নবম-দশম শ্রেণির ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং একাদশ অধ্যায় ব্যাংকের আমানত সৃজনশীল ও জ্ঞানমূলক প্রশ্নোত্তর

একাদশ অধ্যায়
ব্যাংকের আমানত

 ব্যাংক আমানতের ধারণা
ব্যাংক আমানত হলো ব্যাংকে আমানতকারীদের জমাকৃত অর্থ। অর্থাৎ বাণিজ্যিক ব্যাংক তার বিভিন্ন আমানত হিসাবে গ্রাহকদের নিকট থেকে যে অর্থ সংগ্রহ করে তাকেই ব্যাংক আমানত বলে। ব্যাংক জনগণের নিকট থেকে আমানত সংগ্রহ করে তা ঋণ হিসেবে ঋণগ্রহীতার মধ্যে বণ্টন করে। আমানত না থাকলে ব্যাংক ঋণ প্রদান ও স্বাভাবিক কার্যক্রম চালাতে পারে না। ব্যাংকিং ব্যবসায়ে তহবিলের মূল উৎস আমানত।
 ব্যাংক আমানতের উদ্দেশ্য ও গুরুত্ব
গ্রাহকের ক্ষেত্রে ব্যাংকের ক্ষেত্রে সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে
১. অর্থের নিরাপত্তা ১. আমানত গ্রহণ ১. সঞ্চয়প্রবণতা সৃষ্টি
২. ব্যবসায়িক লেনদেন ২. বিনিয়োগ ২. পুঁজি বা মূলধন গঠন
৩. ঋণের সুবিধা ৩. বৈদেশিক বিনিময় ৩. বিনিয়োগ ও উৎপাদন
৪. ঝুঁকিহীন বিনিয়োগ ৪. আন্তর্জাতিক বাণিজ্য
৫. সেবা অর্জন
৬. অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজন মিটানো

 ব্যাংক হিসাবের প্রকারভেদ
১. চলতি হিসাব ৩. স্থায়ী হিসাব
২. সঞ্চয়ী হিসাব
এ তিন ধরনের হিসাব ছাড়াও অন্য যেসব হিসাব রয়েছে তা নিম্নরূপ :
৪. স্কুল সঞ্চয়ী হিসাব ৭. ডিপোজিট পেনশন স্কিম হিসাব
৫. বিমা সঞ্চয়ী হিসাব ৮. ঋণ আমানতি হিসাব
৬. বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয়ী হিসাব ৯. রেসিডেন্ট ফরেন কারেন্সি ডিপোজিট হিসাব (জঋঈউ)
 ব্যাংকে হিসাব খোলার ক্ষেত্রে গ্রাহকের বিবেচ্য বিষয়
১. ব্যাংকের অবস্থান ৭. তালিকাভুক্ত ব্যাংক
২. দক্ষতা ৮. ঋণ সুবিধা
৩. বহুমুখী সেবা ৯. সুদ
৪. বৈদেশিক বিনিময় ১০. সেবার ওপর চার্জ
৫. সুনাম ১১. ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা
৬. শাখা
 ব্যাংক হিসাব খোলার পদ্ধতি
সাধারণত গ্রাহক তার ও তার লেনদেন সম্পর্কে যে তথ্য তুলে ধরেন :
১. গ্রাহকের নাম ৭. আমানতের পরিমাণ
২. আয়ের উৎস ৮. বর্তমান ঠিকানা
৩. জাতীয় পরিচয়পত্র / পাসপোর্টের ফটোকপি ৯. স্থায়ী ঠিকানা
৪. গ্রাহকের পেশা ১০. কর্মস্থলের ঠিকানা
৫. গ্রাহকের ছবি ১১. যোগাযোগের নম্বর ইত্যাদি।
৬. নমিনির ছবি
 ব্যাংক হিসাব বন্ধ করার পদ্ধতি
গ্রাহকের হিসাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে করণীয় নিম্নরূপ :
১. হিসাব বন্ধ করার অনুরোধপত্র (কোম্পানির ক্ষেত্রে অনুমোদিত সভার অনুরোধপত্র)।
২. অব্যবহৃত চেকবই, পাসবই, ডেবিট / ক্রেডিট কার্ড ফেরত দিতে হবে।
কোনো ধরনের ঋণ না থাকলে গ্রাহকের অনুরোধের প্রেক্ষিতে ব্যাংক হিসাবটি বন্ধ করে দেয়।
 ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং-এর বিভিন্ন পণ্য ও সেবা
১. ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড ৫. ইন্টারনেট ব্যাংকিং
২. এটিএম ৬. এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং / অনলাইন ব্যাংকিং
৩. মোবাইল ব্যাংকিং ৭. কল সেন্টার।
৪. এসএমএস ব্যাংকিং
 আধুনিক ও ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং ব্যবস্থা, তার ভবিষ্যৎ ও বাংলাদেশ
ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং ব্যবস্থা বর্তমানে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বল্প সময়ে অর্থ স্থানান্তর, বিদেশ থেকে আসা রেমিটেন্স বিতরণসহ ২৪ ঘণ্টা ব্যাংকিং সেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। এতে অর্থ বিনিয়োগ, কমিশন, সার্ভিস চার্জের মাধ্যমে স্বল্পসংখ্যক দক্ষ কর্মীর মাধ্যমে অধিকতর জনগোষ্ঠীকে সেবা প্রদান করা সম্ভব হয়। এ ব্যাংকিং ব্যবস্থা দীর্ঘমেয়াদে সেবা এবং আয় সবদিক থেকেই সুবিধাজনক হয় বলে বর্তমানে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ই-ব্যাংকিং জনপ্রিয়তা লাভ করছে। ভবিষ্যতে এ ব্যাংক ব্যবস্থা বাংলাদেশে আরও স¤প্রসারিত হয়ে ধনী-গরিব, শিক্ষিত অশিক্ষিত সকল জনগোষ্ঠীকেই তার সেবা পৌঁছে দিতে পারবে।

অনুশীলনীর সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
জনাব আরিফ ঢাকার একজন ব্যবসায়ী। “জাবেদ ব্যাংক”Ñ এ তার একটি হিসাব রয়েছে। যা থেকে তিনি যতবার ইচ্ছা টাকা তুলতে পারেন। তিনি একবার বেড়াতে চট্টগ্রাম যান। তখন হঠাৎ বেশ সস্তায় ব্যবসায়িক পণ্য পান। ঐ ব্যাংকের কল্যাণে তিনি তা সময়মতো কিনতে সমর্থ হন। বাংলাদেশের যে কোনো জেলায় তাদের শাখা রয়েছে। তবে কোনো কার্ডের ব্যবস্থা নেই।
ক. ব্যাংকিং ব্যবসায়ের তহবিলের মূল উৎস কী?
খ. ব্যাংকে বিভিন্ন প্রকারের হিসাব খোলার ব্যবস্থা রাখা হয় কেন? ব্যাখ্যা কর।
গ. ‘জাবেদ ব্যাংক’Ñএ জনাব আরিফের কোন ধরনের হিসাব রয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. ব্যাংকের একটি সেবা আরিফের মতো ব্যবসায়ীদের কাজকে সহজ করে দেয়Ñ উক্তিটি মূল্যায়ন কর।
 ১নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ব্যাংকিং ব্যবসায়ের তহবিলের মূল উৎস হচ্ছে আমানত।
খ. মানুষের জীবিকা, প্রয়োজন, সময় অবস্থান এবং চাহিদা অনুযায়ী ব্যাংক হিসাব বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। একজন ব্যবসায়ীর জন্য চলতি হিসাব উত্তম হলেও চাকরিজীবীর জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপর্যুক্ত। আবার একজন অবসরপ্রাপ্ত চাকরিজীবীর জন্য স্থায়ী হিসাব খোলাই শ্রেয়। এসব কারণেই ব্যাংকে বিভিন্ন প্রকারের হিসাব খোলার সুবিধা দেয়া হয়।
গ. ‘জাবেদ ব্যাংক’Ñ এ জনাব আরিফের চলতি হিসাব রয়েছে।
যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা ও চাহিবামাত্র টাকা উত্তোলন করা যায় তাই চলতি হিসাব। সাধারণ ব্যবসায়ী শ্রেণিদের জন্য চলতি হিসাব প্রযোজ্য। ব্যবসায়ী শ্রেণির গ্রাহকগণ প্রতিনিয়ত ব্যাংকে লেনদেন করে থাকে। এ ধরনের সুবিধা চলতি হিসাব ব্যতীত অন্য কোনো হিসাবে পাওয়া যায় না। উদ্দীপকের আরিফ ঢাকায় ব্যবসায় করেন। তাই তার যে কোনো সময় অর্থে প্রয়োজন দেখা দিতে পারে। এ জন্য ‘জাবেদ ব্যাংক’-এ তার একটি হিসাব রয়েছে যা থেকে তিনি যতবার ইচ্ছা টাকা তুলতে পারেন। অর্থাৎ তাই তার জন্য এ হিসাব সুবিধাজনক। এ হিসাবে তিনি কোনো সুদ না পেলেও জমাতিরিক্ত টাকা উত্তোলন করতে পারেন। অর্থাৎ চলতি হিসাবের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ সকল বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান থাকায় বলা যায়, জাবেদ ব্যাংক -এ জনাব আরিফের হিসাবটি হলো একটি চলতি হিসাব।
ঘ. ব্যাংকের ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং পণ্য এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং সেবা আরিফের মতো ব্যবসায়ীদের কাজকে আরো গতিশীল ও সহজ করে দেয়।
ব্যবসায়ী গ্রাহকদের জন্য ব্যাংক হিসাব অতি গুরুত্বপূর্ণ। উন্নতি ও আধুনিকায়নের সাথে সাথে ব্যাংকিং ব্যবসায়েও বিভিন্ন রকমের ইলেকট্রনিক পণ্যের উদ্ভব হয়েছে। বর্তমানে ইলেকট্রনিক ব্যাংকিংয়ের ফলে ব্যবসায়ীসহ সব ধরনের গ্রাহক ২৪ ঘণ্টাই ব্যাংকিং সেবা পাচ্ছে। উদ্দীপকে জনাব আরিফ ঢাকায় জাবেদ ব্যাংকে হিসাব খুলে এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে চট্টগ্রামে তার লেনদেন করতে পেরেছেন। চট্টগ্রামে বেড়াতে গিয়ে যখন বেশ সস্তায় ব্যবসায়িক পণ্য পান তখন এই এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে জনাব আরিফ সহজেই সময়মতো তা কিনতে সমর্থ হয়েছেন। আবার জাবেদ ব্যাংক কর্তৃক কোনো কার্ড সরবরাহ না করা হলেও বাংলাদেশের প্রায় সব জেলায় এই ব্যাংকের শাখা থাকায় ব্যবসায়ী আরিফ সব জেলায় সহজে তার ব্যবসায়ীক কার্যক্রম পরিচালনা করতে সমর্থ হচ্ছেন।
সুতরাং “ব্যাংকের একটি সেবা আরিফের মতো ব্যবসায়ীদের কাজকে সহজ করে দেয়,” উক্তিটি যথার্থ।
প্রশ্ন-২  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
শৈলী ব্যাংক শৌখিন ব্যাংক
সেবা দানের পদ্ধতি ও পণ্যসমূহ  সনাতন পদ্ধতি কম্পিউটার ব্যাংক
ডেবিট কার্ড
ক্রেডিট কার্ড
এসএমএস পদ্ধতি
এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং
কার্যক্রম শুরু  ২০০৫ সাল ২০০৫ সাল
পরিচালনা ব্যয় (বছর প্রতি)  ২ কোটি ২ কোটি
লাভ  ৫০ লাখ ৮০ লাখ
বর্তমানে শৈলী ব্যাংকয়ের পরিচালকরা ‘শৌখিন ব্যাংক’Ñ এর মতো সেবা চালু করতে চাচ্ছে।
ক. কে ভালো বাণিজ্যিক ব্যাংককে তালিকাভুক্ত ব্যাংক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়?
খ. কোন ধরনের হিসাব খুলে বিমার সুবিধাও পাওয়া যাবে? ব্যাখ্যা কর।
গ. শৌখিন ব্যাংকে কোন ধরনের ব্যাংকিং সেবা চালু আছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. শৈলী ব্যাংক এ শৌখিন ব্যাংকের মতো সেবা চালু করা কতটুকু যুক্তিযুক্ত হবে বলে মনে কর? বিশ্লেষণ কর।
 ২নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বাংলাদেশ ব্যাংক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে ভালো বাণিজ্যিক ব্যাংককে তালিকাভুক্ত ব্যাংক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।
খ. বিমা সঞ্চয়ী হিসাব খুলে বিমার সুবিধা পাওয়া যায়। এ ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ আমানতকারীদের উক্ত হিসাবে জমা রাখতে হয়, উক্ত জমা টাকার ওপর প্রাপ্ত সুদের কিছু অংশ হতে প্রিমিয়াম বাদ দেয়ার পর আমানতকারীর নামে মোট অংকের বিমা করা হয় এবং গ্রাহক উক্ত বিমার সুবিধা ভোগ করে।
গ. শৌখিন ব্যাংকে ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা চালু রয়েছে।
কম্পিউটার এবং ইলেকট্রনিক দ্রব্যাদির উন্নতি ও আধুনিকায়নের সাথে সাথে ব্যাংকিং ব্যবসায়েও বিভিন্ন রকমের ইলেকট্রনিক পণ্যের আবির্ভাব ঘটে। এসব পণ্যের মাধ্যমে ব্যাংকিং সেবা প্রদান করাই ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং। এর মাধ্যমে গ্রাহকরা প্রায় ২৪ ঘণ্টাই ব্যাংকিং সেবার সুযোগ পায়। উদ্দীপকে শৌখিন ব্যাংক ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং এর পণ্য অর্থাৎ ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট ব্যাংক, এসএমএস, এটিএম, ফোন ব্যাংকিং, এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং ইত্যাদির মাধ্যমে গ্রাহকদের সেবা প্রদান করে থাকে। এ সকল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে এই ব্যাংকের দূর-দূরান্তের জনগোষ্ঠীকে সেবা প্রদান করতে সমর্থ হয়েছে।
সুতরাং কম্পিউটার ও ইলেকট্রনিক পণ্যের মাধ্যমে শৌখিন ব্যাংক তার গ্রাহকদের ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করছে।
ঘ. শৈলী ব্যাংক এ শৌখিন ব্যাংকের মতো ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং চালু করা অধিক যুক্তিযুক্ত হবে বলে আমি মনে করি।
সনাতন পদ্ধতির তুলনায় ই-ব্যাংকিং ব্যবস্থা দীর্ঘমেয়াদে সেবা এবং আয় সবদিক থেকেই সুবিধাজনক। তাছাড়া প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ই-ব্যাংকিং সেবা সস্তা ও সহজলভ্য হওয়ায় ব্যাংকিং সেবা গ্রহণকারী গ্রাহকবৃন্দ দিনে দিনে এ সেবার দিকে আগ্রহী হয়ে উঠছে। তাই-ই ব্যাংকিং সুবিধাযুক্ত ব্যাংকগুলো জনপ্রিয়তা অর্জনের পাশাপাশি অধিক মুনাফা অর্জনেও সক্ষম হচ্ছে। উদ্দীপকে শৈলী ব্যাংক ও শৌখিন ব্যাংক উভয়ই ২০০৫ সালে তাদের ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করে এবং উভয়েরই পরিচালনা ব্যয় বছর প্রতি দুই কোটি টাকা। কিন্তু শৈলী ব্যাংকের লাভ হয় পঞ্চাশ লক্ষ টাকা আর শৌখিন ব্যাংকের লাভ আশি লক্ষ টাকা অর্থাৎ শৈলী ব্যাংক অপেক্ষা ৩০ লক্ষ টাকা বেশি। শৌখিন ব্যাংকের অধিক লাভ হওয়ার মূল কারণ হলো ব্যাংকটিতে ই-ব্যাংকিং ব্যবস্থা চালু থাকায় তার গ্রাহক সংখ্যা বেশি। ব্যাংকটি কম সময়ে ও কম খরচে গ্রাহককে ২৪ ঘণ্টা সেবা প্রদান করতে পারে। তাছাড়া গ্রাহক যে কোনো সময় যে কোনো স্থান থেকে শৌখিন ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে অর্থ উত্তোলন করতে পারেন। কিন্তু শৈলী ব্যাংক সনাতন পদ্ধতিতে আধুনিক সেবা বা সুবিধা দিতে পারে না। তাই তার গ্রাহক সংখ্যাও কম। আর গ্রাহক সংখ্যা কম হলে ব্যাংকের মুনাফার পরিমাণও কম হয়। সুতরাং শৌখিন ব্যাংকের মতো গ্রাহক সংখ্যা এবং মুনাফার পরিমাণ বাড়ানোর জন্য শৈলী ব্যাংকের ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা চালু করাই যুক্তিযুক্ত হবে।

প্রশ্ন-৩  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
‘মণি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’ এর মালিক পাপন, ব্যবসায় পরিচালনার জন্য নিকটস্থ একটি ব্যাংকে ব্যাংক হিসাব খোলেন। উক্ত হিসাবে তিনি প্রতিদিন কয়েকবার অর্থ জমা দেন কিন্তু সপ্তাহে দুবারের বেশি অর্থ উত্তোলন করতে পারেন না। পরবর্তীতে পাপন ই-ব্যাংকিং-এর সুবিধা গ্রহণের ব্যবস্থা নেন। [স. বো. ’১৫]
ক. অঞগ এর পর্ণরূপ কী? ১
খ. সুদবিহীন ব্যাংক হিসাবটি ব্যাখ্যা কর। ২
গ. পাপন নিকটস্থ ব্যাংকে কোন ধরনের ব্যাংক হিসাব খোলেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. পাপনের ই-ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৩নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. অঞগ এর পূর্ণরূপ হলো অঁঃড়সধঃবফ ঞবষষবৎ গধপযরহব.
খ. সুদবিহীন ব্যাংক হিসাব বলতে চলতি হিসাবকে বোঝায়। চলতি হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা রাখা যায় এবং প্রয়োজনমতো চাহিবামাত্র যতবার খুশি টাকা উত্তোলন করা যায়। ব্যবসায়ীদের জন্য এ হিসাব সুবিধাজনক। এ হিসাবে সাধারণত কোনো সুদ প্রদান করা হয় না। তবে প্রয়োজনের সময় জমাতিরিক্ত টাকা উত্তোলন করা যায়।
গ. পাপন নিকটস্থ ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খোলেন।
যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা রাখা যায়, কিন্তু শুধু সপ্তাহে দুইবার বা নিয়ম অনুযায়ী টাকা উত্তোলন করা যায় তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে। উদ্দীপকের মণি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মালিক পাপন নিকটস্থ একটি ব্যাংকে তার হিসাবে প্রতিদিন কয়েকবার অর্থ জমা দেন কিন্তু সপ্তাহে দুবারের বেশি অর্থ উত্তোলন করতে পারেন না। পাপনের ব্যাংক হিসাবের বৈশিষ্ট্যগুলো সঞ্চয়ী হিসাবের ধারক। সুতরাং, পাপন ব্যবসায় পরিচালনার জন্য নিকটস্থ ব্যাংক সঞ্চয়ী হিসাব খোলেন।
ঘ. প্রতি মূহুর্তে দ্রæতগতির ব্যাংকিং সেবা পেতে পাপনের জন্য ই-ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করা যৌক্তিক।
কম্পিউটার এবং ইলেকট্রনিক দ্রব্যাদির সাহায্যে যে ব্যাংকিং সুবিধা দেওয়া হয় তাকে ই-ব্যাংকিং বলে। উন্নতি ও আধুনিকায়নের সাথে সাথে ব্যাংকিং ব্যবসায়েও বিভিন্ন রকমের ইলেকট্রনিক পণ্যের উদ্ভব হয়েছে। বর্তমানে ইলেকট্রনিক ব্যাংকিংয়ের ফলে ব্যবসায়ী সহ সব ধরনের গ্রাহক ২৪ ঘণ্টাই ব্যাংকিং সেবা পাচ্ছেন। উদ্দীপকে পাপন ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করলে তার ব্যবসায়িক কাজ অনেক সহজ হয়ে যাবে। তিনি যে কোনো মুহ‚র্তে তার ব্যাংকিং লেনদেন সম্পন্ন করতে পারবেন। ব্যাংকে না গিয়েও তিনি দ্রুততার সাথে ব্যাংক লেনদেনের তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। যে কোনো সময় ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে এটিএম মেশিন থেকে নগদ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। হিসাবের স্থিতি, চেক বইয়ের অনুরোধ মোবাইল এসএমএস-এর মাধ্যমে সম্পন্ন করতে পারবেন। তিনি দেশের যেকোনো শাখায় ব্যাংকিং লেনদেন করতে পারবেন।
সুতরাং, সময়, শ্রম ও ঝামেলা লাঘব করার জন্য পাপনের ই-ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করা অত্যন্ত যৌক্তিক।

প্রশ্ন-৪  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
মিরপুরের মোহিদুল ইসলাম একজন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। তিনি ব্যাংকের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠানো অধিক নিরাপদ মনে করেন। তাই তিনি তার বন্ধুর সাথে আলোচনা করে সোনালী ব্যাংকের ওয়েজ আর্নার্স শাখায় যোগাযোগ করে নিয়মিত টাকা জমা রাখছেন। তবে কিছু টাকা একত্র করে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অধিক লাভজনক খাতে ব্যাংকে রেখে দেয়ারও চিন্তাভাবনা করছেন।
ক. এটিএম কত ঘণ্টা ব্যাংকিং সুবিধা দেয়? ১
খ. ব্যাংক হিসাব বলতে কী বোঝায়? ২
গ. মোহিদুল ইসলাম কোন ধরনের হিসাবে টাকা জমা করছেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. অধিক লাভজনক কোন খাতে মোহিদুল ইসলাম টাকা জমা রাখতে পারেন? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও। ৪
 ৪নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. এটিএম ২৪ ঘন্টা ব্যাংকিং সুবিধা দেয়।
খ. ব্যাংক যে হিসাবের মাধ্যমে গ্রাহকের সাথে লেনদেন করে তাকে ব্যাংক হিসাব বলে। অর্থাৎ এটি ব্যাংকার ও গ্রাহকের সম্পর্কের ভিত্তি হিসেবে কাজ করে। গ্রাহক তার অর্থ জমা ও উত্তোলনসহ যাবতীয় কাজ এ হিসাবের মাধ্যমেই করে থাকে। এ হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক গ্রাহককে একটি নির্দিষ্ট নম্বর প্রদান করে এবং এর মাধ্যমেই গ্রাহককে চিহ্নিত করা হয়।
গ. মোহিদুল ইসলাম সোনালী ব্যাংকের ওয়েজ আর্নাস শাখায় বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয়ী হিসাবে টাকা জমা করছেন।
যে হিসাবের মাধ্যমে বিদেশ হতে অর্থ প্রেরণ করা হয় তাকে বৈদেশিক মুদ্রা হিসাব বলে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী যেকোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এ জাতীয় হিসাব খুলে থাকে। এ জাতীয় হিসাবে একমাত্র বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেন হয়ে থাকে। উদ্দীপকের মোহিদুল ইসলাম বিদেশ থাকেন। বিদেশের মাটিতে বহু কষ্টে অর্জিত টাকা তিনি স্বদেশে পাঠান। এক্ষেত্রে সোনালী ব্যাংকের ওয়েজ আর্নাস শাখা তাকে বৈদেশিক মুদ্রা হিসাব খুলতে সহায়তা করেছে। এ হিসাবের মাধ্যমে তিনি সরাসরি টাকা পাঠাতে পারেন। ফলে দ্রæততার সাথে টাকা পাঠানোর নিশ্চয়তা থাকে। তাছাড়া জমাকৃত টাকার ওপর তিনি স্বল্প হারে সুদ পেয়ে থাকেন।
সুতরাং, বিদেশের মাটিতে কষ্টে অর্জিত টাকা নিরাপত্তার সহিত সঞ্চয়ের পাশাপাশি আয়ের সুযোগ পেতে মোহিদুল ইসলাম বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয়ী হিসাবে টাকা জমা রাখছেন।
ঘ. অধিক লাভের জন্য মোহিদুল ইসলাম স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখতে পারেন।
স্থায়ী হিসাবে সাধারণত এক মাস, তিন মাস, ছয় মাস, ১ বছর, ২ বছর, ৫ বছর ইত্যাদি মেয়াদের জন্য টাকা জমা রাখা হয়। এ হিসাবে ব্যাংক উচ্চ হারে সুদ প্রদান করে তবে মেয়াদ পূর্তির আগে গ্রাহক তার টাকা উত্তোলন করতে পারে না। তবে বিশেষ প্রয়োজনে উত্তোলন করতে পারবে, তবে সেক্ষেত্রে গ্রাহক কোনো সুদ পাবে না। উদ্দীপকে মোহিদুল ইসলাম যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশের সোনালী ব্যাংকের ওয়েজ আর্নাস শাখায় বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয়ী হিসেবে টাকা জমা রাখছেন। এই হিসাবে সুদের হার কম। তাই তিনি তার জমাকৃত টাকা স্থায়ী হিসাবে জমা রাখতে পারেন। এক্ষেত্রে তিনি অধিক সুদ পাবেন যা তার আয় বাড়াতে ভ‚মিকা রাখবে।
সুতরাং, অধিক লাভজনক খাত হিসেবে মোহিদুল ইসলামের স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখা যুক্তিযুক্ত হবে।
প্রশ্ন-৫  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
মি. সানি ও মি. আশিক দু’জন বন্ধু। দু’জনই শহরে ভালো ব্যবসায় করেন। মি. সানি টাকা-পয়সা ব্যাংকে রাখেন। এ কারণে তিনি ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে অনেক সহজে টাকা আদান-প্রদান করতে পারছেন। এছাড়া ব্যাংক থেকে নানান সুবিধা পাওয়ায় তিনি সন্তুষ্ট। অন্যদিকে মি. আশিক টাকা-পয়সা নিজের কাছে রাখতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তবে ছিনতাই, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি বেড়ে যাওয়ায় মি. আশিক ভয় পাচ্ছেন। স¤প্রতি তিনি একটি ব্যাংক হিসাব খুলেছেন।
ক. আমানত কী? ১
খ. ডেবিট কার্ডের ব্যবহার লেখ। ২
গ. মি. আশিক কোন সুবিধা পাওয়ার জন্য ব্যাংক হিসাব খুলেছেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. ব্যাংকের সাথে লেনদেনে মি. সানি প্রধানত কী সুবিধা পাচ্ছেন? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৫নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. বিভিন্ন হিসাবের মাধ্যমে জনগণ বা গ্রাহকদের জমাকৃত অর্থই আমানত।
খ. ডেবিট কার্ড এক ধরনের ইলেকট্রনিক প্লাস্টিক কার্ড, যা ব্যাংক তার গ্রাহকের জন্য ইস্যু করে। ব্যাংক গ্রাহক তার হিসাবে টাকা জমা রেখে যেকোনো এটিএম বুথ বা ইলেকট্রনিক মেশিন থেকে এ কার্ড দিয়ে অর্থ উত্তোলন করতে পারেন। এছাড়াও এই কার্ডের মাধ্যমে নগদ টাকা ছাড়াই গ্রাহক কেনাকাটা করতে পারে।
গ. মি. আশিক অর্থের নিরাপত্তা পাওয়ার জন্য ব্যাংক হিসাব খুলেছেন।
একজন গ্রাহক যেসব সুবিধা পাওয়ার জন্য ব্যাংক হিসাব খুলে থাকেন তার মধ্যে অর্থের নিরাপত্তা অন্যতম। ব্যাংকে অর্থ জমা রাখলে গ্রাহক তার অর্থের নিরাপত্তা নিয়ে ভাবতে হয় না। উপরন্তু বিভিন্ন ব্যাংকিং পণ্য যেমন- চেক, ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড ইত্যাদি ব্যবহার করে বিরাট অংকের অর্থ নিরাপত্তার সহিত আদান প্রদান করা যায়। উদ্দীপকের মি. আশিক তার অর্থের নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত। কারণ বর্তমানে ছিনতাই, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি এবং চুরি-ডাকাতির পরিমাণ অনেক বেড়ে গেছে। এ অবস্থায় তিনি অধিক পরিমাণ অর্থ নিজের কাছে রাখা মোটেও নিরাপদ মনে করছেন না। তাছাড়া ব্যবসায়িক প্রয়োজনে বড় অংকের অর্থ নগদে আদান-প্রদান করাও তার জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। নিরাপত্তাজনিত এসব সমস্যা সমাধান করার জন্যই মূলত তিনি ব্যাংক হিসাবটি খুলেছেন। সুতরাং, মি. আশিক নগদ অর্থ সংরক্ষণ ও আদান-প্রদানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যাংক হিসাব খুলেছেন।
ঘ. ব্যাংকের সাথে লেনদেনে মি. সানি প্রধানত সহজ লেনদেন সুবিধা পাচ্ছেন।
ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক আমানতকারীর অর্থ জমা রেখে তাকে বিভিন্ন ধরনের সেবা প্রদান করে থাকে। এক্ষেত্রে সহজ লেনদেন সুবিধা অন্যতম। ইন্টারনেট ব্যাংকিং-এর মাধ্যমে গ্রাহক ব্যাংকের একটি নিরাপদ ওয়েবসাইট ও পাসওয়ার্ড নিবন্ধিত থাকে। যথাযথ তথ্য প্রদানের পর গ্রাহক পৃথিবীর যে কোনো প্রাপ্ত থেকে যে কোনো সময় তার হিসাবের বিবরণী, তহবিল স্থানান্তর বিল প্রদানসহ অন্যান্য লেনদেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে করতে পারেন। উদ্দীপকের মি. সানি একজন ব্যবসায়ী। ব্যাংকে তার হিসাব থাকায় উক্ত হিসাবের মাধ্যমে তিনি তার ব্যবসায়ের ব্যাংকিং লেনদেন সম্পন্ন করতে পারছেন। কারণ প্রতিটি ব্যাংকই ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে গ্রাহকদের ঝুঁকিপূর্ণ লেনদেন সহজভাবে করার সুযোগ প্রদান করে। নগদ লেনদেনে যেমন ঝুঁকি প্রচুর তেমনি ভুলভ্রান্তির সম্ভাবনা থেকে যায়। এক্ষেত্রে মি. সানি ব্যাংকের চেকের মাধ্যমে তার যাবতীয় লেনদেন অত্যন্ত নিরাপদ ও কম ঝামেলায় করতে পারছেন। এভাবে ব্যাংকের মাধ্যমে সহজে লেনদেন করার ফলে একদিকে মি. সানির সময়, অর্থ ব্যয় যেমন কমছে তেমনি তার ব্যবসায় স¤প্রসারণ ও ব্যবসায়িক দিক দিয়েও লাভবান হচ্ছেন।
সুতরাং, ব্যাংক হিসাবটি মি. সানিকে তার ব্যবসায়িক লেনদেন সহজ ও নিরাপদে সম্পন্ন করতে যাবতীয় ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করছে।
প্রশ্ন-৬  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
সুহাশ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ব্যাংকে তার অনেক বন্ধুরই হিসাব রয়েছে। সেও ব্যাংকে হিসাব খুলতে চায়। সে ইলেকট্রনিক ব্যাংকিংয়ের সুবিধা পেতে আগ্রহী। জনাব সোহাগ একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি চাকরিজীবী হিসেবে একত্রে বেশ কিছু টাকা পেয়েছেন। তিনিও ব্যাংকে হিসাব খুলতে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিন্তু সুহাশের মতো ব্যাংকিং সেবা তার প্রয়োজন নেই। ব্যাংকের জন্য উভয়ই মূল্যবান।
ক. এটিএম কোন ধরনের পণ্য? ১
খ. হিসাব খুলতে পরিচয়করণের প্রয়োজন পড়ে কেন? ২
গ. সুহাশ ব্যাংকে কোন ধরনের হিসাব খুলবে? ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. জনাব সোহাগ স্থায়ী হিসাব খুললে লাভবান হবেন। উক্তিটি মূল্যায়ন কর। ৪
 ৬নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. এটিএম এক ধরনের ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং পণ্য।
খ. ব্যাংক হিসাব খোলার জন্য গ্রাহকের পরিচয়করণের প্রয়োজন পড়ে। ব্যাংক সব সময়ই চায় যে, তার গ্রাহকের সততা, নিষ্ঠতা সম্পর্কে জানতে। এতে ব্যাংক গ্রাহকের সাথে নিরাপদে লেনদেন করার নিশ্চয়তা পায়। সুতরাং গ্রাহকের প্রকৃত যথার্থতা নিশ্চিত হওয়ার জন্যই ব্যাংক হিসাব খুলতে পরিচয়করণের প্রয়োজন পড়ে।
গ. সুহাশ নিজের চাহিদা পূরণের জন্য ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলবে।
মানুষের জীবিকা, প্রয়োজন, সময়, অবস্থান এবং চাহিদা অনুযায়ী ব্যাংক বিভিন্ন প্রকারের হিসাব খোলার ব্যবস্থা রাখে। গ্রাহক তার চাহিদা ও উদ্দেশ্য অনুযায়ী যে কোনো হিসাব খুলতে পারেন। ছাত্রছাত্রীদের আয় স্বল্প হওয়ায় তাদের জন্য সঞ্চয়ী হিসাবই সর্বোত্তম। এ ধরনের হিসাব খুলতে প্রাথমিক জমা ১০০ টাকা হলেই চলে। এ হিসাবের মাধ্যমে গ্রাহক নির্দিষ্ট হারে লভ্যাংশ পায় এবং একাধিক বার টাকা জমা এবং সপ্তাহে দুইবার টাকা উত্তোলনের পাশাপাশি তার কাক্সিক্ষত ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং যেমন অঞগ কার্ড ও অনলাইন সুবিধাও পায়। উদ্দীপকে সুহাশ একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। তার আয় সীমিত। তাই তার পক্ষে বড় অংকের অর্থ ব্যাংকে জমা রাখা সম্ভব নয়। তাছাড়া তার দিনে একাধিকবার ব্যাংক থেকে টাকা তোলারও প্রয়োজন নেই। তার প্রয়োজন অল্প অল্প টাকা জমা রেখে তা প্রয়োজনের সময় উত্তোলনের এবং স্বল্প আয়ের সুবিধা যা সে সঞ্চয়ী হিসাব খুলার মাধ্যমে পেতে পারে। সুতরাং সীমিত আয় নিয়মিত জমা করে তা দ্বারা তুলনামূলকভাবে বড় ধরনের ব্যয় নির্বাহের জন্য সুহাশ ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলবে।
ঘ. জনাব সোহাগ স্থায়ী হিসাব খুললে লাভবান হবেন।
যে হিসাবে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য টাকা জমা রাখা হয় তাকে স্থায়ী হিসাব বলে। সাধারণত যাদের হাতে অনেক টাকা তারা গচ্ছিত টাকা জমা রাখতে স্থায়ী হিসাব খুলে থাকেন। উদ্দীপকে জনাব সোহাগ একজন অবসরপ্রাপ্ত চাকরিজীবী। চাকরি হতে অবসর নেওয়ায় এককালীন পেনশন বাবদ প্রচুর টাকা পেয়েছেন। তাই তার হাতে এখন প্রচুর অলস অর্থ আছে এই অর্থ জমা রাখার জন্য স্থায়ী হিসাবই উত্তম। কারণ এ হিসাবে টাকা জমা রাখলে সোহাগ একদিকে যেমন তার টাকার নিরাপদ আশ্রয়স্থল পাবেন, অন্যদিকে তেমনি উচ্চহারে লভ্যাংশও পাবেন। এই লভ্যাংশ তার আয় বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।
সুতরাং, জনাব সোহাগ তার এককালীন প্রাপ্ত প্রচুর অর্থ জমা রাখার ক্ষেত্রে স্থায়ী হিসাব খুললেই অধিক লাভবান হবেন।
প্রশ্ন-৭  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
মি. ইউসুফ একজন ব্যবসায়ী। ভালো ব্যবসায় করছেন। যথেষ্ট টাকাও জমা থাকছে কোম্পানির ব্যাংক হিসাবে। বন্ধু মি. আরিফ তার ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করতে বললে তিনি ভাবছেন, আপাতত ব্যাংকেই নতুন হিসাব খুলে টাকা রাখবেন। যথারীতি তিনি ব্যাংকে হিসাব খুললেন। আগের হিসাবে তিনি যে সকল সেবা সুবিধা পেতেন এখানে তা নেই। তবুও টাকা নষ্ট হয়নি, টাকা নিয়ে ভাবতে হয়নি এটা ভেবেই তিনি তৃপ্ত।
ক. নমুনা স্বাক্ষর কার্ড কী? ১
খ. রেসিডেন্ট ফরেন কারেন্সি ডিপোজিট হিসাব বলতে কী বোঝায়? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. মি. ইউসুফ ব্যাংকে নতুন কী হিসাব খুলেছেন? ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. আগের হিসাবের মতো সুবিধা না পেলেও মি. ইউসুফের নতুন হিসাব নিয়ে তৃপ্ত হওয়া কারণ বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৭নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. চেকের স্বাক্ষর যথার্থ কিনা তা মিলিয়ে দেখার জন্য যে কার্ডে আমানতকারীর নমুনা স্বাক্ষর ব্যাংক সংরক্ষণ করে তাকে নমুনা স্বাক্ষর কার্ড বলে।
খ. রেসিডেন্ট ফরেন কারেন্সি ডিপোজিট হিসাব সেসব বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য তৈরি, যারা নিয়মিত বিদেশ সফর করেন। বৈদেশিক সফরে সরকারি বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবহারের কোটা অনেক সময় নিয়মিত সফরকারীদের জন্য পর্যাপ্ত না হওয়ায় এই হিসাব বিশেষ ভ‚মিকা রাখে। সাধারণত আমদানি ও রপ্তানিকারীরা এবং বিদেশি কোম্পানির সাথে ব্যবসায়িক এবং উপদেশমূলক সেবায় নিযুক্ত ব্যক্তিবর্গ এই হিসাবে সুবিধা নিয়ে থাকে।
গ. মি. ইউসুফ ব্যাংকে নতুন যে হিসাবটি খুলেছেন তা স্থায়ী হিসাব।
যে হিসাবের টাকা ব্যাংকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য রাখা হয় তাকে স্থায়ী হিসাব বলে। স্থায়ী হিসাবের টাকা সাধারণত মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পূর্বে উত্তোলন করা যায় না। উদ্দীপকের ইউসুফ একজন ব্যবসায়ী। তার হাতে অনেক টাকা সঞ্চিত রয়েছে। এ প্রেক্ষিতেই তিনি ব্যাংকে নতুন হিসাব খুলেছেন। এ হিসাবে মি. ইউসুফ নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিয়েছেন। এতে ব্যাংক মি. ইউসুফকে একটি জমা রসিদ সরবরাহ করেছে। এরূপ জমা রসিদ হস্তান্তরযোগ্য নয়। মি. ইউসুফের জমাকৃত অর্থ থেকে ব্যাংক দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ করতে পারে বলে ব্যাংক মি. ইউসুফকে উচ্চ হারে সুদ প্রদান করে থাকে। তার নতুন খোলা এই ব্যাংক হিসাবটির সব বৈশিষ্ট্যই স্থায়ী ব্যাংকের অনুরূপ।
সুতরাং, মি. ইউসুফ তার সঞ্চিত বড় অংকের টাকা জমা রাখার জন্য ব্যাংকে স্থায়ী হিসাব খুলেছেন।
ঘ. মি. ইউসুফ ব্যাংকে নতুন করে একটি স্থায়ী হিসাব খুলেছেন যা তার গ্রাহককে জমাকৃত অর্থে নিরাপত্তা দানের পাাশাপাশি উচ্চ আয়ের সুযোগ দেয়।
একটি নির্দিষ্ট সময় বা মেয়াদের জন্য যে হিসাব খোলা হয় তাই স্থায়ী হিসাব। যাদের হাতে প্রচুর অলস অর্থ রয়েছে সাধারণত তারাই এ ধরনের হিসাব খুলে থাকে। উদ্দীপকে নতুন হিসাবে ইউসুফকে নিরাপদ সংরক্ষণ ও আয়ের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। পূর্বে মি. ইউসুফ ব্যাংকে চলতি হিসাব খুলেছিলেন। আর বর্তমানে স্থায়ী হিসাব খোলায় আগের হিসাবের মতো ব্যাংক তাকে চেক বই সরবরাহ করেনি। এছাড়াও আগের হিসাবের মতো জমার অতিরিক্ত টাকা উত্তোলনের সুযোগ এখানে নেই। ফলে পূর্বের হিসাবের মতো যখন তখন ব্যাংকিং লেনদেনের সুবিধা তিনি পান না। তবে এসব সুবিধা না পেলেও তিনি তৃপ্ত কারণ স্থায়ী হিসাব তাকে তার অর্থের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদান করছে। তাছাড়া স্থায়ী হিসাবের অর্থ ব্যাংক দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ করতে পারে বলে মি. ইউসুফকে উচ্চহারে সুদ প্রদান করে, যা পূর্বের হিসাবের মাধ্যমে তিনি পেতেন না। এ হিসাবের অর্থ মেয়াদ উত্তীর্ণ সাপেক্ষে পরিশোধযোগ্য বলে ঐ নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত তার অর্থের নিরাপত্তা নিয়ে নিশ্চিন্ত।
সুতরাং দীর্ঘমেয়াদে জমাকৃত অর্থের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা এবং উচ্চ আয়ের সুযোগ পাওয়ায় মি. ইউসুফ তার নতুন হিসাবটি নিয়ে তৃপ্ত।
প্রশ্ন -৮ ল্ফ নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
চাঁদপুরের নাইম একটি ব্যাংকে মাসে মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা রাখেন। দশ বছর পর তিনি চিন্তা করলেন টাকাগুলো একত্রে ব্যাংকেই আরও লাভজনক খাতে রেখে দিবেন। সে মোতাবেক তিনি ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করে নিশ্চয়তা পেয়েছেন।
ক. তারল্য কী? ১
খ. একজন শিক্ষার্থীর জন্য কোন ধরনের হিসাব উপযোগী? ব্যাখ্যা করো। ২
গ. উদ্দীপকের নাইম কোন শ্রেণির ব্যাংকে হিসাব খুলেছেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. অধিক লাভের আশায় নাইম ব্যাংকে কোন ধরনের হিসাব খুলতে পারেন? যুক্তি দাও। ৪
 ৮নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে গ্রাহকদের প্রয়োজনীয়তার আলোকে নির্দিষ্ট পরিমাণ নগদ অর্থ জমা রাখাই হলো তারল্য।
খ. একজন শিক্ষার্থীর জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযোগী। কারণ একজন শিক্ষার্থীর অর্থ প্রাপ্তির সম্ভাবনা থাকে সীমিত, তা হতে সে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয় সৃষ্টি করে। এ হিসাবের আওতায় নিজে মিতব্যয়ী হয়ে ভবিষ্যৎ নিরাপত্তা বিবেচনা করে অর্থ জমা রাখে। আবার সঞ্চয়ী হিসাবের সঞ্চয়কৃত অর্থের ওপর সুদ প্রদান করে যা সীমিত আয়ের শিক্ষার্থীর জন্য লাভজনক।
গ. নাইম ব্যাংকে ডিপোজিট পেনশন স্কিম হিসাব খুলেছেন। গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী ব্যাংকে বিভিন্ন ধরনের হিসাব খোলার সুবিধা রয়েছে। এদের মধ্যে অন্যতম হলো ডিপোজিট পেনশন স্কিম হিসাব। এ হিসাবের মাধ্যমে প্রতি মাসে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিতে হয়। এভাবে দীর্ঘমেয়াদে টাকা জমা রাখার পর মেয়াদ শেষে এককালীন ভিত্তিতে সুদসহ সকল টাকা গ্রাহককে ফেরত দেয়া হয়। উদ্দীপকে নাইম তার ব্যাংক হিসাবে প্রতি মাসে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা ব্যাংকে জমা রাখেন। এভাবে দীর্ঘ দশ বছর নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ এ হিসাবে জমা রাখার পর এককালীন ভিত্তিতে সুদসহ সকল টাকা ফেরত পায়। নাঈমের ব্যাংকে টাকা জমা রাখা এবং উত্তোলনের প্রক্রিয়া ডিপোজিট পেনশন স্কিমের জমা উত্তোলন প্রক্রিয়ার অনুরূপ।
পরিশেষে বলা যায়, নাইম নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রতি মাসে নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত জমা রাখতে ব্যাংকে ডিপোজিট পেনশন স্কিম হিসাব খুলেছেন।
ঘ. অধিক লাভের আশায় নাইম ব্যাংকে স্থায়ী হিসাব খুলতে পারেন।
মানুষ তার জীবিকা, প্রয়োজন, সময়, অবস্থান অনুযায়ী ব্যাংকে বিভিন্ন ধরনের হিসাব খুলে থাকে। এদের মধ্যে অন্যতম হলো স্থায়ী হিসাব। একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য খোলা এ হিসাবে উচ্চ হারে সুদ প্রদান করা হয়। উদ্দীপকে নাইম চাঁদপুরের একটি ব্যাংকে দশ বছর যাবৎ ডিপোজিট পেনশন স্কিম হিসাবে টাকা জমা রাখেন। দশ বছর পর তিনি তার টাকাগুলো একত্রে রাখতে চান। এক্ষেত্রে তিনি স্থায়ী হিসাবে টাকাগুলো জমা রাখলে ব্যাংক তাকে অন্যান্য হিসাবের তুলনায় বেশি পরিমাণ সুদ ব্যাংক প্রদান করবে। কারণ তিনি দীর্ঘমেয়াদে অর্থ জমা রাখলে ব্যাংকও এ অর্থ অন্যত্র দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগের সুযোগ পাবে। তবে সেক্ষেত্রে মেয়াদি পূর্তির আগে নাইম অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন না। একমাস, তিন মাস, ছয় মাস, ১ বছর, ৫ বছর ইত্যাদি নানান মেয়াদে নাইম তার অর্থ জমা রাখতে পারবেন।
পরিশেষে বলা যায়, অধিক লাভের আশায় নাইম ব্যাংকে সর্বোচ্চ সুদযুক্ত স্থায়ী হিসাব খুলতে পারেন।
প্রশ্ন-৯  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
হাসান চৌধুরী হিসাব খোলার ইচ্ছায় সুরমা ব্যাংকে গেলেন। ব্যাংকের ম্যানেজারের সাথে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলাপ করলেন। আলোচনায় ব্যাংকের ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড, এটিএম বুথ, ইন্টারনেট ব্যাংকিং সম্পর্কে জানতে পারলেন। তারপর তিনি একটি ফরমে তার নাম, ঠিকানা, আয়ের উৎস, পেশা, মোবাইল নম্বর লিখলেন এবং যথাস্থানে স্বাক্ষর দিয়ে আবেদন করলেন।
ক. এসএমএস ব্যাংকিং কী? ১
খ. তালিকাভুক্ত ব্যাংক বলতে কী বোঝ? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. ‘সুরমা ব্যাংক’ হাসান চৌধুরীর মতো গ্রাহকদের কোন ধরনের সেবা প্রদান করে তা বর্ণনা কর। ৩
ঘ. হাসান চৌধুরী কীভাবে তার প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করতে পারেন? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ৯নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. মোবাইল এসএমএস-এর মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাংকিং সেবা প্রদান করাকে এসএমএস ব্যাংকিং বলে।
খ. বাংলাদেশ ব্যাংক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে ভালো ভালো বাণিজ্যিক ব্যাংককে তালিকাভুক্ত ব্যাংক হিসাবে স্বীকৃতি দেয়। এদেরকে তালিকাভুক্ত ব্যাংক বলা হয়। তালিকাভুক্ত ব্যাংক অতালিকাভুক্ত ব্যাংকের চেয়ে সবার নিকট অধিক নিরাপদ হিসেবে বিবেচিত হয়।
গ. ‘সুরমা ব্যাংকটি হাসান চৌধুরীর মতো গ্রাহকদের ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে।
আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও ইলেকট্রনিক ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে অগ্রসর হয়েছে। গতানুগতিক পদ্ধতির বিপরীতে ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা সবার নিকট জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কারণ ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং ব্যবস্থায় গ্রাহক কম খরচে দ্রæত গতির ব্যাংকিং সেবা পায়। উদ্দীপকে আধুনিক ব্যাংক হিসেবে সুরমা ব্যাংক তার গ্রাহকদের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড, এটিএম বুথ, ইন্টারনেট ব্যাংকিং ইত্যাদি ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং পণ্য গ্রাহকদের সেবা প্রদানে ব্যবহার করছে। এতে করে সুরমা ব্যাংক অনেক দ্রæত দূর-দূরান্তে তার গ্রাহককে সেবা পৌঁছতে পারছে। তাছাড়া এ ব্যাংক সাধারণ ব্যাংকিং সময়ের বাইরে অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টাই গ্রাহকদের সেবা দিতে পারছে। এমনকি এই ব্যাংক দেশের যে কোনো শাখা থেকে গ্রাহকদের বিভিন্ন লেনদেন গ্রহণে সুবিধা দিয়ে থাকে। যার কারণে গ্রাহকগণ একদিকে যেমন অধিক সেবা সুবিধা পাচ্ছে। অন্যদিকে তেমনি নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকি থেকেও রক্ষা পাচ্ছে।
ঘ. হাসান চৌধুরী ইন্টারনেট ব্যাংকিং-এর মাধ্যমে তার প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহ করতে পারেন।
কম্পিউটার ও ইলেকট্রনিক দ্রব্যাদির অভ‚তপূর্ব উন্নয়ন ব্যাংকিং জগতে বিভিন্ন পণ্য ও সেবার আর্বিভাব ঘটিয়েছে। এর মধ্যে ইন্টারনেট ব্যাংকিং অন্যতম। ইন্টারনেট ব্যাংকিং- এর মাধ্যমে গ্রাহক যথাযথ তথ্য প্রদানের পর পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে যেকোনো সময় তার হিসাবের বিবরণী, তহবিল স্থানান্তর, বিল প্রদানসহ অন্যান্য লেনদেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে করতে পারে। উদ্দীপকে হাসান চৌধুরী সুরমা ব্যাংকের ইন্টারনেট ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করে বিধায় তিনি ব্যাংকে না যেয়েও নগদ অর্থ উত্তোলন করতে পারেন। তিনি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে উক্ত অর্থ উত্তোলন করেন, যা একমাত্র ইন্টারনেট ব্যাংকিং-এর কল্যাণেই সম্ভব হয়েছে। তাছাড়া হাসান চৌধুরীর নিকট ইলেকট্রনিক পণ্য হিসেবে অঞগ ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড রয়েছে। যার সাহায্যে সে ২৪ ঘণ্টা ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করতে পারে।
সুতরাং, জনাব হাসান চৌধুরী আধুনিক ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং পণ্য ব্যবহার করে যে কোনো স্থান থেকে যে কোনো সময় নগদ অর্থ সংগ্রহ করতে পারেন।

প্রশ্ন -১০ ল্ফ নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
মি. সুমন একটি বায়িং হাউস-এর ব্যবসায় আরম্ভ করে। মূলত ব্যবসায়ের প্রয়োজনে তাকে বৈদেশিক লেনদেন করতে হয়। সুরমা ব্যাংকে তার একটি সঞ্চয়ী হিসাব আছে। ঐ হিসাবটি ব্যবসার কাজে ব্যবহার করতে পারবেন কি না এ বিষয়ে ব্যাংকের ম্যানেজারের সাথে আলোচনা করেন। ম্যানেজার সাহেব তাকে ব্যবসায় লেনদেনের জন্য একটি চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দেন।
[বাংলাদেশ মহিলা সমিতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, চট্টগ্রাম]
ক. ব্যাংক আমানত গ্রহণ করে কিসের মাধ্যমে? ১
খ. ‘ঝুঁকিহীন বিনিয়োগের ক্ষেত্র হলো ব্যাংক’। বুঝিয়ে বল। ২
গ. কেন মি. সুমনের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযুক্ত নয়? ব্যাখ্যা কর। ৩
ঘ. ব্যাংকের ম্যানেজার সুমনকে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দেওয়ার কারণ কী বলে তুমি মনে কর। যুক্তি দাও। ৪
 ১০নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ব্যাংক আমানত গ্রহণ করে ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে।
খ. ব্যাংকে টাকা জমা রাখলে নির্দিষ্ট হারে সুদ পাওয়া যায়। অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো বা খারাপ বিবেচ্য নয়, ব্যাংকে বিনিয়োগের ফলে মুনাফা অর্জিত হবেই। শেয়ারবাজার বিনিয়োগের মতো এটি ঝুঁকিপূর্ণ নয়। বরং এটি জমাকৃত টাকার নিরাপত্তা ও নিশ্চয়তা বহন করে। তাই ব্যাংককে ঝুঁকিহীন বিনিয়োগের ক্ষেত্র বলা হয়।
গ. সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে কার্যদিবসে যতবার প্রয়োজন লেনদেন করা যায় না তাই সুমনের জন্য এ হিসাব উপযোগী নয়। সঞ্চয়ী হিসাব এমন একটি হিসাব যে হিসাবে যতবার ইচ্ছা ততবার টাকা জমা দেওয়া যায় কিন্তু দুবারের বেশি অর্থ উত্তোলন করা যায় না। এ হিসাবের বিপরীতে নির্দিষ্ট পরিমাণ সুদ প্রদান করা হয়। উদ্দীপকে মি. সুমনকে ব্যবসায়িক প্রয়োজনে দৈনিক একাধিকবার অর্থ জমা ও উত্তোলন করতে হয় এবং বৈদেশিক লেনদেন করতে হয়, যা সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে সম্পাদন করা সম্ভব নয়। সাধারণ অব্যবসায়ী নির্দিষ্ট আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে এ হিসাব খুলে থাকে। এ হিসাবে ব্যাংক স্বল্প হারে সুদ প্রদান করে থাকে।
সুতরাং উপরিউক্ত আলোচনা থেকে বলা যায়, মি. সুমনের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযুক্ত নয়।
ঘ. চলতি হিসাবে সহজেই বৈদেশিক লেনদেন সম্পাদন করা যায় তাই ম্যানেজার সাহেব মি. সুমনকে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দিলেন।
যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা রাখা যায় এবং প্রয়োজনমতো চাহিবামাত্র যতবার খুশি টাকা উত্তোলন করা যায়, তাকে চলতি হিসাব বলে।
ব্যাংকের ম্যানেজার সুমনকে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দেন, কারণ চলতি হিসাব এমন একটি হিসাব যার মাধ্যমে সুমন দৈনিক যতবার ইচ্ছা অর্থ জমা ও উত্তোলন করতে পারবেন। এ হিসাবের জন্য কোনো প্রকার সুদ প্রদান করা হয় না কিন্তু এ হিসাবের বিপরীতে সুমন জমাতিরিক্ত উত্তোলন করতে পারবেন। এর জন্য কোনো জামানত দিতে হয় না। এ হিসাবের মাধ্যমে জনাব সুমন সহজেই বৈদেশিক লেনদেন সম্পাদন করতে পারবেন। এ হিসাবের মাধ্যমে সহজেই একস্থান থেকে অন্য স্থানে অর্থ স্থানান্তর করতে পারবেন।
সুতরাং, পরিশেষে বলা যায়, ব্যবসায়িক লেনদেন ব্যাংকের মাধ্যমে সহজ ও সঠিকভাবে সম্পাদন করার জন্য ম্যানেজার সাহেব মি. সুমনকে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দেন।
প্রশ্ন-১১  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
আহসান সাহেব একজন চালের ব্যবসায়ী। লেনদেনের সুবিধার্থে তিনি ব্যাংকে হিসাব খুলতে আগ্রহী। এজন্য সঞ্চয়ী হিসাব খুলতে গেলে ব্যাংক ম্যানেজার তাকে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দিলেন।
[নড়াইল সরকার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়]
ক. ডেবিট কার্ড কে ইস্যু করে? ১
খ. এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং বলতে কী বোঝ? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. আহসান সাহেব কীভাবে ব্যাংকে হিসাব খুলবেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. ব্যাংক ম্যানেজার কেন তাকে সঞ্চয়ী হিসাবের পরিবর্তে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দিলেন? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১১নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ডেবিট কার্ড ব্যাংক ইস্যু করে।
খ. যেকোনো একটি ব্রাঞ্চে হিসাব খুলে দেশের উক্ত ব্যাংকের সকল শাখার মাধ্যমে লেনদেন করাকে এনি ব্রাঞ্চ ব্যাংকিং বলে। এক্ষেত্রে যে ব্যাংকে হিসাব খোলা হয় সেখানে না গেলেও হয়। যেমন : ঢাকার মতিঝিলের ব্যাংক শাখায় হিসাব খুলে সিলেটের ব্যাংকের যেকোনো শাখায় লেনদেন করার সুবিধা পাওয়া যায়।
গ. আহসান সাহেব পছন্দনীয় ব্যাংকে যেয়ে ব্যাংকের নির্ধারিত ফরম পূরণ করে প্রয়োজনীয় তথ্য জমাদানের মাধ্যমে ব্যাংকে হিসাব খুলবেন।
গ্রাহক তার চাহিদা এবং উদ্দেশ্য অনুযায়ী ব্যাংকে বিভিন্ন রকমের হিসাব খুলতে পারেন। ব্যাংক হিসাব ব্যাংকের সাথে গ্রাহকের সেতুবন্ধন সৃষ্টি করে। সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি মেনেই ব্যাংক হিসাব খুলতে হয়। উদ্দীপকের আহসান সাহেব ব্যাংক হিসাব খোলার জন্য প্রথমে তার পছন্দনীয় ব্যাংক যাবেন। তিনি ব্যাংক থেকে সরবরাহকৃত গ্রাহক পরিচিতি ফরম পূরণ করবেন। গ্রাহক পরিচিতি ফরম তার ব্যক্তিগত তথ্য এবং লেনদেন বা হিসাব সম্পর্কিত তথ্য উপস্থাপন করতে হবে। এ সকল তথ্যের সাথে তাকে একজন পুরাতন গ্রাহকের একটি পরিচিতি স্বাক্ষরসহ হিসাব খোলার জন্য আবেদন করতে হবে। ব্যাংক উক্ত তথ্যের যাচাই বাছাই করে সন্তুষ্ট হলে ১,০০০ টাকা জমা নিয়ে হিসাব খুলে দিবে। হিসাব খোলা হলে তাকে একটি হিসাব নম্বর প্রদান করা হবে। হিসাব নম্বর পেলেই তিনি ব্যাংকের একজন গ্রাহকে পরিণত হবেন।
ঘ. আহসান সাহেব ব্যবসায়ী বলেই ব্যাংক ম্যানেজার তাকে সঞ্চয়ী হিসাবের পরিবর্তে চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দিয়েছেন।
ব্যবসায়ীদের জন্য চলতি হিসাব সুবিধাজনক। এ হিসাবে সাধারণত কোনো সুদ প্রদান করা হয় না। তবে জমাতিরিক্ত টাকা উত্তোলন করা যায়। উদ্দীপকের আহসান সাহেব একজন ব্যবসায়ী। তার জন্য চলতি হিসাবই অধিক উপযুক্ত। কারণ চালের ব্যবসায়ী হিসেবে আহসান সাহেবকে অসংখ্যবার ব্যাংকে টাকা জমা রাখতে হবে এবং প্রয়োজনমতো উত্তোলন করতে হবে। সঞ্চয়ী হিসাব খুললে তিনি সপ্তাহে দুই বারের বেশি টাকা উত্তোলন করতে পারবেন না এবং জমাতিরিক্ত ঋণ সুবিধাও পাবেন না। একমাত্র চলতি হিসাবই যতবার খুশি অর্থ উত্তোলনের স্বাধীনতা প্রদান করে। তাছাড়া তাকে ব্যবসায়িক সংকটে ঋণ গ্রহণের প্রয়োজন হলে তিনি চলতি হিসাব থেকে জমাতিরিক্ত ঋণ সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন।
সুতরাং, অর্থ উত্তোলনের স্বাধীনতা এবং জমাতিরিক্ত ঋণের সুবিধার জন্যই ব্যাংক ম্যানেজার জনাব আহসানকে সঞ্চয়ী হিসাবের পরিবর্তে চলতি হিসাব খুলতে বলেছেন।
প্রশ্ন-১২  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
আঁখি ও শিরিন দুইজন বান্ধবী। আঁখি পড়ালেখা করে এবং পড়ালেখার ফাঁকে টিউশনি করে। শিরিন একজন ব্যবসায়ী। প্রতিদিন তার অনেক টাকা ব্যাংকে জমা দিতে হয় ও উঠাতে হয়। তারা দুইজনই ব্যাংকে হিসাব খুলতে আগ্রহী। [মতিঝিল মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা]
ক. ব্যাংক কত ধরনের হিসাব খোলার সুযোগ দেয়? ১
খ. চলতি হিসাবের ২টি সুবিধা ব্যাখ্যা কর। ২
গ. আঁখি ও শিরিন এ দুইজন কোন ধরনের হিসাব খুলবে? ৩
ঘ. আঁখি ও শিরিনের হিসাবের মধ্যে তুলনামূলক বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১২নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. ব্যাংক গ্রাহকদের তিন ধরনের হিসাব খোলার সুযোগ প্রদান করে।
খ. চলতি হিসাবের দুইটি সুবিধা হলো-
১। আমানতকারী ব্যাংক চলাকালীন যতবার খুশি টাকা জমা ও উত্তোলন সুবিধা গ্রহণ করতে পারে।
২। প্রয়োজনে বিশেষ ব্যবস্থায় আমানতকারী জমাতিরিক্ত অর্থ উত্তোলন করতে পারে।
গ. চাহিদা ও অর্থের উৎস অনুযায়ী আঁখি সঞ্চয়ী হিসাব এবং শিরিন চলতি হিসাব খুলবে।
যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা রাখা যায়, কিন্তু সপ্তাহে দুইবার বা নিয়ম অনুযায়ী টাকা উত্তোলন করা যায় তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে। সাধারণত অব্যবসায়ী নির্দিষ্ট আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে এ হিসাব খুলে থাকে। আবার যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা রাখা যায় এবং প্রয়োজনমতো চাহিবামাত্র যতবার খুশি টাকা উত্তোলন করা যায় তাকে চলতি হিসাব বলে। ব্যবসায়ীদের জন্য এ হিসাব সুবিধাজনক। উদ্দীপকে আঁখি একজন শিক্ষার্থী। সে লেখাপড়ায় পাশাপাশি টিউশন করে। তাকে সপ্তাহে দুইবারের বেশি টাকা তুলতে হয় না। তাই সে যদি সঞ্চয়ী হিসাব খুলে তাহলে সে সঞ্চয়ের পাশাপাশি স্বল্প হারে আয়ের সুযোগও পাবে। কিন্তু শিরিন ব্যবসায়ী বলে প্রতিদিন তাকে অনেক টাকা জমা দিতে ও উঠাতে হয়। এই সুবিধা শুধুমাত্র চলতি হিসাবে পাওয়া যায়।
সুতরাং, নিজেদের চাহিদা পূরণের জন্য আঁখি সঞ্চয়ী হিসাব এবং শিরিন চলতি হিসাব খুলবে।
ঘ. কিছু বিশেষ কারণে আঁখির সঞ্চয়ী হিসাব শিরিনের চলতি হিসাব থেকে স্বতন্ত্র।
চলতি হিসাব খোলা হয় বড় বড় লেনদেনের জন্য অন্যদিকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র লেনদেনের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব খোলা হয়। চলতি হিসাবে যত খুশি লেনদেন করা যায় কিন্তু সঞ্চয়ী হিসাবে সপ্তাহে মাত্র দুই বার টাকা তোলা গেলেও যত খুশি ততবার জমা দেয়া যায়। সঞ্চয়ী হিসাবে সুদ দেয়া হয় কিন্তু চলতি হিসাবের কোনো সুদ নেই। এ জন্য চলতি ও সঞ্চয়ী হিসাব পরস্পর থেকে পৃথক। উদ্দীপকে আঁখি ও শিরিন দুই বান্ধবী। তারা দুইজন দুই ধরনের ব্যাংক হিসাব খুলবেন। আঁখি সঞ্চয়ী হিসাব খুলবে। কারণ সে লেখাপড়ার মাঝে টিউশনি করে। সে অর্থ ব্যাংকে জমা রাখতে চায় এবং প্রয়োজন অনুযায়ী উত্তোলন করতে চায়। তাছাড়া আঁখি একজন ছাত্রী হওয়ায় তাকে অধিক হারে লেনদেন করতে হয় না। তাই আঁখির জন্য সঞ্চয়ী হিসাব খোলা উপযোগী। অপরদিকে শিরিন একজন ব্যবসায়ী। তাকে ব্যবসায়িক কাজে প্রতিদিন অনেক টাকা ব্যাংকে জমা দিতে হয় এবং অনেক টাকা ব্যাংক থেকে তুলতে হয়, যা সঞ্চয়ী ও স্থায়ী হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন অর্থ উত্তোলন করা যায় না। একজন ব্যবসায়ীকে জমার অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলন, ঋণ সুবিধা গ্রহণ ও বৈদেশিক লেনদেন সম্পাদন করতে হয়। এসব কাজ সম্পাদন করার জন্য চলতি হিসাবের বিকল্প নেই। তাই শিরিনের জন্য চলতি হিসাব খোলা অধিক উপযোগী। এ ছাড়া শিরিনকে ব্যবসায়িক প্রয়োজনে অধিকবার টাকা উত্তোলন করতে হয় যেটি চলতি হিসাব ছাড়া অন্য কোনো হিসাবে করতে দেয়া হয় না। আর আঁখি সঞ্চয়ী হিসাব থেকে সুদ পাবেন, যা তার আয় বাড়াতে সহায়তা করবে। সুতরাং বলা যায়, আঁখি ও শিরিনের লেনদেনের প্রকৃতি অনুযায়ী তাদের ব্যাংক হিসাবের সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য রয়েছে।
প্রশ্ন-১৩  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
অনিমা দে একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। তিনি পেনশনের অর্থ একটি ব্যাংক হিসাবে জমা রেখেছেন। উক্ত হিসাব থেকে তিনি সপ্তাহে দু’বার টাকা উত্তোলন করতে পারেন। তিনি কিছু অর্থ তার নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত মেয়ের ভবিষ্যতের জন্য রেখে দেন।
[মতিঝিল মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা]
ক. কোন হিসাব কোনো সুদ প্রদান করে না? ১
খ. গ্রাহক পরিচিতি ফরমে কোন তথ্য থাকে? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. অনিমা দে কোন হিসাবে তার অর্থ জমা রেখেছেন? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. মেয়ের বিয়ের জন্য রেখে দেওয়া টাকা তিনি কোন হিসাবে জমা রেখেছেন বলে তুমি মনে কর? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও। ৪
 ১৩নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. চলতি হিসাব কোনো সুদ প্রদান করে না।
খ. যেকোনো ধরনের হিসাব খোলার ক্ষেত্রে গ্রাহককে প্রথমেই গ্রাহক পরিচিতি ফরম পূরণ করতে হয়। ব্যাংকের গ্রাহক পরিচিতি ফরমে যে সকল তথ্য থাকে সেগুলো হলো : গ্রাহকের নাম, আয়ের উৎস, জাতীয়তা সনদপত্র, গ্রাহকের পেশা, আমানতের পরিমাণ, বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা, কর্মসংস্থানের ঠিকানা, যোগাযোগ নম্বর ইত্যাদি।
গ. অনিমা দে সঞ্চয়ী হিসাবে তার অর্থ জমা রেখেছেন।
ব্যাংক গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন প্রকারের হিসাব খোলার ব্যবস্থা রাখে। সঞ্চয় হিসাব তার মধ্যে অন্যতম। সাধারণত অব্যবসায়ী নির্দিষ্ট আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে এ হিসাব খুলে থাকে। এ হিসাবের গ্রাহকরা দিনে যতবার হচ্ছে টাকা জমা রাখতে পারেন কিন্তু সপ্তাহে দুইবারের বেশি টাকা উত্তোলন করতে পারেন না। এরূপ হিসাবের গ্রাহকদের সাধারণত পাস বই সরবরাহ করা হয় এবং জমাকৃত অর্থের ওপর স্বল্প হারে সুদ প্রদান করা হয়। উদ্দীপকে অনিমা দে অবসর গ্রহণের পর তার পেনশন বাবদ প্রাপ্ত অর্থ একটি ব্যাংক হিসাবে জমা রেখেছেন। উক্ত হিসাবের মাধ্যমে তিনি তার জমাকৃত অর্থ সপ্তাহে দুইবারের বেশি তুলতে পারেন না। তার ব্যাংক হিসাবে সঞ্চয়ী হিসাবের বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত। সুতরাং, অনিমা দে সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে তার পেনশনের টাকা ব্যাংক হিসাবে জমা রেখেছেন।
ঘ. মেয়ের বিয়ের জন্য রেখে দেওয়া টাকা অনিমা দে স্থায়ী হিসাবে জমা রেখেছেন বলে আমি মনে করি।
একটি নির্দিষ্ট সময়ের বা মেয়াদের জন্য যে হিসাব খোলা হয়, তাকে স্থায়ী হিসাব বলে। স্থায়ী হিসাবে সাধারণত এক মাস, তিন মাস, ছয় মাস, ১ বছর, ২ বছর, ৫ বছর ইত্যাদি মেয়াদের জন্য টাকা জমা রাখা হয়। এ হিসাবে ব্যাংক উচ্চ হারে সুদ প্রদান করে তবে মেয়াদ পূর্তির আগে গ্রাহক তার টাকা উত্তোলন করতে পারে না। বিশেষ কোনো প্রয়োজনে গ্রাহক যদি এই হিসাবে সঞ্চিত অর্থ উত্তোলন করে তাহলে সে তার প্রাপ্য সুদ থেকে বঞ্চিত হয়। উদ্দীপকের অনিমাদের মেয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ে। তার বিয়ে হতে এখনও অনেক দেরি। তাই অনিমা দে তার টাকা অবশ্যই দীর্ঘমেয়াদের জন্য রেখেছেন এবং উক্ত সময়ের পূর্বে তিনি এই টাকা উত্তোলন করবেন না। তাছাড়া তিনি তার জমাকৃত অর্থ থেকে উচ্চ হারে আয়ের সুযোগ নিশ্চয়ই হাত ছাড়া করবেন না। আর এসব সুবিধা তাকে শুধু ব্যাংকের স্থায়ী হিসাবই দিতে পারবে।
সুতরাং, অনিমা দে দীর্ঘদিন অর্থ জমা রাখার পাশাপাশি উচ্চহারে সুদ পাবার জন্য মেয়ের বিয়ের জন্য রেখে দেওয়া টাকা ব্যাংকের স্থায়ী হিসাবেই জমা রেখেছেন।
প্রশ্ন-১৪  নিচের উদ্দীপকটি পড়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও :
অর্ণব ও অন্তর দুই বন্ধু বসুন্ধরা শপিং মলে কেনাকাটা করতে গেল। তাদের কাছে নগদ অর্থ না থাকলেও ইলেকট্রনিক প্লাস্টিক কার্ডের বদৌলতে তারা কেনাকাটা করতে সক্ষম হয়। এক্ষেত্রে অর্ণবের ব্যাংক হিসাবে টাকা ছিল, কিন্তু অন্তরের হিসাবে তাও ছিল না।
[সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়]
ক. জমাতিরিক্ত অর্থ উত্তোলনের সুবিধা কোন ধরনের ব্যাংক হিসাব প্রদান করে? ১
খ. ব্যাংক কীভাবে ব্যবসায়িক লেনদেনে সহায়তা করে? ব্যাখ্যা কর। ২
গ. ব্যাংকের কোন পণ্যের কারণে অর্ণব কেনাকাটা করতে পেরেছিল? বর্ণনা কর। ৩
ঘ. হিসাবে টাকা জমা না থাকলেও কীভাবে অন্তর কেনাকাটা করলো? বিশ্লেষণ কর। ৪
 ১৪নং প্রশ্নের উত্তর 
ক. চলতি হিসাব জমাতিরিক্ত অর্থ উত্তোলনের সুবিধা প্রদান করে।
খ. ব্যবসায়ের প্রয়োজনে ব্যাংক নগদ অর্থ ঋণ হিসেবে প্রদান করে। আবার বিভিন্ন প্রকার লেনদেন গ্রাহকের পক্ষে সম্পাদন করে। বিনিময় বিল বাট্টাকরণ কিংবা চেক ভাঙানো, ব্যাংক ড্রাফট ও অর্থ স্থানান্তরের মাধ্যমে ব্যবসায়িক লেনদেনে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহায়তা করে থাকে।
গ. অর্ণব ডেবিট কার্ড নামক ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং পণ্যের সাহায্যে কেনাকাটা করতে পেরেছিল।
যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বিভিন্ন ব্যাংকিং পণ্য ও সেবার আবির্ভাব ঘটেছে, যা ব্যাংকিং খাতকে আধুনিক এবং গতিশীল করেছে। এর মধ্যে ডেবিট কার্ড অন্যতম। এই কার্ড ব্যবহার করে দোকান থেকে কেনাকাটা করা যায়। তবে এ ক্ষেত্রে ব্যাংক হিসাবে টাকা থাকা আবশ্যক। ব্যাংক হিসাবে টাকা না থাকলে ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে টাকা তোলা বা কেনাকাটা করা যায় না। উদ্দীপকে অর্ণব ও অন্তর কেনাকাটার জন্য বসুন্ধরা শপিং মলে যায়। তাদের কারও কাছে নগদ অর্থ না থাকায় তারা উভয়ে সেখানে পণ্য ক্রয়ের জন্য ইলেকট্রনিক প্লাস্টিক কার্ড ব্যবহার করে। শপিং মলের বিক্রেতা অর্ণবের কার্ডটি ব্যবহার করে তার ব্যাংক হিসাব থেকে যন্ত্রের মাধ্যমে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা গ্রহণ করে তাকে পণ্য বুঝিয়ে দেয়।
সুতরাং শপিং মলে অর্ণব ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে তার ব্যাংক হিসাবের টাকা দ্বারা কেনাকাটা করেছিল।
ঘ. শপিংমলে অন্তর ক্রেডিট কার্ডের সাহায্যে কেনাকাটা করলো।
ক্রেডিট কার্ড এক ধরনের ব্যক্তিগত ঋণ, যা নির্দিষ্ট সময়ান্তে গ্রাহককে সুদসহ পরিশোধ করতে হয়। এক্ষেত্রে ব্যাংকে হিসাব থাকার বাধ্যবাধকতা নেই। ব্যাংক হিসাবে টাকা না থাকলেও এই কার্ড ব্যবহার করে মালামাল ক্রয় করা যায় উদ্দীপকে অন্তর বসুন্ধরা শপিং মলে কেনাকাটায় নগদ অর্থ ব্যবহার না করে ইলেকট্রনিক প্লাস্টিক কার্ড ব্যবহার করেছে। কার্ডটি ব্যবহার করার সময় তার ব্যাংক হিসাবে টাকা ছিল না। অর্থাৎ তার ব্যবহৃত কার্ডটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে তার ব্যাংক হিসাবে টাকা থাকা আবশ্যক ছিল না। সে কার্ডটি ব্যবহার করে ঋণ গ্রহণের মাধ্যমে কেনাকাটা করেছিল। আর এসব সুবিধা একজন গ্রাহক কেবল ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রেই পেয়ে থাকেন।
সুতরাং অন্তরের ব্যাংক হিসাবে টাকা না থাকা সত্তে¡ও ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ব্যক্তিগত ঋণ গ্রহণ সাপেক্ষে কেনাকাটা সম্পন্ন করেছিল।

 জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ ব্যাংকিং ব্যবসায় তহবিলের মূল উৎস কী?
উত্তর : ব্যাংকিং ব্যবসায় তহবিলের মূল উৎস হলো আমানত।
প্রশ্ন \ ২ \ ব্যাংক আমানত বা হিসাবের উদ্দেশ্য ও গুরুত্বের প্রেক্ষাপট কয় ধরনের?
উত্তর : ব্যাংক আমানত বা হিসাবের উদ্দেশ্য ও গুরুত্বের প্রেক্ষাপট তিন ধরনের। যথা : ১. গ্রাহক, ২. ব্যাংক, ৩. ব্যষ্টিক অর্থনীতি।
প্রশ্ন \ ৩ \ ঝুঁকিহীন বিনিয়োগ বলা হয় কাকে।
উত্তর : ব্যাংক আমানতকে ঝুঁকিহীন বিনিয়োগ বলা হয়।
প্রশ্ন \ ৪ \ এটিএম কত ঘণ্টা ব্যাংকিং সুবিধা দেয়?
উত্তর : এটিএম ২৪ ঘণ্টা ব্যাংকিং সুবিধা দেয়।
প্রশ্ন \ ৫ \ স্থায়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মেয়াদ কত?
উত্তর : স্থায়ী হিসাবের সর্বনিম্ন মেয়াদ এক মাস।
প্রশ্ন \ ৬ \ ব্যাংক হিসাব বন্ধ করার পদ্ধতি কয়টি?
উত্তর : ব্যাংক হিসাব বন্ধ করার পদ্ধতি দুইটি।
প্রশ্ন \ ৭ \ ঊ ব্যাংকিং কী?
উত্তর : কম্পিউটার ও ইলেকট্রনিক দ্রব্যাদির ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যাংকিং কার্যাবলি পরিচালনা করাকে ঊ ব্যাংকিং বলে।
প্রশ্ন \ ৮ \ ব্যক্তিগত পর্যায়ে কোন হিসাব খোলা শ্রেয়?
উত্তর : ব্যক্তিগত পর্যায়ে সঞ্চয়ী হিসাব খোলাই শ্রেয়।
প্রশ্ন \ ৯ \ বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেন হয় কোন হিসাবে?
উত্তর : বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেন হয় বৈদেশিক মুদ্রা হিসাবে।
প্রশ্ন \ ১০ \ ব্যাংক কীভাবে মূলধন সৃষ্টি করে?
উত্তর : ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে অলস বিক্ষিপ্ত সঞ্চয়গুলো পুঞ্জিভ‚ত হয়ে মূলধন সৃষ্টি করে থাকে।
প্রশ্ন \ ১১ \ কোন ব্যাংকিং ২৪ ঘণ্টাই ব্যাংকিং সেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়?
উত্তর : ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং ২৪ ঘণ্টাই ব্যাংকিং সেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়।
প্রশ্ন \ ১২ \ একটি নির্দিষ্ট সময় বা মেয়াদের জন্য কোন হিসাব খোলা হয়?
উত্তর : একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ বা সময়ের জন্য স্থায়ী হিসাব খোলা হয়।

 অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর 
প্রশ্ন \ ১ \ ব্যবসায়ীদের জন্য চলতি হিসাব সুবিধাজনক কেন? ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : ব্যবসায়ীদের ব্যবসায়ের প্রয়োজনে সবসময় বিভিন্ন ধরনের লেনদেন করতে হয়। যেখানে অসংখ্যবার বড় অংকের নগদ লেনদেন হয়। এতে ঝুঁকিও থাকে। চলতি হিসাবে ব্যবসায়ীরা যে কোনো সময় যতবার খুশি টাকা জমা ও উত্তোলন করতে পারে। ফলে অর্থের ঝুঁকি যেমন হ্রাস পায় তেমনি যে কোনো সময় টাকা তুলে বা জমা দিয়ে ব্যবসায়িক কার্যক্রম সহজেই পরিচালনা করতে পারে। তাছাড়া এ হিসাবে অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলনের সুবিধাও রয়েছে। এসব কারণেই ব্যবসায়ীদের জন্য চলতি হিসাব সুবিধাজনক।
প্রশ্ন \ ২ \ ‘নির্দিষ্ট স্বল্প আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে সঞ্চয়ী হিসাব খুলে থাকে।’ ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : যে হিসাবের মাধ্যমে প্রতিদিন বা সপ্তাহে যতবার খুশি টাকা জমা
রাখা যায়, কিন্তু শুধু সপ্তাহে দুইবার বা নিয়ম অনুযায়ী টাকা উত্তোলন করা যায় তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে। সাধারণত অব্যবসায়ী নির্দিষ্ট আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে এ হিসাব খুলে থাকে। এসব সুবিধার কারণে স্বল্প আয়ের জনগণ সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে সঞ্চয়ী হিসাব খুলে থাকে।
প্রশ্ন \ ৩ \ ‘ক্রেডিট কার্ডকে এক ধরনের ব্যক্তিগত ঋণ বলা হয়’ ব্যাখ্যা কর।
উত্তর : হিসাবে টাকা জমা না থাকলেও ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে বাকিতে মালামাল কেনাকাটা করা যায়। ব্যাংক তার গ্রাহককে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ঋণ সুবিধা দিয়ে থাকে যা গ্রাহক আর্থিক লেনদেন সম্পন্ন করতে ব্যবহার করেন। এ ঋণ নির্দিষ্ট সময়ান্তে গ্রাহককে সুদসহ পরিশোধ করতে হয়। তাই বলা হয়, ক্রেডিট কার্ড এক ধরনের ব্যক্তিগত ঋণ।
প্রশ্ন \ ৪ \ ইন্টারনেট ব্যাংকিং সম্পর্কে ব্যাখ্যা দাও।
উত্তর : ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে গ্রাহক ব্যাংকের একটি নিরাপদ ওয়েবসাইট নাম এবং পাসওয়ার্ট দ্বারা নিবন্ধিত হয়ে থাকে। যথাযথ তথ্য প্রদানের পর গ্রাহক পৃথিবীর যে কোনো প্রান্ত থেকে যে কোনো সময় তার হিসাবের বিবরণী, তহবিল স্থানান্তর, বিল প্রদানসহ অন্যান্য লেনদেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে করতে পারে।
প্রশ্ন \ ৫ \ ব্যাংক হিসাব বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : ব্যাংক যে হিসাবের মাধ্যমে গ্রাহকের সাথে লেনদেন করে তাই ব্যাংক হিসাব। অর্থাৎ এটি ব্যাংকার ও গ্রাহকের সম্পর্কের ভিত্তি হিসেবে কাজ করে। গ্রাহক তার অর্থ জমা ও উত্তোলনসহ যাবতীয় কাজ এ হিসাবের মাধ্যমেই করে থাকে। এ হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক গ্রাহককে একটি নির্দিষ্ট নম্বর প্রদান করে এবং এর মাধ্যমেই গ্রাহককে চি‎িহ্নত করা হয়।
প্রশ্ন \ ৬ \ একজন ছাত্রের জন্য কোন হিসাব উপযোগী? কেন?
উত্তর : একজন ছাত্রের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযোগী। কারণ তার প্রতিনিয়ত টাকা জমাদান ও উত্তোলনের প্রয়োজন হয় না। ফলে চলতি হিসাব তার জন্য অনুপযোগী। তাছাড়া চলতি হিসাবের চার্জের পরিমাণও বেশি। অপরদিকে স্থায়ী হিসাবে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের আগে টাকা উত্তোলন করা যায় না। তাই একজন ছাত্রের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযোগী।
প্রশ্ন \ ৭ \ দৈনিক যতবার প্রয়োজন অর্থ জমা ও উত্তোলন করা যায় কোন হিসাবের মাধ্যমে এবং কেন?
উত্তর : চলতি হিসাবের মাধ্যমে দৈনিক যতবার প্রয়োজন অর্থ জমা ও উত্তোলন করা যায়। সাধারণত ব্যবসায়ী শ্রেণির জন্য চলতি হিসাব প্রযোজ্য। ব্যবসায়ী শ্রেণির গ্রাহকগণ প্রতিনিয়ত ব্যাংকে লেনদেন করে থাকে। আর নগদ অর্থ সংরক্ষণের উত্তম স্থান ব্যাংক। লেনদেনের প্রয়োজনে ব্যবসায়ী শ্রেণির গ্রাহকগণ বার বার ব্যাংক হিসাব ব্যবহার করে থাকে। এ ধরনের সুবিধা চলতি হিসাব ব্যতীত অন্য কোনো হিসাবে পাওয়া যায় না।
প্রশ্ন \ ৮ \ স্কুল সঞ্চয়ী ব্যাংক হিসাব বলতে কী বোঝ?
উত্তর : স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীদের সঞ্চয়ে উৎসাহ প্রদান করার জন্য ব্যাংকসমূহ যে বিশেষ ধরনের হিসাবের ব্যবস্থা করে তাকে স্কুল সঞ্চয়ী ব্যাংক হিসাব বলে। স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীদেরকে তাদের পড়ালেখার ব্যয় নির্বাহ করার পর তাদের হাতে অতিরিক্ত যে অর্থ থাকে সেগুলো এ হিসাবের মাধ্যমে সঞ্চয় করা যায়। এ ধরনের আমানতি অর্থের ওপর ব্যাংক আমানতকারীকে সুদ প্রদান করে থাকে।

 

 

 

প্রিয় জনের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply