নবম-দশম ইসলাম তৃতীয় অধ্যায় ইবাদত

তৃতীয় অধ্যায় ইবাদত
অধ্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো সংক্ষেপে জেনে রাখি

 ইবাদত : ইবাদত আরবি শব্দ। এর অর্থ হলো চ‚ড়ান্তভাবে দীনতা-হীনতা ও বিনয় প্রকাশ করা এবং নমনীয় হওয়া। আর ইসলামি পরিভাষায় দৈনন্দিন জীবনের সকল কাজ-কর্মে আল্লাহ তায়ালার বিধি-বিধান মেনে চলাকে ইবাদত বলা হয়।
 সালাত : সালাত আরবি শব্দ। এর ফার্সি প্রতিশব্দ হলো নামায। এর অর্থ দোয়া, ক্ষমা প্রার্থনা করা ও রহমত (দয়া) কামনা করা। যেহেতু সালাতের মাধ্যমে বান্দা প্রভুর নিকট দোয়া করে, দয়া ও ক্ষমা প্রার্থনা করে থাকে তাই একে সালাত বলা হয়।
 সাওম : সাওম আরবি শব্দ। এর ফার্সি প্রতিশব্দ হলো রোযা। এর আভিধানিক অর্থ হলো বিরত থাকা। ইসলামি শরিয়তের পরিভাষায় সাওম হলোÑ সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় নিয়তের সাথে পানাহার ও ইন্দ্রিয় তৃপ্তি থেকে বিরত থাকা।
 যাকাত : যাকাত শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো পবিত্রতা, পরিশুদ্ধতা ও বৃদ্ধি পাওয়া। ইসলামি শরিয়তের দৃষ্টিতে কোনো মুসলিম নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হলে বছরান্তে তার সম্পদের শতকরা ২৫০ হারে নির্দিষ্ট খাতে ব্যয় করাকে যাকাত বলে।
 হজ : হজ ইসলামের পঞ্চম ভিত্তি। হজ এর আভিধানিক অর্থ হলো সংকল্প করা, ইচ্ছা করা। ইসলামের পরিভাষায় আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে জিলহজ মাসের নির্ধারিত দিনসমূহে নির্ধারিত পদ্ধতিতে বাইতুল্লাহ (আল্লাহর ঘর) ও সংশ্লিষ্ট স্থানসমূহ যিয়ারত করাকে হজ বলে।
 ইলম : ইলম আরবি শব্দ। এর অর্থ হলো জ্ঞান, জানা, অবগত হওয়া, বিদ্যা ইত্যাদি। ইসলামি পরিভাষায়, ইলম হলো কোনো বস্তুর প্রকৃত অবস্থা উপলব্ধি করা। অপরদিকে ইসলাম অর্থ আনুগত্য করা ও আত্মসমর্পণ করা।
 শিক্ষার্থীর বৈশিষ্ট্য : যে নিয়মিত লেখাপড়া করে এবং শেখার প্রতি আগ্রহী ও যতœশীল থাকে তাকে শিক্ষার্থী বলা হয়। একজন প্রকৃতি শিক্ষার্থীর কিছু বৈশিষ্ট্য থাকা আবশ্যক।
 ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক : শিক্ষক হলেন আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর। পিতা-মাতার পরই শিক্ষকের মর্যাদা। শিক্ষক পরম ভক্তি ও শ্রদ্ধার পাত্র। পিতা-মাতা সন্তানকে জন্ম দিয়ে শুধু লালন-পালন করেন। পক্ষান্তরে শিশুদেরকে প্রকৃত মানুষরূপে গড়ে তোলেন একজন শিক্ষক। ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হলো আত্মার সম্পর্ক। এটি পিতা-পুত্রের সম্পর্কের ন্যায়।
 শিক্ষা ও নৈতিকা : শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষাহীন জাতি মেরুদণ্ডহীন প্রাণীর মতো। সঞ্চিত জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতাকে নিজের জীবনে সফলভাবে প্রয়োগ করাকেই শিক্ষা বলে। এ শিক্ষা মানুষকে প্রকৃত মানুষ হতে সাহায্য করে এবং মানব হৃদয়কে অজ্ঞতার অন্ধকার থেকে মুক্ত করে জ্ঞানের আলোয় উদ্ভাসিত করে।
 জিহাদ : জিহাদ আরবি শব্দ। এর আভিধানিক অর্থ পরিশ্রম, সাধনা, কষ্ট, চেষ্টা ইত্যাদি। আর ইসলামি পরিভাষায় জান-মাল, ইলম, আমল, লেখনী ও বক্তৃতার মাধ্যমে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় আল্লাহর দীনকে (ইসলামকে) সমুন্নত করাই হলো জিহাদ।

অনুশীলনীর প্রশ্ন ও উত্তর

 বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর 
১. ইসলামের চতুর্থ স্তম্ভ কোনটি?
ক সালাত খ যাকাত  সাওম ঘ হজ
২. ‘যাতে সম্পদ শুধু তোমাদের অর্থশালীদের হাতেই পুঞ্জীভ‚ত না হয়।’ অত্র আয়াত কোন বিষয়টি নির্দেশ করে?
ক হজ করা খ দান করা
 যাকাত আদায় ঘ সাহায্য করা
নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং ৩ ও ৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও :
বেলাল সাহেব বাংলাদেশ থেকে পবিত্র হজব্রত পালনের উদ্দেশ্যে মক্কায় গমন করেন। হজের সকল বিধি-বিধান সুষ্ঠুভাবে পালন করলেও অসুস্থতার কারণে তাওয়াফে যিয়ারত করতে পারেননি।
৩. বেলাল সাহেব হজের কোন বিধানটি পালনে অপারগ হয়েছেন?
ক মুস্তাহাব খ সুন্নত
গ ওয়াজিব  ফরজ
৪. এমতাবস্থায় বেলাল সাহেবের করণীয় কী?
 পুনরায় হজ করা খ দম প্রদান করা
গ সামর্থ্য থাকলে পুনরায় হজ করা ঘ আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করা

 সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন- ১  ইবাদত

জনাব শফিকুর রহমান একজন রিকশা চালক। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ইসলামের বিধি-বিধান মেনে চলেন। কেউ অসুস্থ হলে তার রিকশায় হাসপাতালে নিয়ে যান। একদা রিকশাচালক জনাব শফিকুর রহমান জনৈক যাত্রীর ব্যাগসহ রেখে যাওয়া পাঁচ লক্ষ টাকা স্থানীয় স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নিকট জমা দেন। প্রধান শিক্ষক সাহেব টাকার মালিকের ব্যাগে সংরক্ষিত ঠিকানার মাধ্যমে টাকাসহ ব্যাগ মালিকের বাড়িতে পৌঁছে দেন।
ক. হজের ওয়াজিব কয়টি?
খ. ইসলাম শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য কী? বুঝিয়ে লেখ।
গ. প্রধান শিক্ষক সাহেবের কাজের মাধ্যমে কোন ধরনের ইবাদত পালন হয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. জনাব শফিকুর রহমানের কর্মকাণ্ডগুলো সংশ্লিষ্ট বিষয়ের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

ক হজের ওয়াজিব ৭টি।
খ ইসলাম শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হলো দুনিয়া ও আখিরাতের শান্তি ও সফলতা লাভ। ইসলাম শিক্ষার মাধ্যমে আমরা আল্লাহ তায়ালার ইবাদত ও আনুগত্য শিখতে পারি। কল্যাণমূলক ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করার জন্য প্রয়োজনীয় জ্ঞানার্জন করতে পারি। পরকালীন জীবনে জান্নাত লাভ ও জাহান্নাম থেকে মুক্তির উপায় জানতে পারি। সুতরাং বলা যায়, দুনিয়া ও আখিরাতের শান্তি ও সফলতার দিকনির্দেশনা লাভ করাই ইসলাম শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য।
গ প্রধান শিক্ষকের কাজের মাধ্যমে হাক্কুল ইবাদ বা মানুষের অধিকার আদায় সম্পর্কিত ইবাদত পালিত হয়েছে। মানুষ সৃষ্টির উদ্দেশ্য হলো ইবাদত করা। আল্লাহর হুকুম ও আদেশ পালন করা এবং নিষেধ মেনে চলা যেমন ইবাদত তেমনি নবি রাসুলের দেখানো পথ অনুযায়ী চলা ও একে অপরের সাথে উত্তম আচার ব্যবহার করাও ইবাদত। ইবাদতের দুই প্রকারের মধ্যে হাক্কুল ইবাদত হলো বান্দার হক। ইসলামে বান্দার হক তথা মানবাধিকারের প্রতি অত্যন্ত গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এ গুরুত্ব উপলব্ধি করে উদ্দীপকের প্রধান শিক্ষক রিকশাচালক জনাব শফিকুর রহমানের নিকট থেকে জনৈক যাত্রীর ব্যাগসহ পাঁচ লক্ষ টাকা পেয়ে প্রকৃত মালিকের ঠিকানায় তা পৌঁছে দেন। একজন আদর্শ শিক্ষক হিসেবে প্রধান শিক্ষক এ কাজের মাধ্যমে হাক্কুল ইবাদ বা বান্দার হক আদায় করেছেন। যা একটি ফরজ ইবাদত।
ঘ জনাব শফিকুর রহমানের কর্মকাণ্ডগুলো হাক্কুল ইবাদ বা মানবাধিকারের সাথে সংশ্লিষ্ট। আমরা পিতামাতা, ভাইবোন, আত্মীয়স্বজন, পাড়াপ্রতিবেশীদের নিয়ে সামাজিকভাবে একসাথে বসবাস করি। একজনের দুঃখে অন্যজন সাড়া দেই। আপদে-বিপদে একে অপরকে সাহায্য-সহযোগিতা করি। পরস্পরের এই সহানুভ‚তি ও দায়িত্বই হাক্কুল ইবাদ বা বান্দার অধিকার। ইসলামে মানবাধিকারের প্রতি অত্যন্ত গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এ গুরুত্ব কারণে করে উদ্দীপকের রিকশাচালক জনাব শফিকুর রহমান মানুষের প্রতি তার দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি অসুস্থ মানুষকে তার রিকশায় করে হাসপাতালে নিয়ে যান। তাছাড়া জনৈক যাত্রীর ব্যাগসহ রেখে যাওয়া পাঁচ লক্ষ টাকা স্থানীয় স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নিকট জমা দিয়ে তিনি সততার পরিচয় দিয়েছেন। আর এর মাধ্যমে তিনি হাক্কুল ইবাদ পালন করেছেন, যা ইবাদতের অন্তর্ভুক্ত। কুরআন ও হাদিসে এ বিষয়ে অত্যন্ত গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। মহানবি (স) বলেছেন, “এক মুসলিমের উপর অপর মুসলিমের ছয়টি অধিকার রয়েছে। যেমন : সালামের জবাব দেওয়া, রোগীকে দেখতে যাওয়া, জানাযায় অংশগ্রহণ করা, দাওয়াত কবুল করা, মজলুমকে সাহায্য করা ও হাঁচির জবাব দেওয়া।” সুতরাং জনাব শফিকুর রহমানের মতো আমাদের সকলকে আল্লাহর ইবাদতের পাশাপাশি মানুষের প্রতি দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে সচেষ্ট হতে হবে।
প্রশ্ন- ২  মালিক-শ্রমিক সম্পর্ক এবং ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক

সাজ্জাদ ও সাকিব সাহেব দুই বন্ধু। সাজ্জাদ সাহেব একটি পোশাক শিল্পের মালিক। গত রমযানের ঈদে শ্রমিকদের বোনাস দিতে গড়িমসি করায় কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দেয়। শ্রমিকরা তাদের প্রাপ্য পেতে একদিন কর্মবিরতি পালন করে। অপরদিকে সাকিব ছাত্রজীবন থেকে পরোপকারী ছিলেন। বর্তমানে তিনি মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করে হাসপাতালে কর্মরত আছেন। তিনি হাসপাতালে নিয়মিত উপস্থিত থেকে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেন। একদিন তাঁর স্কুলজীবনের শিক্ষক চিকিৎসার উদ্দেশ্যে হাসপাতালে এলে তাঁকে দাঁড়িয়ে সম্মান জানিয়ে যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেন।
ক. কে আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর?
খ. “শ্রমিকের গায়ের ঘাম শুকানোর পূর্বেই তার পারিশ্রমিক দিয়ে দাও।”-হাদিসটি বুঝিয়ে লেখ।
গ. সাজ্জাদ সাহেবের আচরণে কার আদর্শ লঙ্ঘিত হয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. ‘সাকিব তার শিক্ষকের যোগ্য উত্তরসূরি’- পাঠ্যপুস্তকের আলোকে উক্তিটি মূল্যায়ন কর।

ক শিক্ষক আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর।
খ ‘শ্রমিকের গায়ের ঘাম শুকানোর পূর্বেই তার পারিশ্রমিক দিয়ে দাও’- মহানবি (স)-এর এ হাদিসটির মাধ্যমে বোঝা যায়, শ্রমিকের পারিশ্রমিক খুব দ্রæত আদায়ের ব্যাপারে ইসলামের বিধান সুস্পষ্ট। পারিশ্রমিক দিতে অকারণে বিলম্ব করা সমীচীন নয়। কেননা শ্রমিকের দৈনন্দিন জীবন মালিক হতে প্রাপ্ত বেতন-ভাতার ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল। তাই এক্ষেত্রে অহেতুক বিলম্ব শ্রমিকের কষ্টের কারণ হতে পারে। যথাসময়ে পারিশ্রমিক পেলে শ্রমিকরা তাদের দৈনন্দিন প্রয়োজন পূরণ করতে পারে। আর এটা তাদের অধিকারও বটে।
গ সাজ্জাদ সাহেবের আচরণে মহানবি হযরত মুহাম্মদ (স)-এর আদর্শ লঙ্গিত হয়েছে। কারণ মহানবি (স) শ্রমিকের মর্যাদা ও অধিকার সম্পর্কে ছিলেন অত্যন্ত সচেতন। তিনি শ্রমিকের পারিশ্রমিক খুব দ্রæত আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘শ্রমিকের গায়ের ঘাম শুকানোর পূর্বেই তার পারিশ্রমিক দিয়ে দাও।’ তাই শ্রমিকের পারিশ্রমিক দিতে অকারণে বিলম্ব করা সমীচীন নয়। অথচ উদ্দীপকের সাজ্জাদ সাহেব তার পোশাক কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের ঈদ বোনাস দিতে গড়িমসি করে, যা ইসলাম অনুমোদন করে না। শ্রমিকের পারিশ্রমিক আদায়ের ব্যাপারে ইসলামের বিধান সুস্পষ্ট। মালিকরা যাতে শ্রমিকের প্রতি নির্দয় না হয়ে তাদের উপযুক্ত পারিশ্রমিক যথাসময়ে প্রদান করে সে ব্যাপারে মহানবি (স) নির্দেশ দিয়েছেন। শ্রমিক যাতে তার শ্রমের সঠিক মূল্য পায় সে ব্যাপারে রাসুলুল্লাহ (স) বলেছেন, ‘মজুরের পারিশ্রমিক নির্ধারণ না করে তাকে কাজে নিয়োগ কর না।’ কিন্তু উদ্দীপকের সাজ্জাদ সাহেব মহানবি (স)-এর এসব নির্দেশ অমান্য করে তার কারখানার শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধে অহেতুক বিলম্ব করেছেন, যা মহানবি (স)-এর আদর্শের পরিপন্থী। সুতরাং বলা যায়, সাজ্জাদ সাহেবের আচরণে মহানবি (স)-এর আদর্শ লঙ্ঘিত হয়েছে।
ঘ ‘সাকিŸ তার শিক্ষকের যোগ্য উত্তরসূরি’Ñ উক্তিটি যথার্থ। আমরা জানি, শিক্ষক হলেন জাতি গঠনের কারিগর। পিতামাতার পরই শিক্ষকের মর্যাদা। কেননা, শিক্ষার্থীদেরকে প্রকৃত মানুষরূপে গড়ে তোলেন একজন শিক্ষক। শিক্ষক তার ছাত্রের কল্যাণ কামনা করেন ও তাকে সৎপথ দেখান। একজন শিক্ষার্থী তার শিক্ষক হতে প্রাপ্ত জ্ঞান কাজে লাগিয়ে আদর্শ ও যোগ্য মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে পারে। যেমনটি আমরা দেখেছি উদ্দীপকে। ছাত্রজীবন থেকে পরোপকারী সাকিব মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করে হাসপাতালে কর্মরত থাকাকালীন অবস্থায় তার স্কুল জীবনের শিক্ষক চিকিৎসার উদ্দেশ্যে আসলে তিনি দাঁড়িয়ে সম্মান জানান এবং যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। শিক্ষকের প্রতি যথাযথ সম্মান ও কর্তব্য পালনের পাশাপাশি সাকিব তার পেশার প্রতিও যথেষ্ট আন্তরিক ও নিষ্ঠাবান। সাকিব তার কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে নিজেকে তার শিক্ষকের যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে প্রমাণ করেছে। ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হলো আত্মার সম্পর্ক। এটি পিতাপুত্রের সম্পর্কের ন্যায়। পিতা যেমন সর্বদা পুত্রের কল্যাণ কামনা করেন ও তাকে কল্যাণের পথে চলতে উদ্বুদ্ধ করেন, শিক্ষকও তেমনি তাঁর ছাত্রের কল্যাণ কামনা করেন ও তাকে সৎপথ দেখান। পুত্র তার পিতা থেকে সম্পদের উত্তরাধিকারী হয়, অন্যদিকে ছাত্রও তার শিক্ষক থেকে জ্ঞান ও আদর্শের উত্তরাধিকারী হয়। সুতরাং, ‘সাকিব তার শিক্ষকের যোগ্য উত্তরসূরি’ উক্তিটি যথার্থ।
 সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ ইবাদত বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : ইবাদত আরবি শব্দ। এর অর্থ হলো চ‚ড়ান্তভাবে দীনতা-হীনতা ও বিনয় প্রকাশ করা এবং নমনীয় হওয়া। আবদুন (عَـبْـدٌ) শব্দমূল থেকে ইবাদত (عِـبَـادَةٌ) শব্দের উৎপত্তি। (عَـبْـدٌ) আবদুন অর্থ দাস। এখান থেকেই ইবাদত অর্থ-দাসত্ব করা, আনুগত্য করা ইত্যাদি। ব্যাপক অর্থে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় জীবনের সকল ক্ষেত্রে তাঁর দাসত্ব বা আনুগত্য করাকে ইবাদত বলে। আর ইসলামি পরিভাষায় দৈনন্দিন জীবনের সকল কাজ-কর্মে আল্লাহ তায়ালার বিধিবিধান মেনে চলাকে ইবাদত বলা হয়।
প্রশ্ন \ ২ \ হজের সামাজিক গুরুত্ব ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : হজের সামাজিক গুরুত্ব অপরিসীম।
হজের মাধ্যমে বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব তৈরি হয়। হজ বিশ্ব মুসলিমের মহাসম্মেলন। প্রতি বছর বিশ্বের নানা প্রান্ত হতে লক্ষ লক্ষ মুসলিম একই স্থানে সমবেত হয়। এই সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন এলাকার নানা ভাষা, আকৃতি ও বর্ণের মুসলমান একই পোশাকে একই নিয়মে হজ পালন করে থাকেন এবং বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করতে পারেন। এতে একদিকে মুসলিম উম্মাহর যাবতীয় ধর্মীয় কার্যাবলি সুদৃঢ় ও প্রসারিত হয়, অন্যদিকে সারা বিশ্বের মুসলমানরা একে অন্যের সাথে পরিচিত হবার সুবাদে এক দেশের সামাজিক সমস্যা অবগত হয়ে অন্য দেশ তার সমাধান দিতে পারে। তাছাড়া হজের মধ্য দিয়ে সারাবিশ্বের মুসলমান একটি অখণ্ড ভ্রাতৃসংঘ ও এক উম্মাহ হিসেবে গড়ে ওঠে।
প্রশ্ন \ ৩ \ ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হলো আদর্শিক ও আত্মিক সম্পর্ক। এটি পিতা-পুত্রের সম্পর্কের ন্যায়। পিতা যেমন সর্বদা পুত্রের কল্যাণ কামনা করেন এবং তাকে কল্যাণের পথে চলতে উদ্বুদ্ধ করেন, শিক্ষকও তেমনি তার ছাত্রের কল্যাণ কামনা করেন ও তাকে সৎ পথ দেখান। পুত্র তার পিতা থেকে সম্পদের উত্তরাধিকারী হন। পক্ষান্তরে ছাত্রও তার শিক্ষক থেকে জ্ঞানের উত্তরাধিকারী হন। পুত্র যেমন পিতা থেকে প্রাপ্ত সম্পদের পরিচর্যা করে পিতা হতেও বড় সম্পদশালী হতে পারে, শিক্ষার্থীও তেমনি শিক্ষক থেকে প্রাপ্ত জ্ঞানে সমৃদ্ধ হবে শিক্ষক হতেও বড় জ্ঞানী হতে পারে। ইসলামের চতুর্থ খলিফা হযরত আলি (রা)-এর মতে, ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হলো ভৃত্য-মুনিব সম্পর্ক। তিনি বলেছেন, ‘যার কাছে আমি একটি শব্দও শিখেছি আমি তার দাস। তিনি ইচ্ছা করলে আমাকে বিক্রি করতে পারেন কিংবা আযাদ করে দিতে পারেন কিংবা ইচ্ছা করলে দাস বানিয়েও রাখতে পারেন। মোটকথা ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হবে সুন্দর, যেখানে অকৃত্রিম শ্রদ্ধা, স্নেহ ও ভালোবাসা বিরাজ করবে।
 বর্ণনামূলক প্রশ্নোত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ যাকাত কাকে বলে? যাকাতের ধর্মীয় ও সামাজিক প্রভাব ব্যাখ্যা কর।
যাকাতের পরিচয় : ‘যাকাত’ শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো পবিত্রতা, পরিশুদ্ধতা ও বৃদ্ধি পাওয়া। আর ইসলামি শরিয়তের দৃষ্টিতে কোনো মুসলিম নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হলে বছরান্তে তার সম্পদের শতকরা ২.৫০ হারে নির্দিষ্ট খাতে ব্যয় করাকে যাকাত বলে।
যাকাতের ধর্মীয় প্রভাব :
আল্লাহ তায়ালা ধনী মুসলমানদের উপর যাকাত ফরজ করেছেন। পবিত্র কুরআনের সূরা আন-নূরের ৫৬ নং আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা সালাত কায়েম কর ও যাকাত আদায় কর।’ তাই কোনো মুসলমান যাকাত না দিলে সে আর পরিপূর্ণ মুসলমান থাকতে পারে না। আল্লাহ বলেন-

অর্থ : যারা যাকাত দেয় না এবং তারা পরকালও অস্বীকারকারী।
যাকাত অস্বীকার করা আল্লাহ ও তাঁর রাসুলকে অস্বীকার করার শামিল। আর যাকাত হলো আর্থিক ইবাদত। সুতরাং যাকাত আদায় করা একজন মুসলিমের ইমানি দায়িত্ব।
যাকাতের সামাজিক প্রভাব : যাকাত সমাজ থেকে অস্থিতিশীলতা ও বিশৃঙ্খলা দূর করে পারস্পরিক সৌহার্দ স্থাপন করে। সামাজিক নিরাপত্তা দানের পাশাপাশি মানুষের মাঝে সম্পদের বৈষম্য দূর করে। আল্লাহ তায়ালা বলেন :

অর্থ : ‘যাতে সম্পদ শুধু তোমাদের অর্থশালীদের মধ্যেই আবর্তিত না হয়।’ উপরিউক্ত আলোচনায় সু স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হয় যে, যাকাতের ধর্মীয় ও সামাজিক প্রভাব অপরিসীম। সুতরাং সমাজে যাকাত ব্যবস্থা চালু করে বৈষম্য দূর করে সাম্যের ভিত্তিতে জীবন গড়ে তোলাই আমাদের ইমানি দায়িত্ব।

কমন উপযোগী জ্ঞান ও অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

 জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ মানুষ সৃষ্টির উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : মানুষ সৃষ্টির উদ্দেশ্য হচ্ছে আল্লাহর ইবাদত করা।
প্রশ্ন \ ২ \ কিসের মধ্যে মানুষের কল্যাণ নিহিত?
উত্তর : ইবাদতের মধ্যে মানুষের কল্যাণ নিহিত।
প্রশ্ন \ ৩ \ ইবাদতের মূল উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : ইবাদতের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন।
প্রশ্ন \ ৪ \ ইবাদত কয় প্রকার?
উত্তর : ইবাদত দুই প্রকার।
প্রশ্ন \ ৫ \ সালাত আদায়ের পর কোথায় ছড়িয়ে পড়তে হয়?
উত্তর : সালাত আদায়ের পর জমিনে ছড়িয়ে পড়তে হয়।
প্রশ্ন \ ৬ \ সালাত অর্থ কী?
উত্তর : সালাত অর্থ দোয়া, ক্ষমা প্রার্থনা করা ও রহমত কামনা করা।
প্রশ্ন \ ৭ \ সালাতের ফারসি প্রতিশব্দ কী?
উত্তর : সালাতের ফারসি প্রতিশব্দ নামায।
প্রশ্ন \ ৮ \ সালাত কোন ভাষার শব্দ?
উত্তর : সালাত আরবি শব্দ।
প্রশ্ন \ ৯ \ সালাত ইসলামের কততম রুকন?
উত্তর : সালাত ইসলামের দ্বিতীয় রুকন।
প্রশ্ন \ ১০ \ কিয়ামতের দিন আল্লাহ তায়ালা সর্বপ্রথম কিসের হিসাব নিবেন?
উত্তর : কিয়ামতের দিন আল্লাহ তায়ালা সর্বপ্রথম সালাতের হিসাব নিবেন।
প্রশ্ন \ ১১ \ সাওম অর্থ কী?
উত্তর : সাওম অর্থ বিরত থাকা।
প্রশ্ন \ ১২ \ সাওমের ফারসি প্রতিশব্দ কী?
উত্তর : সাওমের প্রতিশব্দ রোযা।
প্রশ্ন \ ১৩ \ রমযান মাসে সাওম পালন করা কী?
উত্তর : রমযান মাসে সাওম পালন করা ফরজ।
প্রশ্ন \ ১৪ \ সাওম ইসলামের কততম স্তম্ভ?
উত্তর : সাওম ইসলামের চতুর্থ স্তম্ভ।
প্রশ্ন \ ১৫ \ সাওম শব্দটি কোন ভাষা থেকে এসেছে?
উত্তর : সাওম আরবি শব্দ।
প্রশ্ন \ ১৬ \ ইসলামের সেতুবন্ধন কোনটি?
উত্তর : ইসলামের সেতুবন্ধন হলো যাকাত।
প্রশ্ন \ ১৭ \ যাকাত শব্দের অর্থ কী?
উত্তর : যাকাত শব্দের অর্থ পবিত্রতা, পরিশুদ্ধতা ও বৃদ্ধি পাওয়া।
প্রশ্ন \ ১৮ \ যাকাত অস্বীকারকারীদের কী বলা হয়?
উত্তর : যাকাত অস্বীকারকারীদের মুরতাদ বলা হয়।
প্রশ্ন \ ১৯ \ গুরুত্বের দিক দিয়ে সালাতের পরই কার স্থান?
উত্তর : গুরুত্বের দিক দিয়ে সালাতের পরই যাকাতের স্থান।
প্রশ্ন \ ২০ \ হজ ইসলামের কততম ভিত্তি?
উত্তর : হজ ইসলামের পঞ্চম ভিত্তি।
প্রশ্ন \ ২১ \ হজ এর আভিধানিক অর্থ কী?
উত্তর : হজ এর আভিধানিক অর্থ সংকল্প করা, ইচ্ছা করা।
প্রশ্ন \ ২২ \ মুসলমানদের জীবনে হজ কয়বার ফরজ?
উত্তর : মুসলমানদের জীবনে হজ একবার ফরজ।
প্রশ্ন \ ২৩ \ হজ অস্বীকারকারীদের কী বলা হয়?
উত্তর : হজ অস্বীকারকারীদের কাফির বলা হয়।
প্রশ্ন \ ২৪ \ বিশ্ব মুসলিমের মহাসম্মেলন কী?
উত্তর : বিশ্ব মুসলিমের মহাসম্মেলন হচ্ছে হজ।
প্রশ্ন \ ২৫ \ কার ঘাম শুকানোর আগেই পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়া উচিত?
উত্তর : শ্রমিকের ঘাম শুকানোর আগেই পারিশ্রমিক দিয়ে দেওয়া উচিত।
প্রশ্ন \ ২৬ \ হযরত মুহাম্মদ (স)-এর শ্রমিক ছিলেন কে?
উত্তর : হযরত মুহাম্মদ (স) এর শ্রমিক ছিলেন হযরত আনাস (রা)।
প্রশ্ন \ ২৭ \ কে আমিরুল মুমিনিন ছিলেন?
উত্তর : হযরত উমর (রা) আমিরুল মুমিনিন ছিলেন।
প্রশ্ন \ ২৮ \ মজুরের কী নির্ধারণ না করে তাকে কাজে নিযুক্ত করা যাবে না?
উত্তর : মজুরের পারিশ্রমিক নির্ধারণ না করে তাকে কাজে নিযুক্ত করা যাবে না।
প্রশ্ন \ ২৯ \ হযরত আনাস (রা) কয় বছর রাসুলুল্লাহ (স)-এর খেদমত করেছেন?
উত্তর : হযরত আনাস (রা) দশ বছর রাসুলুল্লাহ (স)-এর খেদমত করেছেন।
প্রশ্ন \ ৩০ \ ইলম কী শব্দ?
উত্তর : ইলম আরবি শব্দ।
প্রশ্ন \ ৩১ \ ইলম অর্থ কী?
উত্তর : ইলম অর্থ জ্ঞান, বিদ্যা, অবগত হওয়া, জানা ইত্যাদি।
প্রশ্ন \ ৩২ \ ইসলাম অর্থ কী?
উত্তর : ইসলাম অর্থ আনুগত্য ও আত্মসমর্পণ করা।
প্রশ্ন \ ৩৩ \ ইলম কয়ভাগে বিভক্ত?
উত্তর : ইলম দুইভাগে বিভক্ত।
প্রশ্ন \ ৩৪ \ ইসলামে জ্ঞানার্জনকে সকল মুসলিমের ওপর কী করেছে?
উত্তর : ইসলামে জ্ঞানার্জনকে সকল মুসলিমের ওপর ফরজ করেছে।
প্রশ্ন \ ৩৫ \ কী জাতির মেরুদণ্ড?
উত্তর : শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড।
প্রশ্ন \ ৩৬ \ ইসলাম শিক্ষার মূল উৎস কয়টি?
উত্তর : ইসলাম শিক্ষার মূল উৎস দুইটি।
প্রশ্ন \ ৩৭ \ রাসুল (স)-এর বাণী, কাজ ও মৌনসম্মতিকে কী বলে?
উত্তর : রাসুল (স) এর বাণী, কাজ ও মৌন সম্মতিকে হাদিস বলে।
প্রশ্ন \ ৩৮ \ ইসলামের দ্বিতীয় উৎস কোনটি?
উত্তর : ইসলামের দ্বিতীয় উৎস হাদিস।
প্রশ্ন \ ৩৯ \ ইসলাম শিক্ষার তৃতীয় উৎস কোনটি?
উত্তর : ইসলাম শিক্ষার তৃতীয় উৎস ইজমা।
প্রশ্ন \ ৪০ \ যে নিয়মিত লেখা-পড়া করে এবং শেখার প্রতি আগ্রহী ও যত্মশীল থাকে তাকে কী বলে?
উত্তর : যে নিয়মিত লেখা পড়া করে এবং শেখার প্রতি আগ্রহী ও যত্মশীল থাকে তাকে শিক্ষার্থী বলে।
প্রশ্ন \ ৪১ \ শিক্ষকের সাথে কেমন আচরণ করা যাবে না?
উত্তর : শিক্ষকের সাথে অভদ্র আচরণ করা যাবে না।
প্রশ্ন \ ৪২ \ শিক্ষার্থীদের কেমন জীবনযাপনে অভ্যস্ত হতে হবে?
উত্তর : শিক্ষার্থীদের সুশৃঙ্খল জীবনযাপনে অভ্যস্ত হতে হবে।
প্রশ্ন \ ৪৩ \ জ্ঞান লাভের ক্ষেত্রে কী পরিহার করতে হবে?
উত্তর : জ্ঞান লাভের ক্ষেত্রে লজ্জাশীলতা পরিহার করতে হবে।
প্রশ্ন \ ৪৪ \ ইমাম শাফেয়ি (র)-এর শিক্ষকের নাম কী ছিল?
উত্তর : ইমাম শাফেয়ি (র)-এর শিক্ষকের নাম ছিল আল্লামা ওয়াকি (র)।
প্রশ্ন \ ৪৫ \ যিনি আমাদের শিক্ষা দেন তিনি কে?
উত্তর : যিনি আমাদের শিক্ষা দেন তিনি শিক্ষক।
প্রশ্ন \ ৪৬ \ পৃথিবীর সবচাইতে সম্মান ও মর্যাদার পেশা কী?
উত্তর : পৃথিবীর সবচাইতে সম্মান ও মর্যাদার পেশা শিক্ষকতা।
প্রশ্ন \ ৪৭ \ নিজেকে শিক্ষক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন কে?
উত্তর : নিজেকে শিক্ষক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন হযরত মুহাম্মদ (স)।
প্রশ্ন \ ৪৮ \ একজন ভালো শিক্ষক অন্যায়ের ব্যাপারে কেমন হবেন?
উত্তর : একজন ভালো শিক্ষক অন্যায়ের ব্যাপারে আপোষহীন হবেন।
প্রশ্ন \ ৪৯ \ একজন ভালো শিক্ষকের পোশাক কেমন হওয়া উচিত?
উত্তর : একজন ভালো শিক্ষকের পোশাক শালীন, মার্জিত হওয়া উচিত।
প্রশ্ন \ ৫০ \ আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর কে?
উত্তর : আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর হচ্ছেন শিক্ষক।
প্রশ্ন \ ৫১ \ পিতামাতার পরই কার স্থান?
উত্তর : পিতামাতার পরই শিক্ষকের স্থান।
প্রশ্ন \ ৫২ \ কারা অনুকরণ প্রিয়?
উত্তর : শিশুরা অনুকরণ প্রিয়।
প্রশ্ন \ ৫৩ \ রাসুল (স) কাদের উত্তরাধিকারী বলেছেন?
উত্তর : রাসুল (স) আলেমদের উত্তরাধিকারী বলেছেন।
প্রশ্ন \ ৫৪ \ ইসলামের চতুর্থ খলিফা কে?
উত্তর : ইসলামের চতুর্থ খলিফা হযরত আলি (রা)।
প্রশ্ন \ ৫৫ \ জিহাদ কোন ভাষার শব্দ?
উত্তর : জিহাদ আরবি শব্দ।
প্রশ্ন \ ৫৬ \ জিহাদের আভিধানিক অর্থ কী?
উত্তর : জিহাদের আভিধানিক অর্থ পরিশ্রম, সাধনা, কষ্ট, চেষ্টা ইত্যাদি।
প্রশ্ন \ ৫৭ \ ইসলামে জিহাদ কয় প্রকার?
উত্তর : ইসলামে জিহাদ তিন প্রকার।
প্রশ্ন \ ৫৮ \ কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে জিহাদ করাকে কী বলে?
উত্তর : কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে জিহাদ করাকে জিহাদে আকবর বলে।
প্রশ্ন \ ৫৯ \ জ্ঞানের সাহায্যে জিহাদ করাকে কী বলে?
উত্তর : জ্ঞানের সাহায্যে জিহাদ করাকে জিহাদে কাবির বলে।
প্রশ্ন \ ৬০ \ রাসুল (স) কতগুলো জিহাদে অংশগ্রহণ করেছিলেন?
উত্তর : রাসুল (স) প্রায় ১০০টি জিহাদে অংশগ্রহণ করেছিলেন।
প্রশ্ন \ ৬১ \ জিহাদের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : বান্দাকে মানবীয় কুপ্রবৃত্তি ও শয়তানের প্ররোচনা থেকে মুক্ত করে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর অনুগত বানিয়ে দেওয়া।
প্রশ্ন \ ৬২ \ এক শ্রেণির লোক জিহাদ ও সন্ত্রাসকে এক করে ফেলেছে কেন?
উত্তর : ইসলামি জ্ঞানের স্বল্পতার কারণে জিহাদ ও সন্ত্রাসকে এক করে ফেলেছে।

 অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর


প্রশ্ন \ ১ \ ইবাদত বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : ইবাদত আরবি শব্দ। এর অর্থ হলো চূড়ান্তভাবে দীনতা-হীনতা ও বিনয় প্রকাশ করা এবং নমনীয় হওয়া। আর ইসলামি পরিভাষায় দৈনন্দিন জীবনের সকল কাজ-কর্মে আল্লাহ তায়ালার বিধিবিধান মেনে চলাকে ইবাদত বলা হয়।
প্রশ্ন \ ২ \ মানুষ কেন চতুষ্পদ জন্তু কিংবা তার চেয়ে অধম হয়ে যায়?
উত্তর : আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টি মানুষ ও অন্যান্য প্রাণিকুলের মধ্যে পার্থক্য হলো বিবেক-বুদ্ধি ও জ্ঞানের। যদি মানুষ সে বিবেক-বুদ্ধি ও জ্ঞান দিয়ে আল্লাহর ইবাদত করতে না পারে তাহলে সে চতুষ্পদ জন্তু কিংবা তার চেয়েও অধম হয়ে যায়।
প্রশ্ন \ ৩ \ হাক্কুল্লাহ বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : আল্লাহর সাথে সম্পৃক্ত অধিকার বা কর্তব্যকে হাক্কুল্লাহ বলে। আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে মহান আল্লাহর সন্তষ্টি অর্জন করার জন্য অনেক ধরনের ইবাদত করি। সেগুলোর মধ্যে কিছু ইবাদত শুধু আল্লাহ তায়ালার জন্য নির্দিষ্ট এগুলোই হলো হাক্কুল্লাহ। যেমন : সালাত, সাওম ও হজ ইত্যাদি।
প্রশ্ন \ ৪ \ সালাতের ধর্মীয় গুরুত্ব সংক্ষেপে লেখ।
উত্তর : একজন মুসলিমের দৈনন্দিন জীবনে সালাতের গুরুত্ব অপরিসীম। সালাত মানুষকে আল্লাহর নৈকট্য অর্জনে সহায়তা করে। এর মাধ্যমে বান্দা তার প্রভুর সান্নিধ্য লাভ করতে পারে। সালাতের মাধ্যমে ইমান মজবুত হয়, আত্মা পরিশুদ্ধ হয়, মানুষকে খুব সকালে ঘুম হতে উঠতে অভ্যস্ত করে তোলে, যা স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। সালাতের গুরুত্ব সম্পর্কে রাসুল (স) বলেছেন, যে ব্যক্তি মনোযোগসহ সালাত আদায় করে, কিয়ামতের দিন ঐ সালাত তার জন্য নূর হবে (তাবারানি)।
প্রশ্ন \ ৫ \ সালাতের সামাজিক গুরুত্ব সংক্ষেপে লেখ।
উত্তর : পবিত্র কুরআনের বহুস্থানে সম্মিলিতভাবে সালাত আদায় করার কথা বলা হয়েছে। সালাতের কারণে দৈনিক পাঁচবার মুসলমানগণ একস্থানে মিলিত হওয়ার সুযোগ পায়। একে অপরের খোঁজখবর নিতে পারে। সুখে-দুঃখে একে অপরের সহয়োগিতা করতে পারে। এতে তাদের মধ্যে সামাজিক বন্ধন আরও সুদৃঢ় হয়।
প্রশ্ন \ ৬ \ সালাতের পরিচয় ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : সালাত আরবি শব্দ। এর ফার্সি প্রতিশব্দ হলো নামায। এর অর্থ দোয়া, ক্ষমা প্রার্থনা করা ও রহমত কামনা করা। যেহেতু সালাতের মাধ্যমে বান্দা প্রভুর নিকট দোয়া ও ক্ষমা প্রার্থনা করে থাকে তাই একে সালাত বলে। ইসলাম যে পাঁচটি স্তম্ভের উপর প্রতিষ্ঠিত তার দ্বিতীয়টি হলো সালাত। মহান আল্লাহ মুমিনের উপর দৈনিক পাঁচবার সালাত ফরজ করেছেন।
প্রশ্ন \ ৭ \ রমযান মাসে কী শিক্ষা পাওয়া যায়?
উত্তর : রমযান মাসে সিয়াম সাধনার ফলে সমাজের লোকদের মাঝে পারস্পরিক সহানুভূতি ও সহমর্মিতা সৃষ্টি হয়। সাওম পালনকারী ক্ষুধার্ত থাকার ফলে ক্ষুধা ও পিপাসার যন্ত্রণা যে কিরূপ পীড়াদায়ক হতে পারে তা সে উপলব্ধি করতে পারে। এতে অসহায় নিরন্ন মানুষের প্রতি সহানুভূতি ও সহমর্মিতার ভাব জাগ্রত হয়। সুতরাং আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সাওমের শিক্ষা ও গুরুত্ব অপরিসীম।
প্রশ্ন \ ৮ \ সাওমের ধর্মীয় গুরুত্ব লেখ।
উত্তর : সাওম একটি ফরজ ইবাদত। এর ধর্মীয় গুরুত্ব অপরিসীম। রমযান মাসে সকল সৎকাজের প্রতিদান আল্লাহ দশগুণ হতে সাতশত গুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেবেন। সাওমের প্রতিদান সম্পর্কে হাদিসে কুদসিতে, আল্লাহ তায়াালা বলেনÑ

অর্থ : সাওম আমার জন্য আর আমি নিজেই এর প্রতিদান দেব। (বুখারি)
যেহেতু সাওয়াবের আশায় আল্লাহর উদ্দেশ্যে সাওম পালন করা হয় সেহেতু আল্লাহ তায়ালা রোযাদারের পূর্বের সকল গুনাহ ক্ষমা করে দেন। যেমন, মহানবি (স) বলেছেন-
“যে ব্যক্তি আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস ও সাওয়াবের আশায় রমযান মাসে রোযা রাখে, আল্লাহ তায়ালা তার পূর্বের সমস্ত পাপ ক্ষমা করে দেন।” (বুখারি)।
এটি একটি মৌলিক ফরজ কাজ। যদি কেউ তা অস্বীকার করে তাহলে সে কাফির হয়ে যাবে।
প্রশ্ন \ ৯ \ সাওমের নৈতিক শিক্ষা সম্পর্কে লেখ।
উত্তর : সাওমের মাধ্যমে আমরা অনেক নৈতিক শিক্ষা লাভ করতে পারি। সাওমের মাধ্যমে মানুষের মনে তাওকয়া ও আল্লাহর প্রতি ভালোবাসা সৃষ্টি হয়। ক্ষুধা ও তৃষ্ণায় কাতর হয়েও মানুষ মহান আল্লাহর ভালোবাসা ও ভয়ে কিছুই পানাহার করে না ও ইন্দ্রিয় তৃপ্তি লাভ করে না।
আমরা তাকওয়া অর্জনের জন্য রমযান মাসে সিয়াম পালন করব।
মানুষ লোভ-লালসা, হিংসা-বিদ্বেষ, ক্রোধ-ক্ষোভ ও কামভাবের বশবর্তী হয়ে অনেক মন্দ কাজে লিপ্ত হয়। সাওম মানুষকে এসব কাজ থেকে মুক্ত থাকতে শেখায়। সাওম হলো কোনো ব্যক্তি ও তার মন্দ কাজের মাঝে ঢালস্বরূপ। মহানবি হযরত মুহাম্মদ (স) বলেছেন-

সর্বোপরি সাওম পালনের মাধ্যমে দৈহিক, মানসিক ও আত্মিক প্রশান্তি অর্জিত হয়।
প্রশ্ন \ ১০ \ যাকাতের মাধ্যমে কীভাবে সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তর : আমাদের সমাজে ধনী ও গরিব উভয় শ্রেণির লোক রয়েছে। ধনী ও গরিবের মাঝে আর্থিক সমন্বয় সাধন করতে মহান আল্লাহ যাকাতের বিধান দিয়েছেন। যাকাত আদায় করলে সমাজের দুর্বল লোকেরাও আর্থিকভাবে সবল হয়ে উঠবে। ফলে ধনী ও গরিবের মাঝে সেতুবন্ধন তৈরি হবে। এতে সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা ও সম্প্রতি বজায় থাকবে।
প্রশ্ন \ ১১ \ যাকাতের সামাজিক গুরুত্ব লেখ।
উত্তর : যাকাতের সামাজিক গুরুত্ব অপরিসীম। যাকাত সমাজ থেকে অস্থিতিশীলতা ও বিশৃঙ্খলা দূর করে পারস্পরিক সৌহার্দ স্থাপন করে। সামাজিক নিরাপত্তা দানের পাশাপাশি সমাজের মানুষের মাঝে সম্পদের বৈষম্য দূর করে। যেমন আল্লাহ তায়ালা বলেন, “যাতে সম্পদ শুধু তোমাদের অর্থশালীদের মধ্যেই আবর্তিত না হয়।” সুতরাং সমাজে যাকাত ব্যবস্থা চালু করে বৈষম্য দূর করে সাম্যের ভিত্তিতে জীবন গড়ে তোলাই আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য।
প্রশ্ন \ ১২ \ যাকাতের ধর্মীয় গুরুত্ব কী?
উত্তর : যাকাতের ধর্মীয় গুরুত্ব অপরিসীম। এটি একটি ফরজ ইবাদত। কোনো মুসলমান যাকাত না দিলে সে আর পরিপূর্ণ মুসলমান থাকতে পারে না। আল্লাহ বলেন, “যারা যাকাত দেয় না এবং তারা পরকালও অস্বীকারকারী।’ যাকাত অস্বীকার করা আল্লাহ ও তাঁর রাসুলকে অস্বীকার করার শামিল। ইসলামের প্রথম খলিফা হযরত আবু বকর (রা) যাকাত অস্বীকারকারীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন।
প্রশ্ন \ ১৩ \ হজ বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : হজ ইসলামের পঞ্চম ভিত্তি। হজ এর আভিধানিক অর্থ-সংকল্প করা, ইচ্ছা করা বা প্রদক্ষিণ করা। ইসলামের পরিভাষায় আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে হজের মাসের নির্ধারিত দিনসমূহে নির্ধারিত পদ্ধতিতে বাইতুল্লাহ (আল্লাহর ঘর) ও সংশ্লিষ্ট স্থানসমূহ যিয়ারত করাকে হজ বলে।
প্রশ্ন \ ১৪ \ হজের ফরজগুলো লেখ।
উত্তর : হজের মোট ৩টি ফরজ রয়েছে। যথা :
১. ইহরাম বাঁধা (আনুষ্ঠানিকভাবে হজের নিয়ত করা)
২. ৯ই জিলহজ তারিখে আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা।
৩. তাওয়াফে যিয়ারত (১০ই জিলহজ ভোর থেকে ১২ জিলহজ পর্যন্ত যেকোনো দিন কাবা শরিফ তাওয়াফ করা।)
প্রশ্ন \ ১৫ \ হজের সামাজিক গুরুত্ব কী?
উত্তর : হজের মাধ্যমে বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব তৈরি হয়। প্রতি বছর বিশ্বের নানা প্রান্ত হতে লক্ষ লক্ষ মুসলিম একই স্থানে সমবেত হয়। হজ বিশ্ব মুসলিমের মহাসম্মেলন।
হজে এসে সবাই একই রকম পোশাক পরিধান করে আল্লাহর দরবারে নিজেকে সমর্পণ করে। সম্মিলিত কণ্ঠে আওয়াজ করে বলতে থাকে-‘লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, অর্থাৎ হাজির হে আল্লাহ! আমরা তোমার দরবারে হাজির।
প্রশ্ন \ ১৬ \ ‘মালিক-শ্রমিক একে অপরের সহযোগিতা ছাড়া জীবনধারণ করতে পারেন না’ ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : মানুষ সামাজিক জীব। পৃথিবীর কোনো মানুষই একা তার সকল কাজ করতে পারে না। শিল্পায়নের এ যুগে জীবনধারণের জন্য প্রত্যেক মানুষকেই একে অন্যের মুখাপেক্ষী হতে হয়। এতে কেউ মালিক হয় আবার কেউ হয় শ্রমিক। মালিকের সাথে শ্রমিকের সম্পর্ক অত্যন্ত নিবিড়। মালিক শ্রেণি যেমন শ্রমিক শ্রেণির সাহায্য ছাড়া চলতে পারে না, তেমনিভাবে শ্রমিক শ্রেণির দৈনন্দিন জীবন মালিক শ্রেণির অর্থ ব্যবস্থার ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল।
প্রশ্ন \ ১৭ \ মালিক-শ্রমিকের ব্যাপারে হযরত উমর (রা) কেমন ছিলেন?
উত্তর : হযরত উমর (রা) আমীরুল মুমিনিন ছিলেন। জেরুজালেম সফরে উটের পিঠে চড়া ও উট টেনে নেওয়ার ব্যাপারে তিনি সাম্য ও মানবতাবোধ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি উটের পিঠে চড়া ও উটের রশি টানার বিষয়ে নিজের ও ভৃত্যের মাঝে পালাক্রম ঠিক করে নিয়েছিলেন। মালিক-শ্রমিকের এমন দৃষ্টান্ত ইতিহাসে বিরল।
প্রশ্ন \ ১৮ \ শ্রমিকের অধিকারের ওপর ৩টি বাক্য লেখ।
উত্তর : শ্রমিকের অধিকারের ওপর ৩টি বাক্য নিচে উল্লেখ করা হলো-
১. উপযুক্ত মজুরি পাওয়ার অধিকার।
২. মালিকের নিকট থেকে উত্তম ব্যবহার পাওয়ার অধিকার।
৩. ঘাম শুকানোর পূর্বেই পারিশ্রমিক পাওয়ার অধিকার।
প্রশ্ন \ ১৯ \ উত্তম ইলম কী?
উত্তর : ইলমের অনেক শাখা-প্রশাখা রয়েছে। এর মধ্যে যে ইলম অর্জন করলে সত্য-মিথ্যার পার্থক্য করা যায়, বৈধ্য-অবৈধ বুঝা যায় এবং আল্লাহর নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভ করা যায় তাই হলো উত্তম ইলম।
প্রশ্ন \ ২০ \ ইসলামের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : ইসলামের উদ্দেশ্য হলো মানুষের কল্যাণ করা। যেমন : মহানবি হযরত মুহাম্মদ (স) বলেছেন, ‘দীন (ধর্ম) হলো কল্যাণ করা, ‘তাই যেসব ইলম মানবজীবনে কল্যাণ সাধন করে তা অর্জন করা অবশ্য কর্তব্য।’
প্রশ্ন \ ২১ \ গ্রহণীয় ও বর্জনীয় জ্ঞানের তিনটি করে উদাহরণ দাও।
উত্তর : গ্রহণীয় জ্ঞানের ৩টি উদাহরণ :
১. নৈতিক জ্ঞান;
২. কুরআন-হাদিসের জ্ঞান;
৩. প্রকৌশল বিদ্যা।
বর্জনীয় জ্ঞানের ৩টি উদাহরণ :
১. অনৈতিক জ্ঞান; ২. চুরি-ডাকাতি; ৩. অন্যায়-জুলুম।
প্রশ্ন \ ২২ \ শিক্ষা বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষাহীন জাতি মেরুদণ্ডহীন প্রাণির মতো। সঞ্চিত জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতাকে নিজের জীবনে সফলভাবে প্রয়োগ করাকেই শিক্ষা বলে। শিক্ষা মানুষকে প্রকৃত মানুষ হতে সাহায্য করে এবং মানবহৃদয়কে অজ্ঞতা ও অন্ধকার থেকে মুক্ত করে জ্ঞানের আলোয় উদ্ভাসিত করে। শিক্ষা বলতে আমরা বুঝি মানুষের শরীর, মন ও আত্মার সমন্বিত বিকাশসাধন।
প্রশ্ন \ ২৩ \ ‘নৈতিক শিক্ষা ইসলামি শিক্ষার অবিচ্ছেদ্য অংশ’ ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : কুরআন ও হাদিসের আলোকে সমন্বিত শিক্ষাই হলো ইসলামি শিক্ষা। এ শিক্ষার মাধ্যমে একজন ব্যক্তি সৎ, চরিত্রবান, খোদাভীরু, দেশপ্রেমিক ও সুনাগরিক হিসেবে নিজেকে গঠন করতে পারে। ইসলামি শিক্ষার মাধ্যমে নৈতিকতা সম্পর্কে জানা ও তা বাস্তবজীবনে প্রয়োগ করা অধিকতর সহজ। ইসলামি শিক্ষার মাধ্যমে একজন ব্যক্তি পরিপূর্ণ নৈতিকতা লাভ করতে পারে। তাই বলা যায় যে, নৈতিক শিক্ষা ইসলামি শিক্ষার অবিচ্ছেদ্য অংশ।
প্রশ্ন \ ২৪ \ “আল্লাহর সবচেয়ে মূল্যবান দান হলো চরিত্র” Ñ সংক্ষেপে লেখ।
উত্তর : মহানবি হযরত মুহাম্মদ (স) বলেছেন, ‘তোমাদের মধ্যে সেই লোকটিই আমার নিকট অধিক প্রিয় যার আখলাক (নৈতিকতা) সবচাইতে সুন্দর’ এমনিভাবে জনৈক ব্যক্তি হযরত মুহাম্মদ (স)-এর নিকট জানতে চাইলেন মহান আল্লাহ মানুষকে অনেক কিছু দান করেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে মূল্যবান দান কোনটি? নবি করিম (স) বলেছেন, সবচেয়ে মূল্যবান দান সুন্দর চরিত্র।
প্রশ্ন \ ২৫ \ একজন আদর্শ শিক্ষার্থীর পাঁচটি বৈশিষ্ট্য লেখ।
উত্তর : একজন আদর্শ শিক্ষার্থীর পাঁচটি বৈশিষ্ট্য নিচে উল্লেখ করা হলো :
১. নিয়মিত শ্রেণিতে উপস্থিত থাকা।
২. শ্রেণিকক্ষ ও বিদ্যালয়ের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করা।
৩. শরীর ও পোশাক-পরিচ্ছদ পরিচ্ছন্ন রাখা।
৪. শ্রেণিকক্ষে বা অন্য কোথাও শিক্ষকের সাথে দেখা হলে সাথে সাথে দাঁড়িয়ে সম্মান করা।
৫. শিক্ষকগণের আদেশ-নিষেধ মেনে চলা।
প্রশ্ন \ ২৬ \ একজন ভালো শিক্ষক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হবেন কীভাবে?
উত্তর : একজন ভালো শিক্ষক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হবেন নিম্নোক্তভাবে : ১. পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবেন; ২. শালীন, মার্জিত ও ব্যক্তিত্বরক্ষাকারী পোশাক পরিধান করবেন; ৩. বিশুদ্ধ উচ্চারণ ও প্রকাশভঙ্গির অধিকারী হবেন; ৪. মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখবেন; ৫. নিয়মনীতির ক্ষেত্রে কঠোর হবেন; ৬. সুস্থ মন ও দেহের অধিকারী হবেন।
প্রশ্ন \ ২৭ \ একজন ভালো শিক্ষক কীভাবে ছাত্রদের প্রতি মমত্ববোধ ও ভালোবাসা সম্পন্ন হবেন?
উত্তর : একজন ভালো শিক্ষক ছাত্রদের প্রতি মমত্ববোধ ও ভালোবাসা সম্পন্ন হবেন নিম্নোক্তভাবে :
১. স্নেহ-মমতা দিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করবেন।
২. সকল শিক্ষার্থীকে সমান চোখে দেখবেন।
৩. ছাত্রদের মাঝে জ্ঞান লাভের উৎসাহ তৈরি করবেন।
৪. প্রয়োজনে একটি বিষয় বার বার বলবেন।
৫. ছাত্রদের একান্ত আপনজন ভাববেন।
প্রশ্ন \ ২৮ \ শিক্ষকের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও।
উত্তর : শিক্ষক হলেন আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর। পিতামাতার পরই শিক্ষকের মর্যাদা। শিক্ষক পরম ভক্তি ও শ্রদ্ধার পাত্র। পিতামাতা সন্তানকে জন্ম দিয়ে শুধু লালন-পালন করেন। আর তাকে মানুষরূপে গড়ে তোলেন একজন শিক্ষক।
প্রশ্ন \ ২৯ \ ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত?
উত্তর : পুত্র ও পিতার মাঝে যেমন উত্তরাধিকারের সম্পর্ক আছে ছাত্র-শিক্ষকের মাঝেও তেমন সম্পর্ক বিদ্যমান। তাই আমরা এই সম্পর্কের
প্রতি শ্রদ্ধাশীল হব। ইসলামের চতুর্থ খলিফা হযরত আলি (রা) বলেছেন, যার কাছে আমি একটি শব্দও শিখেছি আমি তার দাস। তিনি ইচ্ছা করলে আমাকে বিক্রি করতে পারেন কিংবা আযাদ করে দিতে পারেন। কিংবা ইচ্ছা করলে দাস বানিয়েও রাখতে পারেন। তার মতে, ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক হলো ভৃত্য-মুনিব সম্পর্ক।
প্রশ্ন \ ৩০ \ শিক্ষকতা কেন সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পেশা?
উত্তর : শিক্ষকতা সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পেশা। কারণ-
১. শিক্ষক হলেন আদর্শ জাতি গঠনের কারিগর।
২. নবি ও রাসুলগণ ছিলেন তাঁদের উম্মতের শিক্ষক এবং তাঁরা শিক্ষক হিসেবে দুনিয়াতে এসেছিলেন।
৩. শিক্ষকগণ পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন হয়ে থাকেন।
প্রশ্ন \ ৩১ \ জিহাদ বলতে কী বোঝ?
উত্তর : জিহাদ আরবি শব্দ। এর আভিধানিক অর্থ পরিশ্রম, সাধনা, কষ্ট, চেষ্টা ইত্যাদি। আর ইসলামি পরিভাষায় জান-মাল, ইলম, আমল, লেখনি ও বক্তৃতার মাধ্যমে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় আল্লাহর দীনকে (ইসলামকে) সমুন্নত করাই হলো জিহাদ।
প্রশ্ন \ ৩২ \ জিহাদের গুরুত্ব লেখ।
উত্তর : জিহাদ ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। জীবনের সকলক্ষেত্রে দীনের বৈশিষ্ট্যসমূহ রক্ষা করা এবং ইসলামের বিধিবিধান ও অনুশাসন মেনে চলা। যেমন একজন মুমিনের দায়িত্ব, অনুরূপভাবে দীন রক্ষা করা, দীনকে সমুন্নত রাখা ও আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে জিহাদের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করাও তেমনিভাবে তার কর্তব্য। মূলত শান্তির জন্য জিহাদ। বান্দাকে মানবীয় কুপ্রবৃত্তি ও শয়তানের প্ররোচনা থেকে মুক্ত করে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর অনুগত বানিয়ে দেওয়ার জন্যই জিহাদের গুরুত্ব অপরিসীম।
প্রশ্ন \ ৩৩ \ জিহাদের উদ্দেশ্য কী?
উত্তর : মানুষকে মানুষের দাসত্ব থেকে মুক্ত করে আল্লাহর দাসত্বে নিয়ে আসা এবং যুলুম ও শোষণের অবসান ঘটিয়ে ইনসাফ ও নায়ের সুশীতল ছায়াতলে নিয়ে আসাই জিহাদের উদ্দেশ্য।
প্রশ্ন \ ৩৪ \ জিহাদ ও সন্ত্রাসবাদের পার্থক্য কী?
উত্তর : জিহাদ ও সন্ত্রাসবাদ পরস্পর বিপরীত। মানুষকে মানুষের দাসত্ব থেকে মুক্ত করে আল্লাহর দাসত্বে নিয়ে আসা এবং জুলুম ও শোষণের অবসান ঘটিয়ে ইনসাফ ও ন্যায়ের সুশীতল ছায়াতলে নিয়ে আসাই জিহাদের উদ্দেশ্য। পক্ষান্তরে, সন্ত্রাসবাদের উদ্দেশ্য হলো অন্যায়ভাবে রক্তপাত করে রাজ্য জয়, ক্ষমতা দখল, সম্পদ অর্জন করা এবং লুটতরাজ ও খুন খারাবির মাধ্যমে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব ও কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করা।

বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর

 বোর্ড ও সেরা স্কুলের বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
সাধারণ বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
১. ‘রোজা’ কোন ভাষার শব্দ? [স. বো. ’১৬]
ক আরবি খ উর্দু গ হিন্দি  ফার্সি
২. ইসলামের দৃষ্টিতে জিহাদ কত প্রকার? [স. বো. ’১৬]
 তিন খ পাঁচ গ সাত ঘ দশ
৩. ‘কাতিবে ওহি’ কতজন? [স. বো. ’১৬]
ক ২৫  ৪০ গ ৪২ ঘ ৪৫
৪. মানুষের প্রতি মানুষের অধিকারকে কতভাগে ভাগ করা যায়? [স. বো. ’১৬]
ক পাঁচ খ ছয় গ সাত  আট
৫. যায়েদ এমন একটি ইবাদাত পালন করে যার মাধ্যমে সে গরিব দুঃখী মানুষের ক্ষুধার-যন্ত্রণা উপলব্ধি করতে পারে। উক্ত ইবাদাতটি হলো [স. বো. ’১৬]
ক সালাত  সাওম গ যাকাত ঘ হজ
৬. “জিন ও মানবজাতিকে আমি (আল্লাহ) আমার ইবাদতের জন্যই সৃষ্টি করেছি।”Ñ আয়াতখানা পবিত্র কুরআনের কোন সূরা থেকে নেওয়া হয়েছে? [স. বো. ’১৫]
 আয-যারিয়াত খ আল-হাশর
গ আল-জুমুআহ ঘ আল-বায়্যিনাহ
৭. শারীরিক সামর্থ্য থাকার পরও হাসান সাহেব রমযানের রোযা পালন করতে অস্বীকার করেন। তার কাজটি কিরূপ? [স. বো. ’১৫]
ক শিরক  কুফর গ নিফাক ঘ যুলুম
৮. আল্লামা ওয়াকি (র)-এর মতে একজন ভালো ছাত্রের একমাত্র বৈশিষ্ট্য কোনটি? [স. বো. ’১৫]
ক বুঝে শুনে মুখস্থ করা খ লজ্জাশীল ও বিনীত হওয়া
 সকল পাপ কাজ বর্জন করা ঘ পাঠ তৈরি করে শ্রেণিতে যাওয়া
৯. হজের ফরজ কয়টি? [স. বো. ’১৫]
 তিন খ চার গ পাঁচ ঘ ছয়
১০. কে দশ বছর রাসুলুল্লাহ (স)-এর খেদমত করেছেন?
[রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ, ঢাকা]
ক হযরত আবু বকর (রা) খ হযরত উমর (রা)
গ হযরত আলি (রা)  হযরত আনাস (রা)
১১. ‘এ মাস সহানুভূতির মাস’Ñ এটি আছেÑ
[আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা]
ক বুখারি ও মুসলিমে খ তিরমিযিতে
 ইবনে খুযায়মায় ঘ ইবনে হিব্বানে
১২. কোনো মুসলমান যাকাত না দিলে সে আর কী থাকতে পারে না?
[আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা]
 মুসলমান খ পরিপূর্ণ মুসলমান
গ পরহেজগার ঘ সচ্চরিত্রবান
১৩. ইসলামের কোন রুকন সম্পর্কে কুরআনুল কারিমের এক পূর্ণ সূরা নাজিল হয়েছে? [আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা]
ক সালাত খ সাওম গ যাকাত  হজ
১৪. ‘তোমাদের মধ্যে যারা ইমান এনেছে এবং যাদের জ্ঞান দান করা হয়েছে আল্লাহ তাদের মর্যাদা সমুন্নত করবেন’Ñ এটি কোন সূরার আয়াত? [আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা]
 সূরা আল-মুজাদালা খ সূরা আত-তাওবা
গ সূরা আন-নিসা ঘ সূরা আল-বাকারা
১৫. কারা নবিদের উত্তরাধিকারীÑ [গভ. ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা]
 আলিমগণ খ শহিদগণ গ শাসকগণ ঘ শিক্ষকগণ
১৬. আল্লাহ ও রাসুল (স)-এর নির্দেশিত পথ ও মত অনুসরণ করে মুসলমানদের সকল কার্যই কিসের শামিল? [মাইলস্টোন কলেজ, ঢাকা]
ক জিহাদের খ সংগ্রামের
 ইবাদতের ঘ উত্তম আখলাকের
১৭. আল্লাহর হক আদায় করতে হলে আমাদের কয়টি কাজ করতে হবে? [খুলনা জিলা স্কুল]
 তিন খ চার গ পাঁচ ঘ ছয়
১৮. দৈনন্দিন জীবনে আল্লাহর আদেশ-নিষেধ মেনে চলাকে কী বলে? [বগুড়া জিলা স্কুল]
 ইবাদত খ ইমান গ শরিয়ত ঘ ইখলাস
১৯. ইলম কোন ভাষার শব্দ? [বগুড়া জিলা স্কুল]
ক আরবি খ ফারসি গ উর্দু ঘ তামির
২০. ইসলামের মূল ভিত্তি কয়টি? [নওগাঁ জিলা স্কুল]
ক আট  পাঁচ গ ছয় ঘ সাত
২১. মানুষের প্রতি হক বা অধিকারকে প্রথমত কয়টি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে? [সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খুলনা]
ক ৭  ৮ গ ৯ ঘ ১০
২২. কাদেরকে শ্রদ্ধা করা ইবাদতের শামিল?
[সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খুলনা]
ক বয়োজ্যেষ্ঠ  শিক্ষক গ আত্মীয় ঘ প্রতিবেশী
২৩. মুসলমানদের জীবনে হজ কতবার ফরজ?
[সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, খুলনা]
 এক খ দুই গ তিন ঘ চার
২৪. রহমত সাহেব যাকাত না দিলে কী ধরনের অপরাধ করবেন?
[পটুয়াখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
 গরীবের হক নষ্ট করবেন খ মানবাধিকার লঙ্ঘন করবেন
গ অন্যায় করবেন ঘ কার্পণ্য করবেন
২৫. জাতির মেরুদণ্ড কী? [পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, যশোর]
ক অর্থনীতি খ আইনশৃঙ্খলা  শিক্ষা ঘ চিকিৎসা
২৬. আল­াহর হক আদায় করতে আমাদের কয়টি কাজ করতে হবে?
[পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, যশোর]
ক ২টি খ ১টি গ ৩টি  ৪টি
২৭. ৯ই জিলহজ আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা হজেরÑ
[পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, যশোর]
 ফরজ খ ওয়াজিব গ সুন্নাত ঘ মুস্তাহাব
২৮. জিহাদ কয় প্রকার? [বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
ক ২  ৩ গ ৪ ঘ ৫
২৯. কারা ইসলামের জন্য জীবন উৎসর্গকারী ব্যক্তি? [ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
ক মুমিন খ গাজী  শহিদ ঘ মুজাহিদ
৩০. ‘আলম এ বৎসর ৪০ হাজার টাকা যাকাত দিয়েছে” তার যাকাতাযোগ্য মূলধন কত? [ক্যান্টেনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ, রংপুর]
ক ১০০ লক্ষ টাকা খ ১২ লক্ষ টাকা
 ১৬ লক্ষ টাকা ঘ ২০ লক্ষ টাকা
৩১. ‘সাওম ঢালস্বরূপ’- কে বলেছেন? [ক্যান্টেনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ, রংপুর]
ক আল­াহ  মহানবি
গ আরবি প্রবন্ধ ঘ জ্ঞানীদের কথা
৩২. কোন ইবাদত প্রতি মুহূর্তে মানুষকে ভুলভ্রান্তির কথা মনে করিয়ে দেয়?
[সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, হেলেনাবাদ, রাজশাহী]
 সালাত খ সাওম গ যাকাত ঘ হজ
৩৩. ইসলামে জিহাদের কথা বলা হয়েছে কেন?
[নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুমিল­া]
ক আদল প্রতিষ্ঠা করার জন্য
খ অত্যাচারীকে দমন করার জন্য
 সামগ্রিকভাবে আল­াহর দ্বীন কায়েমের জন্য
ঘ সমাজ থেকে অন্যায় মুছে ফেলার জন্য
৩৪. “ইন্নাস্ সালাতা তানহা আনিল ফাহশায়ি ওয়াল মুনকার” এ আয়াত দ্বারা কোন ইবাদতের গুরুত্ব বোঝানো হয়েছে? [ব−ু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ, সিলেট]
 সালাত খ সাওম গ হজ ঘ যাকাত
বহুপদী সমাপ্তিসূচক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
৩৫. কাদের বিরুদ্ধে জিহাদকে ‘জিহাদে বাতিনী’ বলা হয়? [স. বো. ’১৬]
র. কাফিরদের রর. শয়তানের
ররর. কৃপ্রবৃত্তির
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর  রর ও ররর গ র ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৩৬. রফিক একজন আদর্শ শিক্ষার্থী। তার বৈশিষ্ট্য হলো [স. বো. ’১৬]
র. না বুঝে সবকিছু মুখস্থ করা
রর. সুশঙ্খল জীবন-যাপনে অভ্যস্ত হওয়া
ররর. জ্ঞান লাভের ক্ষেত্রে লজ্জাশীলতা পরিহার করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর  রর ও ররর গ র ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৩৭. পৃথিবীতে সবচেয়ে সম্মান ও মর্যাদার পেশা [স. বো. ’১৬]
র. শিক্ষকতা রর. প্রকৌশলী
ররর. ব্যবসা-বাণিজ্য
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র খ র ও ররর গ র ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৩৮. সালাত আমাদেরকে উদ্বুদ্ধ করেÑ [আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা]
র. সময়ের গুরুত্ব, শৃঙ্খলাবোধ
রর. নেতার অনুসরণ
ররর. নিয়মতান্ত্রিক ও পরিচ্ছন্ন জীবনযাপনে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
৩৯. কতক্ষণ জিহাদ করতে হবে? [পাবনা জিলা স্কুল]
র. ফিতনা-ফাসাদ ও অশান্তি চিরতরে নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত
রর. দ্বীন সামগ্রিকভাবে আল­াহর জন্য প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত
ররর. যতক্ষণ ফিতনা-ফাসাদ না হয়
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৪০. জিহাদে বাতেনি বলতে বোঝায়Ñ [বগুড়া জিলা স্কুল]
র. কাফিরদের বিরুদ্ধে জিহাদ রর. শয়তানের বিরুদ্ধে জিহাদ
ররর. কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে জিহাদ
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ ররর
৪১. যাকাত দানের উদ্দেশ্য [ঝিনাইদহ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
র. অর্থনৈতিক বৈষম্য দূরীকরণ
রর. গরিবের অবস্থার পরিবর্তন করা
ররর. সামাজিক শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
৪২. মুযদালিফায় পড়বেÑ [ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
র. মাগরিব রর. এশা
ররর. যোহর ও আসর
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র  র ও রর গ ররর ঘ র ও ররর
৪৩. ইসলামের দৃষ্টিতে সঠিক নিয়মে যাকাত আদায় না করার কারণে জনাব মিছির আলিÑ [নওয়াব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুমিল­া]
র. আল­াহর আইন অমান্য করেছেন
রর. গরিব দুঃখীদের হক নষ্ট করেছেন
ররর. নিচের মূলধন ঠিক রেখেছেন
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
অভিন্ন তথ্যভিত্তিক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৪৪ ও ৪৫ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
জনাব ‘ম’ হজ পালন করতে গিয়ে শারীরিক অক্ষমতার কারণে সাফা ও মারওয়া পাহাড়দ্বয়ে সাঈ (দৌড়ানো) করতে পারেননি।
৪৪. জনাব ‘ম’ হজের কোন বিধানটি পালন করেননি? [স. বো. ’১৬]
ক ফরয  ওয়াজিব গ সুন্নত ঘ মুস্তাহাব
৪৫. জনাব ‘ম’ কিভাবে তাঁর কাফফারা দিবেন?
ক মাথা কামিয়ে খ বিদায় তাওয়াফ করে
গ গরিবদের দান-খয়রাত করে  দম দিয়ে
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৪৬ ও ৪৭ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
জনৈক সাংবাদিক তার পত্রিকায় সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে এবং অসত্য ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে লিখে মানুষকে সঠিক পথে আনার চেষ্টা করছেন। [স. বো. ’১৫]
৪৬. সাংবাদিকের এরূপ প্রচেষ্টা হলোÑ
র. জ্ঞানের জিহাদ
রর. লেখনীর জিহাদ
ররর. অস্ত্রের জিহাদ
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র খ রর  র ও রর ঘ র, রর ও ররর
৪৭. এরূপ প্রচেষ্টার মাধ্যমে উক্ত সাংবাদিক পালন করেছেনÑ
 ফরজ খ ওয়াজিব গ সুন্নত ঘ নফল
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৪৮ ও ৪৯নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
বর্তমানে বিশ্বের কিছু ক্ষমতাধর রাষ্ট্র তাদের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ইসলামি রাষ্ট্রগুলো ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র করছে। তারা বিভিন্ন আতঙ্ক সৃষ্টি করে বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে। [খুলনা জিলা স্কুল]
৪৮. রাষ্ট্রগুলোর এ ধরনের আচরণকে বলা যায়Ñ
ক জিহাদ  সন্ত্রাসবাদ গ ট্যুরিজম ঘ ফ্যাসিবাদ
৪৯. তাদের এ ধরনের কাজের উদ্দেশ্য হলোÑ
র. ক্ষমতা দখল
রর. সম্পদ অর্জন
ররর. নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রকাশ
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে এবং ৫০ ও ৫১ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
গফুর সাহেব একজন ধনী ব্যক্তি। টাকার গরমে তিনি পাশের বাড়ির লোকদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। [বরিশাল জিলা স্কুল]
৫০. গফুর সাহেব এ আচরণের মাধ্যমে লঙ্ঘন করেছেনÑ
 প্রতিবেশীর অধিকার খ মুসলামনদের অধিকার
গ আল্লাহর অধিকার ঘ আত্মীয়দের অধিকার
৫১. পরকালে গফুর সাহেবের পরিণতি হবেÑ
ক জান্নাত খ পুরস্কার
গ আরাফ  জাহান্নাম
 বিষয়ক্রম অনুযায়ী বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
 পাঠ-১ : ইবাদত  বোর্ড বই, পৃষ্ঠা ৮৬
 ইবাদত শব্দের অর্থ  আনুগত্য করা।
 আল্লাহর সার্বভৌমত্ব স্বীকার করা  আল্লাহর হক।
 আল্লাহর সাথে সম্পৃক্ত অধিকারকে বলা হয়  হাক্কুল্লাহ।
 আল্লাহ মানুষকে সৃষ্টি করেছেন  ইবাদতের জন্য।
 ইবাদতের মূল উদ্দেশ্যই হলো  আল্লাহর সন্তুষ্টি।
 মানুষের প্রতি মানুষের অধিকার  ৮ প্রকার।
 আল্লাহর ওপর বিশ্বাস স্থাপন করা  আমাদের কর্তব্য।
 মানুষের প্রতি সহানুভ‚তি ও দায়িত্বই হলো  হাক্কুল ইবাদ।
 এক মুসলিমের ওপর অপর মুসলিমের রয়েছে  ছয়টি অধিকার।
 ইসলামে মানবাধিকারের প্রতি  অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।
 মানুষÑ সামাজিক জীব।
সাধারণ বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
৫২. কিসের মাধ্যমে আল্লাহর আনুগত্য ও দাসত্ব প্রকাশ করা হয়? (জ্ঞান)
ক দানের মাধ্যমে  ইবাদতের মাধ্যমে
গ সদকার মাধ্যমে ঘ সালাম দেওয়ার মাধ্যমে
৫৩. আমরা সবসময় আল্লাহর আনুগত্য ও দাসত্ব প্রকাশ করব কী কারণে? (উচ্চতর দক্ষতা)
 সর্বশ্রেষ্ঠ জীব বলে
খ নামায ফরজ করা হয়েছে বলে
গ বিবেক-বুদ্ধি আছে বলে
ঘ আল্লাহর প্রতিনিধি হয়ে পৃথিবীতে এসেছি বলে
৫৪. মালেক মহান আল্লাহর আনুগত্য ও দাসত্ব প্রকাশ করতে চায়। এজন্য তার কী করা উচিত? (প্রয়োগ)
ক ওযু করা খ দান করা  ইবাদত করা ঘ তাবলিগ করা
৫৫. কিসের মধ্যে মানুষের কল্যাণ নিহিত রয়েছে? (জ্ঞান)
 ইবাদতের মধ্যে খ ব্যবসার মধ্যে
গ সাওমের মধ্যে ঘ জিহাদের মধ্যে
৫৬. ইবাদত কী শব্দ? (জ্ঞান)
 আরবি খ ফারসি গ বাংলা ঘ উর্দু
৫৭. জনাব কাইয়ুম দৈনন্দিন জীবনের সকল কাজকর্মে আল্লাহ তায়ালার বিধিবিধান মেনে চলেন। ইসলামের পরিভাষায় একে কী বলা হয়? (প্রয়োগ)
ক সহনশীলতা খ নৈতিকতা  ইবাদত ঘ ভ্রাতৃত্ববোধ
৫৮. ইবাদত বলতে কী বোঝায়? (অনুধাবন)
ক নবির বিধান মেনে চলা  আল্লাহর বিধান মেনে চলা
গ রাসুলের বিধান মেনে চলা ঘ ফেরেশতার বিধান মেনে চলা
৫৯. আমরা কার বান্দা? (জ্ঞান)
ক নবির খ রাসুলের  আল্লাহর ঘ ফেরেশতার
৬০. জিন ও মানবজাতিকে সৃষ্টি করা হয়েছে কেন? (অনুধাবন)
ক ফেৎনা ফাসাদ করার জন্য খ শিক্ষা অর্জনের জন্য
 ইবাদত করার জন্য ঘ ব্যবসা-বাণিজ্য করার জন্য
৬১. জনাব হুমায়ুন সব সময় নিজেকে ইবাদতে ব্যাপৃত রাখেন। তার এ কাজের উদ্দেশ্য কী? (উচ্চতর দক্ষতা)
ক পিতামাতার সন্তুষ্টি
 আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন
গ নবি-রাসুলগণের সন্তুষ্টি অর্জন
ঘ সমাজে ভালো-মানুষ হিসেবে পরিচিতি পাওয়া
৬২. জিয়াদ নিয়মিত ইবাদত করে। কীভাবে ইবাদত করলে তার ইবাদত কবুল হবে? (প্রয়োগ)
 একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর জন্য খ একনিষ্ঠভাবে নবির জন্য
গ একনিষ্ঠভাবে ফেরেশতাদের জন্য ঘ সমাজের মানুষের সন্তুষ্টির জন্য
৬৩. যে ইবাদত আল্লাহ কবুল করেন (অনুধাবন)
ক জাঁকজমক  একনিষ্ঠ গ অশুদ্ধ ঘ ব্যয়বহুল
৬৪. জনাব করিম আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য সারারাত মসজিদে নফল নামায আদায় করেছেন। তার কাজটি কী? (প্রয়োগ)
 ইবাদত খ তাওয়াক্কুল গ তাওয়া ঘ আকাইদ
৬৫. ইবাদতের পদ্ধতি ও নিয়মকানুন শিক্ষা দেন কে? (অনুধাবন)
 নবি-রাসুল খ ফেরেশতারা গ শরিয়ত ঘ আখিরাত
৬৬. জনাব হামিদুল হক নিয়মিত আল্লাহর ইবাদত করে থাকেন। এর ফলে তিনি কী লাভ করবেন? (উচ্চতর দক্ষতা)
ক রাসুলের সন্তুষ্টি  আল্লাহর সন্তষ্টি
গ সামাজিক মর্যাদা ঘ পিতামাতার সন্তুষ্টি
৬৭. তাদের হৃদয় আছে কিন্তু তা দ্বারা উপলব্ধি করে না, তাদের চক্ষু আছে তা দ্বারা দেখে না, তাদের কর্ণ আছে তা দ্বারা শুনে না; এরা পশুর ন্যায়। বরং অধিক নিকৃষ্ট; তারা অচেতন। এর মর্মার্থ কী? (উচ্চতর দক্ষতা)
 ইবাদত থেকে বিমুখ খ বিবেক-বুদ্ধি শূন্য
গ চতুষ্পদ জন্তু ঘ চতুষ্পদ জন্তুর চেয়ে অধম
৬৮. কারা আল্লাহর খিলাফতের দায়িত্ব পালন করবে? (জ্ঞান)
 মানুষ খ জিন গ ফেরেশতা ঘ নবি-রাসুলগণ
৬৯. সালাত আদায়ের পর কোথায় ছড়িয়ে পড়তে হয়? (জ্ঞান)
ক আকাশে খ বাতাসে  জমিনে ঘ পৃথিবীতে
৭০. সূরা জুমুআর কত নং আয়াতে আল্লাহ মানুষকে কাজের সন্ধানে ব্যাপৃত হতে বলেছেন? (জ্ঞান)
ক ৬ খ ৮  ১০ ঘ ১২
৭১. ইবাদত কয় প্রকার? (জ্ঞান)
 ২ খ ৩ গ ৪ ঘ ৫
৭২. আল্লাহর সাথে সম্পৃক্ত অধিকার বা কর্তব্যকে কী বলে? (অনুধাবন)
 হাক্কুল্লাহ খ হাক্কুল ইবাদ গ সালাত ঘ সাওম
৭৩. আরিফুল ইসলাম একজন বিশিষ্ট সমাজসেবক, কিন্তু নামায-রোযার ব্যাপারে তার মধ্যে উদাসীনতা পরিলক্ষিত হয়। তিনি কোনটি লঙ্ঘন করেছেন? (প্রয়োগ)
ক বান্দার হক খ সমাজের হক  আল্লাহর হক ঘ রাষ্ট্রের হক
৭৪. সাওম কোন ধরনের ইবাদত? (অনুধাবন)
 হাক্কুল্লাহ খ হাক্কুল ইবাদ
গ হাক্কুল মুসলিম ঘ হাক্কুল অতান
৭৫. আসমা বেগম এবার হজে গিয়ে নিজেকে পবিত্র ও পরিশুদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার এ কাজে- (প্রয়োগ)
ক বান্দার হক আদায় হবে  আল্লাহর হক আদায় হবে
গ মক্কা শরিফের হক আদায় হবে ঘ কুরবানি করার সওয়াব লেখা হবে
৭৬. হাক্কুল ইবাদের অর্থ কী? (জ্ঞান)
ক আল্লাহর হক  বান্দার হক
গ মুসলমানদের হক ঘ অমুসলিমদের হক
৭৭. বান্দার সাথে সম্পৃক্ত অধিকার বা কর্তব্যকে কী বলে? (অনুধাবন)
 হাক্কুল ইবাদ খ হাক্কুল্লাহ গ দাসত্ব ঘ আল্লাহর হক
৭৮. জয়নাল একজন পরহেজগার ব্যক্তি। কিন্তু সে তাঁর প্রতিবেশীর কোনো খোঁজখবর রাখে না। তার দ্বারা কোনটি লঙ্ঘিত হয়েছে? (প্রয়োগ)
 বান্দার হক খ আল্লাহর হক গ পিতামাতার হক ঘ রাষ্ট্রের হক
৭৯. লামিয়া সবসময় তার বয়োজ্যেষ্ঠদের সালাম দেয় এবং ক্লাসে অভাবী বন্ধুদের সহযোগিতা করার চেষ্টা করে। লামিয়ার কাজটিতে কী প্রকাশ পেয়েছে? (প্রয়োগ)
ক আল্লাহ প্রতি হক আদায়  মানুষের প্রতি কর্তব্য পালন
গ স্কুলের প্রতি দায়িত্ব পালন ঘ অমুসলিমদের প্রতি কর্তব্য পালন
৮০. রোমান মজলুমকে সাহায্য করে। এতে রোমানের চরিত্রে ইসলামের কোন হকটি প্রকাশ পায়? (প্রয়োগ)
ক হাক্কুল্লাহ  হাক্কুল ইবাদ
গ আল্লাহর হক ঘ ফেরেশতাদের হক
৮১. নিচের কোনটি হাক্কুল ইবাদ? (জ্ঞান)
ক সাওম পালন করা খ সালাত কায়েম করা
 জানাযায় অংশ নেওয়া ঘ জিহাদ করা
৮২. এক মুসলিমের উপর অপর মুসলিমের কয়টি হক রয়েছে? (জ্ঞান)
 ৬ খ ৭ গ ৮ ঘ ৯
বহুপদী সমাপ্তিসূচক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
৮৩. সালাত আদায় করার পর জমিনে ছড়িয়ে পড়বে। কারণÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. আল্লাহর অনুগ্রহ সন্ধানে ব্যাপৃত হবে
রর. কৃষি কাজে মনোনিবেশ করবে
ররর. যাতে তোমরা সফলকাম হও
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর  র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৮৪. মানবাধিকারের লঙ্ঘনÑ (প্রয়োগ)
র. সালাত আদায় না করা রর. স্ত্রীর অধিকার আদায়ে অনীহা
ররর. সন্তান-সন্তুতির হক আদায় না করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর  রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৮৫. ইবাদত অর্থÑ (অনুধাবন)
র. বিনয় প্রকাশ করা
রর. নমনীয় হওয়া
ররর. সংকল্প করা
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৮৬. হাক্কুল ইবাদের অন্তর্ভুক্ত হলোÑ (অনুধাবন)
র. সালাত কায়েম করা
রর. মজলুমকে সাহায্য করা
ররর. হাঁচির জবাব দেওয়া
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর গ র ও ররর  রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৮৭. আরিফুর রহমান আল্লাহর হক যথাযথভাবে আদায় করছেন। তিনি এ হক আদায় করছেন- (প্রয়োগ)
র. রমযানের রোযা রাখার মাধ্যমে রর. যাকাত প্রদানের মাধ্যমে
ররর. নিয়মিত নামায় আদায়ের মাধ্যমে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
৮৮. জারিফ একজন খাঁটি মুসলমান। সে তার মুসলিম ভাইদের প্রতি হক আদায় করছে। সে এ হক আদায় করছেÑ (জ্ঞান)
র. জানাযায় অংশ নিয়ে
রর. মজলুমকে সাহায্য করে
ররর. মুসলমানদের মহাসম্মেলনে অংশ নিয়ে
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৮৯. সিদ্দিকুর রহমান আল্লাহ ও রাসুল (স)-এর নির্দেশিত পথে চলাফেরা করেন। তিনি যে কাজগুলো যথাযথভাবে করবেনÑ (প্রয়োগ)
র. নিয়মিত নামায আদায় রর. পিতামাতার সাথে সদ্ব্যবহার
ররর. যেকোনো পন্থায় টাকা উপার্জন
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৯০. মহান আল্লাহ মানুষকে ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছেন। সুতরাং মানুষ ইবাদত করবে- (উচ্চতর দক্ষতা)
র. আল্লাহ নির্দেশিত পথে রর. রাসুল (স) নির্দেশিত পথে
ররর. হযরত আদম (আ) নির্দেশিত পথে
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
৯১. ইসলাম সাহেব একজন সামাজিক মানুষ। সুতরাং তার কর্তব্যÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. প্রতিবেশীর বিপদে সাহায্য করা রর. মসজিদে গিয়ে নামায পড়া
ররর. দাওয়াত কবুল করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
৯২. ইসলাম বান্দার হকের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। কারণÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. ইসলাম শান্তির ধর্ম
রর. ইসলাম মানবাধিকারে বিশ্বাস করে
ররর. ইসলাম ধনী-গরিবের পার্থক্যকে স্পষ্ট করে দিয়েছে
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
অভিন্ন তথ্যভিত্তিক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৯৩ ও ৯৪ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
বাবুল সাহেব একজন ইমানদার ব্যক্তি। তিনি সবসময় বিপদে-আপদে মানুষকে সাহায্য করেন।
৯৩. বাবুল সাহেবের কাজটি কিসের অন্তর্ভুক্ত? (প্রয়োগ)
ক হাক্কুল্লাহ  হাক্কুল ইবাদ
গ হাক্কুল ইয়াকিন ঘ হাক্কুল ওয়ালিদাইন
৯৪. বাবুল সাহেবের এ কাজের ফলেÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. জান্নাতে যাওয়ার পথ সুগম হবে
রর. বান্দার হক আদায় হবে
ররর. ধনসম্পদ বৃদ্ধি পাবে
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৯৫ ও ৯৬নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
কামরুল সাহেব একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি। টাকার অহংকারে তিনি পাশের বাসার লোকদের সাথে দুর্ব্যবহার করেন।
৯৫. পরকালে কামরুল সাহেবের পরিণতি হবে (প্রয়োগ)
 জাহান্নাম খ হাশর গ আরাফ ঘ জান্নাত
৯৬. কামরুল সাহেব তার আচরণের মাধ্যমে লঙ্ঘন করেছেন (উচ্চতর দক্ষতা)
র. প্রতিবেশীর অধিকার রর. হাক্কুল ইবাদ
ররর. আত্মীয়ের অধিকার
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ৯৭ ও ৯৮ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
মনির প্রায়ই রফিকের বিনা অনুমতিতে তার বাগানে প্রবেশ করে ফলফলাদি খেয়ে থাকে। ফলে রফিক মনিরকে বলে, তুমি কি সত্যিকারের মুসলিম?
৯৭. মনির হক নষ্ট করলÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. আল্লাহর রর. বান্দার
ররর. প্রতিবেশীর
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র খ র ও রর গ র ও ররর  রর ও ররর
৯৮. “তুমি কি সত্যিকারের মুসলিম”-রফিক মনিরকে একথা বলার কারণÑ
(উচ্চতর দক্ষতা)
র. অনুমতি ছাড়া বাগানে প্রবেশ করা
রর. বিনা অনুমতিতে ফলফলাদি খাওয়া
ররর. প্রতিবেশীর হক নষ্ট করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র খ র ও রর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
 পাঠ-২ : সালাত  বোর্ড বই, পৃষ্ঠা ৮৯
 নামায শব্দের অর্থ  ক্ষমা প্রার্থনা করা।
 কিয়ামতের দিন মহান আল্লাহ সর্বপ্রথম হিসাব নিবেন  সালাতের।
 একজন মুমিনের জন্য সালাতের গুরুত্ব  অপরিসীম।
 ইসলামের স্তম্ভ  ৫টি।
 মানুষকে অশ্লীল ও খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখে  সালাত।
 ইমান ও কুফরেরর মধ্যে পার্থক্যকারী  সালাত।
 শরিয়তের অনুমোদিত কারণ ব্যতিত কখনোই ত্যাগ করা যাবে না  সালাত।
 সামাজিক বন্ধন সুদৃঢ় হয়  সালাতের দ্বারা।
 আমাদেরকে সময়ের গুরুত্ব ও শৃঙ্খলাবোধ শিক্ষা দেয়  সালাত।
 ফজর, যোহর, আসর, মাগরিব ও ইশা হলো  ৫ ওয়াক্ত সালাতের নাম।
সাধারণ বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
৯৯. সালাত কী শব্দ? (জ্ঞান)
 আরবি খ ফারসি গ উর্দু ঘ হিন্দি
১০০. ‘সালাত’ এর ফার্সি প্রতিশব্দ কী? (জ্ঞান)
ক রহমত  নামায গ সাদিক ঘ তাসবিহ
১০১. ইসলামের কয়টি রুকন? (জ্ঞান)
ক ৩ খ ৪  ৫ ঘ ৬
১০২. সালাত ইসলামের কততম রুকন? (জ্ঞান)
ক ১ম  ২য় গ ৩য় ঘ ৪র্থ
১০৩. কোনটি ইসলামের রুকন নয়? (জ্ঞান)
ক সাওম  জিহাদ গ সালাত ঘ যাকাত
১০৪. কিয়ামতের দিন সর্বপ্রথম কিসের হিসাব নেওয়া হবে? (জ্ঞান)
 সালাতের খ সাওমের গ যাকাতের ঘ হজের
১০৫. সালাত আদায় করা কী? (জ্ঞান)
ক সুন্নত  ফরজ গ ওয়াজিব ঘ মুস্তাহাব
১০৬. নিয়মিত সালাত আদায় মানুষকে কোন কাজে সহায়তা করে? (অনুধাবন)
 খারাপ কাজ থেকে দূরে থাকতে খ পড়াশুনা করতে
গ সম্পদ উপার্জনে ঘ সম্মান লাভে
১০৭. আল্লাহর প্রতি আনুগত্য প্রকাশের সর্বোত্তম পন্থা কোনটি? (জ্ঞান)
ক জিহাদ খ যাকাত গ হজ  সালাত
১০৮. মান্নান আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করতে চায়। এজন্য তার কী করা উচিত? (প্রয়োগ)
ক যাকাত দেওয়া  সালাত আদায় করা
গ সাওম পালন করা ঘ হজ করা
১০৯. সালাত মুমিনের (অনুধাবন)
ক দোয়া খ বাগান  মিরাজ ঘ জান্নাত
১১০. জীবন ইমান মজবুত ও আত্মশুদ্ধি অর্জন করতে চায়। এজন্য তার কী করা উচিত? (প্রয়োগ)
 সালাত আদায় করা খ জিহাদ করা
গ দান করা ঘ যাকাত দেওয়া
১১১. কিয়ামতের দিন সালাত আমাদের জন্য নূর হয়ে দাঁড়াবে। সুতরাং আমাদের কর্তব্য- (উচ্চতর দক্ষতা)
ক মসজিদে গিয়ে সালাত আদায় করা
 মনোযোগ সহকারে সালাত আদায় করা
গ রুকুকারীদের সাথে রুকু করা
ঘ রাগ জেগে সালাত আদায় করা
১১২. মাহিন নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত সালাত জামাআতের সাথে আদায় করে। এর ফলাফল কী হবে? (উচ্চতর দক্ষতা)
ক তার সামাজিক মর্যাদা বাড়বে খ সে নামাযি হিসেবে পরিচিত হবে
গ তার ধন-সম্পদ বৃদ্ধি পাবে  তার গুনাহসমূহ দূর হবে
১১৩. সালাত কোন দুটির মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টিকারী? (প্রয়োগ)
ক ইসলাম ও শিরক খ তাওহিদ ও শিরক
 ইমান ও কুফর ঘ কুফর ও নিফাক
১১৪. ইসলামের কোন রুকুনটি আমাদের একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করার শিক্ষা দেয়? (অনুধাবন)
 সালাত খ যাকাত গ সাওম ঘ হজ
১১৫. জামাআতে সালাত আদায় করলে কতগুণ বেশি সাওয়াব পাওয়া যায়? (জ্ঞান)
ক ১৭  ২৭ গ ৭০ ঘ ১ লক্ষ
১১৬. জামাআতে সালাত আদায় করা গুরুত্বপূর্ণ কেন? (অনুধাবন)
ক সালাত ইমান ও কুফরের মধ্যে পার্থক্যকারী বলে
খ জামাআতে সালাত আদায়ে সত্তরগুণ সাওয়াব বেশি পাওয়া যাবে বলে
 জামাআতের সাথে সালাত আদায় করা আল্লাহর নির্দেশ বলে
ঘ সালাত গুণাহসমূহ দূর করে দেয় বলে
১১৭. ‘তোমরা রুকুকারীদের সাথে রুকু কর’Ñ একথা দ্বারা আল্লাহ তায়ালা কী বুঝিয়েছেন? (অনুধাবন)
ক সমাজবদ্ধ হয়ে বসবাস করা
 জামাআতবদ্ধ হয়ে নামায আদায় করা
গ পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করা
ঘ মানুষের সাথে মিলেমিশে থাকা
১১৮. আহমাদ মসজিদে সালাত আদায় করতে গিয়ে জানতে পারল পাশের বাড়ির আমিন অসুস্থ। এটিতে কিসের গুরুত্ব বহন করে? (উচ্চতর দক্ষতা)
ক জামাআতে সালাতের গুরুত্ব
 জামাআতে সালাতের সামাজিক গুরুত্ব
গ জামাআতে সালাতের পারিবারিক গুরুত্ব
ঘ প্রতিবেশীর অধিকার আদায়
১১৯. জামাআতে সালাত আদায়কারীদের মধ্যে উঁচু-নিচু কোনো ভেদাভেদ থাকে না। এর ফলাফল কী? (উচ্চতর দক্ষতা)
 তাদের মধ্যে সাম্য তৈরি হয় খ আল্লাহর নৈকট্য লাভ সহজ হয়
গ পারস্পরিক বন্ধন দৃঢ় হয় ঘ সামাজিকতা গড়ে ওঠে
বহুপদী সমাপ্তিসূচক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
১২০. জামাআতে সালাতের শিক্ষাÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. সামাজিক বন্ধন সুদৃঢ় রর. সাম্যের সৃষ্টি
ররর. বাতিলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
১২১. সালাত অর্থÑ (অনুধাবন)
র. বিরত থাকা রর. ক্ষমা প্রার্থনা করা
ররর. রহমত কামনা করা
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর  রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
১২২. পবিত্র কুরআনে সম্মিলিতভাবে সালাত আদায়ের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর ফলে- (উচ্চতর দক্ষতা)
র. সামাজিক সাম্য তৈরি হবে রর. অভাবীদের অভাব দূর হবে
ররর. শৃঙ্খলাবোধ তৈরি হবে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর  র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
১২৩. সালাতের অন্যতম সামাজিক গুরুত্ব হচ্ছেÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. বৈষম্যের অবসান রর. সাম্যতা সৃষ্টি
ররর. বিচক্ষণতা
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
১২৪. জনাব মাহফুজ সাহেব দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়েন। এর ফলে তিনি বিরত থাকবেনÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. খারাপ কাজ থেকে রর. অশ্লীল কাজ থেকে
ররর. অন্যায় কাজ থেকে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
১২৫. সালাত মানুষকে যে ধরনের জীবনযাপনে উদ্বুদ্ধ করেÑ (অনুধাবন)
র. শৃঙ্খলাবোধ রর. নিয়মতান্ত্রিক
ররর. পরিচ্ছন্ন
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর  র, রর ও ররর
১২৬. সালাতের মাধ্যমে কী হয়? (উচ্চতর দক্ষতা)
র. আল্লাহর অবাধ্যতা প্রকাশ
রর. আল্লাহর নৈকট্য লাভ
ররর. ধনসম্পদ বৃদ্ধি
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র  রর গ ররর ঘ র, রর ও ররর
১২৭. সালাত থেকে শিক্ষা পাওয়া যায়Ñ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. নেতার অনুসরণের
রর. গরিবের প্রতি সহানুভূতিশীল হওয়ার
ররর. সময়ের গুরুত্ব বোঝার
নিচের কোনটি সঠিক?
ক র ও রর  র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর
অভিন্ন তথ্যভিত্তিক বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর
নিচের অনুচ্ছেদটি পড়ে ১২৮ ও ১২৯ নং প্রশ্নের উত্তর দাও :
মালেক নবম শ্রেণির ছাত্র। সে জামাআতের সাথে নিয়মিত সালাত আদায় করে। কিন্তু বেলাল সালাত আদায়ের ব্যাপারে খুবই উদাসীন। সে বলে নামায পড়ে লাভ কী?
১২৮. বেলাল কোনটি অগ্রাহ্য করল? (প্রয়োগ)
ক সামাজিক বিধান খ রাষ্ট্রীয় বিধান
গ সংবিধান  আল্লাহর বিধান
১২৯. উদ্দীপকের প্রেক্ষিতে মালেক লাভ করবেÑ (উচ্চতর দক্ষতা)
র. আল্লাহর নৈকট্য রর. অধিক সাওয়াব
ররর. অধিক ধনসম্পদ
নিচের কোনটি সঠিক?
 র ও রর খ র ও ররর গ রর ও ররর ঘ র, রর ও ররর

 

Share to help others:

Leave a Reply