এইচএসসি ব্যবসায় উদ্যোগ তৃতীয় অধ্যায় পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

অধ্যায়-৩

পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ

গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন১ সরকার দেশের উন্নয়ন ও জনগণের স্বার্থের দিক বিবেচনায় নিয়ে ঢাকায় মেট্রোরেল স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা নির্মাণ করতে বেশ কয়েক বছর সময় লাগবে। যে অবস্থা বিবেচনা করে পরিকল্পনা প্রস্তুত হয় তা সবসময় মিলতে না-ও পারে। তাই ভবিষ্যৎ অবস্থার পরিবর্তন হলে পরিকল্পনা সংশোধনীসহ কর্তৃপক্ষ করণীয় ঠিক করে রাখেন, যাতে মেট্রোরেল নির্মাণের উদ্দেশ্য অর্জিত হয়। [ঢা. বো. ১৭]
অ ক. সিদ্ধান্ত গ্রহণ কী? ১
অ খ. ভিশন গুরুত্বপূর্ণ কেন? ২
অ গ. উদ্দীপকের মেট্রোরেল স্থাপন প্রকৃতি ভিত্তিতে কোন ধরনের পরিকল্পনা? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. পরিকল্পনার যে বৈশিষ্ট্যটি ভবিষ্যৎ অবস্থার পরিবর্তনকে সহজ করে তোলেÑ উদ্দীপকের আলোকে তা মূল্যায়ন করো। ৪
১ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক সিদ্ধান্ত গ্রহণ হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট সমস্যা সমাধানের সঠিক ও সর্বোত্তম কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হয়।
মখ ভিশন হলো প্রতিষ্ঠানের দীর্ঘমেয়াদি ভবিষ্যৎ লক্ষ্য, যেখানে প্রতিষ্ঠানটি যেতে চায় বা অর্জন করতে চায়।
একটি প্রতিষ্ঠান যখন তার ভিশন নির্ধারণ করে তখন তাতে এর ভবিষ্যৎ লক্ষ্য ফুটে ওঠে। প্রতিষ্ঠানের ভিশন বা মূল লক্ষ্য নির্ধারণ করার ফলে প্রতিটি কর্মী ও বিভাগ তা অর্জনের জন্য সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালায়। এতে উদ্দেশ্য অর্জন অনেক সহজ হয়। এজন্য ভিশন গুরুত্বপূর্ণ।
মগ উদ্দীপকের মেট্রোরেল স্থাপন কাজটি প্রকৃতি ভিত্তিতে একার্থক পরিকল্পনার অন্তর্গত।
একার্থক পরিকল্পনা কোনো একটি বিশেষ কার্যসম্পাদনের লক্ষ্যে তৈরি করা হয়। তবে প্রণীত পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হয়ে গেলে উক্ত পরিকল্পনাটি তার গ্রহণযোগ্যতা হারায়।
উদ্দীপকে দেখা যায়, সরকার দেশের উন্নয়ন ও জনগণের স্বার্থের কথা চিন্তা করে ঢাকায় মেট্রোরেল স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়। যদিও মেট্রোরেল তৈরি করতে বেশ কয়েক বছর সময় লাগবে। তবুও সরকার চায় এ উদ্দেশ্যটি যেন বাস্তবায়িত হয়। এ লক্ষ্যে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। সরকার একটি বিশেষ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে এ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে, উদ্দেশ্য অর্জিত হলে এর কার্যকারিতাও শেষ হয়ে যাবে। এটি একার্থক পরিকল্পনার বৈশিষ্ট্যের সাথে সংগতিপূর্ণ। তাই বলা যায়, মেট্রোরেল স্থাপন একটি একার্থক পরিকল্পনা।
মঘ পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যটি ভবিষ্যৎ অবস্থার পরিবর্তনের সাথে সমন্বয়কে সহজ করে তোলে।
নমনীয়তার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের ভবিষ্যৎ অবস্থা ও সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে পরিকল্পনার পরিবর্তন করা হয়। ভবিষ্যৎ সর্বদাই অনিশ্চিত। তাই পরিকল্পনা সময়, স্থান ও অবস্থাভেদে পরিবর্তনযোগ্য হওয়া বাঞ্ছনীয়।
উদ্দীপকে দেখা যায়, সরকার দেশের জনগণের কথা চিন্তা করে ঢাকায় একটি মেট্রোরেল স্থাপনের পরিকল্পনা করে। যে অবস্থা বিবেচনা করে পরিকল্পনা প্রস্তুত করা হয় তা সবসময় না-ও মিলতে পারে। তাই কর্তৃপক্ষ ভবিষ্যৎ অবস্থার পরিবর্তন হলে সে অবস্থা অনুযায়ী পরিকল্পনার সংশোধনীগুলোও ঠিক করে নেয়। অর্থাৎ তারা যেকোনো অবস্থার মধ্য দিয়ে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য চেষ্টা করে।
পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে সঙ্গতি বিধানের সামর্থ্যই হলো নমনীয়তা। একটি উত্তম পরিকল্পনায় নমনীয়তার সুযোগ থাকা আবশ্যক। কারণ, একই অবস্থার মধ্য দিয়ে পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হবে তা সবসময় আশা করা যায় না। তাই উদ্দীপকে সরকারি কর্মকর্তাগণও ঢাকায় মেট্রোরেল নির্মাণের উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনায় সম্ভাব্য ও প্রয়োজনীয় সংশোধনীর ব্যবস্থা করে রাখেন। তাই বলা যায়, পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যটি ভবিষ্যৎ অবস্থার পরিবর্তনকে সহজ করে তোলে।

মমমপ্রশ্ন২ সুইট হোম লি. একটি ডেভেলপার কোম্পানি। কোম্পানিটি একেকটি প্রকল্পের অন্য একেকটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। নির্মাণ শেষে পরিকল্পনার সমাপ্তি ঘটে। সম্প্রতি নতুন একটি প্রকল্প ২০ তলা বিল্ডিং নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করে এবং এর নকশা সি.ডি.এ.-তে জমা দেওয়া হয়। জায়গার পরিমাণ, মূল রাস্তা থেকে জায়গার দূরত্ব, রাস্তার প্রশস্ততা ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে সর্বোচ্চ ১৫ তলার বেশি নির্মাণ করা অবাস্তব ও ত্র“টিপূর্ণ হবে বলে সি.ডি.এ. প্রকল্প পরিকল্পনাটি বাতিল করে দেয়। পরবর্তীতে সুইটস হোম লি. ১৫ তলা বিল্ডিং নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করে এবং সি.ডি.এ. পরিকল্পনাটি অনুমোদন দেয়। [রা. বো. ১৭]
অ ক. সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার প্রথম পদক্ষেপ কোনটি? ১
অ খ. “পরিকল্পনা ব্যবস্থাপনার অন্যান্য কাজের ভিত্তি”Ñ ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. ‘সুইট হোম লি.’-এর গৃহীত পরিকল্পনাগুলো প্রকৃতিভেদে কোন ধরনের পরিকল্পনা? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. পরিকল্পনার যে বৈশিষ্ট্যের কারণে ‘সুইট হোম লি.-এর প্রকল্পটি সিডিএ’র অনুমোদন পায় তার যৌক্তিকতা মূল্যায়ন করো। ৪
২ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার প্রথম পদক্ষেপ হলো সমস্যা চিহ্নিতকরণ ও সংজ্ঞায়িতকরণ।
মখ প্রতিষ্ঠানের কাক্সিক্ষত উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য কোন কাজ কে করবে, কখন করবে, কত সময়ের মধ্যে করা হবে ইত্যাদি নির্ধারণ করার কর্মসূচি বা নকশা প্রণয়নের কাজকে পরিকল্পনা বলে।
পরিকল্পনা হলো ব্যবস্থাপনার প্রথম কাজ। এটি বাস্তবায়নের জন্যই সংগঠন, কর্মীসংস্থান, নেতৃত্ব দান ইত্যাদি কাজ করা হয়। আর নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে পরিকল্পনা আদর্শমানের ভ‚মিকা পালন করে। এছাড়া ব্যবস্থাপনার অন্যান্য (সংগঠন, কর্মীসংস্থান, নেতৃত্ব দান) কাজ সম্পাদনেও প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হয়। তাই পরিকল্পনাকে অন্যান্য কাজের ভিত্তি বলে গণ্য করা হয়।
মগ উদ্দীপকের সুইট হোম লি.-এর গৃহীত পরিকল্পনাগুলো প্রকৃতিভেদে একার্থক পরিকল্পনা।
একার্থক পরিকল্পনা কোনো একটি বিশেষ কার্যসম্পাদনের জন্য তৈরি করা হয়। তবে প্রণীত পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হলে তা পরে আর ব্যবহৃত হয় না।
উদ্দীপকের সুইট হোম লি. একটি ডেভেলপার কোম্পানি। কোম্পানিটি একেকটি প্রকল্পের জন্য একেকটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। নির্মাণ শেষে পরিকল্পনার সমাপ্তি ঘটে। সম্প্রতি কোম্পানিটি ২০ তলা বিল্ডিং নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। কিন্তু সি.ডি.এ জায়গার পরিমাণ, রাস্তার প্রশস্থতা ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করে ১৫ তলার বেশি নির্মাণ করা যাবে না বলে প্রকল্পের পরিকল্পনাটি বাতিল করে দেয়। পরবর্তীতে সুইট হোম লি. ১৫ তলা বিল্ডিং নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। বিল্ডিং নির্মাণ শেষে পরিকল্পনাটির সমাপ্তি ঘটবে। এসব বৈশিষ্ট্যানুযায়ী এটি একার্থক পরিকল্পনার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তাই বলা যায়, সুইট হোম লি.-এর গৃহীত পরিকল্পনাগুলো হলো একার্থক পরিকল্পনা।
মঘ পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যের কারণে ‘সুইট হোম লি.’-এর প্রকল্পটি সি.ডি.এ.-এর অনুমোদন পায়Ñ কথাটি যৌক্তিক।
ভবিষ্যৎ সর্বদাই অনিশ্চিত। তাই পরিকল্পনা সময়, স্থান ও অবস্থাভেদে পরিবর্তনযোগ্য হওয়া আবশ্যক। নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যের কারণে পরিকল্পনাকে অবস্থা ও সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে পরিবর্তন করা যায়।
উদ্দীপকের সুইট হোম লি. প্রথমত ২০ তলা ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করে এবং এর নকশা সি.ডি.এ-তে জমা দেয়। জায়গার পরিমাণ ও রাস্তার কারণে সি.ডি.এ. ২০তলা ভবনের পরিবর্তে ১৫ তলার অনুমোদন দেয়। এতে সুইট হোম লি. পরিস্থিতি অনুযায়ী তাদের পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনে ১৫ তলা ভবনের সিদ্ধান্ত নেয়; যা পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যের সাথে মিল পাওয়া যায়।
যেকোনো সময়, পরিবেশ তথা পারিপার্শ্বিকতার পরিবর্তনের কারণে পরিকল্পনা পরিবর্তন করতে হতে পারে। উদ্দীপকেও এমন পরিবর্তনের প্রয়োজন হয়েছে। সুইট হোম লি. প্রতিষ্ঠানটি প্রথমত ২০ তলা ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিলেও তা বাতিল হয়ে যায়। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটি পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনে ১৫ তলা ভবন নির্মাণের চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়, যা সি.ডি.এ. অনুমোদন দেয়। তাই বলা যায়, পরিকল্পনার নমনীয়তার কারণেই সুইট হোম লি.-এর প্রকল্পটি সি.ডি.এ.-এর অনুমোদন পায়।

মমমপ্রশ্ন৩ জাগোয়ার করপোরেশনের চারটি বিভাগ রয়েছে। উৎপাদন বিভাগ ২০১৬ সালের জন্য ৫০০০ একক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। অর্থ বিভাগ প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ না করায় উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১০০০ একক কম হয়। অন্যদিকে মানবসম্পদ বিভাগ বিপণন বিভাগের জন্য অতিরিক্ত লোক নিয়োগ করায় খরচ বেড়ে যায়। কিন্তু রক্ষণাবেক্ষণ বিভাগে লোক স্বল্পতার কারণে নষ্ট মেশিন ঠিক করতে না পারায় উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটে। [রা. বো. ১৭]
অ ক. জোড়া মই শিকল নীতি কী? ১
অ খ. নির্দেশনাকে প্রশাসনের হৃৎপিণ্ড বলা হয় কেন? ২
অ গ. উদ্দীপকে উলি­খিত ৫০০০ একক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ প্রকৃতির ভিত্তিতে কোন ধরনের পরিকল্পনা? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. ব্যবস্থাপনার যে কাজটি যথাযথভাবে সম্পাদন করলে উদ্দীপকে বর্ণিত সমস্যা নিরসনপূর্বক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে তার যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করো। ৪
৩ নং প্রশ্নের উত্তর ই
মক প্রতিষ্ঠানের উপর থেকে নিচের স্তর পর্যন্ত প্রতিটা ব্যক্তি, বিভাগ ও উপবিভাগকে একই শিকলের অধীনে যুক্ত করাকে জোড়া মই শিকল নীতি বলে।
মখ লক্ষ্য অর্জনে অধস্তনদের আদেশ, উপদেশ ও পরামর্শ প্রদান এবং তত্ত¡াবধান কার্যকে নির্দেশনা বলে।
হৃৎপিণ্ড রক্ত প্রবাহ ঠিক রেখে মানুষের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সচল রাখতে সাহায্য করে। এটি কাজ না করলে মানুষ অচল হয়ে পড়ে। ঠিক তেমনিভাবে একটি প্রতিষ্ঠানের প্রশাসন যেসব পরিকল্পনা, নিয়ম-নীতি প্রণয়ন করে সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য কর্মীদের নির্দেশনা প্রদান করা প্রয়োজন। নির্দেশনা প্রদান করা না হলে প্রশাসনের কার্যক্রম ব্যাহত হয়। এজন্যই নির্দেশনাকে প্রশাসনের হৃৎপিণ্ড বলা হয়।
মগ উদ্দীপকের পরিকল্পনাটি প্রকৃতির ভিত্তিতে লক্ষ্যের অন্তর্ভুক্ত।
লক্ষ্য নির্ধারিত ফল লাভের উদ্দেশ্যে প্রণীত হয়। এরূপ লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রতিষ্ঠানের সব উপায়-উপাদান ও কর্মপ্রচেষ্টাকে কাজে লাগানো হয়। এভাবে লক্ষ্য অর্জনের চেষ্টা করা হলে সফল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
উদ্দীপকের জাগোয়ার করপোরেশনের চারটি বিভাগ রয়েছে। এর মধ্যে উৎপাদন বিভাগ ২০১৬ সালের জন্য ৫০০০ একক পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। প্রতিষ্ঠানটি একটি নির্দিষ্ট ফল লাভের উদ্দেশ্যে এ পরিকল্পনাটি প্রণয়ন করে, যা বৈশিষ্ট্যানুযায়ী লক্ষ্য পরিকল্পনার পর্যায়ে পড়ে। তাই বলা যায়, ৫০০০ একক পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ প্রকৃতির ভিত্তিতে লক্ষ্যের অন্তর্ভুক্ত।
মঘ ব্যবস্থাপনার সমন্বয়সাধন কাজটি যথাযথভাবে সম্পাদন করলে উদ্দীপকে বর্ণিত সমস্যা নিরসনপূর্বক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবেÑ কথাটি যৌক্তিক।
সমন্বয়সাধন বিভিন্ন ব্যক্তি ও বিভাগের কাজকে একসূত্রে গ্রথিত ও সংযুক্ত করে। প্রতিষ্ঠানের সব স্তরেই যেহেতু পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হয় তাই একটি আদর্শ পরিকল্পনায় সব স্তর বা বিভাগকেই সমন্বয় করা উচিত।
উদ্দীপকের প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদন বিভাগ ২০১৬ সালে ৫০০০ একক উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। আবার অর্থ বিভাগ অর্থ বরাদ্দ না করায় ১০০০ একক কম উৎপাদন হয়। অন্যদিকে মানবসম্পদ বিভাগ অতিরিক্ত লোক নিয়োগ করায় খরচ বেড়ে যায়। কিন্তু রক্ষণাবেক্ষণ বিভাগে লোক না থাকায় ও নষ্ট মেশিন ঠিক না করায় উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটে। এ থেকে বোঝা যায়, প্রতিষ্ঠানটির কোনো বিভাগের মধ্যে সমন্বয় নেই।
একটি প্রতিষ্ঠানে সমন্বয়ের মাধ্যমে মতানৈক্য দূর করে সব বিভাগের মধ্যে সহযোগিতা, সমঝোতা, ভারসাম্য ও সামঞ্জস্যতা প্রতিষ্ঠা করা যায়। এতে প্রতিষ্ঠানের কাজের মধ্যে নিরবচ্ছিন্নতা ও ধারাবাহিকতা বজায় থাকে। উদ্দীপকের প্রতিষ্ঠানটির চারটি বিভাগের মধ্যেও যদি সমন্বয়সাধন নিশ্চিত করা যায়, তবে এক বিভাগের কর্মী অন্য বিভাগের কাজেও সহায়তা করতে পারবে। এতে নিরবচ্ছিন্ন উৎপাদন ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে। এভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সমস্যা নিরসনপূর্বক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব।

মমমপ্রশ্ন৪ মি. সবুজ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ফাস্ট ফুডের একটি দোকান দিলেন। উন্নতমানের খাবার সরবরাহের কারণে তার দোকান যথেষ্ট সুনাম অর্জন করল। একই সাথে প্রচুর মুনাফাও অর্জিত হলো। তাই মি. সবুজ ভবিষ্যতে অধিকতর সুবিধা অর্জনের জন্য বাণিজ্য মেলা শেষে ব্যবসাটি চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেন। [দি. বো. ১৭]
অ ক. আধুনিক ব্যবস্থাপনার জনক কে? ১
অ খ. প্রেষণা চক্রটি ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. বাণিজ্য মেলায় মি. সবুজের দোকান স্থাপন কোন পরিকলগুনার অন্তর্ভুক্ত? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মি. সবুজের পরবর্তী গৃহীত পরিকল্পনার সুবিধা সম্পর্কে তোমার মতামত দাও। ৪
৪ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক আধুনিক ব্যবস্থাপনার জনক হলেন তুরস্কের হেনরি ফেয়ল (ঐবহৎর ঋধুড়ষ)।
মখ প্রেষণা প্রক্রিয়ার ধাপগুলো (অভাব, তাড়না, অভাবপূরণ ও সন্তুষ্টি অর্জন) পর্যায়ক্রমে আবর্তিত হওয়াকে প্রেষণা চক্র বলে।
কর্মীর মধ্যে কোনো কিছুর অভাব জাগ্রত হলে তা পূরণের জন্য সে অস্থির হয়ে ওঠে। প্রেষণার মাধ্যমে কর্মীর এ অভাব পূরণ হয়, যার ফলে কর্মীর সন্তুষ্টি অর্জিত হয়। কর্মীর একটি অভাব পূরণ হলে নতুন আরেকটি অভাব সৃষ্টি হয়। এ নতুন অভাব পূরণের জন্য আবার প্রেষণার ধাপগুলো পর্যায়ক্রমে করা হয়। এরূপ অভাববোধ এবং তা পূরণের প্রক্রিয়াটি অবিরামভাবে চলতে থাকে। এটিই হলো প্রেষণা চক্র।
মগ বাণিজ্য মেলায় মি. সবুজের দোকান স্থাপন একার্থক পরিকল্পনার অন্তর্ভুক্ত।
একার্থক পরিকল্পনা কোনো একটি বিশেষ কার্যসম্পাদনের লক্ষ্যে তৈরি করা হয়। তবে প্রণীত পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হলে তা পরে আর ব্যবহার করা হয় না।
উদ্দীপকের মি. সবুজ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় একটি ফাস্ট ফুডের দোকান দিলেন। উন্নতমানের খাবার সরবরাহের কারণে তার দোকান যথেষ্ট সুনাম অর্জন করল। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অনুৃষ্ঠিত হয় এবং এর একটি বিশেষ প্রয়োজন রয়েছে। নির্দিষ্ট সময় অতিক্রান্ত হওয়ার পর মেলাটি শেষ হয়ে যায়। তাই বলা যায়, বাণিজ্য মেলায় মি. সবুজের দোকান স্থাপন বৈশিষ্ট্যানুযায়ী একার্থক পরিকল্পনার সাথে সংগতিপূর্ণ।
মঘ উদ্দীপকের মি. সবুজের পরবর্তীতে গৃহীত পরিকল্পনাটি হলো স্থায়ী পরিকল্পনা।
স্থায়ী পরিকল্পনা একবার গৃহীত হওয়ার পর তা নতুন কোনো অবস্থা সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত বারবার ব্যবহৃত হয়। একই ধরনের সমস্যা বা অবস্থা মোকাবেলার জন্য এ ধরনের পরিকল্পনা প্রণীত হয়।
উদ্দীপকের মি. সবুজ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় একটি ফাস্ট ফুডের দোকান দিলেন। উন্নতমানের খাবার সরবরাহের কারণে তিনি সুনাম ও প্রচুর মুনাফা অর্জন করলেন। তাই মি. সবুজ ভবিষ্যতে অধিকতর সুবিধা অর্জনের জন্য বাণিজ্য মেলা শেষে ব্যবসায়টি চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেন।
এক্ষেত্রে ব্যবসায়টি চালিয়ে যাওয়ার জন্য মি. সবুজকে নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে না। ফলে নতুন পরিকল্পনা প্রণয়ন করার ঝামেলা ও ব্যয় হতে তিনি অব্যাহতি পাবেন। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটিকে একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবেন। তাছাড়া নতুন কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত তিনি একই পরিকল্পনা বারবার ব্যবহার করতে পারবেন। তাই বলা যায়, মি. সবুজ স্থায়ী পরিকল্পনা গ্রহণের ফলে এসব সুবিধা পাবেন।

মমমপ্রশ্ন৫ জনাব তারিক হাসান তার প্রতিষ্ঠিত সিমেন্ট কোম্পানির পরিচালনার পাশাপাশি ঠিকাদারি কাজের সাথেও জড়িত। তিনি তার কোম্পানির উৎপাদন কাজের জন্য ১০ বছরের একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। অপরদিকে ঠিকাদার হিসেবে তিনি একটি সেতু নির্মাণের কাজ পাওয়ায় তা নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা প্রণয়ন করবেন।
[চ. বো. ১৭]
অ ক. লক্ষ্য কী? ১
অ খ. সহায়ক পরিকল্পনা বলতে কী বোঝায়? ২
অ গ. উদ্দীপকে জনাব তারিক হাসান সিমেন্ট কোম্পানির উৎপাদনের জন্য মেয়াদ ভিত্তিক কোন ধরনের পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছেন? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে বর্ণিত সেতু নির্মাণের জন্য প্রকৃতিভিত্তিক কোন ধরনের পরিকল্পনা প্রণয়ন অধিক যৌক্তিক হবে বলে তোমার মনে হয়? ব্যাখ্যা করো। ৪
৫ নং প্রশ্নের উত্তর অ
মক কোনো কাজের প্রত্যাশিত ফলাফলই হলো লক্ষ্য।
মখ মূল পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য কোনো সহায়ক বা সহযোগী পরিকল্পনা নেওয়া হলে তাকে সহায়ক পরিকল্পনা বলে।
সহায়ক পরিকল্পনা মূল পরিকল্পনার সাথে সম্পৃক্ত থাকে। যেমন: একটি পোশাক প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বার্ষিক উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য ক্রয়, উৎপাদন, বিপণন প্রভৃতি বিভাগের জন্য পৃথক পৃথক পরিকল্পনা প্রণয়ন করে। এ পৃথক পরিকল্পনাই হলো সহায়ক পরিকল্পনা।
মগ উদ্দীপকে জনাব তারিক হাসান সিমেন্ট কোম্পানির উৎপাদনের জন্য মেয়াদভিত্তিক দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছেন।
প্রতিষ্ঠানের দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্য অর্জনের উদ্দেশ্যে শীর্ষ নির্বাহী কর্তৃক পাঁচ বছরের অধিক সময়ের জন্য এ ধরনের পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়। এটি ভবিষ্যৎ ও অনিশ্চিত ঘটনার ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়।
উদ্দীপকে জনাব তারিক হাসান তার প্রতিষ্ঠিত সিমেন্ট কোম্পানির পরিচালক। তিনি কোম্পানির পরিচালনার পাশাপাশি ঠিকাদারি কাজের সাথেও জড়িত। তিনি কোম্পানির উৎপাদন কাজের জন্য ১০ বছরের একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। তার প্রণীত পরিকল্পনাটি পাঁচ বছরের অধিক সময়ের জন্য প্রণয়ন করা হয়েছে, যা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। তাই বলা যায়, উদ্দীপকে উৎপাদনের পরিকল্পনাটি মেয়াদ ভিত্তিতে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা।
মঘ উদ্দীপকে সেতু নির্মাণের জন্য প্রকৃতি/বৈশিষ্ট্য বিচারে একার্থক পরিকল্পনা প্রণয়ন অধিক যৌক্তিক বলে আমার মনে হয়।
একার্থক পরিকল্পনা কোনো একটি বিশেষ কার্যসম্পাদনের লক্ষ্যে তৈরি করা হয়। তবে প্রণীত পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হয়ে গেলে পুনরায় উক্ত পরিকল্পনার গ্রহণযোগ্যতা থাকে না।
উদ্দীপকে জনাব তারিক হাসান তার প্রতিষ্ঠিত সিমেন্ট কোম্পানির পরিচালক। পাশাপাশি তিনি ঠিকাদারি ব্যবসায়ের সাথে জড়িত হওয়ায় একটি সেতু নির্মাণের কাজ পান। উক্ত সেতু নির্মাণের জন্য তিনি একটি পরিকল্পনা করবেন। তবে সেতু নির্মাণ হয়ে গেলে পরিকল্পনাটির কার্যকারিতা হারাবে। অর্থাৎ, পরিকল্পনাটি একার্থক পরিকল্পনার স্বরূপ।
জনাব তারিকের পরিকল্পনাটি শুধু সেতু নির্মাণের জন্যই করা হবে। সেতু নির্মাণ শেষে এর কার্যকারিতা শেষ হয়ে যাবে। কারণ পরিকল্পনাটি শুধু বিশেষ কাজ সম্পন্ন করার জন্যই প্রণয়ন করা হবে। অন্য কোনো সেতু নির্মাণের জন্য আবার নতুন কোনো পরিকল্পনা করতে হবে। তাই বলা যায়, সেতু নির্মাণের জন্য একার্থক পরিকল্পনা প্রণয়ন অধিক যৌক্তিক হবে।

মমমপ্রশ্ন৬ হাসিব করপোরেশন একটি ঐতিহ্যবাহী ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান। তারা সবসময় নগদে পণ্য বিক্রয় করে থাকে। সম্প্রতি তারা ধারেও পণ্য বিক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে আগামী ১ বছরের জন্য ধারে বিক্রয় সংক্রান্ত পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য প্রতিষ্ঠানের সর্বস্তরে নির্দেশ প্রদান করা হলো। ১ বছরের মধ্যে যদি নতুন পরিকল্পনায় সফলতা না আসে তবে শুধু নগদ বিক্রয় কার্যক্রমই পরিচালনা করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো। [সি. বো. ১৭]
অ ক. সংগঠন চার্ট কী? ১
অ খ. কর্মী নির্বাচনের ক্ষেত্রে পূর্ব ইতিহাস অনুসন্ধান কেন গুরুত্বপূর্ণ? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. নগদে পণ্য বিক্রয়ের পরিকল্পনাটি কোন ধরনের স্থায়ী পরিকল্পনা? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উত্তম পরিকল্পনার বৈশিষ্ট্যের আলোকে নতুন করে গৃহীত পরিকল্পনাটির যৌক্তিকতা মূল্যায়ন করো। ৪
৬ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক প্রতিষ্ঠানের কার্যাবলিকে বিভিন্ন বিভাগ ও উপবিভাগে বিভক্ত করে প্রত্যেকের দায়িত্ব ও কর্তৃত্ব নির্ধারণের মাধ্যমে পারস্পরিক সম্পর্ককে চিত্রের সাহায্যে উপস্থাপন করাকে সংগঠন চার্ট বা সংগঠন চিত্র বলে।
খ সৎ ও আদর্শ কর্মী নির্বাচনের জন্য প্রার্থীর পূর্ব ইতিহাস অনুসন্ধান করা হয়।
কর্মী নির্বাচন প্রক্রিয়ার একটি ধাপ হলো প্রার্থীর পূর্ব ইতিহাস অনুসন্ধান। প্রার্থীর পূর্ব ইতিহাস অনুসন্ধানের মাধ্যমে প্রার্থীর নৈতিক মূল্যবোধ ও আÍমর্যাদা সম্পর্কে জানা যায়। এ পর্যায়ে প্রার্থী সম্পর্কে কোনো নেতিবাচক তথ্য পাওয়া গেলে কর্তৃপক্ষ তার প্রার্থিতা বাতিল করতে পারে। মূলত সচ্চরিত্র প্রার্থী নির্বাচনের জন্যই প্রার্থীর ইতিহাস অনুসন্ধান করা দরকার। এতে প্রতিষ্ঠানের সুনাম অক্ষুণœ থাকে।
গ উদ্দীপকের নগদে পণ্য বিক্রয় স্থায়ী পরিকল্পনার নীতির অন্তর্ভুক্ত।
নীতি হলো কোনো কাজের নির্দিষ্ট নিয়ম-কানুন বা পথ নির্দেশিকা। নির্দিষ্ট নিয়ম-কানুন মেনে কার্যক্রম পরিচালনা করলে কাজে গতিশীলতা আসে। ফলে সিদ্ধান্ত গ্রহণে সময় লাগে।
উদ্দীপকে হাসিব করপোরেশন একটি ঐতিহ্যবাহী ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি সবসময় নগদে পণ্য বিক্রয় করে থাকে। এ বিক্রয় কাজটি পৌনঃপুনিক ঘটে। আর পৌনঃপুনিক কাজের জন্য প্রতিষ্ঠানটি স্থায়ীভাবে একই নিয়ম মেনে পণ্য বিক্রয় করে। একই নিয়ম মেনে কাজ করায় সিদ্ধান্ত গ্রহণে সময়ও লাগে। ফলে উদ্দেশ্য অর্জন সহায়ক হয়। এসব বৈশিষ্ট্যের কারণে স্থায়ী পরিকল্পনার নীতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। সুতরাং, নগদে পণ্য বিক্রয় স্থায়ী পরিকল্পনার নীতির অন্তর্গত।
ঘ উদ্দীপকে হাসিব করপোরেশন উত্তম পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যের আলোকে যে নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে তা যৌক্তিক।
নমনীয়তা হলো পরিবর্তীত পরিস্থিতির সাথে খাপ খাওয়ানোর উদ্দেশ্যে পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার সুযোগ রাখা। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য পরিকল্পনায় এ ধরনের সুযোগ রাখা হয়।
উদ্দীপকের হাসিব করপোরেশন একটি ঐতিহ্যবাহী ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি সবসময় নগদে পণ্য বিক্রয় করে। সম্প্রতি পরিবর্তীত পরিস্থিতিতে তারা ধারেও পণ্য বিক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
প্রাথমিকভাবে আগামী ১ বছরের জন্য ধারে বিক্রয় সংক্রান্ত পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য প্রতিষ্ঠানের সর্বস্তরে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উক্ত নির্দিষ্ট সময়ে এ নতুন পরিকল্পনায় সফলতা না আসলে নগদ বিক্রয় কাজই পরিচালনা করা হবে। প্রতিষ্ঠানটির পরিকল্পনা নমনীয় হওয়ায় পরিবর্তীত পরিস্থিতিতে তা পরিবর্তন করা সম্ভব হয়েছে। তাই বলা যায়, হাসিব করপোরেশন পরিকল্পনার নমনীয়তা বৈশিষ্ট্যের কারণে প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হবে।

মমমপ্রশ্ন৭ তিস্তা কলেজের রোভার স্কাউট গ্র“পের সদস্যরা মানবসেবায় নিয়োজিত। তারা তিস্তা পাড়ের বন্যাদুর্গত মানুষের জন্য খাবার স্যালাইন তৈরি করে বিনামূল্যে সরবরাহ করবে। এজন্য এক বছরে বন্যার সময় কী পরিমাণ স্যালাইনের চাহিদা থাকে তার তথ্য সংগ্রহ করছে। [য. বো. ১৭]
অ ক. লক্ষ্য কী? ১
অ খ. ভিশন-২০২১ কেন দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা? ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. রোভার স্কাউট গ্র“পের পরিকল্পনাটি কোন ধরনের? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. তুমি কি মনে করো উক্ত পরিকল্পনার আলোকে গ্র“পটির উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হবে? মতামত দাও। ৪
৭ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক কোনো কাজের প্রত্যাশিত ফলাফলই হলো লক্ষ্য।
খ পাঁচ বছরের অধিক যেকোনো সময়ের জন্য গৃহীত পরিকল্পনাকে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা বলে।
বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক পরিকল্পনার মধ্যে ভিশন ২০২১ অন্যতম। দারিদ্র্য, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতসহ আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রের উন্নয়নের জন্য ভিশন ২০২১ গ্রহণ করা হয়েছে। ২০১১ সালে প্রকল্পটি গৃহীত হয়। প্রকল্পটি দশ বছর মেয়াদি। এজন্যই ভিশন ২০২১ দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা।
গ উদ্দীপকের রোভার স্কাউট গ্র“পের পরিকল্পনাটি একার্থক পরিকল্পনার অন্তর্ভুক্ত।
একার্থক পরিকল্পনা কোনো একটি বিশেষ কার্যসম্পাদনের লক্ষ্যে তৈরি করা হয়। তবে প্রণীত পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হয়ে গেলে পুনরায় উক্ত পরিকল্পনার গ্রহণযোগ্যতা থাকে না।
উদ্দীপকে তিস্তা কলেজের রোভার স্কাউট গ্র“পের সদস্যরা মানব সেবায় নিয়োজিত। তারা তিস্তা পাড়ের বন্যা দুর্গত মানুষের জন্য খাবার স্যালাইন তৈরি করে বিনামূল্যে সরবরাহ করবে। এটি বন্যা পীড়িত সময়ের জন্য গৃহীত একটি বিশেষ উদ্দেশ্য বা পদক্ষেপ, যা একার্থক পরিকল্পনার বৈশিষ্ট্যের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তাই বলা যায়, রোভার স্কাউট গ্র“পের পরিকল্পনাটি বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য গৃহীত একটি একার্থক পরিকল্পনা।
ঘ একার্থক পরিকল্পনার আলোকে গ্র“পটির উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হবে বলে আমি মনে করি।
উদ্দেশ্য ও পরিকল্পনা একে অপরের সাথে জড়িত। প্রথমে কোনো বিষয়ে একটি উদ্দেশ্য বা লক্ষ্য নির্ধারণ করা হলে উক্ত উদ্দেশ্যের ওপর ভিত্তি করে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়।
উদ্দীপকে রোভার স্কাউট গ্র“পের প্রাথমিক উদ্দেশ্য ছিল মানবকল্যাণ। এ উদ্দেশ্যকে কেন্দ্র করেই উক্ত গ্র“প বন্যা দুর্গত মানুষদের জন্য খাবার স্যালাইন তৈরি করবে। এজন্য তারা এক বছরের বন্যার সময়ে স্যালাইনের চাহিদার পরিমাণ সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছে। গ্র“পটি তাদের উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে একার্থক পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে এবং উক্ত পরিকল্পনা বাস্তবায়নে অগ্রসর হয়েছে।
রোভার স্কাউট গ্র“পটির উদ্দেশ্য ও পরিকল্পনা উভয়ই পাশাপাশি চলছে। উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্যই তারা পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। সুতরাং, পরিকল্পনার আলোকেই গ্র“পটির উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হবে ।

মমমপ্রশ্ন৮ মি. সাহেদ ভবিষ্যৎ পরিস্থিতি চিন্তা না করে সিলেট শহরে একটি জুস কারখানা স্থাপন করেন। আম সিলেটে উৎপন্ন হয় না, কিন্তু জুস তৈরির কাঁচামাল রাজশাহী অঞ্চল হতে এনে জুস উৎপাদনে প্রচুর খরচ পড়ায় তিনি লোকসানের সম্মুখীন হন। তাই তিনি ভবিষ্যতে কারখানাটি রাজশাহীতে স্থানান্তরের চিন্তা করেছেন। [ব. বো. ১৭]
অ ক. একার্থক পরিকল্পনা কী? ১
অ খ. ‘পরিকল্পনা হলো ভবিষ্যতের আয়না’Ñ বুঝিয়ে লেখো। ২
অ গ. উদ্দীপকের মি. সাহেদ পরিকল্পনা প্রণয়নে কোন ধাপটি অনুসরণ করেননি? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকের আলোকে সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়নের যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করো। ৪
৮ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক যে পরিকল্পনা বিশেষ কোনো সমস্যা বা পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য একবার ব্যবহারের উদ্দেশ্যে প্রণীত হয় তাকে একার্থক পরিকল্পনা বলে।
খ প্রতিষ্ঠানের কাক্সিক্ষত উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য কোনো কাজ কে করবে, কীভাবে করবে, কখন করবে, কতটুকু সময়ের মধ্যে করা হবে ইত্যাদি নির্ধারণ করার অগ্রিম কর্মসূচি প্রণয়নের কাজকে পরিকল্পনা বলে।
পরিকল্পনা বর্তমান পরিস্থিতির আলোকেই ভবিষ্যতের জন্য প্রণয়ন করা হয়। পরিকল্পনার মাধ্যমেই ভবিষ্যতের যেকোনো কাজ সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা পাওয়া যায়। এজন্যই বলা হয়, পরিকল্পনা হলো ভবিষ্যতের আয়না।
গ উদ্দীপকের মি. সাহেদ পরিকল্পনা প্রণয়নে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ ধাপটি সঠিকভাবে অনুসরণ করেননি।
পরিকল্পনা হলো কতগুলো ধারাবাহিক কার্যক্রমের সমষ্টি। এ কার্যাবলির যথার্থ অনুসরণের ওপর পরিকল্পনার সফলতা নির্ভর করে। এদের মধ্যে অন্যতম হলো তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ।
উদ্দীপকের মি. সাহেদ সিলেট শহরে জুস কারখানা স্থাপন করেন অযাচিত পরিকল্পনার মাধ্যমে। বিশদভাবে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে একটি যথার্থ পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়। তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে কোনো বিশেষ নির্দিষ্ট জায়গায় কারখানা স্থাপনের ক্ষেত্রে কাঁচামালের সহজলভ্যতা যাচাই করা হয় । জনাব সাহেদ আমের সহজলভ্যতা বিবেচনা না করেই সিলেট শহরে কারখানা স্থাপন করেন। অর্থাৎ, তিনি আমের জুস কারখানা স্থাপনের ক্ষেত্রে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করেন নি। তাই বলা যায়, মি. সাহেদ পরিকল্পনা প্রণয়নে তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ ধাপটি সঠিকভাবে অনুসরণ করেননি।
ঘ উদ্দীপকের মি. সাহেদ রাজশাহীতে জুস তৈরির কারখানা স্থানান্তরের যে পরিকল্পনা করেন তা সম্পূর্ণ যুক্তিযুক্ত।
একটি উত্তম পরিকল্পনা কাজের অর্ধেকের সমান। উত্তম পরিকল্পনায় উপায়-উপকরণের বাস্তবভিত্তিক তথ্য সংগৃহীত থাকে। পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কোনো কাজ, কখন, কীভাবে, কার দ্বারা, কীসের দ্বারা করা হবে এ সম্পর্কিত বাস্তবভিত্তিক ধারণা থাকতে হয়।
উদ্দীপকের মি. সাহেদ ভবিষ্যত পরিস্থিতি চিন্তা না করে সিলেট শহরে একটি জুস কারখানা স্থাপন করেন। আম রাজশাহীতে বেশি উৎপাদিত হয়। তাই তিনি ভবিষ্যতে তার ব্যবসায় রাজশাহীতে স্থানান্তরের চিন্তা করেছেন।
মি. সাহেদ প্রথমে সিলেট শহরে জুস কারখানা স্থাপনে কাঁচামাল সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করেননি। তাই তিনি লোকসানের সম্মুখীন হন। কিন্তু পরবর্তীতে রাজশাহী শহরে জুস কারখানা স্থানান্তরের চিন্তা করেন। তিনি যথাযথাভাবে তথ্য সংগ্রহ করে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। তাই বলা যায়, মি. সাহেদের রাজশাহীতে জুস কারখানা স্থানান্তরের পরিকল্পনা সম্পূর্ণ যোক্তিক।

মমমপ্রশ্ন৯ জনাব মিলন একটি সফল জুতা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের মহাব্যবস্থাপক। তিনি পণ্য উৎপাদন, বিক্রয় ও পরিচালনার কোনো কোনো ক্ষেত্রে একই ধরনের নীতি ও কৌশল অনুসরণ করে চলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। অধস্তনদের পক্ষে এর সাথে সঙ্গতি বিধান করে চলা সহজ হয়। কিন্তু পণ্যের বিভিন্ন ডিজাইন তৈরি, বাজারজাতকরণ প্রসার কর্মসূচি গ্রহণ ইত্যাদি বিষয়ে তিনি পরিকল্পনায় পরিবর্তন সাধন করেন। [ব. বো. ১৭]
অ ক. লক্ষ্য কী? ১
অ খ. সিদ্ধান্ত গ্রহণে তথ্যের ভ‚মিকা কী? ২
অ গ. উদ্দীপকের প্রথম ক্ষেত্রে তিনি প্রকৃতিভেদে কোন ধরনের পরিকল্পনার অনুসরণ করেন তা ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. প্রতিযোগীদের মোকাবিলায় জনাব মিলন পরবর্তীতে যে ধরনের পরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন, তার যথার্থতা মূল্যায়ন করো। ৪
৯ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক কোনো কাজের প্রত্যাশিত ফলাফলই হলো লক্ষ্য।
খ সিদ্ধান্ত হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট সমস্যা সমাধানের সঠিক ও সর্বোত্তম কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হয়।
সিদ্ধান্ত গ্রহণ মূলত ভবিষ্যৎ কর্মপন্থার সাথে সম্পৃক্ত। সিদ্ধান্তকে বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্য করার লক্ষ্যে তথ্যের প্রয়োজন। তথ্যের বিচার-বিশ্লেষণের আলোকে কোনো বিষয়ের ওপর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলে তা ফলপ্রসূ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এজন্যই সিদ্ধান্ত গ্রহণে তথ্য অপরিহার্য।
গ উদ্দীপকের প্রথম ক্ষেত্রে জনাব মিলন প্রকৃতিভেদে স্থায়ী পরিকল্পনা অনুসরণ করেন।
একই পরিকল্পনা বারবার অনুসরণ করাই হলো স্থায়ী পরিকল্পনা। একই ধরনের সমস্যা মোকাবিলার জন্য এ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় এবং বারবার ব্যবহৃত হয়।
উদ্দীপকের জনাব মিলন একই ধরনের নীতি ও কৌশল ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন এবং কর্মীরাও তার সাথে সঙ্গতি রেখে চলেন। তিনি তার প্রতিষ্ঠানে বারবার পরিকল্পনা নিতে চান না। তাই তিনি একই ধরনের পরিকল্পনা অনুসরণ করেন। ফলে ঊর্ধ্বতন ও অধস্তনদের মধ্যে সুসম্পর্ক সৃষ্টি হয়েছে, যা স্থায়ী পরিকল্পনার বৈশিষ্ট্যের সাথে সংগতিপূর্ণ। সুতরাং, জনাব মিলন প্রথমে স্থায়ী পরিকল্পনা অনুসরণ করেছেন।
ঘ প্রতিযোগীদের মোকাবিলায় উদ্দীপকের জনাব মিলন পরবর্তীতে একার্থক পরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন, এবং তা প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য যথার্থ।
একার্থক পরিকল্পনা একটা মাত্র উদ্দেশ্য সাধন বা একবার ব্যবহারের জন্য তৈরি করা হয় । এ পরিকল্পনা একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য প্রণয়ন করা হয় এবং উদ্দেশ্য অর্জনের সাথে সাথে তা বাতিল হয়ে যায়।
উদ্দীপকের জনাব মিলন সফল জুতা উৎপাদনকারী একটি প্রতিষ্ঠানের মহাব্যবস্থাপক। প্রতিষ্ঠানে প্রথমে তিনি স্থায়ী পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে পণ্যের বিভিন্ন ডিজাইন তৈরি, বাজারজাতকরণ প্রসার কর্মসূচি গ্রহণ ইত্যাদি বিষয়ে তিনি পরিকল্পনায় পরিবর্তন সাধন করেন, যা একার্থক পরিকল্পনার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ।
প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠানের সাথে টিকে থাকতে জনাব মিলনের একার্থক পরিকল্পনাটি সহায়তা করবে। এ পরিকল্পনার মাধ্যমে তিনি ভোক্তাদের বিচার বিশ্লেষণ করে পণ্য উৎপাদনের সুযোগ পাবেন। এতে নতুন নতুন গ্রাহক তার পণ্যের প্রতি আকৃষ্ট হবে, যা জনাব মিলনকে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য যথার্থ হবে।

মমমপ্রশ্ন১০ সুন্দরবন কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী পালনের জন্য একটি পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে পরিকল্পনাটির পরিসমাপ্তি ঘটবে। পক্ষান্তরে কলেজটি একাদশ শ্রেণিতে প্রতিবছর ভর্তির ক্ষেত্রে অনুসরণের জন্য একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করতে চায়। তারা ভর্তির জন্য ছাত্র-ছাত্রী বাছাইয়ের ভিত্তি হিসেবে ভর্তি পরীক্ষা এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল এ দুটি “বিকল্প স্থির” করে। [ঢা. বো. ১৬]
অ ক. পরিকল্পনার নমনীয়তা কী? ১
অ খ. পরিকল্পনার সীমাবদ্ধতা ব্যাখ্যা করো। ২
অ গ. উদ্দীপকের কলেজের ভর্তি পরিকল্পনায় “বিকল্প স্থিরকরণ”-এর পরবর্তী পদক্ষেপটি ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. উদ্দীপকে উলি­খিত দুই ধরনের পরিকল্পনার পার্থক্য বিশ্লেষণ করো। ৪
১০ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে খাপ খাওয়ানোর উদ্দেশ্যে পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার সুযোগ রাখাকে পরিকল্পনার নমনীয়তা বলা হয়।
খ পরিকল্পনা হলো নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জনে ভবিষ্যৎ কার্যাবলির দিকনিদের্শনা।
কিন্তু পরিকল্পনা সঠিক না হলে সেটি থেকে সফলতা আসে না। এটি প্রণয়নে তথ্য ও উপাত্তের প্রয়োজন হয়। এ তথ্য ও উপাত্ত নির্ভুল না হলে সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়ন সম্ভব হয় না। পরিকল্পনা পূর্বাভাসের ওপর নির্ভরশীল। পূর্বাভাস সবসময় সঠিক হয় না বলে পরিকল্পনাও অনেক সময় সঠিক হয় না। তাই বলা যায়, তথ্যের নির্ভুলতা, সঠিক পূর্বানুমান, সময়সাপেক্ষতা, ব্যয়বহুলতা, মানসিকতার ভিন্নতা, নমনীয়তার অভাব প্রভৃতিকে এর সীমাবদ্ধতা হিসেবে উলে­খ করা যেতে পারে।
গ উদ্দীপকের সুন্দরবন কলেজের ভর্তি পরিকল্পনায় বিকল্প স্থিরকরণের পরবর্তী পদক্ষেপটি হলো বিকল্পসমূহ মূল্যায়ন।
পরিকল্পনা প্রণয়ন কয়েকটি ধারাবাহিক কাজের সমষ্টি। একাধিক বিকল্প থেকে সঠিক বিকল্পটি নির্বাচন করে পরিকল্পনা স্থির করা হয়।
সুন্দরবন কলেজ ভর্তি পরীক্ষার জন্য একটি পরিকল্পনা প্রণয়ন করতে চায়। কলেজটি ভর্তির জন্য ছাত্রছাত্রীদের বাছাইয়ের ভিত্তি হিসেবে ভর্তি পরীক্ষা এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল এ দুটি বিকল্প স্থির করে। বিকল্প স্থিরকরণের পরবর্তী ধাপ হলো বিকল্পসমূহ মূল্যায়ন। এক্ষেত্রে কলেজটি দুটি বিকল্পই বিশ্লেষণ করবে এবং সুবিধা-অসুবিধা ভেবে দেখবে। বিকল্পসমূহ মূল্যায়ন করলে সর্বোত্তম বিকল্পটি সামনে আসবে। তখন কলেজ কর্তৃপক্ষ সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ করে ভর্তি কার্যক্রম চালাতে পারবে। সুতরাং, বিকল্প স্থিরকরণের পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ বিকল্পসমূহ মূল্যায়ন করে পরিকল্পনা প্রণয়ন অব্যাহত রাখবে।
ঘ উদ্দীপকের সুন্দরবন কলেজের গৃহীত প্রথম পরিকল্পনাটি একটি একার্থক পরিকল্পনা এবং দ্বিতীয় পরিকল্পনা একটি স্থায়ী পরিকল্পনা।
একার্থক পরিকল্পনা পরিকল্পনা বিশেষ কোনো সমস্যা বা পরিস্থিতি মোকাবিলায় একবারের জন্য প্রণীত হয়। প্রতিষ্ঠানে যখন নতুন কোনো অবস্থা সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত বারবার একই প্রক্রিয়ায় পরিকল্পনা চলতে থাকে, তখন স্থায়ী পরিকল্পনা করা হয়।।
সুন্দরবন কলেজ সুবর্ণজয়ন্তী পালনের জন্য একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এটি একটি একার্থক পরিকল্পনা। অন্যদিকে কলেজে ছাত্রছাত্রী ভর্তির জন্য কলেজটি যে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সেটি স্থায়ী পরিকল্পনা। কেননা এটি দীর্ঘমেয়াদে ব্যবহৃত হবে। নতুন পরিকল্পনা গৃহীত না হওয়া পর্যন্ত এটি বারবার ব্যবহৃত হবে।
একার্থক পরিকল্পনা একবারই ব্যবহৃত হয়। কিন্তু স্থায়ী পরিকল্পনা বারবার ব্যবহৃত হয়। একার্থক পরিকল্পনার উদ্দেশ্য অর্জন হলেই শেষ হয়ে যায় কিন্তু স্থায়ী পরিকল্পনায় তা হয় না। সুবর্ণজয়ন্তীর জন্য যে পরিকল্পনা তা বারবার ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু ভর্তির পরিকল্পনা প্রতিবছর ব্যবহৃত হবে। সুতরাং, একার্থক ও স্থায়ী পরিকল্পনার মধ্যে উপরিউক্ত পার্থক্য বিদ্যমান রয়েছে।

মমমপ্রশ্ন১১ বিত্তশালী মাহাবুব সাহেব চিকিৎসা সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কথা চিন্তা করে ফুলবাড়িতে একটি হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ নেন। একটি স্বাস্থ্যসম্মত হাসপাতাল যে রকম হওয়া উচিত সেভাবে প্রয়োজনীয় সংখ্যক কক্ষ, বারান্দা, ওঠা-নামার সিঁড়ি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয় যথাযথভাবে সুবিন্যস্ত করে একটি ভবন নির্মাণ করেন। পরবর্তীতে তিনি এ অঞ্চলের শিক্ষাবঞ্চিত মেয়েদের কথা চিন্তা করে উক্ত হাসপাতালের জন্য নির্মিত ভবনটিকে একটি মহিলা কলেজে রূপান্তর করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। ভবনটির প্রয়োজনীয় পরিবর্তন ও সংস্কারের মাধ্যমে গজ মহিলা কলেজ স্থাপন করেন। এটি মেয়েদের শিক্ষার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখে এবং যুগে যুগে আলোকিত নারী গড়ার কাজে সহায়তা করে। [দি. বো. ১৬]
অ ক. পরিকল্পনার আঙিনা কী? ১
অ খ. সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলতে কী বোঝায়? ২
অ গ. পরিকল্পনার কোন গুণাবলির কারণে হাসপাতালের জন্য নির্মিত ভবনটি কলেজে রূপান্তর করা সম্ভব হলো? ব্যাখ্যা করো। ৩
অ ঘ. মাহাবুব সাহেবের গজ মহিলা কলেজ স্থাপনের উদ্যোগটি কোন ধরনের পরিকল্পনা? বিশ্লেষণ করো। ৪
১১ নং প্রশ্নের উত্তর অ
ক পরিকল্পনাকে প্রভাবিত করতে পারে এমন সব অবস্থা ও উপাদান বিবেচনা করে ক্ষেত্র নির্ধারণ করাই হলো পরিকল্পনার আঙিনা। যেমন: বাজারে একটি নতুন পণ্য ছাড়া হবে এজন্য পণ্যটির চাহিদা, ক্রেতাদের রুচি, ক্রয়ক্ষমতা যাচাই করা হলো এর আওতাভুক্ত কাজ ।
খ ভেবেচিন্তে করণীয় ঠিক করাই হলো সিদ্ধান্ত গ্রহণ।
প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট সমস্যা সমাধানের জন্য মাপকাঠি নির্ধারণ, সমাধানের বিকল্পসমূহ উদ্ভাবন ও মূল্যায়ন এবং সর্বোত্তম বিকল্পটি নির্বাচন ও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়াকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলে। প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় কাজ সম্পাদনে যেকোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি ও সমস্যা মোকাবিলা করার জন্য ব্যবস্থাপনাকে প্রতিনিয়ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হয়।
গ পরিকল্পনার নমনীয়তা গুণাবলির কারণে হাসপাতালের জন্য নির্মিত ভবনটি কলেজে রূপান্তর করা সম্ভব হলো।
পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে সংগতি বিধানের সামর্থ্যই হলো নমনীয়তা। একটি উত্তম পরিকল্পনায় নমনীয়তার সুযোগ থাকা আবশ্যক।
উদ্দীপকে বিত্তশালী মাহবুব প্রথমে চিকিৎসা সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কথা চিন্তা করে ফুলবাড়িতে একটি হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ নেন। প্রয়োজনীয় বিষয় যথাযথভাবে সুবিন্যস্ত করে তিনি ভবনটি নির্মাণ করেন। পরবর্তীতে শিক্ষাবঞ্চিত মেয়েদের কথা চিন্তা করে তিনি ভবনটির পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনেন। ভবনটির প্রয়োজনীয় পরিবর্তন এবং সংস্কারের মাধ্যমে তিনি মহিলা কলেজ স্থাপন করেন। তাই বলা যায়, পরিকল্পনায় নমনীয়তার গুণটি থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
ঘ মাহবুব সাহেবের গজ মহিলা কলেজ স্থাপনের উদ্যোগটি একার্থক পরিকল্পনা।
একার্থক পরিকল্পনা হলো একটি মাত্র কার্যসম্পাদনের উদ্দেশ্যে যে পরিকল্পনা প্রণীত হয়। উদ্দেশ্য অর্জিত হলেই এরূপ পরিকল্পনা কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলে।
বিত্তশালী মাহবুব প্রথমে হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করলেও পরবর্তীতে শিক্ষাবঞ্চিত মেয়েদের কথা চিন্তা করে পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনেন। ভবনটিকে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন এবং সংস্কারের মাধ্যমে গজ মহিলা কলেজ স্থাপন করেন।
মাহবুব সাহেব কলেজ স্থাপনের যে পরিকল্পনা করেন তা শুধু একবার ব্যবহৃত হবে। কলেজ স্থাপন শেষ হলেই পরিকল্পনাটির কার্যকারিতা শেষ হয়ে যাবে। তাই বলা যায়, মাহবুব সাহেবের গজ মহিলা কলেজ স্থাপনের উদ্যোগটি একার্থক পরিকল্পনা।

 

প্রিয় জনের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply