এইচএসসি ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং চতুর্থ অধ্যায় ব্যাংক হিসাব সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

অধ্যায়-৪: ব্যাংক হিসাব

গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

মমমপ্রশ্ন১ আড়পাড়ার আনিস সাহেব অস্ট্রেলিয়ায় চাকরি করেন। তিনি ব্যাংকের মাধ্যমে প্রতিমাসে দেশে টাকা পাঠিয়ে থাকেন, যা স্থানীয় ‘নবগঙ্গা ব্যাংক’-এ জমা হচ্ছে। তবে তিনি এবার দেশে ফিরে কিছু টাকা একত্র করে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অধিক লাভজনক ব্যাংক হিসাবে রেখে দেয়ার কথা চিন্তা করছেন। [ঢা. বো. ১৭]
অ ক. ব্যাংক হিসাব কী? ১
অ খ. নমুনা স্বাক্ষর কার্ড কেন প্রয়োজন হয়? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. আনিস সাহেব কোন ধরনের হিসাবে টাকা জমা করছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. আনিস সাহেবের নতুন হিসাবে টাকা জমা করা কি অধিক লাভজনক হবে? ব্যাখ্যা করো। ৪
১ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক গ্রাহকের নামে হিসাব খুলে ব্যাংক গ্রাহককে অর্থ লেনদেন ও ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের যে সুযোগ প্রদান করে তাকে ব্যাংক হিসাব বলা হয়।
খ ব্যাংক হিসাব খোলার সময় ব্যাংক কর্তৃক সরবরাহকৃত যে ছাপানো কার্ডে গ্রাহক তার নাম ও নমুনা স্বাক্ষর প্রদান করে তাকে নমুনা স্বাক্ষর কার্ড বলে।
এই কার্ডে গৃহীত অনুরূপ স্বাক্ষর দিয়েই গ্রাহককে পরবর্তীতে ব্যাংকের সঙ্গে সব ধরনের লেনদেন সম্পন্ন করতে হয়। চেকের স্বাক্ষরের সাথে কার্ডের স্বাক্ষরে কোনো অমিল হলে ব্যাংক চেকটি ফেরত দেয়। তাই নমুনা স্বাক্ষর কার্ডের গুরুত্ব অপরিসীম।
গ উদ্দীপকের আনিস সাহেব সঞ্চয়ী হিসাবে টাকা জমা করছেন।
ব্যাংকিং লেনদেনের পাশাপাশি সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে গ্রাহক ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলে থাকে। সাধারণত এ হিসাবে কার্যদিবসে যতবার প্রয়োজন অর্থ জমা দেয়া যায় এবং সপ্তাহে সর্বোচ্চ দু’বার অর্থ উত্তোলন করা যায়।
উদ্দীপকে আনিস সাহেব অস্ট্রেলিয়ায় কর্মরত একজন প্রবাসী। তিনি ব্যাংকের মাধ্যমে প্রতিমাসে দেশে টাকা পাঠান। উক্ত টাকা স্থানীয় ‘নবগঙ্গা ব্যাংক’-এ জমা হচ্ছে। অর্থাৎ তিনি সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে দেশীয় একটি ব্যাংকে টাকা জমা রাখছেন। যেহেতু সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে তিনি ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে টাকা পাঠান, সেহেতু বলা যায় তিনি সঞ্চয়ী হিসাবেই টাকা জমা করছেন।
ঘ উদ্দীপকের আনিস সাহেব যে নতুন ব্যাংক হিসাব খোলার চিন্তা করছেন সেটি হলো স্থায়ী হিসাব। উক্ত হিসাবে টাকা জমা করা তার জন্য অধিক লাভজনক হবে।
অধিক মুনাফার উদ্দেশ্যে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য গ্রাহকরা ব্যাংকে স্থায়ী হিসাব খুলে থাকে। মেয়াদপূর্তিতে গ্রাহকরা অধিক মুনাফাসহ জমাকৃত অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পান।
উদ্দীপকে আনিস সাহেব তার সঞ্চয়ী হিসাবের জমাকৃত অর্থ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য লাভজনক হিসাবে জমা রাখতে আগ্রহী। অর্থাৎ এমন একটি ব্যাংক হিসাব খোলার চিন্তা করছেন যা থেকে তিনি নির্দিষ্ট সময় পরে অধিক মুনাফা সহ জমাকৃত অর্থ ফেরত পাবেন।
উদ্দীপকের পরিস্থিতিতে আনিস সাহেবের জন্য ব্যাংকের স্থায়ী হিসাব অধিক উপযোগী। কারণ স্থায়ী হিসাবের গ্রাহকগণ নির্দিষ্ট মেয়াদে অর্থ বিনিয়োগের পাশাপাশি অন্যান্য ব্যাংক হিসাবের তুলনায় সর্বাধিক মুনাফা পেয়ে থাকেন, যা আনিস সাহেবের চিন্তার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

মমমপ্রশ্ন২ খুলনার মি. সালেক একজন চাকরিজীবী। তার মাসিক ব্যয় নির্বাহ করার পর তিনি কিছু টাকা সঞ্চয় করতে পারেন। চিত্রা ব্যাংকে তিনি একটি হিসাব খুলেছেন। উক্ত হিসাবে তিনি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ জমা রাখেন। হিসাব খোলার কয়েকদিন পরেই অর্থ উত্তোলন করতে ব্যাংকে গেলে, শর্ত পূরণ হয়নি বলে, তাকে টাকা দিতে ব্যাংক অপারগতা জানায়। এতে তিনি ক্ষুদ্ধ হয়ে, নিয়মিত জমা ও উত্তোলন করা যায় এমন একটি হিসাবে অর্থ জমা রাখার সিদ্ধান্ত নেন। [রা. বো. ১৭]
অ ক. ব্যাংক হিসাব কী? ১
অ খ. একজন ছাত্রের জন্য কোন ধরনের হিসাব উপযোগী? ব্যাখ্যা দাও। ২
অ গ. নির্দিষ্ট সময়ের জন্য মি. সালেক ব্যাংকে কোন ধরনের হিসাব খুলেছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. নিয়মিত অর্থ জমা রাখা ও উত্তোলনের বিষয়ে মি. সালেক যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা কতটুকু বাস্তবসম্মত? যুক্তিসহ ব্যাখ্যা করো। ৪
২ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক গ্রাহকের নামে যে হিসাব খুলে ব্যাংক গ্রাহককে অর্থ লেনদেন ও অন্যান্য ব্যাংকিং সেবা পাওয়ার সুযোগ দেয় তাকে ব্যাংক হিসাব বলা হয়।
খ একজন ছাত্রের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযোগী।
সঞ্চয়ী হিসাব হলো এমন এক ধরনের হিসাব, যে হিসাবে আমানতকারী দিনে যতবার ইচ্ছা টাকা জমা দিতে পারেন কিন্তু নির্দিষ্ট নিয়মের বাইরে উত্তোলন করতে পারেন না । যেকোনো পরিমান টাকা এই হিসাবে জমা করা যায়। তাই ছাত্ররা তাদের খরচের টাকা থেকে কিছু অর্থ বাঁচিয়ে এ হিসাবে জমা রাখতে পারে।
গ উদ্দীপকে মি. সালেক নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্থায়ী হিসাব খুলেছেন।
স্থায়ী হিসাবে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টাকা জমা রাখা যায়। উক্ত সময়ের পূর্বে সাধারণত এধরনের হিসাব হতে জমাকৃত অর্থ উত্তোলনের সুযোগ থাকে না।
উদ্দীপকে মি. সালেক একজন চাকরিজীবি। তিনি প্রতি মাসে কিছু টাকা সঞ্চয় করতে পারেন। তিনি চিত্রা ব্যাংকে একটি হিসাব খুলে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ জমা রাখেন। হিসাব খোলার পর তিনি অর্থ উত্তোলন করতে গেলে ব্যাংক এতে অপারগতা জানায়। সাধারণত, স্থায়ী হিসাবের ক্ষেত্রেই গ্রাহকগণ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ জমা রাখেন। মি. সালেকও নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ জমা রেখেছেন। মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগে তিনি এ অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন না। তবে তিনি অধিক হারে সুদ পাবেন। এসব বৈশিষ্ট্য বিবেচনায় বলা যায়, মি. সালেকের ব্যাংক হিসাবটি হলো স্থায়ী হিসাব।
ঘ সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে নিয়মিত অর্থ জমা রাখা ও উত্তোলনের বিষয়ে মি. সালেকের সিদ্ধান্তটি যথেষ্ট বাস্তব সম্মত হয়েছে ।
সঞ্চয়ী হিসাবে দিনে যতবার খুশি অর্থ জমা দেয়া যায়। এই হিসাব খোলার জন্য নূন্যতম জমার কোনো নির্দিষ্ট সীমা নেই। স্বল্প বা স্থায়ী আয়ের ব্যক্তিদের জন্য এ হিসাব বিশেষ উপযোগী। বর্তমানে প্রায় সব ব্যাংকই এই হিসাব থেকে যতবার খুশি অর্থ উত্তোলনের সুযোগ দেয়।
উদ্দীপকে মি. সালেক তার সঞ্চিত অর্থ চিত্রা ব্যাংকের স্থায়ী হিসাবে জমা রাখেন। হিসাব খোলার পর তিনি অর্থ উত্তোলন করতে গেলে ব্যাংক তা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। তাই তিনি নিয়মিত অর্থ জমা ও উত্তোলন করা যায় এমন হিসাব খোলার সিদ্ধান্ত নেন।
মি. সালেক স্থায়ী হিসাবের পরিবর্তে সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে এ সুবিধা পেতে পারেন। সঞ্চয়ী হিসাব থেকে অর্থ উত্তোলনের ক্ষেত্রে তেমন কোনো বিধি-নিষেধ নেই। তাই সঞ্চয়ের পাশাপাশি যেকোনো সময়ে সহজে অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পাওয়া যায়। সুতরাং, চিত্রা ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলে মি. সালেক তার সিদ্ধান্তটি বাস্তবায়ন করতে পারবেন।

মমমপ্রশ্ন৩ মিসেস সাহিদা একজন স্বল্প আয়ের চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতের জন্য কিছু সঞ্চয় করতে আগ্রহী। এজন্য পদ্মা ব্যাংকে একটি হিসাবও খোলেন। কিন্তু কোনোভাবেই সেখানে সঞ্চয় করতে পারছেন না। মাঝে মাঝে যা সঞ্চয় করেন তা আবার উঠিয়ে নেন। এক সহকর্মীর পরামর্শে তিনি ঐ ব্যাংকে ১০ বছর মেয়াদি আরেকটি হিসাব খোলেন। যেখানে তিনি প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দেন। এখন তিনি একটু কষ্ট করে হলেও সঞ্চয় করতে পারছেন। [দি. বো. ১৭]
অ ক. তারল্য কী? ১
অ খ. কণঈ বলতে কী বোঝ? ২
অ গ. মিসেস সাহিদা প্রথমে কী হিসাব খুলেছিলেন? সেই হিসাবে ঠিকমতো সঞ্চয় করতে না পরার কারণ কী? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মিসেস সাহিদা পরবর্তীতে কী হিসাব খুলেছিলেন? ‘এখন তিনি একটু কষ্ট করে হলেও সঞ্চয় করতে পারছেন’Ñ উক্তিটি বুঝিয়ে লেখো। ৪
৩ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক গ্রাহকদের জমাকৃত অর্থ চাহিবামাত্র তাকে ফেরত দানের ক্ষমতাকে ব্যাংকের তারল্য বলা হয়।
খ জালিয়াতি ও অবৈধ অর্থ লেনদেন রোধে গ্রাহকের তথ্য সম্বলিত ফরমকে কণঈ ফরম বলে।
কণঈ-এর পূর্ণরূপ হলো ‘কহড়ি ণড়ঁৎ ঈঁংঃড়সবৎ’ অর্থাৎ তোমার গ্রাহককে জানো। মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০০২ দেশে চালু হওয়ার পর থেকে ভুয়া নামে হিসাব খোলা বন্ধ হয়েছে। অবৈধ লেনদেন নিয়ন্ত্রণের জন্য হিসাব খোলার সময় এ ধরনের ফরম পূরণ গ্রাহকের জন্য বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
গ উদ্দীপকে মিসেস সাহিদা প্রথমে সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছিলেন।
এ হিসাবের গ্রাহকগণ ব্যাংকিং লেনদেনের পাশাপাশি সঞ্চয়ের সুবিধাও লাভ করে থাকেন। সঞ্চয়ী হিসাবের আমানতকারী দিনে প্রয়োজনমত অর্থ জমাদানের সুযোগ পেয়ে থাকলেও সপ্তাহে দুই বার অর্থ উত্তোলনের সুবিধা পায়।
উদ্দীপকে মিসেস সাহিদা একজন স্বল্প আয়ের চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয়ে আগ্রহী হয়ে পদ্মা ব্যাংকে একটি হিসাব খোলেন। তবে তার হিসাবে জমাকৃত অর্থ প্রয়োজনে তিনি তুলেও ফেলেন। যার ফলে তিনি কোনোভাবেই সঞ্চয় করতে পারছেন না। অর্থাৎ তার গৃহীত হিসাবটি সঞ্চয়ী হিসাব হওয়ায় তিনি অর্থ সঞ্চয় করলেও তা উত্তোলন করছেন।
ঘ উদ্দীপকে মিসেস সাহিদা পরবর্তীতে বিশেষ সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছিলেন।
এ হিসাবে প্রতি মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা একটি মেয়াদ পর্যন্ত সঞ্চয়ের সুয়োগ থাকে। মেয়াদান্তে একযোগে বা চুক্তি অনুযায়ী তা উত্তোলনও করা যায়।
উদ্দীপকে মিসেস সাহিদা একজন স্বল্প আয়ের চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতের জন্য অর্থ জমা করার উদ্দেশ্যে ব্যাংকে একটি সঞ্চয়ী হিসাব খোলেন। তবে এ হিসাবে অর্থ উত্তোলনের সুযোগ থাকায় প্রয়োজনে তিনি তা উঠিয়ে নেন। পরবর্তীতে সহকর্মীর পরামর্শে দশ বছর মেয়াদি আরেকটি হিসাব খোলেন। যে হিসাবে তিনি প্রতি মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ জমা রাখেন।
মিসেস সাহিদার গৃহীত পরবর্তী হিসাবটি বিশেষ সঞ্চয়ী হিসাব। এ হিসাবে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রতিমাসে তাকে জমা রাখতে হয়। এক্ষেত্রে মেয়াদান্তে তিনি এককালীন উত্তোলনের সুবিধা পাবেন। অর্থাৎ এ হিসাবে বর্তমানে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ জমা রাখা তার জন্য কষ্টকর হলেও তা ভবিষ্যতে বৃহৎ আকারের সঞ্চয়ে পরিণত হবে।

মমমপ্রশ্ন৪ মাসুদ এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। খরচের টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে পাঠানোর জন্য তার বাবা একটি ব্যাংক হিসাব খোলার কথা বলেছে। মাসুদকে ব্যাংকের ম্যানেজার তার জন্য উপযোগী একটি ব্যাংক হিসাব খোলার পরামর্শ দিল। [কু. বো. ১৭]
অ ক. চেক বই কী? ১
অ খ. কোন হিসাবে ব্যাংক চেক বই প্রদান করে না? বুঝিয়ে লিখ। ২
অ গ. ব্যাংক ম্যানেজার মাসুদের জন্য কোন হিসাব খোলার পরামর্শ দিল এবং কেন? আলোচনা করো। ৩
অ ঘ. তোমার মতে ব্যাংক হিসাব নির্বাচনের ক্ষেত্রে বিবেচ্য বিষয়গুলো কী? আলোচনা করো। ৪
৪ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক চলতি ও সঞ্চয়ী হিসাবের গ্রাহককে অর্থ উত্তোলনের জন্য ব্যাংক কর্তৃক যে বই সরবরাহ করা হয় তাকে চেক বই বলে।
খ স্থায়ী হিসাবের গ্রাহককে ব্যাংক কোনো ধরনের চেক বই প্রদান করে না।
নির্দিষ্ট সময় বা মেয়াদের জন্য এককালীন ব্যাংকে অর্থ জমা দিয়ে যে হিসাব খোলা হয় তাকে স্থায়ী হিসাব বলে। অর্থাৎ স্থায়ী হিসাবে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য গ্রাহক ব্যাংকে অর্থ জমা করে। ঐ নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সাধারণত এ হিসাবের অর্থ গ্রাহক উত্তোলন করে না, অন্যদিকে এ হিসাবে জমাকৃত অর্থের বিপরীতে ব্যাংক গ্রাহককে স্থায়ী আমানতের রশিদ প্রদান করে। তাই এ হিসাবে ব্যাংক থেকে গ্রাহককে কোনো চেক বই ইস্যু করা হয় না।
গ উদ্দীপকে মাসুদ ছাত্র হওয়ার কারণে ব্যাংক ম্যানেজার তাকে সঞ্চয়ী হিসাব খোলার পরামর্শ দেয়।
সঞ্চয়ের পাশাপাশি ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেনের উদ্দেশ্যেই সঞ্চয়ী হিসাব খোলা হয়। এ হিসাবে দিনে যতবার খুশি অর্থ জমাদান করা যায়। সাধারণত সপ্তাহে দুবারের বেশি এ হিসাব হতে অর্থ উত্তোলন করা যায় না।
উদ্দীপকে মাসুদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্র। খরচের টাকা পাঠানোর উদ্দেশ্যেই তার বাবা তাকে একটি ব্যাংক হিসাব খুলতে বলে। মাসুদকে ব্যাংক ম্যানেজার একটি উপযুক্ত হিসাব খোলার পরামর্শ দেয়। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সর্বোত্তম ব্যাংক হিসাব হলো সঞ্চয়ী হিসাব। এ হিসাব খোলার মাধ্যমে মাসুদের বাবা যেকোনো সময় যতবার খুশি টাকা পাঠাতে পারবে। আবার মাসুদ যেহেতু ছাত্র সেহেতু তার খরচ কম হওয়ায় সপ্তাহে দুবারের বেশি টাকা উত্তোলনের প্রয়োজন পড়বে না। তাছাড়া এ হিসাবের মাধ্যমে মাসুদ সঞ্চয় করে স্বল্প হারে আয়ও করতে পারবে। এ কারণেই ব্যাংক ম্যানেজার তাকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলতে বলেছে।
ঘ ব্যাংক হিসাব নির্বাচনের ক্ষেত্রে বিবেচ্য বিষয়গুলো হলো গ্রাহকের প্রকৃতি, লেনদেনের প্রকৃতি, ব্যাংকিং সুবিধা, ঋণ সুবিধা ও সুদ ইত্যাদি।
প্রতিটি ব্যাংকই গ্রাহকের নামে হিসাব খুলে অর্থ লেনদেন ও ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের সুযোগ দেয়। কিন্তু এসব হিসাবের ধরণ বিভিন্ন রকম হওয়ায় সঠিক হিসাব নির্ধারণের জন্য কিছু বিষয় বিবেচনায় রাখতে হয়।
উদ্দীপকে মাসুদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন নবীন ছাত্র। তার বাবা টাকা পাঠানোর জন্য তাকে একটি ব্যাংক হিসাব খুলতে বলে। ছাত্র হওয়ার কারণে ব্যাংক ম্যানেজার তাকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলতে বলে।
ব্যাংক হিসাব নির্বাচনের ক্ষেত্রে গ্রাহকের প্রকৃতি একটি উলে­খযোগ্য বিবেচ্য বিষয়। এখানে মাসুদের পরিবর্তে কোনো ব্যবসায়ী হলে তাকে অবশ্যই চলতি হিসাব নির্বাচন করতে হতো। কেননা চলতি হিসাব ব্যবসায়ীরা নিয়মিত অর্থ উত্তোলনের সুযোগ ও জমাতিরিক্ত উত্তোলন সুবিধা পায়। আবার মাসুদ একজন ছাত্র না হয়ে যদি চাকরিজীবী হতো তাহলে তার কাছে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ জমা থাকতো। সেক্ষেত্রে তার জন্য স্থায়ী হিসাব নির্বাচন করাই যুক্তিযুক্ত হতো। এছাড়া কোন গ্রাহক সঞ্চয়ের পাশাপাশি আয়ের প্রত্যাশা করলে তার জন্য সঞ্চয়ী হিসাব নির্বাচন করা যৌক্তিক। এছাড়াও ব্যাংক হিসাব নির্বাচনের ক্ষেত্রে ঋণ সুবিধা, সুদের হার, ব্যাংকিং সুবিধা ইত্যাদি বিশেষভাবে বিবেচনা করতে হয়।

মমমপ্রশ্ন৫ জনাব আনোয়ার অবসরকালীন সময়ে ১০,০০,০০০ টাকার পেনশন পেয়েছিলেন। অধিক মুনাফার লক্ষ্যে তিনি টাকাটি ১০ বৎসর মেয়াদে এমন একটি হিসাবে জমা রাখেন যার বিপরীতে তাকে কোনো চেক বই বা অঞগ কার্ড দেয়া হয়নি। একারণে সংসারের মাসিক খরচ নির্বাহের বিষয়ে তিনি একটু বিচলিত হয়ে পড়লে ব্যাংক কর্মকর্তা তাকে আরেকটি হিসাব খোলার পরমার্শ দিলেন। এ হিসাবে আগের হিসাব থেকে অর্জিত মুনাফা প্রতি মাসে জমা হবে। এ হিসাবের বিপরীতে তাকে চেক বই ও জমা বইও দেয়া হলো। মাঝে মাঝে তিনি তার বিশ্ববিদ্যালয় পড়–য়া ছেলেকেও এ হিসাব থেকে টাকা পাঠাতে পারেন। [চ. বো. ১৭]
অ ক. নমুনা স্বাক্ষর কার্ড কী? ১
অ খ. একজন ব্যবসায়ীর জন্য কোন হিসাব উত্তম এবং কেন? ২
অ গ. উদ্দীপকের জনাব আনোয়ার প্রথমে কোন ধরনের হিসাব খুলেছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. ‘পরবর্তীতে খোলা হিসাবটি তার মাসিক খরচ কিছুটা লাঘব করবে’Ñ বক্তব্যের যথার্থতা উদ্দীপকের আলোকে মূল্যায়ন করো। ৪
৫ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক চেকের স্বাক্ষর যথার্থ কিনা তা মিলিয়ে দেখার জন্য আমানতকারীর স্বাক্ষর যে কার্ডে ব্যাংক সংরক্ষণ করে তাকে নমুনা স্বাক্ষর কার্ড বলে।
খ একজন ব্যবসায়ীর জন্য চলতি হিসাব খোলা উত্তম।
যে হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক তার গ্রাহককে কার্যদিবসে যতবার ইচ্ছে অর্থ জমাদান ও প্রয়োজনে তা উত্তোলনের সুযোগ প্রদান করে তাকে চলতি হিসাব বলে। একজন ব্যবসায়ীকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের অর্থ সংক্রান্ত লেনদেন করতে হয়। এজন্য তার নগদ ঋণ, জমাতিরিক্ত ঋণ ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ব্যাংকিং সহায়তার প্রয়োজন পড়ে, যা অন্য কোনো ব্যাংক হিসাবে পাওয়া যায় না। একারণেই মূলত ব্যবসায়ীরা চলতি হিসাব খুলে থাকেন।
গ উদ্দীপকের জনাব আনোয়ার প্রথমে স্থায়ী হিসাব খুলেছেন।
স্থায়ী হিসাব মূলত নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য খোলা হয়। এ হিসাবের বিপরীতে গ্রাহক অধিক হারে সুদ বা মুনাফা পায়। তবে নির্দিষ্ট মেয়াদের পূর্বে গ্রাহক এ হিসাবের অর্থ উত্তোলন করতে পারে না।
উদ্দীপকের জনাব আনোয়ার অবসরকালীন সময়ে ১০,০০,০০০ টাকা পেনশন পেয়েছেন। অধিক মুনাফার লক্ষ্যে তিনি উক্ত টাকা ১০ বছর মেয়াদে একটি হিসাবে জমা রাখেন। তার এ হিসাবের বিপরীতে ব্যাংক কোনো চেক বই বা অঞগ কার্ড দেয়নি। অর্থাৎ তার এ হিসাবে অর্থ উত্তোলনের কোনো সুযোগ নেই। সাধারণত স্থায়ী হিসাবের ক্ষেত্রেই মেয়াদের পূর্বে গ্রাহক অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পায় না। উদ্দীপকেও জনাব আনোয়ার তার ব্যাংক হিসাব হতে মেয়াদের পূর্বে অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন না, কিন্তু অধিক হারে সুদ পাবেন। এ সকল বৈশিষ্ট্য বিবেচনায় বলা যায়, জনাব আনোয়ারের প্রথমে খোলা হিসাবটি হলো স্থায়ী হিসাব।
ঘ উদ্দীপকে জনাব আনোয়ারের পরবর্তীতে খোলা সঞ্চয়ী হিসাবটি তার মাসিক খরচ অবশ্যই কিছুটা লাঘব করবে।
সঞ্চয়ী হিসাবের ক্ষেত্রে গ্রাহক দিনে যতবার খুশি অর্থ জমা করতে পারেন। তবে সপ্তাহে দু’বারের বেশি অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পান না। এ হিসাবের বিপরীতে ব্যাংক গ্রাহককে স্বল্প হারে সুদও প্রদান করে।
উদ্দীপকে জনাব আনোয়ার তার পেনশনের টাকা প্রথমে ব্যাংকের স্থায়ী হিসাবে জমা করেন। এতে মেয়াদের পূর্বে অর্থ উত্তোলনের সুযোগ না পাওয়ায় তিনি পরবর্তীতে আরেকটি হিসাব খোলেন। তার নতুন ব্যাংক হিসাবে আগের হিসাবটিতে রাখা আমানতকৃত অর্থের সুদ জমা হয় এবং তিনি চেকের মাধ্যমে উক্ত অর্থ উত্তোলন করতে পারেন।
উদ্দীপকের জনাব আনোয়ারের পরবর্তীতে খোলা হিসাবটি হলো সঞ্চয়ী হিসাব। সঞ্চয়ী হিসাব হওয়ার কারণে তার পরিবারের জন্য খরচের টাকা এ হিসাব হতে তিনি উত্তোলন করতে পারবেন। অপরদিকে, আগের ব্যাংক হিসাবের সুদের টাকাও এ হিসাবে নিয়মিতভাবে জমা হবে। আবার, সঞ্চয়ী হিসাব হওয়ার কারণে একদিকে তার সঞ্চয় প্রবণতা বৃদ্ধি পাবে এবং ব্যয় করার প্রবণতা হ্রাস পাবে। সুতরাং বলা যায়, জনাব আনোয়ার সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে মাসিক খরচ কিছুটা লাঘব করতে পারবেন Ñ বক্তব্যটি যথার্থ হয়েছে।

মমমপ্রশ্ন৬ জনাব মাহবুব গত পাঁচ বছর যাবত অগ্রণী ব্যাংকে একটি ডিপিএস হিসাব পরিচালনা করেছিলেন, যার মেয়াদ পূর্তিতে তিনি ৫ লক্ষ টাকা পান। এ প্রাপ্ত অর্থ হতে ২০ হাজার টাকা তিনি নতুন একটি ব্যাংক হিসাবে জমা রাখেন যেখানে দৈনিক যতবার খুশি টাকা জমা রাখা গেলেও কিছু বাধ্যবাধকতার ভিতরে থেকে টাকা উত্তোলন করতে হয়। অবশিষ্ট টাকা তিনি অধিক লাভের আশায় ভিন্ন ধরনের একটি ব্যাংক হিসাবে দীর্ঘ সময়ের জন্য জমা রাখেন। [সি. বো. ১৭]
অ ক. ব্যাংক হিসাব কী? ১
অ খ. একজন ব্যবসায়ীর জন্য কোন ধরনের ব্যাংক হিসাব উত্তম এবং কেন? ২
অ গ. জনাব মাহবুব ডিপিএস থেকে প্রাপ্ত অর্থের ২০ হাজার টাকা কোন ধরনের ব্যাংক হিসাবে জমা করেছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে বর্ণিত অবশিষ্ট অর্থ দীর্ঘমেয়াদের জন্য অন্য একটি ব্যাংক হিসাবে জমা রাখার সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করো। ৪
৬ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক গ্রাহককে অর্থ লেনদেন ও ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের সুযোগ প্রদান করে গ্রাহকের নামে ব্যাংক যে হিসাব খোলে তাকে ব্যাংক হিসাব বলে।
খ একজন ব্যবসায়ীর জন্য চলতি হিসাব খোলা উত্তম।
যে হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক তার গ্রাহককে কার্যদিবসে যতবার ইচ্ছে অর্থ জমাদান ও প্রয়োজনে তা উত্তোলনের সুযোগ প্রদান করে তাকে চলতি হিসাব বলে। একজন ব্যবসায়ীকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের অর্থ সংক্রান্ত লেনদেন করতে হয়। এজন্য তার নগদ ঋণ, জমাতিরিক্ত ঋণ ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ব্যাংকিং সহায়তার প্রয়োজন পড়ে, যা অন্য কোনো ব্যাংক হিসাবে পাওয়া যায় না। একারণেই মূলত ব্যবসায়ীরা চলতি হিসাব খুলে থাকেন।
গ উদ্দীপকে জনাব মাহবুব ডিপিএস থেকে প্রাপ্ত অর্থের বিশ হাজার টাকা ব্যাংকের সঞ্চয়ী হিসাবে জমা করেছেন।
এ ধরনের হিসাব মূলত সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে খোলা হয়ে থাকে। সঞ্চয়ী হিসাবের গ্রাহকগণ কার্যদিবসে যতবার ইচ্ছা টাকা জমাদানের সুবিধা ভোগ করলেও তা উত্তোলনের সুযোগ পান সপ্তাহে দুইবার ।
উদ্দীপকে জনাব মাহবুব ডিপিএস এর মেয়াদপূর্তিতে তা থেকে এককালীন পাঁচ লক্ষ টাকা গ্রহণ করেন। এ প্রাপ্ত অর্থ হতে বিশ হাজার টাকা তিনি নতুন একটি ব্যাংক হিসাবে জমা রাখেন। তবে উক্ত হিসাবে তিনি দৈনিক যতবার খুশি টাকা জমা রাখতে পারলেও তা উত্তোলনে কিছু বাধ্যবাধকতা রয়েছে। অর্থাৎ জনাব মাহবুব তার গৃহীত হিসাব হতে সপ্তাহে দুইবারের বেশি অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন না। সঞ্চয়ী হিসাবধারীদের ক্ষেত্রে অর্থ উত্তোলনে এ ধরনের বাধ্যবাধকতা বিদ্যমান। তাই বলা যায়, জনাব মাহবুব ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছেন।
ঘ উদ্দীপকে বর্ণিত অবশিষ্ট অর্থ সর্বাধিক মুনাফা অর্জনের লক্ষ্যে স্থায়ী হিসাবে দীর্ঘমেয়াদের জন্য জমাদানের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক।
স্থায়ী হিসাবে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য আমানত রাখা হয়। যা মেয়াদপূর্তিতে গ্রাহক অন্যান্য হিসাবের তুলনায় অধিক লাভসহ উত্তোলন করতে পারেন।
উদ্দীপকে জনাব মাহবুব ডিপিএস এর মেয়াদপূর্তিতে এককালীন পাঁচ লক্ষ টাকা গ্রহণ করেন। যা থেকে বিশ হাজার টাকা দিয়ে একটি সঞ্চয়ী হিসাব খোলেন। অবশিষ্ট অর্থ তিনি আর্থিক লাভের আশায় দীর্ঘ সময়ের জন্য অন্য একটি হিসাবে জমা রাখেন। জনাব মাহবুব অবশিষ্ট টাকা ব্যাংকের স্থায়ী হিসাবে বিনিয়োগ করেন।
স্থায়ী হিসাবের অর্থ ব্যাংক নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ব্যবহারের সুযোগ পায়। এ কারণেই এ হিসাবের গ্রাহকরা ব্যাংক হতে সর্বাধিক মুনাফা পেয়ে থাকেন। জনাব মাহবুবের প্রত্যাশাই ছিল অধিক মুনাফা অর্জন করা। সুতরাং, প্রত্যাশা পূরণে স্থায়ী হিসাবটি যথেষ্ট হওয়ায় উক্ত হিসাবটি গ্রহণ তার জন্য যৌক্তিক হয়েছে।

মমমপ্রশ্ন৭ সফটওয়্যার রপ্তানিকারক জিনিয়া রহমান এর ব্যাংক হিসাবে স্থিতির পরিমাণ দশ লক্ষ টাকা। ব্যবসায়ের প্রয়োজনে তিনি ব্যাংক ম্যানেজারের সাথে আলোচনা করে পনের লক্ষ টাকা তার হিসাব থেকে উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে ব্যবসায় লাভের ১০,০০,০০০ টাকা দীর্ঘমেয়াদে একই হিসাবে জমা দিতে গেলে ব্যাংক ম্যানেজার তাকে পৃথক একটি হিসাব খোলার পরামর্শ দেন। [য. বো. ১৭]
অ ক. বিমা সঞ্চয়ী হিসাব কী? ১
অ খ. একজন চাকরিজীবীর জন্য কোন ধরনের হিসাব উপযুক্ত? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. উদ্দীপকে জিনিয়া রহমান কোন ধরনের হিসাব পরিচালনা করছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. ব্যাংক ম্যানেজার কর্তৃক জিনিয়া রহমানকে নতুন ব্যাংক হিসাব খোলার পরমার্শের যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করো। ৪
৭ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক যে হিসাবের মাধ্যমে আমানতকারী সঞ্চয়ী হিসাবের সুবিধাদি ভোগ করার পাশাপাশি বিমার সুবিধা ভোগ করে তাকে বিমা সঞ্চয়ী হিসাব বলে।
খ একজন চাকরিজীবীর জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযুক্ত।
সঞ্চয়ের পাশাপাশি ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেনের উদ্দেশ্য নিয়ে গ্রাহক ব্যাংকে এই ধরনের হিসাব খোলেন। একজন চাকরিজীবী মাস শেষে নির্দিষ্ট বেতন পেয়ে তা ব্যাংকে জমা রাখতে পারেন এবং প্রয়োজনে কিছু অর্থ উত্তোলন করতে পারেন। এ হিসাবে জমাকৃত অর্থের ওপর গ্রাহক সুদ পান। এর মাধ্যমে গ্রাহক চেকের অর্থ সংগ্রহ, অর্থ স্থানান্তরসহ বিভিন্ন ব্যাংকিং সেবা বা সুবিধা গ্রহণ করেন। তাই একজন চাকরিজীবী ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলে থাকেন।
গ উদ্দীপকে জিনিয়া রহমান চলতি হিসাব পরিচালনা করছেন।
চলতি হিসাবের ক্ষেত্রে দিনে যতবার খুশি অর্থ জমাদান ও উত্তোলন করা যায়। এমনকি এ হিসাবে জমাতিরিক্ত উত্তোলনের সুযোগও দেয়া হয়। ব্যবসায়ীদের জন্য এ হিসাব বেশ সুবিধাজনক।
উদ্দীপকে সফটওয়্যার রপ্তানিকারক জিনিয়া রহমানের ব্যাংক হিসাবে দশ লক্ষ টাকা রয়েছে। ব্যবসায়ের প্রয়োজনে তিনি এ হিসাব হতে পনের লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন। অর্থাৎ তার এই হিসাব থেকে তিনি জমার অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পেয়েছেন। এরূপ জমাতিরিক্ত উত্তোলনের সুযোগ মূলত চলতি হিসাবের গ্রাহকগণই পেয়ে থাকেন। অর্থাৎ ব্যাংকে জিনিয়া রহমানের হিসাবটি হলো একটি চলতি হিসাব এবং তিনি এ হিসাবই পরিচালনা করছেন।
ব্যাংক জমাতিরিক্ত উত্তোলন : ব্যাংকে জমাকৃত অর্থের চাইতে বেশি অর্থ উত্তোলন করাই ব্যাংক জমাতিরিক্ত উত্তোলন। শুধু চলতি হিসাবে এ ধরনের সুবিধা প্রদান করা হয়।
ঘ উদ্দীপকে ব্যাংক ম্যানেজার জিনিয়া রহমানকে স্থায়ী হিসাব খোলার পরামর্শ দেন।
স্থায়ী হিসাবে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য অর্থ জমা রাখা হয়। এ হিসাবের বিপরীতে গ্রাহক অন্যান্য হিসাবের তুলনায় অধিক হারে সুদ পেয়ে থাকেন।
উদ্দীপকে সফটওয়্যার রপ্তানিকারক জিনিয়া রহমান ব্যাংকে একটি চলতি হিসাব পরিচালনা করেন। তিনি এ হিসাব থেকে জমাতিরিক্তসহ পনের লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে তিনি ব্যবসায়ের লাভ হতে দশ লক্ষ টাকা দীর্ঘমেয়াদের জন্য জমা করতে যান। তখন ব্যাংক ম্যানেজার তাকে নতুন আরেকটি হিসাবে এ অর্থ রাখার পরামর্শ দেন।
এখানে, দীর্ঘমেয়াদে অর্থ জমা রাখার জন্য ব্যাংক ম্যানেজার তাকে স্থায়ী হিসাব খুলতে বলেন। কেননা এ হিসাব থেকে তিনি অধিক হারে আয় পাবেন। আবার প্রয়োজন হলে এ হিসাবের বিপরীতে তিনি ঋণও নিতে পারবেন। এ সকল বিষয় বিবেচনা করে বলা যায়, ব্যাংক ম্যানেজার কর্তৃক স্থায়ী হিসাব খোলার পরামর্শটি যৌক্তিক।

মমমপ্রশ্ন৮ মি. রহমান ‘সোনালী ব্যাংক, দিনাজপুর শাখায়’ একটি ব্যাংক হিসাব খুলে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টাকা জমা রাখেন। টাকার দরকার হওয়ায় হিসাব খোলার কিছুদিন পরে ব্যাংকে গেলে ব্যাংক তাকে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে তিনি ব্যাংকারের পরামর্শে ঐ ব্যাংকে নিয়মিত টাকা জমা ও উত্তোলন করা যাবে এমন একটি হিসাব খোলেন।
[ব. বো. ১৭]
অ ক. ব্যাংক হিসাব কী? ১
অ খ. গোপনীয়তা ব্যাংকের অতি গুরুত্বপূর্ণ নীতি কেন? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. উদ্দীপকে উলি­খিত মি. রহমানের প্রথম হিসাবটি কী ধরনের ছিল তা ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মি. রহমানের আগে ও পরে খোলা হিসাব দুইটির মধ্যে কোনটি তার জন্য উত্তম? বুঝিয়ে লেখো। ৪
৮ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক গ্রাহকের নামে হিসাব খুলে ব্যাংক গ্রাহককে অর্থ লেনদেন ও ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের যে সুযোগ প্রদান করে তাকে ব্যাংক হিসাব বলা হয়।
খ গ্রাহকের হিসাব সংক্রান্ত তথ্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য কেউ যাতে জানতে না পারে সেজন্য প্রযুক্তিগত সব ধরনের নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা গ্রহণের নীতিকে গোপনীয়তার নীতি বলে।
ব্যাংকে হিসাব খোলার ক্ষেত্রে নিরাপত্তা বা গোপনীয়তার বিষয়টি প্রত্যেক গ্রাহকই বিবেচনা করে থাকেন। কারণ, প্রত্যেক আমানতকারীই চান তার ব্যাংক হিসাবের গোপনীয়তা বজায় থাকুক। আমানতকারী ব্যাংক-কে গোপনীয়তা রক্ষার উৎস হিসেবে বিবেচনা করেন। এজন্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষও গ্রাহকের হিসাব সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষার বিষয়টিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকে বলেই ব্যাংক হিসাবের গোপনীয়তা রক্ষা করা প্রয়োজন।
গ উদ্দীপকে মি. রহমানের প্রথম হিসাবটি ছিল স্থায়ী হিসাব ।
এ হিসাবে মূলত নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য অর্থ জমা রাখা হয়। আমানতকারী জমাকৃত এ অর্থ মেয়াদপূর্তির পূর্বে উত্তোলন করতে পারেন না। তবে আমানতকারী উক্ত হিসাবের মেয়াদপূর্তিতে অধিক মুনাফা পেয়ে থাকেন।
উদ্দীপকে মি. রহমান সোনালী ব্যাংকের দিনাজপুর শাখায় একটি ব্যাংক হিসাব খোলেন। এ হিসাবে তিনি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অর্থ জমা রাখেন। হিসাব খোলার কিছুদিন পর তিনি অর্থ উত্তোলন করতে চাইলে ব্যাংক তাতে অস্বীকৃতি জানায়। তিনি এমন একটি ব্যাংক হিসাব খুলেছেন, যেখানে নির্দিষ্ট সময়ের পূর্বে অর্থ উত্তোলন করার সুযোগ নেই। সুতরাং মি. রহমানের হিসাবের বৈশিষ্ট্য বিবেচনায় বলা যায়, তিনি ব্যাংকে স্থায়ী হিসাব খুলেছিলেন।
ঘ উদ্দীপকে মি. রহমানের আগে ছিল স্থায়ী হিসাব এবং পরবর্তীতে তিনি সঞ্চয়ী হিসাব খুলেন। এ হিসাবটি তার জন্য উত্তম।
সঞ্চয়ী হিসাবে গ্রাহক দিনে যতবার খুশি অর্থ জমা দিতে পারেন। তবে এ হিসাবে সপ্তাহে দু’বারের বেশি অর্থ উত্তোলনের সুযোগ থাকে না। এ হিসাবে আমানতকারীকে স্বল্প হারে সুদও দেয়া হয়।
উদ্দীপকে মি. রহমান সোনালী ব্যাংকের দিনাজপুর শাখায় একটি স্থায়ী হিসাব খোলেন। হঠাৎ তার অর্থের প্রয়োজন পড়লেও তিনি এ হিসাব থেকে কোনো অর্থ উত্তোলন করতে পারেননি। তাই পরবর্তীতে ব্যাংক ম্যানেজারের পরামর্শে আরেকটি হিসাব খোলেন যেখানে নিয়মিত টাকা জমা ও উত্তোলন করা যাবে।
অর্থাৎ তার পরের ব্যাংক হিসাবটি হলো সঞ্চয়ী হিসাব। সঞ্চয়ী হিসাব হওয়ার কারণে তার মধ্যে সঞ্চয় করার প্রবণতা সৃষ্টি হবে। আবার প্রয়োজনে অর্থ উত্তোলনের সুযোগও পাবেন। এ হিসাব হতে মি. রহমান সপ্তাহে দু’বার অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন। এতে তার অর্থ ব্যয় করার প্রবণতাও হ্রাস পাবে। সুতরাং, মি. রহমানের জন্য পরবর্তীতে খোলা সঞ্চয়ী হিসাবটি উত্তম হয়েছে।

মমমপ্রশ্ন৯ মি. লামা একজন চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে প্রতি মাসে কিছু টাকা ব্যাংকে জমা রাখেন। এ হিসাব হতে তিনি কিছু টাকা লাভ পেয়ে থাকেন। মাঝে মাঝে টাকার প্রয়োজন হলে তিনি তার ব্যাংক হিসাব হতে টাকা উত্তোলন করেন। এবার তিনি বাংলাদেশ হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটালের একটি লটারি কিনলেন এবং সৌভাগ্যক্রমে ২৫ লক্ষ টাকার পুরস্কার পেলেন। এখন তিনি ভাবছেন আপাতত ব্যাংকে বেশি আয়ের একটি হিসাব খুলবেন। [ঢা. বো. ১৬]
অ ক. ব্যাংক হিসাব কী? ১
অ খ. ব্যাংক হিসাবে গোপনীয়তা রক্ষার প্রয়োজন পড়ে কেন? ২
অ গ. উদ্দীপকে মি. লামা কোন ধরনের হিসাব খুলেছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মি. লামা লটারির টাকা ব্যাংকের কোন হিসাবের রাখার বিষয়ে ভাবছেন বলে তুমি মনে করো? যুক্তি দাও। ৪
৯ নং প্রশ্নের উত্তর
ক গ্রাহকের নামে যে হিসাব খুলে ব্যাংক অর্থ লেনদেন ও ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের সুযোগ প্রদান করে তাকে ব্যাংক হিসাব বলে।
খ ব্যাংক তার আমানতকারীর আমানতের গচ্ছিত গ্রহীতা ও স্বার্থ সুরক্ষাকারী। সর্বাবস্থায় গ্রাহকের এ স্বার্থ সুরক্ষার্থে তাদের ব্যাংক হিসাবের গোপনীয়তা রক্ষার প্রয়োজন পড়ে।
একজন গ্রাহক প্রথমত ব্যাংকে অর্থ জমা রাখে অর্থের নিরাপদ সংরক্ষণের জন্য। এ নিরাপত্তা বলতে কেবল অর্থ হারিয়ে যাওয়া বা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়াকে বোঝায় না, বরং গ্রাহকের জমাকৃত অর্থের পরিমাণ কিংবা লেনদেন সংক্রান্ত তথ্যের নিরাপত্তাকেও বোঝায়। এসব তথ্য আদিষ্ট ব্যক্তি ব্যতীত অন্য কারো কাছে প্রকাশ পেলে তাতে গ্রাহকের বিভিন্ন সমস্যা বা ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই আস্থা ও বিশ্বস্ততার প্রতীক হিসেবে ব্যাংকের উচিত গ্রাহকের ব্যাংক হিসাবের গোপনীয়তা রক্ষা করা।
গ উদ্দীপকে মি. লামা সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছেন।
ব্যাংকিং লেনদেনের পাশাপাশি সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে ব্যাংকে যে হিসাব খোলা হয় তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে। স্বল্প ও স্থায়ী আয়ের ব্যক্তিদের জন্য এই হিসাব বিশেষ উপযোগী। এই হিসাবের আমানতকারীকে ব্যাংক লাভ বা সুদ প্রদান করে।
উদ্দীপকে মি. লামা একজন চাকরিজীবী। তিনি ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে প্রতি মাসে কিছু টাকা জমা রাখেন এবং সেখান থেকে কিছু লাভও পেয়ে থাকেন। আবার প্রয়োজন হলে উত্তোলন করার সুবিধাও পান। সাধারণত সঞ্চয়ী হিসাবের গ্রাহক সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে ইচ্ছেমতো জমা করতে পারেন তবে উত্তোলনের ক্ষেত্রে কিছু বিধি নিষেধ মেনে উত্তোলন করেন। এছাড়া, সঞ্চয়কৃত অর্থের ওপর স্বল্পহারে সুদ পান। সুতরাং, বৈশিষ্ট্য বিবেচনায় বলা যায়, মি. লামা সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছেন।
ঘ উদ্দীপকে মি. লামা লটারির টাকা স্থায়ী হিসাবে রাখার বিষয়ে ভাবছেন বলে আমি মনে করি।
যে হিসাবে নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য টাকা জমা রাখা হয় তাকে স্থায়ী হিসাব বলে। সাধারণত এ হিসাবে মেয়াদপূর্তির আগে অর্থ উত্তোলন করা যায় না।
উদ্দীপকে মি. লামা একটি লটারি কিনেন এবং ভাগ্যক্রমে ২৫ লক্ষ টাকার পুরস্কার পেলেন। তাই তিনি ভাবছেন ব্যাংকে বেশি আয়ের একটি হিসাব খুলবেন।
বর্তমানে মি. লামা ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব পরিচালনা করেন। এই হিসাবে স্বল্প পরিমাণ আয় হয়। আবার চলতি হিসাবে তিনি যদি টাকা রাখেন তাহলে কোনো আয়ই করতে পারবেন না। কিন্তু তিনি যদি স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখেন তাহলে নির্দিষ্ট মেয়াদের আগে অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন না। তবে অধিক আয় উপার্জন করতে পারবেন। সুতরাং, আমি মনে করি তিনি স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখার বিষয়ে ভাবছেন।

মমমপ্রশ্ন১০ জনাব জোহরা একটি কলেজে অধ্যাপনা করেন। তিনি বেতন হতে কিছু পরিমাণ অর্থ মাঝে মাঝে তার ব্যাংক হিসাবে জমা করেন। কয়েক বছর পর তিনি ব্যাংক হিসাবে জমানো টাকাগুলো একত্রে অন্য একটি ব্যাংক হিসাবে আরো লাভজনক খাতে দীর্ঘমেয়াদের ভিত্তিতে রাখা যায় কিনা তা ভাবলেন। সে মোতাবেক তিনি ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করে একটি অধিক লাভজনক ব্যাংক হিসাবে জমা রাখার পরামর্শ পেয়েছেন। [রা. বো. ১৬]
অ ক. নমুনা স্বাক্ষর কার্ড কী? ১
অ খ. চলতি হিসাবের বিপরীতে ব্যাংক সুদ প্রদান করে না কেন? ২
অ গ. উদ্দীপকে মিসেস জোহরা প্রথম কোন ধরনের ব্যাংক হিসাব খুলেছিলেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মিসেস জোহরার ২য় পর্যায়ে হিসাব খোলার সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করো। ৪
১০ নং প্রশ্নের উত্তর
ক ব্যাংক হিসাব খোলার আবেদন করার সময় আবেদনকারীকে যে কার্ডে পরপর তিনটি স্বাক্ষর করতে হয় তাকে নমুনা স্বাক্ষর কার্ড বলে।
খ যে হিসাবের মাধ্যমে ব্যাংক আমানতকারীকে কার্ড দিয়ে যতবার ইচ্ছা ততবার টাকা জমা ও উত্তোলনের সুযোগ প্রদান করে তাকে চলতি হিসাব বলে।
চলতি হিসাবের বিপরীতে গ্রাহককে ব্যাংক কোনো প্রকার সুদ প্রদান করে না বরং কমিশন চার্জ করে। চলতি হিসাবের জমাকৃত অর্থ ব্যাংক কোথাও বিনিয়োগ করার সুযোগ পায় না। যেহেতু গ্রাহক যে কোনো সময় টাকা উত্তোলন করতে চাইতে পারে সেহেতু চলতি হিসাবের টাকা তরল হিসেবে ব্যাংক-কে সবসময় হাতেই রাখতে হয় এবং ব্যাংক কোথাও বিনিয়োগ করতে পারে না। বিনিয়োগ করতে না পারায় ব্যাংক এই অর্থ হতে কোনো প্রকার আয় উপার্জন করতে পারে না। তাই এ হিসাবের বিপরীতে ব্যাংক কোনো সুদ দেয় না।
গ উদ্দীপকের মিসেস জোহরা প্রথমে ব্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খুলেছিলেন।
যে ব্যাংক হিসাব সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে খোলা হয়, যেকোনো সময় টাকা জমা দেয়া যায় কিন্তু সপ্তাহে দুবারের বেশি টাকা উত্তোলন করা যায় না তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে। সাধারণত স্বল্পআয়ের মানুষজন, যেমন- চাকরিজীবী, ছাত্র, শ্রমিক এদের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযোগী।
উদ্দীপকে মিসেস জোহরা একটি কলেজে অধ্যাপনা করেন। তিনি চাকরিজীবী এবং তার বেতন থেকে কিছু পরিমাণ অর্থ মাঝে মাঝে তার ব্যাংক হিসাবে জমা করেন। অর্থাৎ তিনি তার সঞ্চয়ী হিসাবে বেতনের কিছু কিছু অংশ জমা করেন। উলে­খ্য, সঞ্চয়ী হিসাবে যে কোনো সময় টাকা জমা দেয়া যায় এবং সাধারণত স্বল্পআয়ের মানুষজন স্বল্পহারে মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যে এই হিসাব খুলে থাকেন। সুতরাং বলা যায়, চাকরিজীবী মিসেস জোহরা প্রথমে যে ব্যাংক হিসাব খুলেছিলেন তা সঞ্চয়ী হিসাব ছিল।
ঘ মিসেস জোহরার দ্বিতীয় পর্যায়ে স্থায়ী হিসাব খুলে লাভজনক খাতে টাকা জমা রাখার সিদ্ধান্তটি যৌক্তিক।
যে হিসাবে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য অর্থ জমা রাখা হয় এবং অর্থ উত্তোলনের সুযোগ থাকে না তাই হলো স্থায়ী হিসাব। এই হিসাবের গ্রাহকগণ ব্যাংক থেকে অধিক সুদ বা লাভ প্রাপ্ত হয়। যাদের নিকট অলস অর্থ থাকে তারা এই ধরনের হিসাব খুলে ঝুঁকিবিহীন আয়ের সুযোগ লাভ করে।
উদ্দীপকে মিসেস জোহরা প্রথমে সঞ্চয়ী হিসাব খুললেও কয়েক বছর পর যখন দেখেন তার হিসাবে অনেক টাকা জমা হয়েছে তখন তিনি তা আরো লাভজনক খাতে দীর্ঘমেয়াদে জমা রাখার চিন্তা করলেন। এক্ষেত্রে তিনি ব্যাংকের পরামর্শ নিতে গেলে অধিক লাভজনক অর্থাৎ স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখার পরামর্শ পেয়েছেন।
স্থায়ী হিসাবে টাকা জমা রাখা মিসেস জোহরার জন্য লাভজনক হবে। তার আগের সঞ্চয়ী হিসাবের তুলনায় এই হিসাবে সুদের হার বেশি। তাছাড়াও তার অনেক টাকা জমা হওয়ায় তিনি তা দীর্ঘমেয়াদের ভিত্তিতে ব্যাংকে রাখতে চান। এই সুযোগটা স্থায়ী হিসাবই প্রদান করে থাকে। সুতরাং অধিক লাভ ও দীর্ঘমেয়াদে টাকা জমা রাখার উদ্দেশ্যে মিসেস জোহরা যে স্থায়ী হিসাব খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা যৌক্তিক।

মমমপ্রশ্ন১১ জনাব রাশেদ সুরমা ব্যাংকের একজন গ্রাহক। ব্যাংকের যেকোনো শাখা থেকে তিনি উক্ত ব্যাংকের সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। আবার ব্যাংক হিসাবের বিপরীত কোনো সুদ না পেলেও জমাতিরিক্ত ঋণের সুবিধা পান। বর্তমানে তিনি লেনদেনের সর্বশেষ পরিস্থিতি জানা, নগদ অর্থ জমাদান, অন্যের হিসাবে অর্থ স্থানান্তর, বিল প্রদান ইত্যাদি সুবিধাসহ ব্যাংক হিসাবের ওপর সুদ পেতে চান। [রা. বো., সি. বো. ১৬]
অ ক. ই-ব্যাংকিং কী? ১
অ খ. বিক্রয় সেবা বিন্দু বলতে কী বোঝায়? ২
অ গ. উদ্দীপকে জনাব রাশেদ বর্তমানে কোন ব্যাংক হিসাবের আওতায় রয়েছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. জনাব রাশেদের ইচ্ছা বাস্তবায়নে কোন ধরনের ব্যাংক হিসাব উপযুক্ত? উদ্দীপকের আলোকে মতামত দাও। ৪
১১ নং প্রশ্নের উত্তর
ক ই-ব্যাংকিং হলো ব্যাংকিং ব্যবস্থায় অত্যাধুনিক পদ্ধতি, যেখানে কম্পিউটার প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সব ধরনের ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করা হয়।
খ বিক্রয় সেবাবিন্দু ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত একটি ইলেকট্রনিক ব্যাংকিং সেবা, যার মাধ্যমে গ্রাহক তার সুবিধাজনক স্থানে সব ধরনের পণ্য ক্রয় ও মূল্য পরিশোধ করতে পারে।
বিক্রয় বিন্দু ব্যবস্থায় পণ্য বা সেবার মূল্য তাৎক্ষণিকভাবে ক্রেতার হিসাবে ডেবিট এবং বিক্রেতার হিসাবে ক্রেডিট করা হয়। পণ্য বা সেবার মূল্য বাবদ গ্রাহক চেক প্রদান করলে বিক্রেতা তার যথার্থতা আগে যাচাই করে নেয়। যাচাইয়ের পর চেকটি যথার্থ হলে ব্যবসায়ী চেক গ্রহণ করে যন্ত্রের সাহায্যে প্রয়োজনীয় হিসাব ডেবিট বা ক্রেডিট করে মূল্য গ্রহণ করে।
গ উদ্দীপকের জনাব রাশেদ বর্তমানে চলতি ব্যাংক হিসাবের আওতায় রয়েছেন।
যে ব্যাংক হিসাবে দৈনিক যতবার খুশি টাকা জমাদান ও উত্তোলন করা যায় কিন্তু হিসাবের বিপরীতে কোনো সুদ প্রদান করা হয় না তাকে চলতি হিসাব বলে। সাধারণত ব্যবসায়ীরা লেনদেনের সুবিধার্থে চলতি হিসাব খুলে থাকেন।
উদ্দীপকে জনাব রাশেদ সুরমা ব্যাংকের একজন গ্রাহক। তিনি তার ব্যাংক হিসাবের বিপরীতে কোনো সুদ পান না। তবে তিনি জমাতিরিক্ত ঋণের সুবিধা পান। চলতি হিসাব সাধারণত ব্যবসায়ীদের জন্য উপযুক্ত। জরুরি অর্থের প্রয়োজনে চলতি হিসাব ব্যবসায়ীদের জমাতিরিক্ত উত্তোলনের সুযোগ দেয়, যে সুবিধাটি অন্য কোনো হিসাব হলে জনাব রাশেদ পেতেন না। আবার চলতি হিসাবে জমাকৃত টাকা ব্যাংক কোথাও বিনিয়োগ করতে পারে না বলে এর বিপরীতে সুদ প্রদান করা সম্ভব হয় না। জনাব রাশেদও তার হিসাবের বিপরীতে সুদ পান না। সুতরাং বলা যায়, জনাব রাশেদ চলতি হিসাবের আওতায় আছেন।
ঘ উদ্দীপকের জনাব রাশেদের ইচ্ছা বাস্তবায়নে তার জন্য সঞ্চয়ী হিসাব উপযুক্ত।
ব্যাংকিং লেনদেনের পাশাপাশি সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে যে হিসাব খোলা হয় এবং যে হিসাবে দিনে যতবার খুশি টাকা জমা দেয়া যায় কিন্তু সপ্তাহে দুবারের বেশি উত্তোলন করা যায় না তাকে সঞ্চয়ী হিসাব বলে।
উদ্দীপকে জনাব রাশেদ বর্তমানে চলতি হিসাবের আওতায় রয়েছেন। কিন্তু তিনি চলতি হিসাব বাদ দিয়ে এমন একটি হিসাব খুলতে চান যেখানে তিনি লেনদেনের সর্বশেষ পরিস্থিতি জানতে পারবেন, যে কোনো সময় নগদ অর্থ জমা দিতে পারবেন, অর্থ পণ্যের হিসাবে স্থানান্তর, বিল প্রদান করতে পারবেন এবং সুদ পাবেন। এক্ষেত্রে তার জন্য উপযুক্ত হলো সঞ্চয়ী হিসাব।
সঞ্চয়ী হিসাব খুললে জনাব রাশেদ যেকোনো সময় তার হিসাবে টাকা স্থানান্তর করতে পারবেন। তিনি নগদে টাকা বহন না করে তার হিসাবের মাধ্যমেই অন্যের হিসাবে টাকা স্থানান্তর ও বিল পরিশোধ করতে পারবেন সঞ্চয়ী হিসাবের মাধ্যমে। আবার সঞ্চয়ী হিসাব থেকে যেহেতু সুদও পাওয়া যায়, তাই জনাব রাশেদের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব খোলাই উত্তম।

মমমপ্রশ্ন১২ মি. সুমনের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের পাশেই নতুন একটা ব্যাংক শাখা খোলা হচ্ছে। শাখা ম্যানেজার বললেন, আপনাকে এমন হিসাব খুলে দেই যেখান থেকে আপনি দিনে যতবার খুশি টাকা জমা দিতে ও উঠাতে পারবেন। চাইলে জমাতিরিক্ত ঋণও নিতে পারবেন। বেশি টাকা জমা থাকলে তার ওপর স্বল্পকালীন সময়ের জন্য সুদ পাবেন। [দি. বো. ১৬]
অ ক. কণঈ কী? ১
অ খ. ‘ব্যাংক হিসাব হলো ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের প্রবেশদ্বার’- বুঝিয়ে লেখো। ২
অ গ. উদ্দীপকের শাখা ম্যানেজার মি. সুমনকে যে হিসাব খোলার পরামর্শ দিয়েছেন সেটি কোন ধরনের হিসাব? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে মি. সুমনের হিসাবে জমার পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত কম হলে তার সুদ প্রাপ্তিতে কি কোনো ধরনের প্রভাব পড়বে? তোমার উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও। ৪
১২ নং প্রশ্নের উত্তর
ক যে ফরমে গ্রাহক সম্পর্কিত যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলি লিপিবদ্ধ থাকে তাকে কণঈ ফরম বলে।
খ যে প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে ব্যাংক তার গ্রাহকদের আমানত জমা করে, অর্থ উত্তোলনের সুযোগ প্রদান করে এবং ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের সুযোগ দেয় তাকে ব্যাংক হিসাব বলে।
ব্যাংক হিসাব হলো গ্রাহকের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা ও আর্থিক লেনদেনের প্রধান মাধ্যম। ব্যাংক হিসাব না খুলে কোনো ব্যাংকিং সেবা, সুবিধা লাভ সম্ভব নয়। তাই ব্যাংক হিসাব হলো গ্রাহকের ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের প্রবেশদ্বার।
গ উদ্দীপকের শাখা ম্যানেজার মি. সুমনকে বিশেষ চলতি হিসাব খোলার পরামর্শ দিয়েছেন।
যে চলতি হিসাবে দিনে যতবার খুশি টাকা জমাদান ও উত্তোলন করা যায় এবং ব্যাংক জমাতিরিক্ত উত্তোলন সুবিধার সঙ্গে সীমিত সুদ বা লাভ প্রদান করে তাকে বিশেষ চলতি হিসাব বলে। ব্যবসায়ীদের জন্য এ হিসাব বিশেষ উপযোগী।
উদ্দীপকে মি. সুমনের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের পাশেই একটি ব্যাংকের নতুন শাখা খোলা হয়েছে। উক্ত ব্যাংকের শাখা ম্যানেজার তাকে এমন একটি হিসাব খোলার পরামর্শ দিলেন যাতে মি. সুমন দিনে যতবার খুশি টাকা জমা দিতে ও উঠাতে পারবেন। এছাড়া উক্ত হিসাবে জমাকৃত অর্থের অতিরিক্ত উত্তোলনেরও সুযোগ পাবেন। এখানে ব্যাংক ম্যানেজার মি. সুমনকে বিশেষ সুবিধা গ্রহণের প্রস্তাব দেন। প্রস্তাব অনুযায়ী এছাড়া মি. সুমনের হিসাবে বেশি টাকা জমা থাকলে আমানত হিসেবে গণ্য করে তার ওপর সুদ পাবেন। এটি বিশেষ চলতি হিসাবের বৈশিষ্ট্য। সুতরাং মি. সুমনের হিসাবটি বৈশিষ্ট্য সামঞ্জস্যতায় একটি বিশেষ চলতি হিসাব।
ঘ উদ্দীপকের মি. সুমনের হিসাবে জমার পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত কম হলে তা তার সুদ প্রাপ্তিতে প্রভাব ফেলবে বলে আমি মনে করি।
বিশেষ চলতি হিসাবের বেশি অর্থ জমা থাকলে সীমিত হারে সুদ বা লাভ পাওয়া যায়। আর জমা মাত্রাতিরিক্ত কম হলে এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে হয়।
উদ্দীপকে মি. সুমন ব্যবসায়ী হিসেবে একটি বিশেষ চলতি হিসাব পরিচালনা করেন। এ হিসাবের মাধ্যমে তিনি দিনে যতবার খুশি অর্থ জমা ও উত্তোলনের সুযোগ পান। জমাতিরিক্ত উত্তোলন ছাড়াও হিসাবে জমাকৃত অর্থের ওপর স্বল্পমেয়াদে সুদ পান।
তবে মি. সুমনের হিসাবে জমার পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত কম হলে তার সুদ প্রাপ্তিতে প্রভাব পড়বে। এক্ষেত্রে হিসাবে জমার পরিমাণ কম হলে বিশেষ চলতি হিসাবের সুবিধা পাওয়া যাবে না। কারণ, এ হিসাবে বড় পরিমাণের অর্থ জমা থাকলেই স্বল্পকালীন আমানত হিসেবে গণ্য করা হয়। এ স্বল্পকালীন আমানতের ওপর সীমিত সুদ প্রদান করা হয়। তাই মি. সুমনের হিসাবে যদি জমার পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত কম হয় সেক্ষেত্রে তার হিসাবটি বিশেষ চলতি হিসাবের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে।

 

প্রিয় জনের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply