পণ্য ক্রয় করে তখন ব্যবসায় ঋণের সৃষ্টি হয়। অন্যদিকে, স্বল্পমেয়াদে নির্দিষ্ট সুদের হারে বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহ যে ঋণ প্রদান করে তা-ই ব্যাংক ঋণ।
উদ্দীপকে উলি­খিত জনাব মেহেদী জনাব হাশেমের নিকট থেকে ১০,০০০ টাকার পণ্য ধারে ক্রয় করেন। এক্ষেত্রে ১৪ দিনের মধ্যে পণ্যমূল্য পরিশোধ করলে মোট ক্রয়মূল্যের ৩% নগদ বাট্টা সুবিধা পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই ২৭ দিনের মধ্যে ক্রয়মূল্য পরিশোধ করতে হবে। জনাব মেহেদী ৪র্থ দিনের মধ্যে পণ্যমূল্য পরিশোধ করায় বাট্টার সুযোগ পেয়েছেন। তাই তার ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নেই।
জনাব মেহেদীর ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ৮৫.৬৫%। তার গ্রহণকৃত ব্যাংক ঋণের সুদের হার ১২%। সাধারণত যে উৎস থেকে ঋণ নিলে ঋণের ব্যয় সর্বনিæ হয়, সে উৎস থেকে ঋণ নেয়াই যৌক্তিক। জনাব মেহেদী যদি নগদ বাট্টার সুযোগ গ্রহণ না করতেন তাহলে তার ব্যবসায় ঋণের ব্যয় হতো ৮৫.৬৫%, যা ব্যাংক ঋণের সুদ ১২% এর চেয়ে অনেক বেশি। দেখা যাচ্ছে, ব্যবসায় ঋণের বার্ষিক সুদের হার ব্যাংক ঋণের বার্ষিক সুদের হার থেকে বেশি। এজন্যই জনাব মেহেদীর ব্যাংক ঋণ নেয়াটা যৌক্তিক।

মমমপ্রশ্ন১৩ আমবার লিমিটেড একটি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদনের কাঁচামাল ক্রয়, শ্রমিক এর মজুরি ও অন্যান্য প্রশাসনিক খরচ মিটানোর জন্য চলতি মূলধনের প্রয়োজন। আমবার লিমিটেডের ব্যবস্থাপক জানে চলতি মূলধনের ঘাটতির কারণে প্রতিষ্ঠানে দেউলিয়াত্বের ঝুঁকি সৃষ্টি হয়। আবার প্রতিষ্ঠানে খরচ হ্রাস এর মাধ্যমে নিট মুনাফা বৃদ্ধি করা যায়। এজন্য প্রতিষ্ঠানটি ফরমায়েশ খরচ হ্রাস করতে চাচ্ছে। কোম্পানির পণ্যের বার্ষিক চাহিদা ১০,০০০ একক, ফরমায়েশপ্রতি ব্যয় ১০০ টাকা। প্রতি একক মজুদের বহন খরচ ১৫ টাকা। [কু. বো. ১৬]
অ ক. স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন কী? ১
অ খ. রক্ষণশীল নীতি কীভাবে চলতি মূলধন ব্যবস্থাপনাকে প্রভাবিত করে? ২
অ গ. আমবার লিমিটেড এর মিতব্যয়ী ফরমায়েশ পরিমাণ নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. চলতি মূলধন এর ঘাটতি পূরণে আমবার লিমিটেড কোন কোন প্রাতিষ্ঠানিক উৎস এর কথা বিবেচনা করতে পারে? বিশ্লেষণ করো। ৪
১৩ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক যে অর্থায়ন এক বছর বা তার চেয়ে কম সময়ের জন্য করা হয় তাকে স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন বলে।
মখ চলতি মূলধন ব্যবস্থাপনা বলতে চলতি সম্পদ ও চলতি দায়ের ব্যবস্থাপনাকেই বোঝায়।
রক্ষণশীলতার নীতি অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী সম্পদ, স্থায়ী চলতি সম্পদের সবটুকু এবং পরিবর্তনশীল চলতি সম্পদের একটি অংশ দীর্ঘমেয়াদি উৎস থেকে অর্থায়ন করা উচিত। এ নীতি অনুসরণ করার ফলে মূলধনের স্বল্পতা বা ঘাটতি হবার সম্ভাবনা খুবই কম থাকে। ফলে ব্যবসায়ে স্থিতিশীলতা থাকে এবং ঝুঁকি হ্রাস পায়।
মগ আমরা জানি,
মিতব্যয়ী ফরমায়েশের পরিমাণ ঊঙছ = ২  অ  ঙঈ
এখানে,
প্রতি ফরমায়েশের ব্যয়, ঙ = ১০০ টাকা
বাৎসরিক চাহিদা, অ = ১০,০০০ একক
প্রতি একক বহন খরচ, ঈ = ১৫ টাকা
ঊঙছ = ?
অতএব, ঊঙছ = ২  ১০০  ১০০০০১৫
= ১৩৩৩৩৩.৩৩
= ৩৬৫ একক
আমবার লিমিটেডের মিতব্যয়ী ফরমায়েশের পরিমাণ ৩৬৫ একক।
উত্তর: ৩৬৫ একক।
মঘ চলতি মূলধনের ঘাটতি পূরণে আমবার লিমিটেড মুদ্রাবাজার ঋণ, ব্যাংক ঋণ ইত্যাদি প্রাতিষ্ঠানিক উৎসের কথা বিবেচনা করতে পারে।
স্বল্পমেয়াদি আর্থিক সম্পদ বা দলিল ইস্যু করে যে ঋণ সংগ্রহ করা হয় তাকে মুদ্রাবাজার ঋণ বলে। আর ব্যাংক কর্তৃক নির্দিষ্ট সুদের হারে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য জামানতযুক্ত বা জামানতবিহীন ধার প্রদান করাকে ব্যাংক ঋণ বলে।
উদ্দীপকে আমবার লিমিটেড একটি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদনের কাঁচামাল ক্রয়, শ্রমিকের মজুরি ও অন্যান্য প্রশাসনিক খরচ মেটানোর জন্য চলতি মূলধনের প্রয়োজন হয়। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক জানেন চলতি মূলধনের ঘাটতি থাকলে প্রতিষ্ঠানে দেউলিয়াত্ব সৃষ্টি হয়। আবার মুনাফা বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে ব্যবস্থাপক খরচ হ্রাস করতে চাচ্ছেন। যে কারণে প্রতিষ্ঠানটি ফরমায়েশ খরচ হ্রাস করতে চাচ্ছে। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি প্রাতিষ্ঠানিক উৎস থেকে চলতি মূলধন সংগ্রহ করে খরচ কমাতে পারে।
আমবার লিমিটেড বাণিজ্যিক কাগজ ও ব্যাংক স্বীকৃতিপত্রের মাধ্যমে স্বল্প খরচে মুদ্রাবাজার থেকে ঋণ নিতে পারে। আবার ব্যাংক থেকে জামানত দিয়ে বা না দিয়ে স্বল্পমেয়াদি ঋণ নিতে পারে। এতে আমবার লিমিটেডের চলতি মূলধনের সংকট হবার আশঙ্কা কমে যাবে এবং স্বল্প খরচে ঋণ নিতে পারায় উৎপাদন খরচও কমবে। সুতরাং বলা যায়, আমবার লিমিটেড মুদ্রাবাজার ও ব্যাংককে প্রাতিষ্ঠানিক উৎস হিসেবে বিবেচনা করতে পারে।

মমমপ্রশ্ন১৪ জনাব আনোয়ার ব্যবসায়ের কার্যকরী মূলধন সংগ্রহের জন্য ২/১০, এন/৩০ শর্তে ব্যবসায়িক ঋণ সংগ্রহ করতে পারেন অথবা বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে ১.৫০% মাসিক চক্রবৃদ্ধি সুদে স্বল্পমেয়াদি অর্থসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেন। [চ. বো. ১৬]
অ ক. স্বতঃ¯¹‚র্ত অর্থায়ন কী? ১
অ খ. স্বল্পমেয়াদি ঋণে সাধারণত জামানত প্রয়োজন হয় না কেন? ২
অ গ. ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয় করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে উলি­খিত জনাব আনোয়ারের কোন ধরনের ঋণ গ্রহণ করা যুক্তিসঙ্গত? ৪
১৪ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক যে অর্থায়ন কোনো প্রকার আনুষ্ঠানিকতা ছাড়া সহজে সংগ্রহ করা যায় তাকে স্বতঃস্ফ‚র্ত অর্থায়ন বলে।
মখ স্বল্পমেয়াদি ঋণ ব্যবসায়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম হতে সৃষ্টি হয় বলে জামানত প্রয়োজন হয় না।
চলতি মূলধন সরবরাহে স্বল্পমেয়াদি ঋণ গ্রহণ করা হয়। চলতি মূলধনের পরিমাণ দীর্ঘমেয়াদির তুলনায় কম বলে ঋণদাতার ঝুঁকি কম। তাই ঋণদাতা জামানত গ্রহণ করে না। আবার অপ্রাতিষ্ঠানিক উৎস হতে স্বল্পমেয়াদি ঋণ স্বাভাবিকভাবে সৃষ্টি হয়। যেমন: ব্যবসায় ঋণ, অগ্রিম গ্রহণ ইত্যাদি। এজন্যও স্বল্পমেয়াদি ঋণে জামানত প্রয়োজন হয় না।
মগ ব্যবসায় ঋণের ব্যয় নির্ণয় :
দেয়া আছে,
বাট্টার হার = ২%
বাট্টার মেয়াদ = ১০ দিন
পরিশোধ মেয়াদ = ৩০ দিন
আমরা জানি,
ব্যবসায় ঋণের ব্যয় = বাল্টার হার১০০  বাল্টার হার  ৩৬০পরিএশাধ মৈয়াদ  বাল্টার মৈয়াদ  ১০০
= ২১০০  ২  ৩৬০৩০  ১০  ১০০
= ২৯৮  ৩৬০২০  ১০০
= ০.০২০৪  ১৮  ১০০
= ০.৩৬৭৩  ১০০
= ৩৬.৭৩%
সুতরাং জনাব আনোয়ারের ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ৩৬.৭৩%।
উত্তর: ৩৬.৭৩%।
মঘ উদ্দীপকে উলি­খিত ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ৩৬.৭৩% (গ হতে প্রাপ্ত)
দেয়া আছে,
বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাসিক সুদের হার ১.৫০%
 বার্ষিক সুদের হার (র) = ১.৫০  ১২ = ১৮%
চক্রবৃদ্ধির সংখ্যা (স) = ১২
 প্রকৃত বার্ষিক সুদের হার (ঊঅজ) = ১ + রসস  ১
= ১ + ০.১৮১২১২ ১
= (১.০১৫)১২  ১
= ১.১৯৫৬১৮১৭১  ১
= ০.১৯৫৬১৮১৭১
= ১৯.৫৬%
নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে বাট্টা গ্রহণ করার ব্যয় (ব্যবসায় ঋণের ব্যয়) হলো ৩৬.৭৩%। কিন্তু ব্যাংক হতে গৃহীত ঋণের ব্যয় ১৯.৫৬%, যা ব্যবসায় ঋণের ব্যয় হতে কম।
অতএব, উদ্দীপকের আনোয়ারের উচিত ব্যাংক হতে ঋণ গ্রহণ করে ব্যবসায় ঋণের ব্যয়কে পরিহার করা। এতে তার ব্যয় কমবে।

মমমপ্রশ্ন১৫ মি. রফিক একজন সফল মোটরবাইক ব্যবসায়ী। তিনি ঐঙজঙ কোম্পানির বাইক ২/১০, নিট ৩০ শর্তে ধারে ক্রয় করেন। কিন্তু তিনি ইচ্ছা করলে ৪/১০, নিট ৩০ শর্তে ইঅঔঅঔ কোম্পানির বাইক ধারে ক্রয় করতে পারেন। [য. বো. ১৬]
অ ক. ব্যবসায় ঋণ কী? ১
অ খ. স্বল্পমেয়াদি ঋণ প্রতিষ্ঠানের কোন প্রয়োজনে ব্যবহার করা হয়? ২
অ গ. উদ্দীপকের আলোকে মি. রফিকের ঐঙজঙ কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় কত? ৩
অ ঘ. উদ্দীপকের দু’টি কোম্পানির বাইকের মধ্যে মি. রফিকের জন্য কোনটি অধিক গ্রহণযোগ্য? বিশ্লেষণ করো। ৪
১৫ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক পণ্যসামগ্রী ধারে ক্রয়-বিক্রয়ের ফলে যে ঋণের সৃষ্টি হয় তাকে ব্যবসায় ঋণ বলে।
মখ যে অর্থায়ন সাধারণত এক বছর বা তার কম সময়ের জন্য করা হয় তাকে স্বল্পমেয়াদি অর্থায়ন বলে।
ব্যবসায় পরিচালনার জন্য চলতি মূলধনের প্রয়োজন হয়। চলতি মূলধন বলতে মজুদ পণ্য, নগদ, প্রাপ্য বিল ইত্যাদিকে বোঝায়। এগুলো সুষ্ঠুভাবে ব্যবস্থাপনা করার জন্য সাধারণত এক বছর বা তার কম মেয়াদি অর্থের প্রয়োজন হয়। সেক্ষেত্রে স্বল্পমেয়াদি ঋণ ব্যবহার করা হয়। সুতরাং স্বল্পমেয়াদি ঋণ প্রতিষ্ঠানের চলতি মূলধনের প্রয়োজন মেটাতে ব্যবহার করা হয়।
মগ আমরা জানি,
কঞঈ = ঈউজ১০০  ঈউজ  ৩৬০ দিনঈচ  উচ  ১০০
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ২%
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৩০ দিন
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১০ দিন
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ?
কঞঈ = ২১০০  ২  ৩৬০৩০  ১০  ১০০
= ২৯৮  ৩৬০২০  ১০০
= ০.০২০৪১  ১৮  ১০০
= ০.৩৬৭৩  ১০০
= ৩৬.৭৩%
অর্থাৎ মি. রফিকের ঐঙজঙ কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ৩৬.৭৩%।
উত্তর: ৩৬.৭৩%।
মঘ ইঅঔঅঔ কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় :
এখানে,
নগদ বাট্টার হার, ঈউজ = ৪%
ঋণের মেয়াদ, ঈচ = ৩০ দিন
বাট্টার মেয়াদ, উচ = ১০ দিন
ব্যবসায় ঋণের ব্যয়, কঞঈ = ?
আমরা জানি,
কঞঈ = ঈউজ১০০  ঈউজ  ৩৬০ দিনঈচ  উচ  ১০০
= ৪১০০  ৪  ৩৬০৩০  ১০  ১০০
= ৪৯৬  ৩৬০২০  ১০০
= ০.০৪১৬৭  ১৮  ১০০
= ০.৭৫  ১০০
= ৭৫%
যেহেতু ঐঙজঙ কোম্পানির ব্যবসায় ঋণের ব্যয় ইঅঔঅঔ কোম্পানির ব্যয়ের চেয়ে কম সেহেতু মি. রফিকের কাছে ঐঙজঙ কোম্পানিটি অধিক গ্রহণযোগ্য হবে।

 

Share to help others:

Leave a Reply